জয়তু নেতাজী/নেতাজীর বেতার-বার্ত্তা

নেতাজীর বেতার-বার্ত্তা।

 [এই বার্ত্তাগুলি Testament of Subhas Bose নামক ইংরেজী গ্রন্থ হইতে সংকলিত হইল]

 বৈদেশিক রাজনীতি আমি যতখানি বুঝি আর কোন ভারতবাসী তাহা বুঝে না; আমি বালক-বয়স হইতেই ব্রিটিশ জাতিকে চিনিয়া লইয়াছি। [“Perhaps better than any other Indian today I know foreign politics; aud I have known Britishers from my Childhood.”——May 1, 1912]

 একদিন আমি ঐ ব্রিটিশকে এমন মার দিব যাহা তাহারা জীবনে কখনো ভুলিবে না। ["I shall one day be able to give them the fight of their lives."——August 31, 1942]

 ভারতে ব্রিটিশের প্রবেশদ্বার হইয়াছিল বাংলাদেশ, অতএব বাংলার দরজা দিয়াই তাহাদিগকে ভারত হইতে বাহির করিয়া দিতে হইবে। ["It is Bengal that opened the door to the British in India, and Bengal should now show them the way out."——October 15, 1942]

 রাত্রির পর দিনের আগমন যেমন সুনিশ্চিত, তেমনই, ভারতকে উদ্ধার করিবার যে শেষ-যুদ্ধ তাহাতে যােগ দিবার জন্যই আমি বাঁচিয়া থাকিব,——দূরে বিদেশ হইতে নয়, একেবারে ভারতের মধ্যে আমার সহযোদ্ধাগণের পাশে দাঁড়াইয়া সেই যুদ্ধ করিব; ইহা ধ্রুব সত্য জানিবে। [“And as sure as day follows the night I will live to participate in the final struggle for our liberty, not from abroad, but at home side by side with the comrades who have been bravely carrying out the fight.”——December 7. 1942 J

 আমি আবার বলিতেছি, সেই মহালগ্ন সমাগত হইলেই আমি তোমাদের পাশে গিয়া দাঁড়াইব, সেই অন্তিম সংগ্রামে তোমাদের সঙ্গে যোগ দিব।... ইহাও নিশ্চিত যে, সেই শেষ-যুদ্ধে ভারতীয় সেনা (ব্রিটিশ যাহা গড়িয়া তুলিয়াছে) একটা বড় অংশ গ্রহণ করিবে। [“I repeat once again that when the hour strikes, I shall be at your side ready to participate in the final struggle....In the last phase of the national struggle the Indian Army will have to play an important part.”——March 1. 1943]

 এ কথা কেবল বদ্ধ উম্মাদ ছাড়া আর কেহ বিশ্বাস করিবে না যে, আজ ইংরেজ একটা মহাবিপদে পড়িয়াছে বলিয়া স্বেচ্ছায় সে তাহার সাম্রাজ্য ছাড়িয়া দিবে। ব্রিটিশ সাম্রাজ্যপতিরা শেষ পর্যন্ত ভাঙ্গিবে কিন্তু মচকাইবে না। ["It is midsummer madness that we should expect the Englishman to voluntarily give up his empire, simply because he has fallen ov evil days. British Imperialism will ultimately break but it will never bend." —June 21. 1943]  বেশ বুঝিতে পারা যাইতেছে, গান্ধী ও অন্যান্য কংগ্রেস নেতা আগে মুসলীম-লীগের সঙ্গে মিটমাট করিয়া (অর্থাৎ মুসলমানকে একটা পৃথক জাতি বলিয়া স্বীকার করিয়া) পরে ব্রিটিশের সঙ্গে একটা রফা করিতে ইচ্ছুক হইয়াছেন। এই মহা অনিষ্ট নিবারণের জন্য এখনই উঠিয়া পড়িয়া লাগিতে হইবে। আমরা নিশ্চিত জানি, উহার ফলে আমাদের দাসত্বই চিরস্থায়ী হইবে। আমাদের দেশকে এই যে খণ্ড-বিখণ্ড করিবার মতলব, ইহার প্রতিরোধ করিতে হইবে। আয়ার্ল্যাণ্ড ও প্যালেস্টাইনের অবস্থা দেখিয়া আমাদের জ্ঞান হইয়াছে; আমরা উত্তমরূপে বুঝিতে পারিতেছি, দেশকে এইরূপ ভাগ করিয়া দিলে তাহার সর্বনাশ করা হইবে——অর্থ-নৈতিক, রাজ-নৈতিক ও সাংস্কৃতিক দুর্দশার চরম হইবে। [“It is clear that Gandhiji and the Cougress leaders wish to compromise with Britain after settling with the League. We must act instantly if we are to prevent this ...It will, we very strongly feel, mean the perpetuation of our slavery....we shall oppose all attempts to divide her and cut her up into bits. Ireland and Palestine have taught us a lesson. We have realised that to divide a country will ruin her economically, culturally and politically."—— September 12,1944]

