ধৰ্ম্মপুস্তক অর্থাৎ পুরাতন ও নূতন নিয়মের অন্তর্গত গ্রন্থসমূহ/যাত্রাপুস্তক

с о ; Sъ — 5 ; зо I তোমার অপকার করিয়াছে, কিন্তু বিনয় করি, তুমি তাহদের সেই অধৰ্ম্ম ও পাপ ক্ষমা কর । অতএব এখন আমরা বিনয় করি, তোমার পিতার ঈশ্বরের এই দাসদের অধৰ্ম্ম ক্ষমা কর। তাহদের এই কথায় যোষেফ ১৮ রোদন করিতে লাগিলেন। পরে তাহার ভ্রাতৃগণ আপনার গিয়া তাহার সম্মুখে প্ৰণিপাত করিয়া ১৯ কহিলেন, দেখ, আমরা তোমার দাস। তখন যোষেফ তাহাদিগকে কহিলেন, ভয় করিও না, আমি কি ২৪ ঈশ্বরের প্রতিনিধি ? তোমরা আমার বিরুদ্ধে অনিষ্ট কল্পনা করিয়াছিলে বটে, কিন্তু ঈশ্বর তাহা মঙ্গলের কল্পনা করিলেন ; আদ্য যেরূপ দেখিতেছ, এইরূপে অনেক লোকের প্রাণ রক্ষা করাই তাহার অভি২১ প্রায় ছিল। তোমরা এখন ভীত হইও না, আমিই তোমাদিগকে ও তোমাদের বালক বালিকাগণকে প্রতিপালন করিব। এইরূপে তিনি তাহাদিগকে সাম্বন করিলেন, ও চিত্ততোষক কথা কহিলেন । আদিপুস্তক—যাত্রাপুস্তক । 8 ዓ পরে যোষেফ ও র্তাহার পিতৃকুল মিসরে বাস করিতে থাকিলেন ; এবং যোষেফ এক শত দশ বৎসর জীবিত ২৩ রহিলেন। যোষেফ ইক্ৰয়িমের পৌত্র পর্য্যন্ত দেখিলেন ; মনঃশির মার্থীর নামক পুত্রের শিশুসন্তানেরাও যোষে২৪ ফের ক্রোড়ে ভূমিষ্ঠ হইল। পরে যোষেফ আপন ভ্রাতৃগণকে কহিলেন, আমি মরিতেছি, কিন্তু ঈশ্বর অবষ্ঠ তোমাদের তত্ত্বাবধান করিবেন, এবং অব্রাহীমের, ইস্হাকের ও যাকোবের নিকটে যে দেশ দিতে দিব্য করিয়াছেন, তোমাদিগকে এই দেশ হইতে সেই দেশে ২৫ লইয়া যাইবেন। আর যোষেফ ইস্রায়েল-সন্তানগণকে এই দিব্য করাইলেন, কহিলেন, ঈশ্বর অবস্থা তোমাদের তত্ত্বাবধান করিবেন, আর তোমরা এ স্থান হইতে ২৬ আমার অস্থি লইয়। যাইবে । যোষেফ এক শত দশ বৎসর বয়সে মরিলেন ; আর লোকের তাহার দেহে ক্ষয়-নিবারক দ্রব্য দিয় তাহ মিসর দেশে এক শবাধারের মধ্যে রাখিল । ९९ যাত্রাপূস্তক। ইস্রায়েলীয়দের বৃদ্ধি ও দৌরাত্ম্যভোগ। Ş ইস্রায়েলের পুত্ৰগণ, যাহারা মিসর দেশে গিয়াছিলেন, সপরিবারে যাকোবের সহিত গিয়া২ ছিলেন, তাহদের নাম এই এই —রবেণ, শিমিয়োন, ৩.৪ লেবি ও বিহ্রদ, ইষাখর, সবুলুন ও বিদ্যামন, দান ও ৫ নপ্তালি, গাদ ও আশের । যাকোবের কটি হইতে উৎপন্ন প্রাণী সৰ্ব্বশুদ্ধ সত্তর জন ছিল ; আর যোষেফ ৬ মিসরেই ছিলেন। পরে যোষেফ, তাহার ভ্রাতৃগণ ও ৭ তাৎকালিক সমস্ত লোক মরিয়া গেলেন। আর ইস্রায়েল-সন্তানের ফলবন্ত, অতি বদ্ধিষ্ণু ও বহুবংশ হইয়া উঠিল, ও অতিশয় প্রবল হইল, এবং তাঁহাদের দ্বারা দেশ পরিপূর্ণ হইল। ৮. পরে মিসরের উপরে এক নুতন রাজ উঠিলেন, ৯ তিনি যোষেফকে জানিতেন না । তিনি আপন প্রজাদিগকে কহিলেন, দেখ, আমাদের অপেক্ষ ইস্রায়েল১০ সন্তানদের জাতি বহুসংখ্যক ও বলবান ; আইস, আমরা তাহদের সহিত বিবেচনাপূর্বক ব্যবহার করি, পাছে তাহারা বাড়িয়া উঠে, এবং যুদ্ধ উপস্থিত হইলে তাহারাও শক্রপক্ষে যোগ দিয়া আমাদের সহিত যুদ্ধ করে, এবং এ দেশ হইতে প্রস্থান করে। ১১ অতএব তাহারা ভার বহন দ্বারা উহাদিগকে দুঃখ দিবার জন্ত উহাদের উপরে কার্য্যশাসকদিগকে নিযুক্ত করিল। আর উহারু ফরেণের নিমিত্ত ভণ্ডারের নগর, ১২ পিথোম ও রামিষ্যে গাখিল । কিন্তু উহার তাহীদের দ্বারা যত দুঃখ পাইল, ততই বৃদ্ধি পাইতে ও ব্যাপ্ত হইতে লাগিল ; তাই ইস্রায়েল-সন্তানদের বিষয়ে ১৩ তাহারা অতিশয় উদ্বিগ্ন হইল। আর মিশ্ৰীয়ের৷ নির্দয়তাপূর্বক ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে দাস্ত্যকৰ্ম্ম করা১৪ ইল ; তাহার কর্দম, ইষ্টক ও ক্ষেত্রের সমস্ত কার্য্যে কঠিন দস্তিকৰ্ম্ম দ্বারা উহাদের প্রাণ তিক্ত করিতে লাগিল। তাহারা উহাদের দ্বারা যে যে দস্তকৰ্ম্ম করাইত, সে সমস্ত নির্দয়তাপূর্বক করাইত। ১৫ পরে মিসরের রাজ শিফ্র নামে ও পূয়া নামে ১৬ দুই ইব্রীয় ধাত্রীকে এই কথা কহিলেন, যে সময়ে তোমরা ইব্রীয় স্ত্রীলোকদের ধাত্রীকাৰ্য্য করিবে, ও তাহাদিগকে প্রসব-আধারে দেখিবে, যদি পুত্রসন্তান হয়, তাহাকে বধ করিবে ; আর যদি কন্যা হয়, তাহাকে ১৭ জীবিত রাখিবে । কিন্তু ঐ ধাত্রীরা ঈশ্বরকে ভয় করিত, স্বতরাং মিসর-রাজের আজ্ঞানুসারে না করিয়া পুত্র১৮ সন্তানদিগকে জীবিত রাখিত। তাই মিসর-রাজ সেই ধাত্ৰাদিগকে ডাকাইয়া কহিলেন, এ কৰ্ম্ম কেন করিয়াছ ? পুত্রসন্তানগণকে কেন জীবিত রাখিয়াছ ? ১৯ ধাত্রীরা ফরেীণকে উত্তর করিল, ইব্রীয় স্ত্রীলোকের মিস্ত্রীয় স্ত্রীলোকদের স্তায় নহে ; তাহারা বলবতী, তাহাদের কাছে ধাত্রী যাইবার পূর্বেই তাহারা ২০ প্রসব হয়। অতএব ঈশ্বর ঐ ধাত্রীদের মঙ্গল করিলেন ; এবং লোকের বৃদ্ধি পাইয়৷ অতিশয় বলবান হইল । 47 8bア ২১ সেই ধাত্রীরা ঈশ্বরকে ভয় করিত বলিয়। তিনি তাঁহা দের বংশবৃদ্ধি করিলেন। পরে ফরেীণ আপনার সকল প্রজাকে এই আজ্ঞা দিলেন, তোমরা (ইব্রীয়দের] নবজাত প্রত্যেক পুত্রসন্তানকে নদীতে নিক্ষেপ করিবে, কিন্তু প্রত্যেক কস্তাকে জীবিত রাখিবে । মোশির বিবরণ। २ আর লেবির কুলের এক পুরুষ গিয়া এক লেৰীয় কস্তাকে বিবাহ করিলেন। আর সেই স্ত্রী গৰ্ত্ত ধারণ করিয়া পুত্র প্রসব করিলেন, ও শিশুটকে ৩ স্বত্রী দেখিয়া তিন মাস গোপনে রাখিলেন । পরে আর গোপন করিতে না পারাতে তিনি এক নলের পেটরা লইয়া মেটিয়া তৈল ও আলকাতার লেপন করিয়া তাহার মধ্যে বালকটকে রাখিলেন, ও নদীতীরস্থ ৪ নলবনে তাহা স্থাপন করিলেন। আর তাহার কি দশ৷ ঘটে, তাহ দেখিবার জন্ত তাহার ভগিনী দূরে দাড়াইয়৷ রহিল । ৫ পরে ফরেীণের কষ্ঠ স্বানার্থে নদীতে আসিলেন, এবং তাহার সহচরীগণ নদী-তীরে বেড়াইতেছিল ; আর তিনি নলবনের মধ্যে ঐ পেটরা দেখিয়া আপন দাসীকে ৬ তাহ আনিতে পাঠাইলেন। পরে পেটরা খুলিয়া শিশুটীকে দেখিলেন ; আর দেখ, ছেলেট কাদিতেছে ; তিনি তাহার প্রতি সদয় হইয়া বলিলেন, এটা ৭ ইব্রীয়দের ছেলে। তখন তাহার ভগিনী ফরেণের কষ্ঠাকে কহিল, আমি গিয়া কি আপনকার নিমিত্ত এই ছেলেকে দুদ দিবার জন্ত স্তন্তদাত্রী একটী ইব্রীয় স্ত্রীলোককে আপনকার নিকটে ডাকিয়া আনিব ? ৮ ফরেণের কষ্ঠা কহিলেন, যাও। তখন সেই মেয়েট ৯ গিয়া ছেলের মাকে ডাকিয়া আনিল। ফরেণের কষ্ঠা তাহাকে কহিলেন, তুমি এই ছেলেটকে লইয়া আমার নিমিত্ত দুগ্ধ পান করাও ; আমি তোমাকে বেতন দিব। তাহাতে সেই স্ত্রী ছেলেটকে লইয়া দুগ্ধ পান করাইতে ১০ লাগিলেন। পরে ছেলেট বড় হইলে তিনি তাহাকে লইয়া ফরেীণের কন্যাকে দিলেন ; তাহাতে সে তাহারই পুত্র হইল ; আর তিনি তাহার নাম মোশি (টানিয়া তোলা] রাখিলেন, কেননা তিনি কহিলেন, আমি তাহাকে জল হইতে টানিয়া তুলিয়াছি। সেকালে এই ঘটনা হইল : মোশি বড় হইলে পর এক দিন আপন ভ্রাতৃগণের নিকটে গিয়া তাহাদিগের ভার বহন দেখিতে লাগিলেন ; আর দেখিলেন, এক জন মিশ্ৰীয় এক জন ইত্ৰীয়কে, তাহার ভ্রাতৃগণের মধ্যে এক ১২ জনকে মারিতেছে । তখন তিনি এদিক ওদিক চাহিয়া কাহাকেও দেখিতে না পাওয়াতে ঐ মিশ্রীয়কে ১৩ বধ করিয়া বালির মধ্যে পুতিয়া রাখিলেন। পরে দ্বিতীয় দিন তিনি বাহিরে গেলেন, আর দেখ, দুই জন ইব্রীয় পরস্পর বিবাদ করিতেছে ; তিনি দোষী ব্যক্তিকে কহিলেন, তোমার ভাইকে কেন মরিতেছ ? ২২ S X যাত্রাপুস্তক । [ > ; &>ー○ 3 のト ১৪ সে কহিল, তোমাকে অধ্যক্ষ ও বিচারকর্তা করিয়া আমাদের উপরে কে নিযুক্ত করিয়াছে ? তুমি যেমন সেই মিশ্ৰীয়কে বধ করিয়াছ, তদ্রুপ কি আমাকেও বধ করিতে চাহ ? তখন মোশি ভীত হইয়া কহিলেন, কথাটা অবশ্যই প্রকাশ হইয়া পড়িয়াছে। পরে ফরেীণ ঐ কথা শুনিয়া মোশিকে বধ করিতে চেষ্টা করিলেন। কিন্তু মোশি ফরেণের সন্মুখ হইতে পলায়ন করিলেন, এবং মিদিয়ন দেশে বাস করিতে ১৬ গিয়া এক কূপের নিকটে বসিলেন। মিদিয়নীয় যাজকের সাতটী কস্তা ছিল ; তাহারা সেই স্থানে আসিয়া পিতার মেষপালকে জল পান করাইবার জন্ত জল তুলিয়। নিপানগুলি পরিপূর্ণ করিল। ১৭ তখন মেষপালকেরা আসিয়া তাহাদিগকে তাড়াইয়া দিল, কিন্তু মোশি উঠিয়া তাহীদের সাহায্য করিলেন, ও তাহীদের মেষপালকে জল পান করাইলেন । ১৮ পরে তাহারা আপনাদের পিতা রূয়েলের কাছে গেলে তিনি তাহাদিগকে জিজ্ঞাসা করিলেন, আদ্য তোমরা ১৯ কি প্রকারে এত শীঘ্ৰ আসিলে ? তাহারা কহিল, এক জন মিশ্রীয় আমাদিগকে মেষপালকদের হস্ত হইতে উদ্ধার করিলেন, আরও তিনি আমাদের নিমিত্তে যথেষ্ট জল তুলিয়া মেষপালকে জল পান ২০ করাইলেন। তখন তিনি আপন কন্যাদিগকে কহিলেন, সে লোকটী কোথায় ? তোমরা তাহাকে কেন ছাড়িয়া আসিলে ? তাহাকে ডাক ; তিনি আহার ২১ করুন । পরে মোশি ঐ ব্যক্তির সঙ্গে বাস করিতে সম্মত হইলেন, আর তিনি মোশির সহিত আপন ২২ কন্যা সিপোরার বিবাহ দিলেন। পরে ঐ স্ত্রী পুত্র প্রসব করিলেন, আর মোশি তাহার নাম গেশোম [তত্রপ্রবাসী) রাখিলেন, কেননা তিনি কহিলেন, আমি বিদেশে প্রবাসী হইয়াছি । মোশির কাছে ঈশ্বরের প্রকাশ । অনেক দিন পরে মিসর রাজের মৃত্যু হইল, এবং ইস্রায়েল-সন্তানগণ দাস্ত্যকৰ্ম্ম প্রযুক্ত কাতরোক্তি ও ক্ৰন্দন করিল, এবং দাস্ত্যকৰ্ম্ম জন্য তাহীদের আর্তনাদ ২৪ ঈশ্বরের নিকটে উঠিল । আর ঈশ্বর তাহদের আর্তস্বর শুনিলেন, এবং ঈশ্বর অব্রাহামের, ইস্হাকের ও যাকোবের সহিত কৃত আপনার নিয়ম স্মরণ করি২৫ লেন ; ফলতঃ ঈশ্বর ইস্রায়েল-সন্তানদের প্রতি দৃষ্টিপাত করিলেন ; আর ঈশ্বর তাহদের তত্ত্ব লইলেন। ○ মোশি আপন শ্বশুর যিথে নামক মিদিয়নীয় যাজকের মেষপাল চরাইতেন । একদা তিনি প্রান্তরের পশ্চাদ্ভাগে মেষপাল লইয়া গিয়া হোরেবে, ২ ঈশ্বরের পর্বতে উপস্থিত হইলেন । আর ঝোপের মধ্য হইতে অগ্নিশিখাতে সদাপ্রভুর দূত উহাকে দর্শন দিলেন ; তখন তিনি দৃষ্টিপাত করিলেন, আর দেখ, ঝোপ অগ্নিতে জ্বলিতেছে, তথাপি ঝোপ বিনষ্ট ও হইতেছে না। তাই মোশি কহিলেন, আমি এক > & శిరి 48 ७ ; 8 - 8 ; ७ । ] পার্শ্বে গিয়া এই মহাশ্চর্য্য দৃষ্ঠ দেখি, ঝোপ দগ্ধ হয় ৪ নী, ইহার কারণ কি ? কিন্তু সদাপ্রভু যখন দেখিলেন যে, তিনি দেখিবার জন্য এক পার্শ্বে যাইতেছেন, তখন ঝোপের মধ্য হইতে ঈশ্বর তাহাকে ডাকিয়া কহিলেন, মোশি, মোশি । তিনি কহিলেন, দেখুন, ৫ এই আমি । তখন তিনি কহিলেন, এ স্থানের নিকটবৰ্ত্তী হইও না, তোমার পদ হইতে জুতা খুলিয়া ফেল ; কেননা যে স্থানে তুমি দাড়াইয়া আছ, উহ। ৬ পবিত্র ভূমি। তিনি আরও কহিলেন, আমি তোমার | পিতার ঈশ্বর, অব্রাহামের ঈশ্বর, ইসহাকের ঈশ্বর ও যাকোবের ঈশ্বর। তখন মোশি আপন মুখ আচ্ছাদন করিলেন, কেনন। তিনি ঈশ্বরের প্রতি দৃষ্টি করিতে ৭ ভীত হইয়াছিলেন। পরে সদাপ্রভু কহিলেন, সত্যই আমি মিসরস্থ আপন প্রজাদের কষ্ট দেখিয়াছি, এবং কাৰ্য্যশাসকদের সমক্ষে তাহদের ক্ৰন্দনও শুনিয়াছি : ৮ ফলতঃ আমি তাহদের দুঃখ জানি। আর মিশ্রীয়দের হস্ত হইতে তাহাদিগকে উদ্ধার করিবার জষ্ঠ, এবং সেই দেশ হইতে উঠাইয়া লইয়া উত্তম ও প্রশস্ত এক দেশে, অর্থাৎ কনানীয়, হিৰ্ত্তীয়, ইমোরীয়, পরিষীয়, হিবৰীয় ও বিবুধীয় লোকেরা যে স্থানে থাকে, সেই দুগ্ধমধুপ্রবাহী দেশে তাহাদিগকে আনিবার জন্য ৯ নামিয়া আসিয়াছি । এখন দেখ, ইস্রায়েল-সন্তানগণের ক্ৰন্দন আমার নিকটে উপস্থিত হইয়াছে, এবং মিশ্ৰীয়েরা তাহদের প্রতি যে দৌরাত্ম্য করে, তাহ ১• আমি দেখিয়াছি। অতএব এখন আইস, আমি তোমাকে ফরেণের নিকটে প্রেরণ করি, তুমি মিসর হইতে আমার প্রজ ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে বাহির ১১ করিও । মোশি ঈশ্বরকে কহিলেন, আমি কে, যে ফরেীণের নিকটে যাই, ও মিসর হইতে ইস্রায়েল১২ সন্তানদিগকে বাহির করি ? তিনি কহিলেন, নিশ্চয় আমি তোমার সহবৰ্ত্তী হইব ; এবং আমি যে তোমাকে প্রেরণ করিলাম, তোমার পক্ষে তাহার এই চিহ্ন হইবে ; তুমি মিসর হইতে লোকসমূহকে বাহির করিয়া আনিলে পর তোমরা এই পৰ্ব্বতে ঈশ্বরের সেবা করিবে । পরে মোশি ঈশ্বরকে কহিলেন, দেখ, আমি যখন ইস্রায়েল-সন্তানদের নিকটে গিয়া বলিব, তোমাদের পিতৃপুরুষদের ঈশ্বর তোমাদের নিকটে আমাকে প্রেরণ করিয়াছেন, তখন যদি তাহারা জিজ্ঞাস। করে, তাহার নাম কি ? তবে তাহাদিগকে কি ১৪ বলিব ? ঈশ্বর মৌশিকে কহিলেন, “আমি যে আছি সেই আছি”,*আরও কহিলেন,ইম্রায়েল-সন্তানদিগকে এইরূপ বলিও, “আছি” তোমাদের নিকটে আমাকে ১৫ প্রেরণ করিয়াছেন । ঈশ্বর মোশিকে আরও কহিলেন, তুমি ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে এই কথা বলিও, Nరి

