অনুবাদ:ক্যান্টারবেরির গল্প/প্রস্তাবনা

যখন সেই এপ্রিল তার সুবাসিত বৃষ্টি দিয়ে
মার্চের শুষ্ক মাটির বুকে জাগায় নতুন প্রাণ,
গাছের শিরা পর্যন্ত পরিস্নাত হয় মিঠা জলে,
যার শক্তিতে পাপড়ি মেলে দেয় নবাগত ফুল;
যখন পশ্চিমা হাওয়া তার সুমধর শ্বাস দিয়ে
মাঠে-ক্ষেতে, বনে-বনে ফুঁকে দেয় নতুন জীবন
কচি পাতার কোমল ত্বকে, এবং নবীন সূর্য
মেষরাশির মধ্য দিয়ে পার করে অর্ধেক পথ,
ছোট্ট পক্ষিশাবক বাতাসে ভাসায় মিষ্টি সুর
আর ঘুমের মাঝেও সারা রাত খুলে রাখে চোখ
(প্রকৃতি এমন উদ্দীপনা আনে তাদের হৃদয়ে),
তখন মানুষ চায় বাহির হ’তে তীর্থযাত্রায়,
পেশাদার তীর্থযাত্রী ছুটে যায় বিদেশের বাটে,
সুদূরের পুণ্য তীর্থে, নানান দেশের চেনা গঞ্জে;
এবং বিশেষ ক’রে ইংল্যান্ডের প্রতিটি শায়ার
থেকে লোকজন যাত্রা করে ক্যান্টারবেরির পথে,
ঈশ্বরের আশীর্বাদধন্য শহীদ সন্তের খোঁজে,
যিনি তাদের সাহায্য করেছিলেন আরোগ্য লাভে।

একদিন, সেই ঋতুরই এক সাধারণ দিনে,
আমি শুয়ে ছিলাম সাউথওয়ার্কের টাবার্ড ইনে—
সম্পূর্ণ প্রস্তুত শুরু করতে আমার তীর্থযাত্রা
আন্তরিকতার সাথে, পুণ্য ক্যান্টারবেরির দিকে,
যখন রাতের বেলা সেই সরাইখানায় আসে
বিশ-যোগ-নয় জন মানুষের এক বড়ো দল,
একেক জন একেক রকম, শুধু দৈবের বশে
হয়েছে সতীর্থ, বুঝলাম সকলেই তীর্থযাত্রী,
এবং সবাই যেতে চায় সেই ক্যান্টারবেরিতে।
ঘুমানোর হলঘর, আস্তাবল বেশ বড়ো বড়ো,
থাকার ব্যবস্থা সবদিক থেকে একদম ঠিক।
সূর্য ডুবে গেলে পরে আমি একটু একটু ক’রে
সবার সাথে আলাপ করি, এত পরিচিত হই
যে মুহূর্তের মধ্যেই তাদের দলভুক্ত হয়ে যাই;
সবাই মিলে সিদ্ধান্ত হয়, সকাল সকাল উঠে
সংযাত্রা শুরু করতে হবে—কোন পথে বলছি পরে।

কিন্তু এখন, সময় ও সুযোগ থাকতে থাকতে,
—এই কাহিনীর মূল বর্ণনায় প্রবেশের আগে—
আমার মন বলছে এটা খুব যৌক্তিকই হবে
যদি আপনাদেরকে এদের সবার পটভূমি
আর পারিপার্শ্বিকতা আমি যেমন দেখেছি বলি—
কী তাদের পরিচয়, কে সমাজের কোন শ্রেণীর,
এবং কার পরনে কেমন জামাকাপড় ছিল;
এবং শুরু করবো একজন নাইটের কথা দিয়ে।

