দুয়ারে তোমার ভিড় ক'রে যারা আছে ,
ভিক্ষা তাদের চুকাইয়া দাও আগে ।
    মোর নিবেদন নিভৃতে তোমার কাছে —
সেবক তোমার অধিক কিছু না মাগে ।
    ভাঙিয়া এসেছি ভিক্ষাপাত্র ,
    শুধু বীণাখানি রেখেছি মাত্র ,
বসি এক ধারে পথের কিনারে
    বাজাই সে বীণা দিবসরাত্র ।
  
    দেখো কতজন মাগিছে রতনধূলি ,
কেহ আসিয়াছে যাচিতে নামের ঘটা —
    ভরি নিতে চাহে কেহ বিদ্যার ঝুলি ,
কেহ ফিরে যাবে লয়ে বাক্যের ছটা ।
আমি আনিয়াছি এ বীণাযন্ত্র ,
    তব কাছে লব গানের মন্ত্র ,
তুমি নিজ - হাতে বাঁধো এ বীণায়
    তোমার একটি স্বর্ণতন্ত্র ।
  
  নগরের হাটে করিব না বেচাকেনা ,
লোকালয়ে আমি লাগিব না কোনো কাজে ।
  পাব না কিছুই , রাখিব না কারো দেনা ,
অলস জীবন যাপিব গ্রামের মাঝে ।
  তরুতলে বসি মন্দ - মন্দ
  ঝংকার দিব কত কী ছন্দ ,
যত গান গাব তব বাঁধা তারে
  বাজিবে তোমার উদার মন্দ্র ।