  • (বা) মামি আছি, কারণ আছি । (বা) আমি আছি, যে আছি । (বা) আমি যে হইব, সেই হইব ।

O. T. 4 যাত্রাপুস্তক । 8 o' যিহোবাঃ [সদাপ্রভু), তোমাদের পিতৃপুরুষদের ঈশ্বর, অব্রাহীমের ঈশ্বর, ইস্হাকের ঈশ্বর ও যাকোবের ঈশ্বর তোমাদের নিকটে আমাকে পাঠাইয়াছেন ; আমার এই নাম অনন্তকালস্থায়ী, এবং এতদ্বারা আমি পুরুষে ১৬ পুরুষে স্মরণীয়। তুমি যাও, ইস্রায়েলের প্রাচীনগণকে একত্র কর, তাহাদিগকে এই কথা বল, সদাপ্রভু, তোমাদের পিতৃপুরুষদের ঈশ্বর, অব্রাহীমের, ইস্হাকের ও যাকোবের ঈশ্বর আমাকে দর্শন দিয়া কহিলেন, সত্যই আমি তোমাদিগের তত্ত্ব লইয়াছি, এবং মিসরে তোমাদের প্রতি যাহ করা হইতেছে, তাহ ১৭ দেখিয়াছি। আর আমি বলিয়াছি, আমি মিসরের কষ্ট হইতে তোমাদিগকে উদ্ধার করিয়া কনানীয়দের, হিত্তীয়দের, ইমোরীয়দের, পরিষীয়দের, হিববীয়দের ও যিবুধীয়দের দেশে, দুগ্ধমধুপ্রবাহী দেশে, লইয়। ১৮ যাইব । তাহার তোমার রবে মনোযোগ করিবে: তখন তুমি ও ইস্রায়েলের প্রাচীনবর্গ মিসরের রাজার নিকটে যাইবে, তাহাকে বলিবে, সদাপ্রভু, ইব্রীয়দের ঈশ্বর আমাদিগকে দেখা দিয়াছেন ; অতএব বিনয় করি, আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর উদ্দেশে যজ্ঞ করণার্থে আমাদিগকে তিন দিনের পথ প্রান্তরে যাইবার ১৯ অনুমতি দিউন । কিন্তু আমি জানি, মিসরের রাজ। তোমাদিগকে যাইতে দিবে না, পরাক্রান্ত হস্ত দেখাই২০ লেও দিবে না । পরস্তু আমি হস্ত বিস্তার করিব, এবং দেশের মধ্যে যে সমস্ত আশ্চৰ্য্য কাৰ্য্য করিব, তদ্বারা মিসরকে আঘাত করিব, তৎপরে সে তোমা২১ দিগকে যাইতে দিবে। আর আমি মিত্রীয়দের দৃষ্টিতে এই লোকদিগকে অনুগ্রহের পাত্র করিব , তাহাতে তোমরা যাত্রাকালে রিক্ত হস্তে যাইবে ন! . ২২ কিন্তু প্রত্যেক স্ত্রী আপন আপন প্রতিবাসিনী কিম্বা গৃহে প্রবাসিনী স্ত্রীর কাছে রৌপ্যালঙ্কার, স্বর্ণালঙ্কার ও বস্ত্র চাহিবে ; এবং তোমরা তাহা আপন আপন পুত্রদের ও কস্তাদের গাত্রে পরাইবে ; এইরূপে তোমরা মিস্ত্রীয়দের দ্রব্য হরণ করিবে । 8 মোশি উত্তর করিলেন, কিন্তু দেখুন, তাহার আমাকে বিশ্বাস করিবে না, ও অামার রবে মনোযোগ করিবে না, কেননা তাহার। বলিৰে, ২ সদাপ্রভু তোমাকে দর্শন দেন নাই। তখন সদfপ্ৰভু তাহাকে কহিলেন, তোমার হস্তে ওখানি কি ? তিনি বলিলেন, যষ্টি । তখন তিনি কহিলেন, উহ। তুমিত ৩ ফেল। পরে তিনি ভূমিতে ফেলিলে তাহ সর্প হইল : আর মোশি তাহার সম্মুখ হইতে পলায়ন করিলেন । ৪ তখন সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, হস্ত বিস্তার করিয়া উহার লেজ ধর",—তাহাতে তিনি হস্ত বিস্তার ৫ করিয়া ধরিলে উহ। তাহার হস্তে যষ্টি হইল,—“যেন তাহারা বিশ্বাস করে যে, সদাপ্রভু, তাহদের পিতৃপুরুষদের ঈশ্বর, অব্রাহীমের ঈশ্বর, ইস্হাকের ঈশ্বর ও যাকোবের ঈশ্বর তোমাকে দর্শন দিয়াছেন।” ৬ পরে সদাপ্রভু তাহাকে আরও কহিলেন, তুমি 49 С о তোমার হস্ত বক্ষঃস্থলে দেও ; তিনি বক্ষঃস্থলে হস্ত দিলেন : পরে তাহ বাহির করিলে দেখ, ৭ তাহার হস্ত হিমের দ্যায় কুম্ভযুক্ত হইয়াছে। পরে তিনি কহিলেন, “তোমার হস্ত আবার বক্ষঃস্থলে দেও’ । তিনি আবার বক্ষঃস্থলে হস্ত দিলেন, পরে বক্ষঃস্থল হইতে হস্ত বাহির করিলে দেখ, ৮ তাহ পুনরায় তাহার মাংসের স্থায় হইল। তাহার যদি তোমাকে বিশ্বাস না করে, এবং ঐ প্রথম চিহ্নেও মনোযোগ না করে, তবে দ্বিতীয় চিহ্নে ৯ বিশ্বাস করিবে। আর এই দুই চিহ্নেও যদি বিশ্বাস না করে, ও তোমার রবে মনোযোগ না করে, তবে তুমি নদীর কিছু জল লইয়া শুষ্ক ভূমিতে ঢালিয়৷ দিও; তাহাতে তুমি নদী হইতে যে জল তুলিবে, তাহ শুষ্ক ভূমিতে রক্ত হইয়া যাইবে।” পরে মোশি সদাপ্রভুকে কহিলেন, হায় প্রভু ! আমি বাকৃপটু নহি, ইহার পূৰ্ব্বেও ছিলাম না, বা এই দাসের সহিত তোমার আলাপ করিবার পরেও ১১ নহি ; কারণ আমি জড়মুখ ও জড়জিহব ! সদাপ্রভু তাহাকে কহিলেন, মনুষ্যের মুখ কে নিৰ্ম্মাণ করিয়াছে ? আর বোবা, বধির, মুক্তচক্ষু বা অন্ধকে কে ১২ নিৰ্ম্মাণ করে ? আমি সদাপ্রভুই কি করি না ? এখন তুমি যাও ; আমি তোমার মুখের সহবত্তী হইব, ও কি ১৩ বলিতে হইবে, তোমাকে জানাইব । তিনি কহিলেন, হে আমার প্রভু, বিনয় করি, যাহার হাতে পাঠাইতে ১৪ চাও, পাঠাও। তখন মোশির প্রতি সদাপ্রভুর ক্রোধ প্রজ্বলিত হইল ; তিনি কহিলেন, তোমার ভ্রাতা লেবীয় হারোণ কি নাই ? আমি জানি, সে সুবক্তা : আরও দেখ, সে তোমার সহিত সাক্ষাৎ করিতে আসিতেছে ; তোমাকে দেখিয়া হৃষ্টচিত্ত ১৫ হইবে। তুমি তাহাকে বলিবে, ও তাহার মুখে বাক্য দিবে ; এবং আমি তোমার মুখের ও তাহার মুখের সহবত্তী হইব, ও কি করিতে হইব, তোমাদিগকে ১৬ জানাইব । তোমার পরিবর্তে সে লোকদের কাছে বক্ত হইবে ; ফলতঃ সে তোমার মুখস্বরূপ হইবে, ১৭ এবং তুমি তাহার ঈশ্বরস্বরূপ হইবে। আর তুমি এই যষ্টি হস্তে করিবে, ইহা দ্বারাই তোমাকে সেই সকল চিহ্ন-কাৰ্য্য করিতে হুইবে । মোশি মিসর দেশে ফিরিয়া গিয়া ফরেীণকে ঈশ্বরের কথা জানান । পরে মোশি আপন শ্বশুর যিথোর নিকটে ফিরিয়া আসিয়া কহিলেন, বিনয় করি, মিসরে স্থিত আমার ভ্রাতৃগণের নিকটে ফিরিয়া যাইতে, এবং তাহার এখনও জীবিত আছে কি না, তাহ দেখিতে আমাকে বিদায় দিউন । যিথে মেশিকে কহিলেন, ১৯ কুশলে যাও। আর সদাপ্রভু মিদিয়নে মোশিকে বললেন, তুমি মিসরে ফিরিয়া যাও ; কেননা যে লোকের তোমার প্রাণনাশের চেষ্টায় ছিল, তাহার।

) రి

>W* ষাত্রীপুস্তক । | 8 , а - с 8 и ২০ সকলে মরিয়া গিয়াছে। তখন মোশি আপন স্ত্রী ও পুত্রদিগকে গর্দভে চড়াইয়া মিসর দেশে ফিরিয়া গেলেন, এবং মোশি আপন হস্তে ঈশ্বরের সেই যষ্টি ২১ লইলেন। আর সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি যখন মিসরে ফিরিয়া যাইবে, দেখিও, আমি তোমার হস্তে যে সকল অদ্ভুত কৰ্ম্মের ভার দিয়াছি, ফরেণের সাক্ষাতে সে সকল করিও ; কিন্তু আমি তাহার হৃদয় কঠিন করিব, সে লোকদিগকে ছাড়িয়া দিবে না। ২২ আর তুমি ফরেীণকে কহিবে, সদাপ্রভু এই কথা কহেন, ইস্রায়েল আমার পুত্র, আমার প্রথমজাত । ২৩ আর আমি তোমাকে বলিয়াছি, আমার সেবা করশার্থে আমার পুত্রকে ছাড়িয়া দেও ; কিন্তু তুমি তাহাকে ছাড়িয়া দিতে অসন্মত হইলে ; দেখ, আমি তোমার পুত্রকে, তোমার প্রথমজাতকে, বধ করিব। ২৪ পরে পথে পান্থশালায় সদাপ্রভু তাহার কাছে গিয়৷ ২৫ তাহীকে বধ করিতে চেষ্টা করিলেন । তখন সিপেপার একখানি পাথরের ছুরি লইয়া আপন পুত্রের ত্বক্‌ ছেদন করিলেন ও তাহীর চরণের নিকটে তাহ ফেলিয়া দিয়া কহিলেন, আমার পক্ষে তুমি রক্তের ২৬ বর। আর ঈশ্বর তাহাকে ছাড়িয়া দিলেন ; তখন সিপোর। কহিলেন, ত্বকৃছেদ সম্বন্ধে তুমি রক্তের বর। আর সদাপ্রভু হারোণকে বলিলেন, তুমি মোশির সহিত সাক্ষাৎ করিতে প্রান্তরে যাও। তাহাতে তিনি গিয়া ঈশ্বরের পর্বতে তাহার দেখা পাইলেন, ২৮ ও তাঁহাকে চুম্বন করিলেন। তখন মোশি প্রেরণকৰ্ত্ত৷ সদাপ্রভুর সমস্ত বাক্য ও তাহার আজ্ঞাপিত সমস্ত চিহ্নের বিষয় হারোণকে জ্ঞাত করিলেন । ২৯ পরে মোশি ও হারেীণ গিয়া ইস্রায়েল-সন্তানদের ৩• সমস্ত প্রাচীনকে একত্র করিলেন । আর হারোণ মোশির প্রতি সদাপ্রভুর কথিত সমস্ত বাক্য তাহাদিগকে জ্ঞাত করিলেন, এবং তিনি লোকদের দৃষ্টিতে ৩১ সেই সকল চিহ্ন-কাৰ্য্য করিলেন । তাহাতে লোকের বিশ্বাস করিল ; এবং সদাপ্রভু ইস্রায়েল-সন্তানদিগের তত্ত্বাবধান করিয়াছেন, ও তাহদের দুঃখ দেখিয়াছেন, ইহ শুনিয়া তাহারা মস্তক নমনপুৰ্ব্বক প্ৰণিপাত করিল। (« পরে মোশি ও হারোণ গিয়া ফরেীণকে কহিলেন, সদাপ্রভু, ইস্রায়েলের ঈশ্বর এই কথা কহেন, প্রান্তরে আমার উদ্দেশে উৎসব করণার্থে ২ আমার প্রজাদিগকে ছাড়িয়া দেও। ফরেীণ কহিলেন, সদা প্ৰভু কে, যে আমি তাহার কথা শুনিয়া ইস্রায়েলকে ছাড়িয়া দিব ? আমি সদাপ্রভুকে জানি ৩ নী, ইস্রায়েলকেও ছাড়িয়া দিব না। তাহার কহিলেন, ইব্রীয়দের ঈশ্বর আমাদিগকে দশন দিয়াছেন ; আমরা বিনয় করি, আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর উদেশে যজ্ঞ করণার্থে আমাদিগকে তিন দিনের পথ প্রান্তরে যাইতে দিউন, পাছে তিনি মহামারী কি ৪ খড়গ দ্বারা আমাদিগকে আক্রমণ করেন। মিসর ミ" 50 ৫ ; ৫ – ৩ : ১১ ৷ ] রাজ তাহাদিগকে কহিলেন, ওহে মোশি ও হারেীণ, তোমরা লোকদিগকে কেন তাহীদের কার্য্য হইতে নিবৃত্ত কর । যাও, তোমাদের ভার বহন কর গিয়া । ৫ ফরেীণ আরও কহিলেন, দেখ, দেশের লোক এখন অনেক, আর তোমরা তাহাদিগকে ভার বহন হইতে নিবৃত্ত করিতেছ। ৬ অার ফরেীণ সেই দিন লোকদের কার্য্যশাসক ও ৭ অধ্যক্ষগণকে এই আজ্ঞা দিলেন, তোমরা ইষ্টক নিৰ্ম্মাণার্থে পূর্বের মত এই লোকদিগকে আর পলাল দিও না ; তাহারা গিয়া আপনারাই আপনাদের ৮ পলাল সংগ্রহ করুক। কিন্তু পূৰ্ব্বে তাহদের যত ইষ্টক নিৰ্ম্মাণের ভার ছিল, এখনও সেই ভার দেও : তাহার কিছুই কম করিও না ; কেনন তাহারা অলস, এই জন্য ক্ৰন্দন করিয়া বলিতেছে, আমরা আপনাদের ঈশ্বরের উদেশে যজ্ঞ করিতে যাই । ৯ সেই লোকদের উপরে আরও কঠিন কাৰ্য্য চাপান হউক, তাহার। তাহাতেই ব্যস্ত থাকুক, এবং মিথ্য কথায় অবধান না করুক । আর লোকদের কার্য্যশাসকের ও অধ্যক্ষের বাহিরে গিয় তাহাদিগকে কহিল, ফরেীণ এই কথা ১১ কহেন, আমি তোমাদিগকে পলাল দিব না। আপনারা যেখানে পাও, সেইখানে গিয়া পলাল সংগ্ৰহ কর । কিন্তু তোমাদের কার্য্য কিছুই কম হুইবে না। ১২ তাহাতে লোকের পলালের চেষ্টায় নাড়া সংগ্ৰহ ১৩ করিতে সমস্ত মিসর দেশে ছড়াইয়। পড়িল। আর কাৰ্য্যশাসকের ত্বর করাইয়া কহিল, পলাল পাইলে যেমন করিতে, তদ্রুপ এখনও তোমাদের কার্য্য, নিরূ১৪ পিত দৈবসিক কৰ্ম্ম, প্রতিদিন সম্পূর্ণ কর। আর ফরেীণের কার্য্যশাসকের ইস্রায়েল-সন্তানদের যে অধ্যক্ষদিগকে তাহদের উপরে রাখিয়াছিল, তাহারাও প্ৰহারিত হইল,আর বলিয়াদেওয়া হইল, তোমরা পূবেবর হ্যায় ইষ্টক গঠন বিষয়ে নিরূপিত কৰ্ম্ম আজিকাল ১৫ কেন সম্পূর্ণ কর না ? তাহাতে ইস্রায়েল-সন্তানদের অধ্যক্ষের আসিয়া ফরোণের নিকটে ক্রন্দন করিয়া কহিল, আপনকার দাসদের সহিত আপনি ১৬ এমন ব্যবহার কেন করিতেছেন ? লোকের। আপনকার দাসদিগকে পলাল দেয় না, তথাপি আমাদিগকে বলে, ইষ্টক নিৰ্ম্মাণ কর ; আর দেখুন, আপনকার এই দাসের প্রহরিত হয়, কিন্তু ১৭ আপনকারই লোকদের দোষ। ফরেীণ কহিলেন, তোমরা অলস, তোমরা অলস, তাই বলিতেছ, আমরা ১৮ সদাপ্রভুর উদ্দেশে যজ্ঞ করিতে যাই। এখন যাও, কৰ্ম্ম কর, তোমাদিগকে পলাল দেওয়া যাইবে না, ১৯ তথাপি ইষ্টকের পূর্ণ সংখ্যা দিতে হইবে। তখন ইস্রায়েল-সন্তানদের অধ্যক্ষেরা দেখিল, তাহার বিপাকে পড়িয়াছে, কারণ বলা হইয়াছিল, তোমরা প্রত্যেক দিনের কায্যের, নিরূপিত ইষ্টকের, কিছু কম করিতে পাইবে না। ) o যাত্রীপুস্তক । G 2 পরে ফরেীণের নিকট হইতে বহির হইয়া আলিবার সময়ে তাহার মেশির ও হারোণের সাক্ষাৎ পাইল, তাহারা পথে দাড়াইয়াছিলেন। তাহার। তাহাদিগকে কহিল, সদাপ্রভু তোমাদের প্রতি দৃষ্টি করিয়া বিচার করুন, কেননা তোমরা ফরেণের দৃষ্টিতে ও তাহার দাসগণের দৃষ্টিত আমাদিগকে দুৰ্গন্ধস্বরূপ করিয়৷ আমাদের প্রাণনাশীর্থে তাহীদের হস্তে খড়গ দিয়াছ । পরে মোশি সদাপ্রভুর কাছে ফিরিয়া গিয় তাহাকে কহিলেন, হে প্রভু, তুমি এই লোকদিগের অম২৩ অল কেন করিলে ? আমাকে কেন পাঠাইলে ? যে অবধি আমি তোমার নামে কথা কহিতে ফরেণের কাছে উপস্থিত হইয়াছি, সেই অবধি তিনি এই লোকদের অমঙ্গল করিতেছেন, আর তুমি আপন ২ e RS R W。 