ছিলেন এক নাইট, বেশ গুরুত্বপূর্ণ মানুষ,
স্বদেশ থেকে যেদিন প্রথম বের হয়েছিলেন
সেদিন থেকেই তিনি ভালোবেসেছেন ক্ষাত্রধর্ম:
সততা, সম্মানবোধ, উদারতা আর শিষ্টাচার।
তার প্রভুর যুদ্ধের ময়দানে ছিলেন সুযোগ্য,
তার মতো এত দূরে কম মানুষ যেতে পেরেছে,
পেরিয়েছেন অনেক খ্রিস্টান ও অখ্রিস্টান ভূমি,
এবং সবসময় পেয়েছেন যথাযোগ্য সম্মান;
আলেকজান্দ্রিয়া জয়ের সময় উপস্থিত ছিলেন।
অসংখ্য বার শ্রদ্ধার আসনে বসেছেন সগর্বে
প্রুশিয়ায়, সকল দেশের নাইটদের উপরে,
যুদ্ধ করেছেন লিথুয়ানিয়াতে, রাশিয়ার মাঠে,
তার সমমর্যাদার খ্রিস্টান খুঁজে পাওয়া দুষ্কর।
এমনকি গ্রানাডায় ছিলেন যখন অবরুদ্ধ ছিল
আলখেথিরাস, চষে বেরিয়েছেন মরক্কোতেও।
তুরস্কের আয়াশ আর আতালিয়াতেও ছিলেন
বিজয়ের শুভক্ষণে, ভূমধ্যসাগরের বিভিন্ন
প্রান্তে চালিয়েছেন অনেক সুমহান অভিযান।
সব মিলিয়ে পনেরটি লড়াইয়ে অংশ নিয়েছেন,
আমাদের ধর্মের জন্য লড়েছেন তিলিমসানে,
তিন বার দ্বন্দ্বযুদ্ধে প্রতিবারই শত্রু মেরেছেন।
এই মহামূল্যবান নাইট একবার বালাতের
রাজার সাথে তুর্কী বিধর্মীদের বধ করেছেন,

     Whan that Aprill, with his shoures soote
     The droghte of March hath perced to the roote
     And bathed every veyne in swich licour,
     Of which vertu engendred is the flour;
 5 Whan Zephirus eek with his sweete breeth
     Inspired hath in every holt and heeth
     The tendre croppes, and the yonge sonne
     Hath in the Ram his halfe cours yronne,
     And smale foweles maken melodye,
 10 That slepen al the nyght with open yë
     (So priketh hem Nature in hir corages);
     Thanne longen folk to goon on pilgrimages
     And palmeres for to seken straunge strondes
     To ferne halwes, kowthe in sondry londes;
 15 And specially from every shires ende
     Of Engelond, to Caunterbury they wende,
     The hooly blisful martir for to seke
     That hem hath holpen, whan that they were seeke.
 
        Bifil that in that seson, on a day,
 20 In Southwerk at the Tabard as I lay
     Redy to wenden on my pilgrymage
     To Caunterbury with ful devout corage,
     At nyght was come into that hostelrye
     Wel nyne and twenty in a compaignye
 25 Of sondry folk, by aventure yfalle
     In felaweshipe, and pilgrimes were they alle,
     That toward Caunterbury wolden ryde.
     The chambres and the stables weren wyde,
     And wel we weren esed atte beste;
 30 And shortly, whan the sonne was to reste,
     So hadde I spoken with hem everichon
     That I was of hir felaweshipe anon,
     And made forward erly for to ryse
     To take our wey, ther as I yow devyse.
 
 35 But nathelees, whil I have tyme and space,
     Er that I ferther in this tale pace,
     Me thynketh it acordaunt to resoun
     To telle yow al the condicioun
     Of ech of hem, so as it semed me,
 40 And whiche they weren, and of what degree,
     And eek in what array that they were inne;
     And at a knyght than wol I first bigynne.

        A KNYGHT ther was, and that a worthy man,
     That fro the tyme that he first bigan
 45 To riden out, he loved chivalrie,
     Trouthe and honour, fredom and curteisie.
     Ful worthy was he in his lordes werre,
     And therto hadde he riden, no man ferre,
     As wel in cristendom as in hethenesse,
 50 And evere honoured for his worthynesse.
     At Alisaundre he was, whan it was wonne.
     Ful ofte tyme he hadde the bord bigonne
     Aboven alle nacions in Pruce;
     In Lettow hadde he reysed, and in Ruce,
 55 No Cristen man so ofte of his degree.
     In Gernade at the seege eek hadde he be
     Of Algezir, and riden in Belmarye.
     At Lyeys was he and at Satalye,
     Whan they were wonne; and in the Grete See
 60 At many a noble armee hadde he be.
     At mortal batailles hadde he been fiftene,
     And foughten for oure feith at Tramyssene
     In lystes thries, and ay slayn his foo.
     This ilke worthy knyght hadde been also
 65 Somtyme with the lord of Palatye
     Agayn another hethen in Turkye.
     And everemoore he hadde a sovereyn prys;
     And though that he were worthy, he was wys,
     And of his port as meeke as is a mayde.
 70 He nevere yet no vileynye ne sayde
     In al his lyf unto no maner wight.
     He was a verray, parfit gentil knyght.
     But, for to tellen yow of his array,
     His hors were goode, but he was nat gay.
 75 Of fustian he wered a gypon
     Al bismotered with his habergeoun,
     For he was late ycome from his viage,
     And wente for to doon his pilgrymage.