 কংগ্রেস-হাইকমাণ্ডের পক্ষে এমন কাজ কি অতিশয় দূষণীয় ও অশ্রদ্ধাজনক নয় যে, যে সকল পাকা ও প্রবীণ কংগ্রেসী যােদ্ধা ব্রিটিশের সহিত যুদ্ধ করতে বারবার অনুরােধ করেন, তাঁহাদিগকেই তাঁহারা অবাধ্যতার জন্য শাস্তি দেন, কিন্তু শ্রীরাজাগোপালাচারীর মত যাঁহারা ক্রমাগত ঐ ব্রিটিশের সহিত যে কোন সর্ত্তে হউক সদ্ভাব ও সহযোগিতার নীতি প্রকাশ্যে প্রচার করিয়া থাকেন, তাঁহাদিগকে কিছুই বলেন না? যে ভুলাভাই দেশাই গত সত্যাগ্রহের যুদ্ধে যোগ দেন নাই তাঁহাকেই সেন্ট্রাল এসেম্বলীতে কংগ্রেস-পার্টির নেতা হইতে দেওয়া কতখানি অন্যায়, কিরূপ তামাসার ব্যাপার! [“Was it not infamous and ridiculous for the Congress High Command to take disciplinary action against those veterans who were insisting on a struggle with British Imperialism, and on the other hand let off scot-free those Congressmen like C. Rajagopalachari, who were consistently advocating in public a policy virtually amounting to unconditional Co-operation with the British Government? Was it not unfair and ridiculous to make Shri Bhulabhai Desai the leader of the Congress party in the Central Assembly, when he did not play his part during the last Civil Disobedience movement?” —June 23, 1945]

 যতদিন আমেরিক চুংকিঙে (Chungking) আধিপত্য করিবে ততদিন চীন কখনও এক-রাষ্ট্র হইতে পারিবে না। চীন এবং ভারত স্বাধীন না হইলে এশিয়ার দাসত্ব খুচিবে না। ["So loug as Chungking is dominated by America I do not see how the unification of China will be possible...A free Asia is not possible without a free China and a free India”—June 24, 1945]

১০

ইঙ্গ-মার্কিণ জাতিদ্বয়ের প্রয়েচনায় চিয়াংকাইশেক চীনদেশটা তাহাদের নিকটে বন্ধক রাখিয়াছে।...জাপানীরা কোন কারণে পরাজিত হইলে চীন নির্ঘাত মার্কিণের কবলস্থ হইবে; ইঙ্গ-মার্কিণের অনুগ্রহেই তাহাকে বঁচিয়া থাকিতে হইবে। শুধুই চীনের নয় সমগ্র এশিয়ার পক্ষে ইহার মত দুর্ভাগ্য আর কিছু হইতে পারে না। [“The Anglo Americans have made Chiag Kai Shek mortgage China to them;——the fact however is that if Japan is defeated by any chance, then China will inevitably pass under American influence and be at the mercy of the Anglo-Americans. This will be a tragedy for China and for the whole of Asia”——July 10, 1944]

১১

 কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটি কগ্রেসের ভিতরেই হােক, আর বাহিরেই হোক সমগ্র জাতির হইয়া কথা বলিতে পারে না। [“The Congress Working Committee does not represent national opinion in the Congress or the Country"——June 26, 1945]

১২

 দেশের জনগণকে যেন এ কথা উত্তমরূপে বুঝাইয়া দেওয়া হয় যে, এতবড় একটা গুরুতর বিষয়ে (ব্রিটিশের সহিত চুক্তি করার ব্যাপারে, প্রথমে লর্ড ওয়াভেল ও পরে লর্ড মাউন্টব্যাটেনের সহিত) ওয়ার্কিং কমিটির ঐ কয়েকজন ব্যক্তিই জাতির ভাগ্য-বিধাতা হইতে পারে না; সে অধিকার কংগ্রেসের পূর্ণ অধিবেশনে সমবেত জনগণের প্রতিনিধিবর্গেরই আছে। [“Bring home to our countrymen that the Working Committee has no right to decide such a grave issue. This right belongs to a plenary session of the Congress”——June 28. 1945]

১৬

 যুদ্ধ শেষ হইলে পর, যে-ভারতবর্ষ স্বরণাতীত কাল হইতে এক দেশ বলিয়া পরিচিত, তাহাই কয়েকটা পৃথক রাজ্যে ভাগ হইয়া যাইবে, সব রাজ্যগুলিই ব্রিটিশের পদতলস্থ হইয়া থাকিবে। [“In the post war world there may be a number of States in the territories that have from time immemorial been known as India, and all States will be equally under the heel of the British.”——December 7. 1945]

১৭

 যখন তাহারা (ব্রিটিশ) দেখিল, ভারতের মানুষগুলীকে দুই ভাগে ভাগ করা গেল না, তখন তাহারা ভৌগোলিক ও রাজনৈতিক ভিত্তিতে দেশটাকেই ভাগ করিতে কৃতসংকল্প হইল। ইহারই নাম পাকিস্তান-পন্থা——এক ব্রিটিশ কুটনীতিজ্ঞের উর্ব্বর মস্তিষ্কে ইহার উদ্ভব হইয়াছিল। [“If the Indian people cannot be divided, the county India has to be split up geographically wod politically. This is the plan called ‘Pakistan’ which emanated from the fertile brain of a Britisher.”——June 26 1945]

১৫

 আমি চিরদিন একমাত্র ভারতের কল্যাণ কামনা করিব; আমার মাতৃভূমির প্রতি কখনো অধর্ম্মাচরণ করিব না, তাহার জন্যই আমি বাঁচিব এবং তাহার জন্যই মৃত্যু বরণ করিব। ••সেই সত্যকার কল্যাণের পথ হইতে আমাকে বিচলিত করিতে পারে, এমন মানুষ কোথাও নাই। ["I shall always be loyal to India alone. I would never deceive my mother land, I will live and die for her——There is no one who can divert me from the right path"——July 4. 1943]

১৬

 এ বিষয়ে আমার কোন সন্দেহ নাই যে, বর্ত্তমান যুদ্ধ শেষ হওয়ার দশ বৎসরের মধ্যে, হয়তো আরও পূর্ব্বে, তৃতীয় মহাযুদ্ধ আরম্ভ হইবে——যদি বর্তমান যুদ্ধের মধ্যেই পৃথিবীর যাবতীয় নিগৃহীত জাতি স্বাধীন হইতে না পারে। [“I have no doubt that World War No, 3. will break out within ten years of the end of this war and perhaps much earlier, in case all the suppressed nations of the world are not liberated during the course of the present war”—— June 2. 1943]