প্রজাদের উদ্ধার কিছুই কর নাই। তখন সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, আমি ফরেীণের প্রতি যাহ। করিব, তাহা তুমি এখন দেখিবে ; কেননা পরাক্রান্ত হস্ত দেখান হইলে সে লোকদিগকে ছাড়িয়া দিবে, এবং পরাক্রান্ত হস্ত দেখান হইলে তাপন দেশ হইতে তাহাদিগকে দূর করিয়া দিবে। ২ ঈশ্বর মোশির সহিত আলাপ করিয়া আরও ৩ কহিলেন, আমি যিহেব। [সদাপ্রভু ; আমি অব্রাহামকে, ইসহাককে ও যাকোবকে 'সৰ্ব্বশক্তিমান ঈশ্বর বলিয়া দর্শন দিতাম, কিন্তু আমার যিহেব। [সদাপ্রভু) নাম লইয়। তাহাদিগকে আমার পরিচয় ৪ দিতাম না । আর আমি তাহীদের সহিত এই নিয়ম স্থির করিয়াছি, আমি তাহাদিগকে কনান দেশ দিব, যে দেশে তাহার প্রবাস করিত, তাহীদের সেই ৫ প্রবাস-দেশ দিব । অধিকন্তু মিশ্রীয়দের দ্বারা দাসত্বে নিযুক্ত ইস্রায়েল-সন্তানদের কাতরোক্তি শুনিয়া আমার ৬ সেই নিয়ম স্মরণ করিলাম। অতএব ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে বল, আমি যিহোবা, আমি তোমাদিগকে মিস্ট্রীয়দের ভরের নীচে হইতে বাহির করিয়৷ আনিব, ও তাহদের দাসত্ব হইতে উদ্ধার করিব, এবং প্রসারিত বাহু ও মহৎ শাসন দ্বারা তোমাদিগকে ৭ মুক্ত করিব। আর আমি তোমাদিগকে আপন প্রজারূপে গ্রাহ করিব, ও তোমাদের ঈশ্বর হইব ; তাহীতে তোমরা জানিতে পারবে যে, আমি যিহেব, তোমাদের ঈশ্বর, যিনি তোমাদিগকে মিশ্রীয়দের ভারের নীচে হইতে বাহির করিয়া আনিতেছেন । ৮ আর আমি অব্রাহীমকে, ইসহাককে ও যাকোবকে দিবার জন্ত যে দেশের বিষয়ে হস্ত উঠাইয়াছি, সেই দেশে তোমাদিগকে লইয়া যাইব, ও তোমাদের অধি৯ কারার্থে তাহ দিব ; আমিই সদাপ্রভু। পরে মোশি ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে তদনুসারে কহিলেন, কিন্তু তাহারা মনের অধৈৰ্য্য ও কঠিন দাস্তকৰ্ম্ম হেতু মোশির বাক্যে মনোযোগ করিল না । ১•,১১ পরে সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি যাও, মিসর-রাজ ফরেীণকে বল, যেন সে অপেন দেশ 51 @之 ১২ হইতে ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে ছাড়িয়া দেয়। তখন মোশি সদাপ্রভুর সাক্ষাতে কহিলেন, দেখ, ইস্রায়েলসন্তানের আমার বাক্যে মনোযোগ করিল না ; তবে ফরেীণ কি প্রকারে শুনিবেন ? আমি ত আচ্ছিন্নত্বক১৩ ওস্তু। আর সদাপ্রভু মোশির ও হারোণের সহিত আলাপ করিলেন, এবং ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে মিসর দেশ হইতে বাহির করিয়া আনিবার জন্ত ইস্রায়েলসন্তানদিগের নিকটে এবং মিসর-রাজ ফরোণের নিকটে যাহা বক্তব্য, তাহাদিগকে আদেশ করিলেন । মোশির পিতৃকুল । এই সকল লোক আপন আপন পিতৃকুলের পতি। ইস্রায়েলের জ্যেষ্ঠ পুত্র রূবেণের সন্তান হনোক, পলু, হিষোণ ও কম্মি ; ইহার রূবেণের গোষ্ঠী। শিমিয়োনের পুত্ৰ যিমুয়েল, যমন, ওহদ, যার্থীন, সোহর ও কনানীয় স্ত্রীর পুত্র শোল ; ইহার শিমিয়োনের গোষ্ঠী । বংশাবলি অনুসারে লেবির পুত্রদের নাম গের্শোন, কহৎ ও মরারি ; লেবির বয়স এক শত সাইক্রিশ ১৭ বৎসর হইয়ছিল। আর আপন আপন গোষ্ঠী অনু১৮ সারে গের্শোনের সন্তান লিবনি ও শিমিয়ি । কহাতের সন্তান অস্ত্রম, যিমূহর, হিন্ত্রোণ ও উষীয়েল ; কহাতের ১৯ বয়স এক শত তেত্রিশ বৎসর হইয়াছিল। মরারির সন্তান মহলি ও মুশি ; ইহার বংশাবলি অনুসারে ২০ লেবির গোষ্ঠী। আর অস্ত্রম আপন পিসী যেকেবদকে বিবাহ করিলেন, আর ইনি তাহার জন্ত হারোণকে ও মোশিকে প্রসব করিলেন । অস্ত্রমের বয়স এক শত ২১ সাঁইত্রিশ বৎসর হইয়াছিল। যিমূহরের সন্তান কোরহ, ২২ নেফগ ও সিখি। আর উষীয়েলের সন্তান মশায়েল, ২৩ ইলসাফন ও সিখি। আর হারোণ অন্মীনাদবের কন্যা নহোশনের ভগিনী ইলীশেবাকে বিবাহ করিলেন, আর ইনি তাহার জন্ত নাদব, অবীহ্, ইলিয়াসর ২৪ ও ঈথামরকে প্রসব করিলেন । আর কোরহের সন্তান অসীর, ইল্কানা ও অবয়সেফ ; ইহার কোরহীয়দের ২৫ গোষ্ঠী। আর হারোণের পুত্র ইলিয়াসর পুটীয়েলের এক কস্তাকে বিবাহ করিলে তিনি তাহার জন্ত পীনহসকে প্রসব করিলেন ; ইহার লেবীয়দের গোষ্ঠী ২৬ অনুসারে তাহদের পিতৃকুলপতি ছিলেন । এই যে হারোণ ও মোশি, ইহাদিগকেই সদাপ্রভু কহিলেন, তোমরা ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে সৈন্তশ্রেণী:ক্রমে মিসর ২৭ দেশ হইতে বাহির কর । ইহঁরাই ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে মিসর হইতে বাহির করিয়া আনিবার জন্ত মিসর-রাজ ফরেীণের সহিত আলাপ করিলেন। ইহার সেই মোশি ও হারোণ । মিসরের উপর প্রথম আঘাত । ২৮ আর মিসর দেশে যে দিন সদাপ্রভু মোশির সহিত ২৯ আলাপ করেন, সেই দিন সদাপ্রভু মোশিকে বলিলেন, আমিই সদাপ্রভু, আমি তোমাকে যাহা যাহাবলি, সে S 8 y & > ● যাত্রাপুস্তক । زوال لا و ۹ - چ لا و ن] ৩• সকলই তুমি মিসর-রাজ ফরেীণকে বলিও। আর মোশি সদাপ্রভুর সাক্ষাতে বলিলেন, দেখ, আমি অচ্ছিন্নত্বক-ওষ্ঠ, ফরেীণ কি প্রকারে আমার কথা শুনিবেন ? তখন সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, দেখ, আমি ফরেীণের কাছে তোমাকে ঈশ্বরস্বরূপ করিয়৷ নিযুক্ত করিলাম, আর তোমার ভ্রাত হারেীণ তোমার ২ ভাববাদী হুইবে । আমি তোমাকে যাহা যাহা আদেশ করি, সে সকলই তুমি বলিবে ; এবং তোমার ভ্রাত হারেীণ ফরেীণকে তাহ বলিবে, যেন সে ইস্রায়েলসন্তানদিগকে আপন দেশ হইতে ছাড়িয়া দেয়। ৩ কিন্তু আমি ফরেীণের হৃদয় কঠিন করিব, এবং মিসর দেশে আমি বহুসংখ্যক চিহ্ন ও অদ্ভুত লক্ষণ দেখাইব । ৪ তথাপি ফরেীণ তোমাদের কথায় মনোযোগ করিবে না ; আর আমি মিসরে হস্তপণ করিয়া মহাশাসন দ্বারা মিসর দেশ হইতে আপন সৈন্তসামন্তকে, আপন ৪ প্রজ ইস্রায়েল-সন্তানগণকে, বাহির করিব। আমি মিসরের উপরে আপন হস্ত বিস্তার করিয়া মিত্রীয়দের মধ্য হইতে ইস্রায়েল-সন্তানগণকে বাহির করিয়া ৬ আনিলে, উহারা জানিবে, আমিই সদাপ্রভু। পরে মোশি ও হারোণ সেইরূপ করিলেন ; সদাপ্রভুর ৭ আজ্ঞানুসারে কৰ্ম্ম করিলেন। ফরেীণের সহিত আলাপ করিবার সময়ে মোশির আশী ও হারোণের তিরাশী বৎসর বয়স হইয়াছিল । o ৮ পরে সদাপ্রভু মোশি ও হারোণকে কহিলেন, ৯ ফরেীণ যখন তোমাদিগকে বলে, তোমরা আপনাদের পক্ষে কোন অদ্ভুত লক্ষণ দেখাও,তখন তুমি হারোণকে বলিও, তোমার যষ্টি লইয়। ফরেণের সম্মুখে নিক্ষেপ ১• কর ; তাহাতে তাহা সৰ্প হইবে। তখন মোশি ও হারেীণ ফরেণের নিকটে গিয়া সদাপ্রভুর আজ্ঞানুসারে কৰ্ম্ম করিলেন : হারেীণ ফরেীণের ও তাহার দাসগণের সম্মুখে আপন যষ্টি নিক্ষেপ করিলেন, ১১ তাহাতে তাহ সৰ্প হইল। তখন ফরেীণও বিদ্বানদিগকে ও গুণিগণকে ডাকিলেন : তাহাতে তাহার অর্থাৎ মিশ্রীয় মন্ত্রবেত্তারাও আপনাদের মায়াবলে ১২ সেইরূপ করিল। ফলতঃ তাহারা প্রত্যেকে আপন আপন যষ্টি নিক্ষেপ করিলে সে সকল সৰ্প হইল, কিন্তু হারোণের যষ্টি তাহীদের সকল যষ্টিকে গ্রাস ১৩ করিল। আর ফরেীণের হৃদয় কঠিন হইল, তিনি তাহীদের কথায় মনোযোগ করিলেন না ; যেমন সদাপ্রভু বলিয়াছিলেন। ১৪ আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, ফরেণের হৃদয় ভারী হইয়াছে ; সে লোকদিগকে ছাড়িয়া দিতে ১৫ অস্বীকার করে। তুমি প্রাতঃকালে ফরেণের নিকটে যাও ; দেখ, সে জলের দিকে যাইবে ; তুমি তাহার সঙ্গে দেখা করিতে নদীতীরে দাড়াইও ; এবং যে যষ্টি ১৬ সৰ্প হইয়া গিয়াছিল, তাহাও হস্তে গ্রহণ করিও । আর তাহাকে বলিও, সদাপ্রভু, ইত্ৰীয়দের ঈশ্বর আমাকে দিয়া, আপনাকে বলিয়া পাঠাইয়াছেন, তুমি আমার 52 ৭ ; ১৭ – ৮ ; ২১ । ] প্রজাদিগকে প্রান্তরে আমার সেবা করণার্থে ছাড়িয়া দেও; কিন্তু দেখ, তুমি এ পর্য্যন্ত মনোযোগ ১৭ কর নাই। সদাপ্রভু এই কথা কহুেন, আমি যে সদাপ্রভু, তাহা তুমি ইহাতে জ্ঞাত হইবে ; দেখ, আমি আপন হস্তস্থিত যষ্টি দ্বারা নদীর জলে প্রহার করিব, ১৮ তাহাতে তাহ রক্ত হইয়া যাইবে ; আর নদীতে যে সকল মৎস্ত আছে, তাহারা মরিয়া যাইবে, এবং নদীতে দুর্গন্ধ হইবে ; আর নদীর জল পান করিতে মিশ্রীয়দের ঘৃণা জন্মিবে। পরে সদাপ্ৰভু মোশিকে কহিলেন, হারোণকে এই কথা বল, তুমি আপন যষ্টি লইয়া মিসরের জলের উপরে, দেশের নদী, খাল, বিল ও সমস্ত জলাশয়ের উপরে তোমার হস্ত বিস্তার কর; তাহাতে সে সকল জল রক্ত হইবে, এবং মিসর দেশের সর্ববত্ৰ কাষ্ঠময় ও ২০ প্রস্তরময় পাত্রেও রক্ত হুইবে । তখন মোশি ও হারোণ সদাপ্রভুর আজ্ঞানুসারে সেইরূপ করিলেন, তিনি যষ্টি তুলিয়া ফরেণের ও তাহার দাসগণের সম্মুখে নদীর জলে প্রহার করিলেন ; তাহতে নদীর সমস্ত জল রক্ত ২১ হইল। আর নদীর মৎস্ত সকল মরিল, ও নদীতে দুৰ্গন্ধ হইল ; তাহাতে মিত্ৰীয়েরা নদীর জল পান করিতে পারিল না, এবং মিসর দেশের সর্বত্র রক্ত ২২ হইল। আর মিস্ত্রীয় মন্ত্রবেত্তারাও আপনাদের মায়াবলে সেইরূপ করিল ; তাহাতে ফরেণের হৃদয় কঠিন হইল, এবং তিনি তাহদের কথায় মনোযোগ করি২৩ লেন না ; যেমন সদাপ্রভু বলিয়াছিলেন। পরে করেীণ আপন গৃহে ফিরিয়া গেলেন, ইহাতেও মনো২৪ যোগ করিলেন না । আর মিশ্ৰীয়েরা সকলে নদীর জল পান করিতে না পারতে পানীয় জলের চেষ্টায় নদীর আশে পাশে চারিদিকে খনন করিল। సి দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ আঘাত। ゲ নদীতে সদাপ্রভুর আঘাত করিবার পর সাত দিন গত হইল। পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি ফরেণের নিকটে যাও, তাহাকে বল, সদাপ্রভু এই কথা কহেন, আমার সেবা করণার্থে ২ আমার প্রজাদিগকে ছাড়িয়া দেও। যদি ছাড়িয়া দিতে অসন্মত হও, তবে দেখ, আমি ভেক দ্বারা ৩ তোমার সমস্ত প্রদেশকে আঘাত করিব । নদী ভেকে পরিপূর্ণ হইবে ; সে সকল ভেক উঠিয়া তোমার গৃহে, শয়নাগারে ও শয্যায়, এবং তোমার দাসগণের গৃহে, তোমার প্রজাদের মধ্যে, তোমার তুন্দুরে ও তোমার ৪ আট ছানিবার কাঠয়াতে প্রবেশ করিবে ; আর তোমার, তোমায় প্রজাদের ও দাসগণের অঙ্গে ভেক ৪ উঠিবে। পরে সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, হারোণকে বল, তুমি নদী, খাল ও বিল সকলের উপরে যষ্টিসহ হস্ত বিস্তার করিয়া মিসর দেশের উপরে ভেক ৬ আনাও । তাঁহাতে হারোণ মিসরের সকল জলের যাত্রাপুস্তক । ○ ○ উপরে আপন হস্ত বিস্তার করিলে ভেকেরা উঠিয়৷ ৭ মিসর দেশ ব্যাপিল । আর মন্ত্রবেত্তারাও মায়াবলে সেইরূপ করিয়া মিসর দেশের উপরে ভেক আনিল । ৮ পরে ফরেীণ মোশি ও হারোণকে ডাকাইয়া কহিলেন, সদাপ্রভুর কাছে বিনতি কর, যেন তিনি আম৷ হইতে ও আমার প্রজাদিগের হইতে এই সকল ভেক দূর করিয়া দেন, তাহাতে আমি লোকদিগকে ছাড়িয়া দিব, যেন তাহারা সদাপ্রভুর উদ্দেশে যজ্ঞ করিতে ৯ পারে। তখন মোশি ফরেীণকে কহিলেন, আমার উপরে দৰ্প করিয়া বলুন ; ভেক সকল যেন আপন হইতে ও আপনার গৃহ সকল হইতে উচ্ছিন্ন হয়, কেবল নদীতে থাকে, আপনার ও আপনার দাসগণের ও প্রজা সকলের নিমিত্তে কোন সময়ের জন্য এমন বিনতি ১০ করিব ? তিনি কহিলেন, কল্যকার জন্ত । তথন মোশি কহিলেন, আপনার বাক্যানুসারেই হউক, যেন আপনি জানিতে পারেন যে, আমাদের ঈশ্বর সদা১১ প্রভুর তুল্য কেহ নাই ; ভেকেরা আপন হইতে ও আপনার গৃহ, দাস ও প্রজা সকল হইতে দূর হইয়৷ ১২ কেবল নদীতেই থাকিবে । পরে মোশি ও হারোণ ফরোণের নিকট হইতে বাহিরে গেলেন, এবং মোশি ফরেীণের বিরুদ্ধে যে সকল ভেক আনিয়াছিলেন, সেই সকলের বিষয়ে সদাপ্রভুর কাছে ক্ৰন্দন করিলেন । ১৩ আর সদাপ্রভু মোশির বাক্যানুসারে করিলেন, তাহাতে গৃহে, প্রাঙ্গণে ও ক্ষেত্রে সকল ভেক মরিল। ১৪ তখন লোকেরা সে সকল একত্র করিয়া ঢিবি করিলে ১৫ দেশে দুর্গন্ধ হইল। কিন্তু ফরেীণ যখন দেখিলেন, নিবৃত্তি হইল, তখন আপন হৃদয় ভারী করিলেন, তাহদের বাক্যে মনোযোগ করিলেন না ; যেমন সদাপ্রভু বলিয়াছিলেন। পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, হারোণকে বল, তুমি আপন যষ্টি বিস্তার করিয়া ভূমির ধূলিতে প্রহার কর, তাহাতে সমুদয় মিসর দেশে পিশু হইবে । ১৭ তখন তাহার সেইরূপ করিলেন ; হারোণ আপন যষ্টিসহ হস্ত বিস্তার করিয়া ভূমির ধূলিতে প্রহার করিলেন, তাহাতে মনুষ্যে ও পশুতে পিশু হইল, মিসর দেশের সর্বত্র ভূমির সকল ধূলি পিশু হইয়৷ ১৮ গেল। তখন মন্ত্রবেত্তারা আপনাদের মায়াবলে পিশু উৎপন্ন করিবার জন্ত সেইরূপ করিল বটে, কিন্তু পারিল না, আর মনুষ্যে ও পশুতে পিণ্ড হইল । ১৯ তখন মন্ত্রবেত্তারা ফরেীণকে কহিল, এ ঈশ্বরের অঙ্গুলি। তথাপি ফরোণের হৃদয় কঠিন হইল, তিনি তাহদের কথায় মনোযোগ করিলেন না ; যেমন সদাপ্রভু বলিয়াছিলেন। আর সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি প্রত্যুষে উঠিয়া গিয়া ফরেীণের সম্মুখে দাড়াও ; দেখ, সে জলের কাছে আসিবে ; তুমি তাহাকে এই কথা বল, সদাপ্রভু এই কথা কহেন, আমার সেব করণার্থে ২১ আমার প্রজাদিগকে ছাড়িয়া দেও। যদি আমার >W。 ২০ 53 G 8 প্রজাদিগকে ছাড়িয়া না দেও, তবে দেখ, আমি তোমাতে, তোমার দাসগণে, প্রজাদিগেতে ও গৃহ সকলে দংশকের বাক প্রেরণ করব ; মিশ্রীয়দের গৃহ সকল, এমন কি, তাহদের বাসভূমিও দংশকে ২২ পরিপূর্ণ হইবে। কিন্তু আমি সেই দিন আমার প্রজাদের নিবাসস্থান গোশন প্রদেশ ভিন্ন করিব : সে স্থানে দংশক হইবে না ; যেন তুমি জানিতে পার ২৩ যে, পৃথিবীর মধ্যে আমিই সদাপ্রভু। আমি আমার প্রজাদের ও তোমার প্রজাদের মধ্যে প্রভেদ করিব : ২৪ কল্য এই চিহ্ন হইবে। পরে সদাপ্রভু সেইরূপ করিলেন, ফরেণের ও তাহার দাসগণের গৃহে দংশকের বৃহৎ কাক উপস্থিত হইল ; তাহাতে সমস্ত মিসর দেশে দংশকের বাক হেতু দেশ উৎসন্ন হইল। তখন ফরেীণ মোশি ও হারোণকে ডাকাইয়৷ কহিলেন, তোমরা যাও, দেশের মধ্যে তোমাদের ২৬ ঈশ্বরের উদ্দেশে যজ্ঞ কর। মোশি কহিলেন, তাহ করা উপযুক্ত নয়, কেননা আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর উদ্দেশে মিশ্রীয়দের ঘৃণাজনক বলিদান করিতে হইবে ; দেখুন, মিশ্ৰীয়দের সাক্ষাতে তাহীদের ঘুণীজনক বলিদান করিলে তাহারী কি আমাদিগকে ২৭ প্রস্তরাঘাতে বধ করিবে না ? আমরা তিন দিনের পথ প্রান্তরে গিয়া, আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু যে আজ্ঞা দিবেন, তদনুসারে তাহার উদ্দেশে যজ্ঞ করিব । ২৮ ফরেীণ কহিলেন, আমি তোমাদিগকে ছাড়িয় দিতেছি, তোমরা প্রান্তরে গিয়া আপন ঈশ্বর সদাপ্রভুর উদ্দেশে যজ্ঞ কর ; কিন্তু বহুদূর বাইও না ; ২৯ তোমরা আমার জন্ত বিনতি কর । তখন মেশি কহিলেন, দেখুন, আমি আপনকার নিকট হইতে গিয়৷ সদাপ্রভুর কাছে বিনতি করিব, তাহাতে ফরোণের তাহার দাসগণের ও তাহার প্রজাদের নিকট হইতে কল্য দংশকের বাক সকল দূরে যাইবে ; কিন্তু সদাপ্রভুর উদ্দেশে যজ্ঞ করণাথে লোকদিগকে ছাড়িয় দিবার বিষয়ে ফরেীণ পুনৰ্ব্বার প্রবঞ্চন না করুন। ৩০ পরে মোশি ফরোণের নিকট হইতে বাহিরে গিয়৷ ৩১ সদাপ্রভুর কাছে বিনতি করিলেন। তার সদাপ্রভু মেশির বাক্যানুসারে করিলেন ; ফরেীণ, তাহার দাসগণ ও প্রজ। সকল হইতে দংশকের সমস্ত বাক দূর ৩২ করিলেন ; একটাও অবশিষ্ট রহিল না। আর এবারও ফরেীণ অপেন হৃদয় ভারী করিলেন, লোকদিগকে ছাড়িয়া দিলেন না । ミQ পঞ্চম, ষষ্ঠ ও সপ্তম আঘাত । > ." "マ মেশিকে কহিলেন, তুমি ফরেণের নিকটে গিয় তাহকে বল, সদাপ্রভু, ইব্রীয়দের ঈশ্বর, এই কথা কহেন, আমার সেবী করণীখে ২ আমার প্রজাদিগকে ছাড়য়া দেও। যদি তাহাদিগকে যাত্রীপুস্তক । ছাড়িয়া দিতে অসন্মত হও, এখনও বাধা দেও, তবে [ ৮ ; ২২ – ৯ ; ১৯ । ৩ দেখ, ক্ষেত্রস্থ তোমার পশুধনের উপর, অশ্বদের, গর্দভদের, উzদের, গোপালের ও মেষপালের উপর সদাপ্রভুর ৪ হস্ত রহিয়াছে; ভারী মহামারী হইবে। কিন্তু সদাপ্রভু ইত্ৰীয়েলের পশুতে ও মিসরের পশুতে প্রভেদ করিবেন : তাহাতে ইস্রায়েল-সন্তানদের কোন পশু মরিবে ৫ ন । আর সদাপ্রভু সময় নিরূপণ করিয়া কহিলেন, ৬ কল্য সদাপ্রভু দেশে এই কৰ্ম্ম করিবেন। পরদিন সদাপ্রভু তাহাই করিলেন, তাহাতে মিসরের সকল পশু মরিল, কিন্তু ইস্রায়েল-সন্তানদের পশুদের মধ্যে ৭ একটাও মরিল না। তখন ফরেীণ লোক পাঠাইলেন, তার দেখ, ইস্রায়েলের একটী পশুও মরে নাই : তথাপি ফরেীণের হৃদয় ভারী হইল, এবং তিনি লোকদিগকে ছাড়িয়া দিলেন না । পরে সদাপ্রভু মোশি ও হারোণকে কহিলেন, তোমরা মুষ্টি পূর্ণ করিয় ভাটীর ভষ্ম লও, পরে মোশি ফরেীণের সাক্ষাতে তাহ আকাশের দিকে ছড়াইয়৷ ৯ দিউক । তাহ সমস্ত মিসর দেশব্যাপী সূক্ষ্ম ধূলি হইয়৷ মিসর দেশের সবত্র মনুষ্য ও পশুদের গাত্রে ক্ষতযুক্ত ১০ স্ফোটক জন্মাহবে । তখন তাহারা ভাটীর ভস্ম লইয়। ফরেীণের সম্মুখে দাড়াইলেন, এবং মোশি আকাশের দিকে তাহ ছড়াইয়া দিলেন, তাহাতে মনুষ্যদের ও ১১ পশুদের গাত্রে ক্ষতযুক্ত স্ফোটক হইল । সেই স্ফোটক প্রযুক্ত মন্ত্রবেত্তারা মোশির সম্মুখে দাড়াইতে পারিল ন, কারণ মন্ত্রবেত্তাদের ও সমস্ত মিশ্ৰীয়ের গাত্রে ১২ স্ফোটক জন্মিল। আর সদাপ্রভু ফরেীণের হৃদয় কঠিন করিলেন ; তিনি তাহদের কথায় মনোযোগ করিলেন ন, যেমন সদাপ্রভু মোশিকে বলিয়াছিলেন। পরে সদা ভু মোশিকে কহিলেন, তুমি প্রত্যুষে উঠিয়া ফরেণের সম্মুখে দাড়াইয়া তাহাকে এই কথা বলিও, সদাপ্রভু, ইব্রীয়দের ঈশ্বর, এই কথা কহেন, আমার সেবা করণার্থে আমার প্রজাদিগকে ছাড়িয়া ১৪ দেও ; নতুবা এই বার আমি তোমার হৃদয়ের বিরুদ্ধে এবং তোমার দাসগণের ও প্রজাদের মধ্যে আমার সর্বপ্রকার আঘাত প্রেরণ করিব ; যেন তুমি জানিতে পার, সমস্ত পৃথিবীতে আমার তুল্য কেহই নাই । ১৫ কেননা এত দিন আমি আপন হস্ত বিস্তার করিয়া মহামারী দ্বারা তোমাকে ও তোমার প্রজাদিগকে আঘাত করিতে পারিতাম : তাহা করিলে তুমি পৃথিবী হইতে ১৬ উচ্ছিন্ন হইতে । কিন্তু বাস্তবিক আমি এই জন্তই তোমাকে স্থাপন করিয়াছি, যেন আমার প্রভাব তোমাকে দেখাই ও সমস্ত পৃথিবীতে আমার নাম ১৭ কীৰ্ত্তিত হয়। এখনও তুমি আমার প্রজাগণের উপর দৰ্প করিয়া তাহাদিগকে ছাড়িয়া দিতে চাহিতেছ না। ১৮ দেখ, মিসরের পত্তনাবধি অদ্য পৰ্য্যন্ত যাদৃশ কখন হয় নাই, এমন অতিশয় ভারী শিলাবৃষ্টি আমি কল্য এই ১৯ সময়ে বর্ষাইব । অতএব তুমি এখন লোক পাঠাইয়া ক্ষেত্রে তোমার পশু ও আর যাহ। কিছু আছে, সে সকল ত্বরায় আনাও ; যে মনুষ্য ও পশু গৃহমধ্যে bo yo 54 =o ; २० -- > ० ; >२ । ] আনীত না হইয়া ক্ষেত্রে থাকিবে, তাহদের উপরে ২০ শিলাবৃষ্টি হইবে, আর তাহারা মরিবে। তথন ফরেীণের দাসগণের মধ্যে যে কেহ সদাপ্রভুর বাক্যে ভীত হইল, সে শীঘ্র আপন দাস ও পশুদিগকে গৃহমধ্যে ২১ আনিল ; আর যে কেহ সদাপ্রভুর বাক্যে মনোযোগ করিল না, সে আপন দাস ও পশুদিগকে ক্ষেত্রে থাকিতে দিল । পরে সদাপ্ৰভু মেশিকে কহিলেন, তুমি আকাশের দিকে আপন হস্ত বিস্তার কর, তাহাতে মিসর দেশের সৰ্ব্বত্র শিলাবৃষ্টি হইবে, মিসর দেশের মনুষ্য, পশু ও ২৩ ক্ষেত্রস্থ সমস্ত ওষধির উপরে তাহ হইবে। পরে মোশি আপন যষ্টি আকাশের দিকে বিস্তার করিলে সদাপ্রভু মেঘগর্জন করাইলেন, ও শিলাবৃষ্টি বর্ষাইলেন, এবং অগ্নি ভূমির উপরে বেগে আসিয়া পড়িল; এইরূপে ২৪ সদাপ্রভু মিসর দেশে শিলাবৃষ্টি বর্ষাইলেন। তাহাতে শিলা, এবং শিলার সহিত মিশ্রিত অগ্নিবৃষ্টিও হওয়াতে তাহ৷ অতি দুঃসহ হইল ; এরূপ শিলাবৃষ্টি মিসর দেশে ২৫ রাজ্য স্থাপনাবধি কখনও হয় নাই । তাহাতে সমস্ত মিসর দেশের ক্ষেত্রস্থ মনুষ্য ও পশু সকলই শিলা দ্বার আহত হইল, ও ক্ষেত্রের সমস্ত ওষধি শিলাবৃষ্টি দ্বারা আহত হইল, আর ক্ষেত্রের সমস্ত বৃক্ষ ভগ্ন হইল। ২৬ কেবল ইস্রায়েল-সন্তানদের বাসস্থান গোশন প্রদেশে শিলাবৃষ্টি হইল না। পরে ফরেীণ লোক পাঠাইয়া মোশি ও হারোণকে ডাকাইয়া কহিলেন, এই বার আমি পাপ করিয়াছি ; সদাপ্রভু ধৰ্ম্মময়, কিন্তু আমি ও আমার প্রজার ২৮ দোষী। তোমরা সদাপ্রভুর কাছে বিনতি কর ; দেবগজ্জন ও শিলাবৃষ্টি যথেষ্ট হইয়াছে ? আমি তোমাদিগকে ছাড়িয়া দিব, তোমাদের আর বিলম্ব ২৯ হইবে না। তখন মোশি তাহাকে কহিলেন, আমি নগর হইতে বাহিরে গিয়াই সদাপ্রভুর দিকে অঞ্জলি বিস্তার করিব, তাহাতে মেঘগজ্জন নিবৃত্ত হইবে ও শিলাবৃষ্টি আর হইবে না, যেন আপনি জানিতে ৩০ পারেন যে, পৃথিবী সদাপ্রভুরই। কিন্তু আমি জানি, আপনি ও আপনার দাসগণ, আপনার এখনও সদা৩১ প্রভু ঈশ্বর হইতে ভীত হইবেন না। তৎকালে মসিন ও যব সকলই আহত হইল, কেনন। যব শীঘযুক্ত ও ৩২ মসিন পুষ্পিত হইয়াছিল। কিন্তু গোম ও জনার বড় ৩৩ না হওয়াতে আহত হইল না। পরে মোশি ফরেীণের নিকট হইতে নগরের বাহিরে গিয়া সদাপ্রভুর দিকে অঞ্জলি বিস্তার করিলেন, তাহাতে মেঘগজ্জন ও শিল্যপতন নিবৃত্ত হইল, এবং ভূমিতে আর জলধার ৩৪ বর্ষিল না । তখন বৃষ্টি, শিলাপাত ও মেঘগজ্জন নিবৃত্ত দেখিয়া ফরেীণ আরও পাপ করিলেন, তিনি ও তাহার ৩৫ দাসগণ আপন আপন হৃদয় ভারী করিলেন । আর ফরেীণের হৃদয় কঠিন হওয়াতে তিনি ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে যাইতে দিলেন না; যেমন সদাপ্রভু মোশি দ্বারা বলিয়াছিলেন । 3 R 글 যাত্রীপুস্তক । Go Go অষ্টম ও নবম আঘাত । S ο পরে সুদীপ্ৰভু মোশিকে কহিলেন, তুমি ফারণের নিকটে যাও ; কেননা আমি তাহার ও তাহার দাসগণের হৃদয় ভারী করিলাম, যেন আমি তাহাদের মধ্যে আমার এই সকল চিহ্ন প্রদর্শন করি, ২ এবং আমি মিস্ত্রীয়দের প্রতি যাহা যাহা করিয়াছি, ও তাহদের মধ্যে আমার যে যে চিহ্ন-কাৰ্য্য করিয়াছি, তাহার বৃত্তান্ত যেন তুমি আপন পুত্রের ও পৌত্রের কর্ণগোচরে বল, এবং আমি যে সদাপ্রভু, ইহা তোমর ৩ জ্ঞাত হও । তখন মোশি ও হারেীণ ফরোণের নিকটে গিয়া কহিলেন, সদাপ্রভু, ইব্রীয়দের ঈশ্বর, এই কথা কহেন, তুমি আমার সম্মুখে নম্র হইতে কত কাল অসন্মত থাকিবে ? আমার সেবা করণার্থে আমার ৪ প্রজাদিগকে ছাড়িয়া দেও। কিন্তু যদি আমার প্রজাদিগকে ছাড়িয়া দিতে অসম্মত হও, তবে দেখ, আমি ৫ কল্য তোমার সীমাতে পঙ্গপাল আনিব। তাহারা ভূতল এমন আচ্ছন্ন করিবে যে, কেহ ভূমি দেখিতে পাইবে না; এবং শিলাবৃষ্টি হইতে রক্ষিত ও অবশিষ্ট তোমাদের যাহা কিছু আছে, তাহ তাহার। খাইয়া ফেলিবে, এবং ৬ ক্ষেত্রোৎপন্ন তোমাদের বৃক্ষ সকলও থাইবে । আর তোমার গৃহ ও তোমার সমস্ত দাসের গৃহ ও সমস্ত মিশ্ৰীয় লোকের গৃহ সকল পরিপূর্ণ হইবে ; পৃথিবীতে তোমার পিতৃপুরুষদের ও তাহদের পিতৃপুরুষদের জন্মাবধি অদ্য পৰ্য্যন্ত কখনও তদ্রুপ দেখা যায় নাই । তখন তিনি মুখ ফিরাইয় ফরেণের নিকট হইতে বাহির গেলেন । ৭ আর ফরেীণের দাসগণ র্তাহাকে কহিল, এ ব্যক্তি কত কাল আমাদের ফাদ হইয়া থাকিবে ? এই লোকদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর সেবা করণার্থে ইহাদিগকে ছাড়িয়া বিউন ; আপনি কি এখনও বুঝিতেছেন না যে, ৮ মিসর দেশ ছারখার হইল ? তথন মোশি ও হারোণ ফরেীণের নিকটে পুনকবার আনীত হইলেন ; আর তিনি তাহাদিগকে কহিলন, যাও, তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর সেবা কর