তীর্থরেণু/বর্ম্মার কবিতা

বর্ম্মার কবিতা

কেমন হ’য়েছে মন,-মনে নাহি সুখ,
হারায়ে শীতের বাস শীতে কাঁপে বুক;
কি হ’ল আমার ওগো সদা ভাবি তাই,
চন্দনের খাটে শুয়ে চোখে ঘুম নাই।
বড়ই দুখিনী আমি বড় অভাগিনী,
বিদেশে রয়েছে বঁধু আমি একাকিনী;
দিন যায় যাতনায় হায় হায় করি,’
রেশ্‌মী বালিশে শুয়ে আমি কেঁদে মরি।
তোমারে জানাই বঁধু তোমারে জানাই,
এ দশায় এ দেশে থাকিতে সাধ নাই;

এস একবার এস সাধি পায়ে ধরি’
ফুল শেযে শুয়ে বঁধু মরি যে গুমরি’।
ঝরণা ঝরার মত আঁখিজল ঝরে,
কেঁদে নদী বয়ে যায় বঁধুয়ার তরে;
কি হ’বে ফুলের শেযে, চন্দনের খাটে,
বঁধু বিনা হাহাকারে সদা বুক ফাটে!
ফিরে এস, ফিরে এস, এস বঁধু মোর,
তুমি এলে শুকাইতে পারে আঁখি-লোর।