গিয়া ; কিন্তু কে কে যাইবে ? ৯ মোশি কহিলেন, আমরা আমাদের শিশু ও বৃদ্ধদিগকে, আমাদের পুত্রকন্যাগণকে এবং গো-মষাদি পালও সঙ্গে লইয়। যাইব, কেননা সদাপ্রভুর উদেশে আমাদের ১০ উৎসব করিতে হইবে । তখন ফরেীণ তাহাদিগকে কহিলেন, সদাপ্রভু তোমাদের সেইরূপ সহবৰ্ত্তী হউন, যেরূপ আমি তোমাদিগকে ও তোমাদের শিশুগণকে ১১ ছাড়িয়া দিব ; দেখ, অনিষ্ট তোমাদের সম্মুখে। তাহ। হইবে না ; তোমাদের পুরুষের গিয়া সদাপ্রভুর সেব করুক ; কারণ তোমরা ত ইহাই চাহিতেছ। পরে তাহারা ফরেণের সম্মুখ হইতে দূরীকৃত হইলেন। ১২ পরে সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি দেশের উপরে পঙ্গপলির জন্ত হস্ত বিস্তার কর, তাহাতে তাহার মিসর দেশে আসিয়া ভূমির সমস্ত 55 ○ ○ ওষধি খাইবে, শিলাবৃষ্টি যাহা কিছু রাখিয়া গিয়াছে, ১৩ সকলই খাইবে । তখন মোশি মিসর দেশের উপরে আপন যষ্টি বিস্তার করিলেন, তাহাতে সদাপ্রভু সমস্ত দিন ও সমস্ত রাত্রি দেশে পূৰ্ব্বীয় বায়ু বহাইলেন ; আর প্রাতঃকাল হইলে পূৰ্ব্বীয় বায়ু পঙ্গপাল উঠাইয় ১৪ আনিল। তাহাতে সমুদয় মিসর দেশের উপরে পঙ্গপাল ব্যাপ্ত হইল ; ও মিসরের সমস্ত সীমাতে পঙ্গপাল পড়িল । তাহ অত্যন্ত ভয়ানক হইল ; তদ্রুপ পঙ্গপাল পুৰ্ব্বে কখনও হয় নাই, এবং পরেও কখনও হইবে না। ১৫ তাহারা সমস্ত ভূমিতল আচ্ছন্ন করিল, তাহাতে দেশ অন্ধকার হইল, এবং ভূমির যে ওষধি ও বৃক্ষাদির যে ফল শিলাবৃষ্টি হইতে রক্ষা পাইয়াছিল, সে সমস্ত তাহারা খাইয়া ফেলিল , সমস্ত মিসর দেশে বৃক্ষ বা ক্ষেত্রের ওষধি, হরিদ্বর্ণ কিছুই রহিল না। তখন ফরেীণ সত্বর মোশি ও হারোণকে ডাকাইয়৷ কহিলেন, আমি তোমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর বিরুদ্ধে ও ১৭ তোমাদের বিরুদ্ধে পাপ করিয়াছি। বিনয় করি, কেবল এই বার আমার পাপ ক্ষমা কর, এবং আম৷ হইতে এই কালস্বরূপকে দূর করিবার জন্য তোমাদের ১৮ ঈশ্বর সদাপ্রভুর কাছে বিনতি কর। তখন তিনি ফরোণের নিকট হইতে বাহিরে গিয়া সদাপ্রভুর কাছে ১৯ বিনতি করিলেন ; আর সদাপ্রভু অতি প্রবল পশ্চিম বায়ু আনিলেন : তাহ পঙ্গপালদিগকে উঠাইয়া লইয়া সূফসাগরে তাড়াইয়। দিল, তাহাতে মিসরের ২০ সমস্ত সীমাতে একটাও পঙ্গপাল থাকিল না। কিন্তু সদাপ্রভু ফরোণের হৃদয় কঠিন করিলেন, আর তিনি ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে ছাড়িয়া দিলেন না। পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি আকাশের দিকে হস্ত বিস্তার কর; তাহাতে মিসর দেশে অন্ধকার ২২ হইবে, ও সেই অন্ধকার স্পর্শনীয় হইবে। পরে মোশি আকাশের দিকে হস্ত বিস্তার করিলে তিন দিন পর্য্যন্ত ২৩ সমস্ত মিসর দেশে গাঢ় অন্ধকার হইল। তিন দিন পৰ্য্যন্ত কেহ কাহাকেও দেখিতে পাইল না, এবং কেহ আপন স্থান হইতে উঠিল না ; কিন্তু ইস্রায়েল-সন্তান সকলের নিমিত্তে তাহদের বাসস্থানে আলো ছিল । তখন ফরেীণ মোশিকে ডাকাইয়। কহিলেন, যাও, সদাপ্রভুর সেবা কর গিয়া ; কেবল তোমাদের মেষপাল ও গোপাল থাকুক ; তোমাদের শিশুগণও তোমাদের ২৫ সঙ্গে যাউক । মোশি কহিলেন, আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর উদ্দেশে উৎসর্গ করশার্থে আমাদের হস্তে বলি ও হোমদ্রব্য সমর্পণ করা আপনার কর্তব্য । ২৬ আমাদের সহিত আমাদের পশুগণও যাইবে, একটী খুরও অবশিষ্ট থাকিবে না ; কেননা আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর সেবাথে তাহদের মধ্য হইতে বলি লইতে হইবে, এবং কি কি দিয়া সদাপ্রভুর সেবা করিব, তাহ সে স্থানে উপস্থিত না হইলে আমরা জানিতে পারি >W。

  • >

之8 যাত্রাপুস্তক । ২৭ না। কিন্তু সদাপ্রভু ফরোণের হৃদয় কঠিন করিলেন, [ > o 3 >○ー > a 5 ○ l ২৮ না। তখন ফরেীণ তাহাকে কহিলেন, আমার সম্মুখ হইতে দূর হও ; সাবধান, আমার মুখ আর কখনও দেখিও না ; কেননা যে দিন আমার মুখ দেখিবে, সেই ২৯ দিন মরিবে । মোশি কহিলেন, ভালই বলিয়াছেন, আমি আপনার মুখ আর কখনও দেখিব না। SS আর সদাপ্রভু মোশিকে বলিলেন, আমি ফরেীণের ও মিসরের উপরে আর এক উৎপাত আনিব, তৎপরে সে তোমাদিগকে এ স্থান হইতে ছাড়িয়া দিবে, এবং ছাড়িয়া দিবার সময়ে তোমাদিগকে নিশ্চয়ই এখান হইতে একেবারে তাড়াইয়া দিবে। ২ তুমি লোকদের কর্ণগোচরে বল, আর প্রত্যেক পুরুষ আপন আপন প্রতিবাসী হইতে, ও প্রত্যেক স্ত্রী অপেন আপন প্রতিবাসিনী হইতে রৌপ্যালঙ্কার ও স্বর্ণালঙ্কার ৩ চাহিয়া লউক । আর সদাপ্রভু মিশ্ৰীয়দের দৃষ্টিতে লোকদিগকে অনুগ্রহের পাত্র করিলেন । আবার মিসর দেশে মোশি ফরোণের দাসদের ও প্রজাদের দৃষ্টিতে অতি মহান ব্যক্তি হইয়া উঠিলেন । ৪ মোশি আরও কহিলেন, সদাপ্রভু এই কথা কহেন, আমি অৰ্দ্ধরাত্রে মিসরের মধ্য দিয়া গমন করিব । ৫ তাহাতে সিংহাসনে উপবিষ্ট ফরেীণের প্রথমজাত অবধি র্যাত পেষণকারিণী দাসীর প্রথমজাত পৰ্য্যন্ত মিসর দেশস্থিত সকল প্রথমজাত মরিবে, এবং পশু৬ দেরও সকল প্রথমজাত মরিবে। আর যাদৃশ কখনও হয় নাই ও হইবে না, সমস্ত মিসর দেশে এমন মহা৭ ক্ৰন্দন হইবে । কিন্তু সমস্ত হস্রায়েল-সন্তানের মধ্যে মনুষ্যের কি পশুর বিরুদ্ধে একটা কুকুরও জিহব৷ দোলাইবে না, যেন আপনার জানিতে পারেন যে, সদাপ্রভু মিশ্ৰীয়দিগেতে ও ইস্রায়েলে প্রভেদ করেন। ৮ আর আপনার এই দাসের সকলে আমার নিকটে নামিয়া আসিবে, ও প্ৰণিপাত করিয়া আমাকে বলিবে, তুমি ও তোমার অনুগামী সকল প্রজা বাহির হও ; তাহার পর আমি বাহির হইব। তখন তিনি মহা ক্রোধভরে ফরোণের নিকট হইতে বাহিরে গেলেন । ৯ আর সদাপ্রভু মোশিকে বলিয়াছিলেন, ফরেীণ তোমাদের কথায় মনোযোগ করিবে না, যেন মিসর ১০ দেশে আমার অদ্ভুত লক্ষণ বহুসংখ্যক হয়। ফলে মোশি ও হারেীণ ফরেণের সাক্ষাতে এই সকল অদ্ভুত কৰ্ম্ম করিয়াছিলেন ; আর সদাপ্রভু ফরোণের হৃদয় কঠিন করিলেন, আর তিনি আপন দেশ হইতে ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে ছাড়িয়া দিলেন না। নিস্তারপৰ্ব্ব স্থাপন। ঈশ্বরীয় দশম আঘাত । আর মিসর দেশে সদাপ্রভু মোশি ও হারোণকে কহিলেন, এই মাস তোমাদের আদি মাস হইবে : ১২ আর তিনি তাহাদিগকে ছাড়িয়া দিতে সম্মত হইলেন । ৩ বৎসরের সকল মাসের মধ্যে প্রথম হইবে । সমস্ত 56 * & ; 8ー○ I ] ইস্রায়েল-মণ্ডলীকে এই কথা বল, তোমরা এই মাসের দশম দিনে তোমাদের পিতৃকুলানুসারে প্রত্যেক গৃহস্থ এক এক বাটীর জন্ত এক একটী মেষশাবক লইবে । ৪ আর মেষশাবক ভোজন করিতে যদি কাহারও পরিজন অল্প হয়, তবে সে ও তাহার গৃহের নিকটবৰ্ত্তী প্রতিবাসী প্রাণিগণের সংখ্যানুসারে একটী মেষশাবক লইবে । তোমরা এক এক জনের ভোজনশক্তি অনুসারে ৫ মেষশাবকের জন্ত গণনা করিবে । তোমাদের সেই শাবকট নির্দোষ ও প্রথম বৎসরের পুংশাবক হইবে ; তোমরা মেষপালের কিম্বা ছাগপালের মধ্য হইতে ৬ তাহ লইবে ; আর এই মাসের চতুর্দশ দিন পর্য্যন্ত রাখিবে ; পরে ইস্রায়েল-মণ্ডলীর সমস্ত সমাজ সন্ধ্যা৭ কালে সেই শাবকট হনন করবে। আর তাহারা তাহার কিঞ্চিৎ রক্ত লইবে, এবং যে যে গৃহমধ্যে মেঘশাবক ভোজন করিবে, সেই সেই গৃহের দ্বারের দুই বাজুতে ৮ ও কপালীতে তাহ লেপিয়া দিবে। পরে সেই রাত্রিতে তাহার মাংস ভোজন করিবে ; অগ্নিতে দগ্ধ করিয়া তাড়াশুন্ত রুট ও তিক্ত শাকের সহিত তাহ ভোজন ৯ করিবে । তোমরা তাহার মাংস কাচ কিম্ব জলে সিদ্ধ করিয়া খাইও না, কিন্তু অগ্নিতে দগ্ধ করিও ; ১০ তাহার মুণ্ড, জঙ্ঘ ও অন্তরস্থ ভাগ । আর প্রাতঃকাল পৰ্য্যন্ত তাহার কিছুই রাখিও না ; কিন্তু প্রাতঃকাল পৰ্য্যন্ত যাহ অবশিষ্ট থাকে, তাহ অগ্নিতে পোড়াইয়৷ ফেলিও । আর তোমরা এইরূপে তাহ ভোজন করিবে: কটিবন্ধন করিবে, চরণে পাদুকা দিবে, হস্তে যষ্টি লইবে ও ত্বরান্বিত হইয় তাহ ভোজন করিবে ; ইহা ১২ সদাপ্রভুর নিস্তারপৰ্ব্ব । কেনন। সেই রাত্রিতে আমি মিসর দেশের মধ্য দিয়া যাইব, এবং মিসর দেশস্থ মনুষ্যের ও পশুর যাবতীয় প্রথমজাতকে আঘাত করিব, এবং মিসরের যাবতীয় দেবের বিচার করিয়৷ ১৩ দণ্ড দিব ; আমিই সদাপ্রভু। অতএব তোমরা যে যে গৃহে থাক, তোমাদের পক্ষে ঐ রক্ত চিহ্নস্বরূপে সেই সেই গৃহের উপরে থাকিবে ; তাহাতে আমি যখন মিসর দেশকে আঘাত করিব, তখন সেই রক্ত দেখিলে তোমাদিগকে ছাড়িয়া অগ্ৰে যাইব, সংহারের ১৪ আঘাত তোমাদের উপরে পড়িবে না। আর এই দিন তোমাদের স্মরণীয় হইবে, এবং তোমরা এই দিনকে সদাপ্রভুর উৎসব বলিয়া পালন করিবে ; পুরুষানুক্রমে চিরস্থায়ী বিধিমতে এই উৎসব পালন করিবে । ১৫ তোমরা সাত দিন তাড়াশুন্য রুট খাইবে ; প্রথম দিনেই আপন আপন গৃহ হইতে তাড়ী দুর করিবে, কেননা যে কেহ প্রথম দিন হইতে সপ্তম দিন পর্য্যন্ত তাড়ীযুক্ত ভক্ষ্য খাইবে, সেই প্রাণী ইস্রা১৬ য়েল হইতে উচ্ছিন্ন হইবে। আর প্রথম দিনে তোমাদের পবিত্র সভা হইবে, এবং সপ্তম দিনেও তোমাদের পবিত্র সভা হইবে ; সেই দুই দিন প্রত্যেক প্রাণীর থাদ্য আয়োজন ব্যতিরেকে অন্ত কোন কৰ্ম্ম করিবে না, C X যাত্রীপুস্তক । С а ১৭ কেবল সেই কৰ্ম্ম করিতে পরিবে। এইরূপে তোমরা তাড়াশুন্য রুটার পর্ব পালন করিবে, কেননা এই দিনে আমি তোমাদের বাহিনীদিগকে মিসর দেশ হইতে বাহির করিয়া আনিলাম ; অতএব তোমরা পুরুষানুক্রমে চিরস্থায়ী বিধিমতে এই দিন পালন করিবে । তোমরা প্রথম মাসের চতুর্দশ দিনের সন্ধ্যাকাল হইতে একবিংশ দিনের সন্ধ্যাকাল পর্য্যন্ত তাড়াশুন্য ১৯ রুটা ভোজন করিও। সাত দিন তোমাদের গৃহে যেন তাড়ীর লেশ না থাকে ; কেননা কি প্রবাসী কি দেশজাত, যে কোন প্রাণী তাড়ীমিশ্রিত দ্রব্য খাইবে, সে ২০ ইস্রায়েল-মণ্ডলী হইতে উচ্ছিন্ন হইবে । তোমরা তাড়ীযুক্ত কোন দ্রব্য খাইও না ; তোমরা আপনাদের সমস্ত বাসস্থানে তাড়াশূন্ত রুট খাইও । তখন মোশি হস্রায়েলের সমস্ত প্রাচীনবর্গকে ডাকাইয়া কহিলেন, তোমরা আপন আপন গোষ্ঠী অনুসারে এক একটা মেঘশাবক বাহির করিয়া লও, নিস্তার২২ পৰ্ব্বীয় বলি হনন কর । আর এক আটি এসেবে লইয়। ডাবরে স্থিত রক্তে ডুবাইয়। দ্বারের কপালীতে ও দুই বাজুতে ডাবরে স্থিত রক্তের কিঞ্চিৎ লাগাইয়া দিবে, এবং প্রভাত পৰ্য্যন্ত তোমরা কেহই গৃহদ্বারের ২৩ বাহিরে যাইবে না। কেননা সদাপ্রভু মিশ্ৰীয়দিগকে আঘাত করিবার জন্ত তোমাদের নিকট দিয়া গমন করিবেন, তাহাতে দ্বারের কপালীতেও দুই বাজুতে সেই রক্ত দেখিলে সদাপ্ৰভু সেই দ্বার ছাড়িয়া অগ্ৰে যাইবেন, তোমাদের গৃহে সংহারকর্তাকে প্রবেশ করিয়া আঘাত ২৪ করিতে দিবেন না। আর তোমরা ও যুগানুক্রমে তোমাদের সন্তানের বিধি বলিয়৷ এই রীতি পালন ২৫ করিবে। আর সদাপ্রভু আপন প্রতিজ্ঞানুসারে তোমাদিগকে যে দেশ দিবেন, সেই দেশে যখন প্রবিষ্ট হইবে, ২৬ তখনও এই সেবার অনুষ্ঠান করিবে । আর তোমাদের সন্তানগণ যখন তোমাদিগকে বলিবে, তোমাদের এই ২৭ সেবার তাৎপৰ্য্য কি ? তোমরা কহিবে, ইহা সদাপ্রভুর উদ্দেশে নিস্তারপববীয় যজ্ঞ, মিস্ত্রীয়দিগকে আঘাত করিবার সময়ে তিনি মিসরে ইস্রায়েল-সন্তানদের গৃহ সকল ছাড়িয়া অগ্ৰে গিয়াছিলেন, আমাদের গৃহ রক্ষা করিয়াছিলেন। তখন লোকের মস্তক নমনপূর্বক ২৮ প্ৰণিপাত করিল। পরে ইস্রায়েল-সন্তানের গিয়া, সদাপ্রভু মোশি ও হারোণকে যেরূপ আজ্ঞা করিয়াছিলেন, সেইরূপ করিল। পরে অৰ্দ্ধরাত্রে এই ঘটনা হইল, সদাপ্রভু সিংহাসনে উপবিষ্ট ফরেণের প্রথমজাত সন্তান অবধি কারাকুপস্থ বন্দির প্রথমজাত সন্তান পৰ্য্যন্ত মিসর দেশস্থ সমস্ত প্রথমজাত সন্তানকে ও পশুদের প্রথমজাত শাবক৩০ গণকে নিহনন করিলেন। তাহাতে ফরেীণ ও তাহার দাসগণ এবং সমস্ত মিশ্রীয় লোক রাত্রিতে উঠিল, এবং মিসরে মহাক্ৰন্দন হইল ; কেননা যে ঘরে কেহ মরে নাই, এমন ঘরই ছিল না। তখন রাত্রিকালেই ফরেীণ মোশি ও হারোণকে Sby マン చిన ○3 57 ○ デ যাত্রীপুস্তক । ডাকাইয়া কহিলেন, তোমরা উঠ, ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে লইয়। আমার প্রজাদের মধ্য হইতে বাহির হও, তোমরা যাও, তোমাদের কথানুসারে সদাপ্রভুর ৩২ সেবা কর গিয়া। তোমাদের কথানুসারে মেষপাল ও গোপাল সকল সঙ্গে লইয়৷ চলিয়া যাও, এবং ৩৩ আমাকেও আশীৰ্ব্বাদ কর । তখন লোকদিগকে শীঘ্র দেশ হইতে বিদায় করণার্থে মিশ্ৰীয়ের ব্যগ্র হইল : কেননা তাহার কহিল, আমরা সকলে মারা পড়িলাম । ৩৪ তাহাতে ময়দার তালে তাড়ী মিশাইবার পূৰ্ব্বে লোকের তাহা লইয়া কাঠুয়া সকল আপন আপন বস্ত্রে বাধিয় ৩৫ স্বন্ধে করিল। আর ইস্রায়েল-সন্তানের মোশির বাক্যানুসারে কার্য্য করিল ; ফলে তাহারা মিস্ট্রীয়দের ৩৬ কাছে রৌপ্যালঙ্কার, স্বর্ণালঙ্কার ও বস্ত্র চাহিল ; আর সদাপ্রভু মিস্ত্রীয়দের দৃষ্টিতে তাহাদিগকে অনুগ্রহপত্র করিলেন, তাই তাহারা যাহা চাহিল, মিশ্ৰীয়ের তাহাদিগকে তাহাই দিল। এইরূপে তাহারা মিশ্রীয়দের ধন হরণ করিল। মিসর হইতে ইস্রায়েলীয়দের যাত্রা। ৩৭ তখন ইস্রায়েল-সন্তানের বালক ছাড়া কমবেশ ছয় লক্ষ পদাতিক পুরুষ রামিষেষ হইতে স্থক্কোতে যাত্র ৩৮ করিল। আর তাহীদের সহিত মিশ্রিত লোকদের মহাজনত এবং মেষ ও গো, অতি বিস্তর পশু প্রস্থান ৩৯ করিল। পরে তাহারা মিসর হইতে আনীত ছান। ময়দার তাল দিয়া তাড়ীশূন্ত পিষ্টক প্রস্তুত করিল, কেননা তাহাতে তাড়ী মিশান হয় নাই, কারণ তাহার। মিসর হইতে বহিস্কৃত হইয়াছিল, সুতরাং বিলম্ব করিতে না পারাতে আপনাদের জন্ত খাদ্য দ্রব্য প্রস্তুত করে নাই । ৪০ ইস্রায়েল-সন্তানের চারি শত ত্রিশ বৎসর কাল ৪১ মিসরে প্রবাস করিয়াছিল। সেই চারি শত ত্রিশ বৎসরের শেষ, ঐ দিনে, সদাপ্রভুর সমস্ত বাহিনী মিসর ৪২ দেশ হইতে বাহির হইল। মিসর দেশ হইতে তাহাদিগকে বাহির করিয়৷ আন হেতু এ সদাপ্রভুর উদ্দেশে অতীব পালনীয় রাত্রি । সমস্ত ইস্রায়েল-সন্তানের পুরুষানুক্রমে এই রাত্ৰি সদাপ্রভুর উদ্দেশে অতীব পালনীয়। ৪৩ আর সদাপ্রভু মোশি ও হারোণকে কহিলেন, নিস্তারপববীয় বলির বিধি এই ; অন্য জাতীয় কোন ৪৪ লোক তাহ ভোজন করিবে না । কিন্তু কোন ব্যক্তির যে দাস রৌপ্য দ্বারা ক্রীত হইয়াছে, সে যদি ছিন্নত্বক ৪৫ হয়, তবে খাইতে পাহবে। প্রবাসী কিম্বা বেতনজীবী ৪৬ তাহ খাইতে পাইবে না। তোমরা এক গৃহমধ্যে তাহ। ভোজন করিও ; সেই মাংসের কিছুই গৃহের বাহিরে লহয়। যাইও না ; এবং তাহার এক অস্থিও ভগ্ন করিও ৪৭ না । সমস্ত হস্রায়েল-মণ্ডলী ইহা পালন করিবে । ৪৮ আর তোমার সহিত প্রবাসী কোন বিদেশী লোক যদি সদ্ধাপ্রভুর উদ্দেশে নিস্তারপক্ব পালন করিতে চাহে, ১ ২ ; ৩২ – ১৩ ; ১৩ । তবে সে নিজ পুরুষ পরিবারের সহিত ছিন্নত্বক হইয়। ইহ পালনার্থে আগমন করুক, সে দেশজাত লোকের তুল্য হইবে ; কিন্তু অচ্ছিন্নত্বক কোন লোক তাহ। ৪৯ ভোজন করিবে না । দেশজাত লোকের নিমিত্তে ও তোমাদের মধ্যে প্রবাসকারী বিদেশীয় লোকের নিমিত্তে একই বিধি হইবে। ৫• সমস্ত ইস্রায়েল-সন্তান সেইরূপ করিল, সদাপ্রভু মোশি ও হারোণকে যাহ আজ্ঞা করিয়াছিলেন, ৫১ তদনুসারেই করিল। এইরূপে সদাপ্রভু সেই দিন বাহিনীক্রমে ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে মিসর দেশ হইতে বাহির করিয়া আনিলেন । SS) পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, ইস্রায়েলসন্তানদের মধ্যে মনুষ্য হউক কিম্বা পশু হউক, গৰ্ত্ত উন্মোচক সমস্ত প্রথমজাত ফল আমার উদ্দেশে পবিত্র কর : তাহ আমারই । ও আর মোশি লোকদিগকে কহিলেন, এই দিন স্মরণে রাখিও, যে দিনে তোমরা মিসর হইতে, দাসগৃহ হইতে, বহির্গত হইলে, কারণ সদাপ্রভু পরাক্রান্ত হস্ত দ্বারা তথ হইতে তোমাদিগকে বাহির করিয়া আনিলেন ; কোন ৪ তাড়ীযুক্ত ভক্ষ্য খাওয়া হইবে না। আবীব মাসের এই ৫ দিনে তোমরা বাহির হইলে । আর কনানীয়, হিৰ্ত্তীয়, ইমোরীয়, হিববীয় ও বিবৃষীয়ের যে দেশ তোমাকে দিতে সদাপ্রভু তোমার পিতৃপুরুষদের কাছে দিব্য করিয়াছেন, সেই দুগ্ধমধুপ্রবাহী দেশে যখন তিনি তোমাকে আনিবেন, তখন তুমি এই মাসে এই সেবার ৬ অনুষ্ঠান করিবে। সাত দিন তাড়াশুন্য রুট খাইও, ও সপ্তম দিনে সদাপ্রভুর উদ্দেশে উৎসব করিও । ৭ সেই সাত দিন তাড়াশূন্ত রুট খাইতে হইবে, তোমার নিকটে তাড়াযুক্ত ভক্ষ্য দৃষ্ট না হউক, ৮ তোমার সমস্ত সীমার মধ্যে তাড়া দৃষ্ট না হউক। সেই দিনে তুমি আপন পুত্রকে ইহা জ্ঞাত করিও, মিসর হইতে আমার বাহির হইবার সময়ে সদাপ্রভু আমার ৯ প্রতি যাহা করিলেন, ইহ। সেই জন্ত । আর ইহা চিহ্নের জন্ত তোমার হস্তে ও স্মরণের জন্ত তোমার দুই চক্ষুর মধ্যস্থানে থাকিবে ; যেন সদাপ্রভুর ব্যবস্থা তোমার মুখে থাকে, কেননা সদাপ্রভু পরাক্রান্ত হস্ত দ্বারা মিসর ১০ হইতে তোমাকে বাহির করিয়াছেন। অতএব তুমি বৎসর বৎসর যথাসময়ে এই বিধি পালন করিবে । ১১ সদাপ্রভু তোমার কাছে ও তোমার পিতৃপুরুষদের কাছে যে দিব্য করিয়াছেন, তদনুসারে যখন কনানীয়ের দেশে প্রবেশ করাইয়া তোমাকে সেই দেশ দিবেন, ১২ তখন তুমি গৰ্ত্ত উন্মোচক সমস্ত প্রথম ফল সদাপ্রভুর নিকট উপস্থিত করিবে ; এবং তোমার পশুগণেরও সকল প্রথম গর্ভফলের মধ্যে পুংসন্তান সদাপ্রভুর হইবে । ১৩ আর গর্দভের প্রত্যেক প্রথম ফলের মুক্তির জন্ত তাহার পবিবৰ্ত্তে মেষশাবক দিবে ; যদি মুক্ত না কর, তবে তাহার গলা ভাঙ্গিবে ; তোমার পুত্ৰগণের মধ্যে মনুষ্যের প্রথমজাত সকলকে মুক্ত করিতে হইবে। 58 ১৩ ; ১৪ – ১ 8 ; ১৯ । ] আর তোমার পুত্ৰ ভাবিকালে যখন তোমাকে জিজ্ঞাসা করিবে, এ কি ? তুমি বলিবে, সদাপ্রভু পরাক্রান্ত হস্ত দ্বারা আমাদিগকে মিসর হইতে, দাস-গৃহ ১৫ হইতে, বাহির করিলেন। তৎকালে ফরেীণ আমাদিগকে ছাড়িয়া দিবার বিষয়ে নিষ্ঠুর হইলে সদাপ্রভু মিসর দেশে সমস্ত প্রথমজাত ফলকে, মনুষ্যের প্রথমজাত ও পশুর প্রথমজাত ফল সকলকে বধ করিলেন, এই নিমিত্তে আমি গৰ্ত্ত উন্মোচক পুংসন্তান সকলকে সদাপ্রভুর উদ্দেশে বলিদান করি, কিন্তু আমার প্রথমজাত পুত্র ১৬ সকলকে মুক্ত করি। ইহা চিহ্নস্বরূপ তোমার হস্তে ও ভূষণস্বরূপ তোমার দুই চক্ষুর মধ্যস্থানে থাকিবে, কেননা সদাপ্রভু পরাক্রান্ত হস্ত দ্বারা আমাদিগকে মিসর দেশ হইতে বাহির করিয়া আনিলেন । আর ফরেীণ লোকদিগকে ছাড়িয়া দিলে, পলেষ্টীয়দের দেশ দিয়া সোজা পথ থাকিলেও ঈশ্বর সেই পথে তাহাদিগকে চালাইলেন না, কেননা ঈশ্বর কহিলেন, যুদ্ধ দেখিল পাছে লোকের অনুতাপ করিয়া মিসরে ১৮ ফিরিয়া যায়। অতএব ঈশ্বর লোকদিগকে সুফসাগরের প্রান্তরময় পথ দিয়া গমন করাইলেন ; আর ইস্রায়েল-সন্তানের সসজ্জ হইয়া মিসর দেশ হইতে যাত্রা ১৯ করিল। আর মোশি যোষেফের অস্থি আপনার সঙ্গে লইলেন, কেনন। তিনি ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে দৃঢ় দিব্য করাইয়া বলিয়াছিলেন, ঈশ্বর অবশ্য তোমাদের তত্ত্বাবধান করিবেন, আর তোমরা আপনাদের সঙ্গে আমার অস্থি এ স্থান হইতে লইয়া যাইবে । ২০ পরে তাহারা সুকোৎ হইতে যাত্র করিয়া প্রান্তরের ২১ প্রান্তে স্থিত এথমে শিবির স্থাপন করিল। আর সদাপ্রভু দিবাতে পথ দেখাইবার জন্ত মেঘস্তস্তে থাকিয়া, এবং রাত্রিতে দীপ্তি দিবার জন্ত অগ্নিস্তন্তে থাকিয়৷ তাহাদের অগ্রে অগ্রে গমন করিতেন, যেন তাহার ২২ দিবারাত্র গমন করিতে পারে। লোকদের সম্মুখ হইতে দিবাতে মেঘস্তম্ভ ও রাত্রিতে অগ্নিস্তস্ত স্থানান্তর হইত ন৷ S8 আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে বল, তোমরা ফির, পী-হহীরোতের অগ্ৰে মিগৃদোলের ও সমুদ্রের মধ্যস্থলে বাল্‌সফোনের অগ্ৰে শিবির স্থাপন কর ; তোমর তাহার সম্মুখে সমুদ্রের নিকটে শিবির স্থাপন কর । ৩ তাহাতে ফরেীণ ইস্রায়েল-সন্তানদের বিষয়ে কহিবে, তাহার দেশের মধ্যে অবরুদ্ধ হইল, প্রান্তর তাহদের ৪ পথ রুদ্ধ করিল। আর আমি ফরেীণের হৃদয় কঠিন করিব, আর সে তোমাদের পশ্চাৎ পশ্চাৎ ধাবমান হইবে, এবং আমি ফরেীণ ও তাহার সমস্ত সৈন্ত দ্বার গৌরবান্বিত হইব ; আর মিশ্ৰীয়ের জানিতে পরিবে যে, আমিই সদাপ্রভু। তখন তাহার সেইরূপ করিল। ফরেীণের সৈন্তসামন্তের বিনাশ। ৫ পরে লোকের পলাইয়াছে, মিসর-রাজকে এই সংবাদ দেওয়৷ হইলে লোকদের বিষয়ে ফরেীণ ও তাহার > 8 › ዓ যাত্রীপুস্তক । Go y দাসগণের অন্তঃকরণ বিকারপ্রাপ্ত হইল ; তাহার। কহিলেন, আমরা এ কি করিলাম ? আমাদের দাসত্ব ৬ হইতে ইস্রায়েলকে কেন ছাড়িয়া দিলাম ? তখন তিনি আপন রথ প্রস্তুত করাইলেন, ও আপন লোক৭ দিগকে সঙ্গে লইলেন। আর মনোনীত ছয় শত রথ, এবং মিসরের সমস্ত রথ ও তৎসমুদয়ের উপরে নিযুক্ত ৮ সেনানীদিগকে লইলেন। আর সদাপ্রভু মিসর রাজ ফরেণের হৃদয় কঠিন করিলেন, তাহাতে তিনি ইস্রায়েল-সন্তানদের পশ্চাৎ পশ্চাৎ ধাবমান হইলেন ; তখন ইস্রায়েল-সন্তানের উদ্ধহস্তে বহির্গমন করিতে৯ ছিল। আর মিশ্ৰীয়ের, ফরেণের সকল অশ্ব ও রথ, এবং তাঁহার অশ্বারূঢ়গণ ও সৈন্ত্যগণ তাহী দর পশ্চাৎ পশ্চাৎ ধাবমান হইল ; আর উহার বালু-সফোনের সম্মুখে পী-হহীরোতের নিকটে সমুদ্র-তীরে শিবির স্থাপন করিলে তাহদের নিকটে উপস্থিত হইল। ফরেীণ যখন নিকটবৰ্ত্তী হইলেন, তখন ইস্রায়েলসন্তানের চক্ষু তুলিয়। চাহিল,আর দেখ, তাহদের পশ্চাৎ পশ্চাৎ মিশ্ৰীয়ের আসিতেছে । তাই তাহার। অতিশয় ভীত হইল, আর ইস্রায়েল-সন্তানের সদাপ্রভুর উদেশে ১১ ক্ৰন্দন করিল। আর তাহার মোশিকে কহিল, মিসরে কবর নাই বলিয়া তুমি কি আমাদিগকে লইয়৷ আসিলে, যেন আমরা প্রান্তরে মরিয়া যাই ? তুমি আমাদের সহিত এ কেমন ব্যবহার করিলে ? কেন ১২ আমাদিগকে মিসর হইতে বাহির করিলে ? আমরা কি মিসর দেশে তোমাকে এই কথা কহি নাই, আমাদিগকে থাকিতে দেও, আমরা মিশ্রীয়দের দাস্ত্যকৰ্ম্ম করি ? কেননা প্রান্তরে মরণাপেক্ষী মিশ্রীয়দের দাস্তকৰ্ম্ম ১৩ করা আমাদের মঙ্গল । তখন মোশি লোকদিগকে কহিলেন, ভয় করিও না, সকলে স্থির হইয়া দাড়াও । সদাপ্রভু অদ্য তোমাদের যে নিস্তার করেন, তাহ দেখ ; কেননা এই যে মিশ্ৰীয়দিগকে অদ্য দেখিতেছ, ইহা১৪ দিগকে আর কখনই দেখিবে না। সদাপ্রভু তোমাদের পক্ষ হইয়া যুদ্ধ করিবেন, তোমরা নীরব থাকিবে। পরে সদাপ্ৰভু মেশিকে কহিলেন, তুমি আমার কাছে কেন ক্ৰন্দন করিতেছ ? হস্রায়েল-সন্তানদিগকে ১৬ অগ্রসর হইতে বল। আর তুমি আপন যষ্টি তুলিয়৷ সমুদ্রের উপরে হস্ত বিস্তার কর, সমুদ্রকে দুই ভাগ কর ; তাহাতে ইস্রায়েল-সন্তানের শুষ্ক পথে সমুদ্রমধ্যে ১৭ প্রবেশ করবে। আর দেখ, আমিই মিশ্রীয়দের হৃদয় কঠিন করিব, তাহাতে তাহার। ইহাদের পশ্চাৎ প্রবেশ করিবে, এবং আমি ফরেণের, তাহীর সকল সৈন্তের, তাহার রথ সকলের ও তাহার অশ্বারূঢ়গণের দ্বারা ১৮ গৌরবান্বিত হইব । তার ফরে:ণ ও তাহার রথ সকল ও তাহার অশ্বারূঢ়গণ দ্বারা আমার গৌরবলভ হইলে মিশ্ৰীয়েরা জানিতে পারবে যে, আমিই সদাপ্রভু । তখন ইস্রায়েলীয় সৈন্তের অগ্রগামী ঈশ্বরের দূত সরিয়া গিয় তাহদের পশ্চাৎ গমন করিলেন, এবং মেঘস্তম্ভ তাহীদের অগ্র হইতে সরিয়া গিয়া তাহীদের > ● సి 59 А\pо ২• পশ্চাৎ দাড়াইল ; তাঁহ মিসরের শিবির ও ইস্রায়েলের শিবির, এই উভয়ের মধ্যে আসিল ; আর সেই মেঘ ও অন্ধকার থাকিল, তথাপি উহ। রাত্রিতে আলোক প্রদান করিল ; এবং সমস্ত রাত্রি এক দল অন্ত দলের ২১ নিকটে আসিল না । মোশি সমুদ্রের উপরে আপন হস্ত বিস্তার করিলেন, তাহাতে সদাপ্রভু সেই সমস্ত রাত্রি প্রবল পুৰ্ব্বীয় বায়ু দ্বারা সমুদ্রকে সরাইয়া দিলেন, ও তাহ শুষ্ক ভূমি করিলেন, তাহাতে জল দুই ভাগ ২২ হইল। আর ইস্রায়েল-সন্তানের শুষ্ক পথে সমুদ্রমধ্যে প্রবেশ করিল, এবং তাহদের দক্ষিণে ও বামে জল ২৩ প্রাচীরস্বরূপ হইল। পরে মিশ্ৰীয়ের, ফরেণের সকল অশ্ব ও রথ এবং অশ্বারূঢ়গণ ধাবমান হইয় তাহদের ২৪ পশ্চাৎ পশ্চাৎ সমুদ্রের মধ্যে প্রবেশ করিল। কিন্তু রাত্রির শেষ প্রহরে সদাপ্রভু অগ্নি ও মেঘস্তস্তে থাকিয়৷ মিশ্রীয়দের সৈন্তের উপরে দৃষ্টিপাত করিলেন, ও মিশ্রীয়২৫ দের সৈন্তাকে উদ্বিগ্ন করিলেন । আর তিনি তাহাদের রথের চক্র সরাইলেন, তাহাতে তাহারা অতি কষ্ট্রে রথ | চালাইল ; তখন মিশ্ৰীয়েরা কহিল, চল, আমরা ইস্রায়েলের সন্মুখ হইতে পলায়ন করি, কেননা সদাপ্রভু তাহাদের পক্ষে মিশ্রীয়দের বিপক্ষে যুদ্ধ করিতেছেন। পরে সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি সমুদ্রের উপরে হস্ত বিস্তার কর; তাহাতে জল ফিরিয়া মিশ্রীয়দের উপরে ও তাহদের রথের উপরে ও অশ্বারাঢ়দের ২৭ উপরে আসিবে। তখন মোশি সমুদ্রের উপরে হস্ত বিস্তার করিলেন, আর প্রাতঃকাল হইতে ন হইতে সমুদ্র পুনরায় সমান হইয় গেল ; তাহাতে মিশ্ৰীয়ের তাহার দিকেই পলায়ন করিল ; আর সদাপ্রভু সমুদ্রের ২৮ মধ্যে মিস্ত্রীয়দিগকে ঠেলিয়া দিলেন । জল ফিরিয়া আসিল, ও তাহদের রথ ও অশ্বারূঢ়দিগকে আচ্ছাদন করিল, তাহাতে ফরোণের যে সকল সৈন্ত তাহদের পশ্চাৎ সমুদ্রে প্রবিষ্ট হইয়াছিল, তাহদের এক জনও ২৯ অবশিষ্ট রহিল না। কিন্তু ইস্রায়েল-সন্তানের শুষ্ক পথে সমুদ্রের মধ্য দিয়া চলিল, এবং তাঁহাদের দক্ষিণে ও ৩০ বামে জল প্রাচীরস্বরূপ হইল। এইরূপে সেই দিন সদাপ্রভু মিস্ত্রীয়দের হস্ত হইতে ইস্রায়েলকে নিস্তার করিলেন, ও ইস্রায়েল মিশ্ৰীয়দিগকে সমুদ্রের ধারে মৃত ৩১ দেখিল । আর ইস্রায়েল মিশ্রীয়দের প্রতি কৃত সদাপ্রভুর মহৎ কৰ্ম্ম দেখিল ; তাহাতে লোকের সদাপ্রভুকে ভয় করিল, এবং সদাপ্রভুতে ও তাহার দাস মেশিতে বিশ্বাস করিল। ইস্রায়েলের বিজয়-সঙ্গীত । S(K তখন মোশি ও ইস্রায়েল-সন্তানের সদাপ্রভুর - উদ্দেশে এই গীত গান করিলেন ; তাহার বলিলেন, আমি সদাপ্রভুর উদ্দেশে গান করিব ; কেনন। তিনি মহামহিমান্বিত হইলেন, তিনি অশ্ব ও তদারোহীকে সমুদ্রে নিক্ষেপ করিলেন। ミも যাত্রীপুস্তক । [ > 8 ; २० – > G ; >१ ॥ ২ সদাপ্রভু আমার বল ও গান, তিনি আমার পরিত্রাণ হইলেন : এই আমার ঈশ্বর, আমি তাহার প্রশংসা করিব ; আমার পৈতৃক ঈশ্বর, আমি তাহার প্রতিষ্ঠা করিব । ৩ সদাপ্রভু যুদ্ধবীর ; সদাপ্রভু তাহার নাম । ৪ তিনি ফরেণের রথসমূহ ও সৈন্যদলকে সমুদ্রে নিক্ষেপ করিলেন ; তাহার মনোনীত সেনানিগণ সুফসাগরে নিমগ্ন হইল । ৫ জলরাশি তাহাদিগকে আচ্ছাদন করিল : তাহারা অগাধ জলে প্রস্তরবৎ তলাইয়া গেল । ৬ হে সদাপ্রভু, তোমার দক্ষিণ হস্ত বলে গৌরবান্বিত : হে সদাপ্রভু, তোমার দক্ষিণ হস্ত শক্রচুর্ণকারী। ৭ তুমি নিজ মহিমার মহত্ত্বে, যাহার তোমার বিরুদ্ধে উঠে, তাহাদিগকে নিপাত করিয়া থাক ; তোমার প্রেরিত কোপাগ্নি নাড়ার স্থায় তাহাদিগকে ভক্ষণ করে । ৮ তোমার নাসিকার নিশ্বাসে জল রাশীকৃত হইল : স্রোত সকল স্তুপের ন্তায় দণ্ডায়মান হইল ; সমুদ্র-গৰ্ত্তে জলরাশি ঘনীভূত হইল । ৯ শক্র বলিয়াছিল, আমি পশ্চাৎ ধাবিত হইব, উহাদের সঙ্গ ধরিব, লুট বিভাগ করিয়া লইব ; উহুদিগেতে আমার অভিলাষ পূর্ণ হইবে : আমি খড়গ নিস্কোষ করিব, আমার হস্ত উহাদিগকে বিনাশ করিবে । ১০ তুমি নিজ বায়ু দ্বারা ফু দিলে, সমুদ্র তাহাদিগকে আচ্ছাদন করিল ; তাহার প্রবল জলে সীসাবৎ তলাইয়া গেল । ১১ হে সদাপ্রভু, দেবগণের মধ্যে কে তোমার তুল্য ? কে তোমার দ্যায় পবিত্রতায় আদরণীয়, প্রশংসায় ভয়ার্হ, আশ্চৰ্য্য ক্রিয়াকারী ? ১২ তুমি আপন দক্ষিণ হস্ত বিস্তার করিলে, পৃথিবী উহাদিগকে গ্রাস করিল। ১৩ তুমি যে লোকদিগকে মুক্ত করিয়াছ, তাহাদিগকে নিজ দয়াতে চালাইতেছ, তুমি নিজ পরাক্রমে তাহাদিগকে তোমার পবিত্র নিবাসে লহয়। যাইতেছ। ১৪ জাতি সকল ইহা শুনিল, কম্পান্বিত হইল, পলেষ্টয়া-বাসিগণ ব্যথাগ্রস্ত হইয়া পড়িল । ১৫ তখন ইদোমের দলপতিগণ বিহ্বল হইল ; মোয়াবের মেড়ার কম্পগ্রস্ত হইল : কনন-নিবাসী সকলে গলিয়া গেল । ১৬ ত্রাস ও আশঙ্ক। তাহীদের উপরে পড়িতেছে ; তোমার বাহুবলে তাহারা প্রস্তরবৎ স্তব্ধ হইয়া আছে : যাবৎ, হে সদাপ্রভু, তোমার প্রজাগণ উত্তীর্ণ না হয়, যাবৎ তোমার ক্রীত প্রজাগণ উত্তীর্ণ না হয়। ১৭ তুমি তাহাদিগকে লইয়া যাইবে, আপন অধিকার পৰ্ব্বতে রোপণ করিবে ; 60 ১৫ ; ১৮ – ১ ৬ ; ১৭ ৷ ] হে সদাপ্রভু, তথায় তুমি আপন নিবাসার্থ স্থান প্রস্তুত করিয়াছ ; হে প্রভু, তথায় তোমার হস্ত ধৰ্ম্মধাম স্থাপন করিয়াছে। ১৮ সদাপ্রভু যুগে যুগে অনন্তকাল রাজত্ব করিবেন। ১৯ কেননা ফরেীণের অশ্বগণ র্তাহার রথ সকল ও অশ্বারোহিগণসহ সমুদ্রের মধ্যে প্রবেশ করিল, আর সদাপ্রভু সমুদ্রের জল তাহদের উপরে ফিরাইয়৷ আনিলেন ; কিন্তু ইস্রায়েল-সন্তানের শুষ্ক পথে সমুদ্রের ২০ মধ্য দিয়া গমন করিল। পরে হারোণের ভগিনী মরিয়ম ভাববাদিনী হস্তে মৃদঙ্গ লইলেন, এবং তাহার পশ্চাৎ পশ্চাৎ অস্ত স্ত্রীলোকেরা সকলে মৃদঙ্গ লইয়া ২১ নৃত্য করিতে করিতে বাহির হইল। তখন মরিয়ম লোকদের কাছে এই ধুয়া গাইলেন,— তোমরা সদাপ্রভুর উদ্দেশে গান কর ; কেননা তিনি মহামহিমান্বিত হইলেন, তিনি অশ্ব ও তদারোহীকে সমুদ্রে নিক্ষেপ করিলেন। ঈশ্বর প্রান্তরে খাদ্য ও পেয় যোগান । আর মোশি ইস্রায়েলকে স্বফসাগর হইতে অগ্ৰে চালাইলেন, তাহাতে তাহার শূর প্রান্তরে গমন করিল : আর তিন দিন প্রান্তরে যাইতে যাইতে জল পাইল ২৩ না । পরে তাহারা মারাতে উপস্থিত হইল, কিন্তু মারার জল পান করিতে পারিল না, কারণ সেই জল তিক্ত ; এই জন্ত তাহার নাম মারা [তিক্তত] রাখা ২৪ হইল। তখন লোকের মোশির বিরুদ্ধে বচসা করিয়া ২৫ কহিল, আমরা কি পান করিব ? তাহাতে তিনি সদাপ্রভুর উদ্দেশে ক্ৰন্দন করিলেন, আর সদাপ্রভু তাহাকে একটা গাছ দেখাইলেন ; তিনি তাহ লইয়। জলে নিক্ষেপ করিলে জল মিষ্ট হইল। সেই স্থানে সদাপ্রভু ইস্রায়েলের নিমিত্ত বিধি ও শাসন নিরূপণ করিলেন, ২৬ এবং তাহার পরীক্ষা লইলেন, আর কহিলেন, তুমি যদি আপন ঈশ্বর সদাপ্রভুর রবে মনোযোগ কর, তাহার দৃষ্টিতে যাহা ন্যায্য তাঁহাই কর, তাহার আজ্ঞাতে কর্ণ দেও, ও তাহার বিধি সকল পালন কর, তবে আমি মিস্ত্রীয়দিগকে যে সকল রোগে আক্রান্ত করিলাম, সেই সকলেতে তোমাকে আক্রমণ করিতে দিব না : কেননা আমি সদাপ্রভু তোমার আরোগ্যকারী। ২৭ পরে তাহার এলীমে উপস্থিত হইল। সেই স্থানে জলের বারটা উনুই ও সত্তরটা খর্জুরবৃক্ষ ছিল ; তাহারা সেই স্থানে জলের নিকটে শিবির স্থাপন করিল। S\ს, পরে তাহারা এলীম হইতে যাত্রা করিল। অীর মিসর দেশ হইতে প্রস্থান করিবার পর দ্বিতীয় মাসের পঞ্চদশ দিনে ইস্রায়েল-সন্তানগণের সমস্ত মণ্ডলী সীন প্রান্তরে উপস্থিত হইল, তাহ এলীমের ও ২ সৗনয়ের মধ্যবৰ্ত্তী। তখন ইস্রায়েল-সন্তানদের সমস্ত মণ্ডলী মোশির ও হারোণের বিরুদ্ধে প্রান্তরে বচস৷ ৩ করিল ; আর ইস্রায়েল-সন্তানের তাহাদিগকে কহিল, হয়, হয়, আমরা মিসর দেশে সদাপ্রভুর হস্তে কেন ২২ যাত্রাপুস্তক । Sు মরি নাই ? তখন মাংসের হাড়ীর কাছে বসিতাম, তৃপ্তি পৰ্য্যন্ত রুটী ভোজন করিতাম ; তোমরা ত এই সমস্ত সমাজকে ক্ষুধায় মারিয়া ফেলিতে আমাদিগকে ৪ বাহির করিয়৷ এই প্রাস্তরে আনিয়াছ। তখন সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, দেখ, আমি তোমাদের নিমিত্ত স্বর্গ হইতে খাদ্য দ্রব্য বর্ষণ করিব ; লোকের বাহিরে গিয়৷ প্রতিদিন দিনের খাদ্য কুড়াইবে ; যেন আমি তাহাদের এই পরীক্ষা লই যে, তাহারা আমার ব্যবস্থাতে চলিবে ৫ কি না । ষষ্ঠ দিনে তাহারা যাহা আনিবে, তাহ প্রস্তুত করিলে প্রতিদিন যাহা কুড়ায়, তাহার দ্বিগুণ ৬ হইবে। পরে মোশি ও হারোণ সমস্ত ইস্রায়েল-সন্তানকে কহিলেন, সায়ংকাল হইলে তোমরা জানিবে যে, সদাপ্রভু তোমাদিগকে মিসর দেশ হইতে বাহির ৭ করিয়া আনিয়াছেন। আর প্রাতঃকাল হইলে তোমর সদাপ্রভুর প্রতাপ দেখিতে পাইবে, কেননা সদাপ্রভুর বিরুদ্ধে তোমাদের যে বচস, তাহ। তিনি শুনিয়াছেন। আমরা কে যে, তোমরা আমাদের বিরুদ্ধে বচস কর ? ৮ পরে মোশি কহিলেন, সদাপ্রভু সায়ংকালে ভোজনার্থে তোমাদিগকে মাংস দিবেন, ও প্রাতঃকালে তৃপ্তি পৰ্য্যন্ত অন্ন দিবেন ; সদাপ্রভুর বিরুদ্ধে তোমরা যে বচস করিতেছ, তাহা তিনি শুনিতেছেন ; আমরা কে ? তোমরা যে বচসা করিতেছ, উহা আমাদের বিরুদ্ধে নয়, সদাপ্রভুরই বিরুদ্ধে করা হইতেছে। ৯ পরে মোশি হারোণকে কহিলেন, তুমি ইস্রায়েলসন্তানদের সমস্ত মণ্ডলীকে বল, তোমরা সদাপ্রভুর সম্মুখে উপস্থিত হও ; কেনন। তিনি তোমাদের বচস ১০ শুনিয়াছেন। পরে হারেীণ যখন ইস্রায়েল-সন্তানদের সমস্ত মণ্ডলীকে ইহা কহিতেছিলেন, তখন তাহারা প্রান্তরের দিকে মুখ ফিরাইল ; আর দেখ, মেঘস্তম্ভের ১১ মধ্যে সদাপ্রভুর প্রতাপ দৃষ্ট হইল। আর সদাপ্ৰভু ১২ মোশিকে কহিলেন, আমি ইস্রায়েল-সন্তানদের বচস শুনিয়াছি ; তুমি তাহাদিগকে বল, সায়ংকালে তোমরা মাংস ভোজন করিবে, ও প্রাতঃকালে অন্নে তৃপ্ত হইবে ; তখন জানিতে পারবে যে, আমি সদাপ্রভু, তোমা১৩ দের ঈশ্বর। পরে সন্ধ্যাকালে ভারুই পক্ষী উড়িয়া আসিয়া শিবিরস্থান আচ্ছাদন করিল, এবং প্রাতঃকালে ১৪ শিবিরের চারিদিকে শিশির পড়িল । পরে পতিত শিশির উদ্ধগত হইলে, দেখ, ভূমিস্থিত নীহারের স্থায় সরু বীজাকার সূক্ষ্ম বস্তুবিশেষ প্রান্তরের উপরে পড়িয়া ১৫ রহিল। আর তাহ দেখিয়া ইস্রায়েল-সন্তানগণ পরম্পর কহিল, উহা কি ? কেননা তাহ কি, তাহারা জানিল না। তখন মোশি কহিলেন, উহা সেই অন্ন, যাহা সদাপ্রভু তোমাদিগকে আহারার্থে দিয়াছেন। ১৬ উহারই বিষয়ে সদাপ্রভু এই আজ্ঞা দিয়াছেন, তোমরা প্রত্যেক জমি আপন আপন ভোজনশক্তি অনুসারে তাহ কুড়াও ; তোমরা প্রত্যেকে আপন আপন তাম্বুতে স্থিত লোকদের সংখ্যানুসারে এক এক জনের নিমিত্তে এক ১৭ এক ওমর পরিমাণে উহ। কুড়াও । তাহাতে ইস্রায়েল 61 ৩ ২ সন্তানের সেইরূপ করিল ; কেহ অধিক, কেহ অল্প । ১৮ কুড়াইল। পরে ওমরে তাহা পরিমাণ করিলে, যে অধিক সংগ্ৰহ করিয়াছিল, তাহার অতিরিক্ত হইল না, এবং যে অল্প সংগ্ৰহ করিয়াছিল, তাহার অভাব হইল নী ; তাহার প্রত্যেকে আপন আপন ভোজনশক্তি ১৯ অনুসারে কুড়াইয়াছিল। আর মোশি কহিলেন, তোমরা কেহ প্রাতঃকালের জন্য ইহার কিছু রাখিও না। ২• তথাপি কেহ কেহ মোশির কথা না মানিয়া প্রাতঃকালের নিমিত্তে কিছু কিছু রাখিল, তখন তাহাতে কীট জন্মিল ও দুর্গন্ধ হইল ; আর মোশি তাহাদের ২১ উপরে ক্রোধ করিলেন। আর প্রতিদিন প্রাতঃকালে তাহারা আপন আপন ভোজনশক্তি অনুসারে কুড়াইত, কিন্তু প্রখর রৌদ্র হইলে তাহা গলিয়া যাহত । পরে ষষ্ঠ দিনে তাহার দ্বিগুণ খাদ্য, প্রতিজনের নিমিত্তে দুই দুই ওমর, কুড়াইল, আর মণ্ডলীর তাধ্যক্ষের সকলে আসিয়৷ মোশিকে জ্ঞাত করিলেন । ২৩ তখন তিনি তাহাদিগকে কহিলেন, সদাপ্রভু তাহাই বলিয়াছিলেন ; কল্য বিশ্রামপৰ্ব্ব, সদাপ্রভুর উদ্দেশে পবিত্র বিশ্রামবার ; তোমাদের যাহা ভাজিবার ভাজ, ও যাহা পাক করিবার পাক কর ; এবং যাহা অতি২৪ রিক্ত, তাহ প্রাতঃকালের জন্ত তুলিয়া রাখ। তাহাতে তাহারা মোশির আজ্ঞানুসারে প্রাতঃকাল পর্য্যন্ত তাহ রাখিল, তখন তাহাতে দুৰ্গন্ধ হইল না, কীটও জন্মিল ২৫ ন । পরে মোশি কহিলেন, আদ্য তোমরা ইহা ভোজন কর, কেনন অদ্য সদাপ্রভুর বিশ্রামবার ; আদ্য মাঠে ২৬ ইহা পাইবে না । তোমরা ছয় দিন তাহী কুড়াইবে, কিন্তু সপ্তম দিন বিশ্রামবার, সে দিন তাহ মিলিবে ২৭ না । তথাচ সপ্তম দিনেও লোকদের মধ্যে কেহ কেহ তাহা কুড়াইবার জন্য বাহির হইল ; কিন্তু কিছুই ২৮ পাইল না। তখন সদাপ্রভু মোশিকে কহিলন, তোমরা আমার আজ্ঞা ও ব্যবস্থা পালন করিতে কত কাল ২৯ অসম্মত থাকিবে ? দেখ, সদাপ্রভুই তোমাদিগকে বিশ্রামবার দিয়াছেন, তাই তিনি ষষ্ঠ দিনে দুই দিনের খাদ্য তোমাদিগকে দিয়া থাকেন ; তোমরা প্রতিজন স্ব স্ব স্থানে থাক ; সপ্তম দিনে কেহ নিজ স্থান হইতে ৩• বাহিরে না যাউক । তাহাতে লোকেরা সপ্তম দিনে ৩১ বিশ্রাম করিল। আর ইস্রায়েল-কুল ঐ খাদ্যের নাম মান্ন। রাখিল ; তাহ ধনিয়া বীজের মত, শুক্লবৰ্ণ, এবং তাহার আস্বাদ মধুমিশ্রিত পিষ্টকের দ্যায় ছিল । ৩২ পরে মোশি কহিলেন, সদা ভু এই আজ্ঞা করিয়াছেন, তোমরা পুরুষপরম্পরার জন্ত উহার এক ওমর পরিমাণ তুলিয়া রাখিও, যেন আমি তোমাদিগকে মিসর দেশ হইতে অনিয়নকালে প্রান্তরের মধ্যে যে অন্ন ৩৩ ভোজন করাহতাম, তাহার। তাহ দেখিতে পায়। তখন মোশি হারোণকে কহিলেন, তুমি একটা পাত্র লইয়া পূর্ণ এক ওমর পরিমাণ মান্ন সদাপ্রভুর সম্মুখে রাখ ; তাহা তোমাদের পুরুষপরম্পরার নিমিত্ত রাখা যাইবে । ૨૨ যাত্রাপুস্তক । ৩৪ তখন, সদাপ্ৰভু মোশিকে যেরূপ আজ্ঞা করিয়াছিলেন, [ ১ ৬ ; ১৮– ১৭ ; ১২ ৷ তদনুসারে হারোণ সাক্ষ্য-সিন্দুকের নিকটে থাকিবার ৩৫ জন্ত তাহ তুলিয়। রাখিলেন। ইস্রায়েল-সন্তানের চল্লিশ বৎসর, যাবৎ নিবাস-দেশে উপস্থিত না হইল, তাবৎ সেই মান্না ভোজন করিল ; কনান দেশের সীমাতে উপস্থিত না হওয়া পৰ্য্যন্ত তাহারা মান্না ৩৬ খাইত । এক ওমর ঐফার দশমাংশ । ՏԴ পরে ইস্রায়েল-সন্তানদের সমস্ত মণ্ডলী সীন প্রান্তর হইতে যাত্রা করিয়া সদাপ্রভুর আজ্ঞানুসারে নিরূপিত সকল উত্তরণস্থান দিয়া রফীদামে গিয়া শিবির স্থাপন করিল ; আর সে স্থানে লোকদের পানাৰ্থ জল ২ ছিল না । এই জন্ত লোকের মোশির সহিত বিবাদ করিয়া কহিল, আমাদিগকে জল দেও, আমরা পান করিব। মোশি তাহাদিগকে কহিলেন, কেন আমার সহিত বিবাদ করিতেছ ? কেন সদাপ্রভুর পরীক্ষা ৩ করিতেছ ? তখন লোকেরা সেই স্থানে জলপিপাসায় ব্যাকুল হইল, আর মোশির বিরুদ্ধে বচসা করিয়া কহিল, তুমি আমাদিগকে এবং আমাদের সন্তানগণকে ও পশুগণকে তৃষ্ণ দ্বারা বধ করিতে মিসর হইতে কেন ৪ আনিলে ? আর মোশি সদাপ্রভুর কাছে কাদিয়া কহিলেন, আমি এই লোকদের নিমিত্ত কি করিব ? ক্ষণকালের মধ্যে ইহারা আমাকে প্রস্তরাঘাতে বধ * করিবে। তখন সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি লোকদের অগ্ৰে যাও, ইস্রায়েলের জন কতক প্রাচীনকে সঙ্গে লইয়া, আর যাহা দিয়া নদীতে আঘাত করিয়া৬ ছিলে, সেই যষ্টি হস্তে লইয়া যাও। দেখ, আমি হোরবে সেই শৈলের উপরে তোমার সম্মুখে দাড়াইব ; তুমি শৈলে আঘাত করিবে, তাহাতে তাহা হইতে জল নির্গত হইবে, আর লোকেরা পান করিবে । তখন মোশি ইস্রায়েলের প্রাচীনবর্গের দৃষ্টিতে সেইরূপ করি৭ লেন। তিনি সেই স্থানের নাম মুসা ও মরব। [পরীক্ষা ও বিবাদ ] রাখিলেন, কেননা ইস্রায়েল-সন্তানগণ বিবাদ করিয়াছিল এবং সদাপ্রভুর পরীক্ষা করিয়াছিল, বলিয়াছিল, ’সদাপ্রভু আমাদের মধ্যে আছেন কি না? অমালেকের সহিত যুদ্ধ। ৮ ঐ সময়ে আমালেক আসিয়া রফীদৗমে ইস্ত্ৰীয়েলের ৯ সহিত যুদ্ধ করিতে লাগিল। তাহাতে মোশি যিহোশুয়কে কহিলেন, তুমি আমাদের জন্ত লোক মনোনীত করিয়া লও, যাও, আমালেকের সহিত যুদ্ধ কর ; কল্য আমি ঈশ্বরের যষ্টি হস্তে লইয়া পৰ্ব্বতের শিখরে ১০ দাড়াইব । পরে যিহোশুয় মোশির আজ্ঞানুসারে কৰ্ম্ম করিলেন, আমালেকের সহিত যুদ্ধ করিলেন ; এবং ১১ মেশি, হারোণ ও হুর পর্বতের শৃঙ্গে উঠিলেন। আর এইরূপ হইল, মোশি যখন আপন হন্ত তুলিয়া ধরেন, তখন ইস্রায়েল জয়ী হয়, কিন্তু মোশি আপন হস্ত ১২ নামাইলে আমালেক জয়ী হয়। আর মোশির হস্ত ভারী হইতে লাগিল, তখন উহার একখানি প্রস্তর আনিয়া তাহার নীচে রাখিলেন, আর তিনি তাহার উপরে (52 > १ ; >७- २ b~ ; २७ । ] বসিলেন ; এবং হারোণ ও হুর এক জন এক দিকে ও অন্ত জন অন্ত দিকে তাহার হস্ত ধবিয়া রাখিলেন, তাহাতে সূৰ্য্য অস্তগত না হওয়া পর্যন্ত তাহার হস্ত স্থির ১৩ থাকিল। আর যিহোশূয় অমলেককে ও তাহার লোকদিগকে খড়গধারে পরাজয় করিলেন । পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, এই কথা স্মরগার্থে পুস্তকে লিখ, এবং যিহোশূয়ের কর্ণগোচরে শুনাইয়া দেও ; কেননা আমি আকাশের নীচে হইতে ১৫ অমালেকের নাম নিঃশেষে লোপ করিব । পরে মোশি এক বেদি নিৰ্ম্মাণ করিয়া তাহার নাম যিহোবা-নিঃষি ১৬ [সদাপ্রভু আমার পতাক] রাখিলেন। আর তিনি কহিলেন, সদাপ্রভুর সিংহাসনের উপরে হস্ত [উত্তোলিত হইয়াছে] ; পুরুষানুক্রমে অমলেকের সহিত সদাপ্রভুর যুদ্ধ হইবে। মোশির শ্বশুর যিথোর পরামর্শ। Sb" আর, ঈশ্বর মোশির পক্ষে 9. আপুন প্রজা ইস্রায়েলের পক্ষে যে সকল কৰ্ম্ম করিয়াছেন, সদাপ্রভু ইস্রায়েলকে মিসর হইতে বাহির করিয়া আনিয়াছেন, এই সকল কখা মোশির শ্বশুর মিদিয়নীয় ২ যাজক যিথা শুনিতে পাইলেন। তখন মোশির শ্বশুর যিথে মোশির স্ত্রীকে, পিত্রালয়ে প্রেরিত সিপৃপোরাকে, ৩ ও তাহার দুই পুত্রকে সঙ্গে লইলেন। ঐ দুই পুত্রের মধ্যে এক জনের নাম গেশোম । তত্রপ্রবাসী], কেননা তিনি বলিয়ছিলেন, আমি পরদেশে প্রবাসী হুইয়াছি। ৪ আর এক জনের নাম ইলীয়েষর [ঈশ্বর-সহকারী], কেনন। তিনি বলিয়াছিলেন, আমার পিতার ঈশ্বর আমার সহকারী হইয়া ফরোণের খড়গ হইতে আমাকে ৫ উদ্ধার করিয়াছেন। মোশির শ্বশুর যিথে তাহার দুই পুত্র ও স্ত্রীকে সঙ্গে লইয়া প্রান্তরে মোশির নিকটে, ঈশ্বরের পববতে যে স্থানে তিনি শিবির স্থাপন করিয়া৬ ছিলেন, সেই স্থানে আসিলেন। আর তিনি মোশিকে কহিলেন, তোমার শ্বশুর যিথে আমি, এবং তোমার স্ত্রী ও তাহার সহিত তাহার দুই পুত্র, আমরা তোমার ৭ নিকটে আসিয়াছি । তখন মোশি আপন শ্বশুরের সঙ্গে দেখা করিতে বাহিরে গেলেন, ও প্ৰণিপাতপূর্বক তাহাকে চুম্বন করিলেন, এবং পরস্পর মঙ্গল জিজ্ঞাসা করিলেন, পরে তাহারা তাম্বুতে প্রবেশ করি৮ লেন । আর সদাপ্রভু ইস্রায়েলের জন্য ফরোণের প্রতি ও মিশ্রীয়দের প্রতি যাহা যাহা করিয়াছিলেন, এবং পথে তাহদের যে যে ক্লেশ ঘটিয়াছিল, ও সদাপ্রভু যে প্রকারে তাহাদিগকে উদ্ধার করিয়াছিলেন, সেই সকল ৯ বৃত্তান্ত মোশি আপন শ্বশুরকে কহিলেন। তাহাতে সদাপ্রভু মিশ্রীয়দের হস্ত হইতে ইস্রায়েলকে উদ্ধার করিয়া তাহদের যে সকল মঙ্গল করিয়াছিলেন, তন্নি১০ মিত্ত যিথে আহ্নাদিত হইলেন। আর যিথে কহিলেন, ধন্ত সদাপ্রভু, যিনি মিশ্রীয়দের হস্ত হইতে ও ফরণের হস্ত হইতে তোমাদিগকে উদ্ধার করিয়াছেন, যিনি o 8 যাত্রীপুস্তক । ぐり○ মিশ্রীয়দের হস্তের অধীনতা হইতে এই লোকদিগকে ১১ উদ্ধার করিয়াছেন। এখন আমি জানি, সকল দেব হইতে সদাপ্রভু মহান ; সেই বিষয়ে মহান, যে বিষয়ে ১২ উহারা ইহাদের বিপক্ষে গৰ্ব্ব করিত। পরে মোশির শ্বশুর যিথো ঈশ্বরের উদ্দেশে হোমদ্রব্য ও বলি উপস্থিত করিলেন, এবং হারোণ ও ইস্রায়েলের সমস্ত প্রাচীনবর্গ আসিয়া ঈশ্বরের সম্মুখে মোশির শ্বশুরের সহিত আহার করিলেন । পরদিন মোশি লোকদের বিচার করিতে বসিলেন, আর প্রাতঃকাল অবধি সন্ধ্যা পৰ্য্যন্ত লোকের মোশির ১৪ কাছে দাড়াইয়৷ রহিল। তখন লোকদের প্রতি মোশি যাহা যাহা করিতেছেন, তাহার শ্বশুর তাহ দেখিয়৷ কহিলন, তুমি লোকদের প্রতি এ কেমন ব্যবহার করিতেছ ? কেন তুমি একাকী বসিয়া থাক, আর সমস্ত লোক প্রাতঃকাল অবধি সন্ধ্য পৰ্য্যন্ত তোমার ১৫ কাছে দাড়াইয়া থাকে ? মোশি আপন শ্বশুরকে কহিলেন, লোকের ঈশ্বরীয় বিচার জিজ্ঞাসা করিতে আমার ১৬ কাছে আইসে ; তাহদের কোন বিবাদ হইলে তাহ আমার কাছে উপস্থিত হয় : তার আমি বাদী প্রতিবাদীর বিচার করি, এবং ঈশ্বরের বিধি ও ব্যবস্থা সকল ১৭ তাহাদিগকে জ্ঞাত করি। তখন মোশির শ্বশুর কহি১৮ লেন, তোমার এই কৰ্ম্ম ভাল নয়। ইহাতে তুমি এবং তোমার সঙ্গী এই লোকেরাও ক্ষীণবল হুইবে, কেননা এ কার্য্য তোমার ক্ষমতা হইতে গুরুতর ; ইহা একাকী ১৯ সম্পন্ন করা তোমার অসাধ্য। এখন আমার কথায় মনোযোগ কর ; আমি তোমাকে পরামর্শ দিই, আর ঈশ্বর তোমার সহবত্তী হউন ; তুমি ঈশ্বরের সন্মুখে লোকদের পক্ষে হও, এবং তাহীদের বিচার ঈশ্বরের ২০ কাছে উপস্থিত কর, তার তাহাদিগকে বিধি ও ব্যবস্থার উপদেশ দেও, এবং তাহদের গন্তব্য পথ ও ২১ কৰ্ত্তব্য কৰ্ম্ম জ্ঞাত কর। অধিকন্তু তুমি এই লোকসমূহের মধ্য হইতে কাৰ্য্যদক্ষ পুরুষদিগকে, ঈশ্বরভীত, সত্যবাদী ও অন্যায়-লাভ-ঘৃণাকারী ব্যক্তিদিগকে মনোনীত করিয়া লোকদের উপরে সহস্ৰপতি, শতপতি, ২২ পঞ্চাশৎপতি ও দশপতি করিয়া নিযুক্ত কর। তাহার সকল সময়ে লোকদের বিচার করিবেন : বড় বড় বিচার সকল তোমার নিকটে আনিবেন, কিন্তু ক্ষুদ্র বিচার সকল তাহারাই করিবেন : তাহাতে তোমার কৰ্ম্ম লঘু হুইবে, আর তাহার তোমার সহিত ভার ২৩ বহিবেন । তুমি যদি এরূপ কর, এবং ঈশ্বর তোমাকে এরূপ আজ্ঞা দেন, তবে তুমি সহিতে পরিবে, এবং এই সকল লোকও কুশলে আপনাদের স্থানে গমন ২৪ করিবে । তাহাতে মোশি আপন শ্বশুরের কথায় মনোযোগ করিয়া, তিনি যাহ। কিছু বলিলেন, তদনু২৫ সারে কৰ্ম্ম করিলেন। ফলতঃ মোশি সমস্ত ইস্রায়েল হইতে কাৰ্য্যদক্ষ পুরুষদিগকে মনোনীত করিয়া লোকদের উপরে প্রধান, অর্থাৎ সহস্ৰপতি, শতপতি, পঞ্চা২৬ শৎপতি ও দশপতি করিয়া নিযুক্ত করলেন। তাহারা るこ 63 ●8 সকল সময়ে লোকদের বিচার করিতেন ; কঠিন বিচার সকল মোশির কাছে আনিতেন, কিন্তু ক্ষুদ্র কথা সকলের বিচার আপনারাই করিতেন । পরে মোশি আপন শ্বশুরকে বিদায় করিলে তিনি স্বদেশে প্রস্থান করিলেন। সীনয় পৰ্ব্বতের তলে ইস্রায়েলের আগমন । SS) মিসর দেশ হইতে ইস্রায়েল-সন্তানদের বাহির হইবার পর তৃতীয় মাসে, [প্রথম] দিনেই তাহার ২ সীনয় প্রান্তরে উপস্থিত হইল । তাহারা রফীদৗম হইতে যাত্রা করিয়া সৗনয় প্রান্তরে উপস্থিত হইলে সেই প্রান্তরে শিবির স্থাপন করিল ; ইস্রায়েল সেই স্থানে পৰ্ব্বতের ৩ সম্মুখে শিবির স্থাপন করিল। পরে মোশি ঈশ্বরের নিকটে উঠিয়া গেলেন, আর সদাপ্রভু পৰ্ব্বত হইতে তাহাকে ডাকিয়া কহিলেন, তুমি যাকোবের কুলকে এই কথা কহ, ও ইস্রায়েল-সন্তানগণকে ইহা জ্ঞাত ৪ কর । আমি মিশ্রীয়দের প্রতি যাহা করিয়াছি, এবং যেমন ঈগল পক্ষী পক্ষ দ্বারা, তেমনি তোমাদিগকে বহিয়া আপনার নিকটে আনিয়াছি, তাহা তোমরা ৫ দেখিয়াছ। এখন যদি তোমরা আমার রবে অবধান কর ও আমার নিয়ম পালন কর, তবে তোমরা সকল জাতি অপেক্ষ। আমার নিজস্ব অধিকার হইবে, কেননা ৬ সমস্ত পৃথিবী আমার ; আর আমার নিমিত্তে তোম রাই যাজকদের এক রাজ্য ও পবিত্র এক জাতি হইবে। এই সকল কথা তুমি ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে বল। ৭ তখন মোশি আসিয়া লোকদের প্রাচীনবর্গকে ডাকাইলেন ও সদাপ্রভু তাহাকে যাহা যাহ আজ্ঞা করিয়াছিলেন, সেই সকল কখা তাহদের সম্মুখে ৮ প্রস্তাব করিলেন। তাহাতে লোকেরা সকলেই এক সঙ্গে উত্তর করিয়া কহিল, সদাপ্রভু যাহা কিছু বলিয়াছেন, আমরা সমস্তই করিব। তখন মোশি সদাপ্রভুর ৯ কাছে লোকদের কথা নিবেদন করিলেন । আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, দেখ, আমি নিবিড় মেঘে তোমার নিকটে আসিব, যেন লোকের তোমার সহিত আমার আলাপ শুনিতে পায়, এবং তোমাতেও চিরকাল বিশ্বাস করে। পরে মোশি লোকদের কথা সদাপ্রভুকে বলিলেন । তখন সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি লোকদের নিকটে গিয় অদ্য ও কল্য তাহাদিগকে পবিত্র কল্প, ১১ এবং তাহার। আপন আপন বস্ত্র ধৌত করুক, আর তৃতীয় দিনের জন্ত সকলে প্রস্তুত হউক ; কেনন। তৃতীয় দিনে সদাপ্রভু সকল লোকের সাক্ষাতে সীনয় ১২ পৰ্ব্বতের উপরে নামিয়া আসিবেন। আর তুমি লোকদের চারিদিকে সীমা নিরূপণ করিয়৷ এই কথা বলিও, তোমরা সাবধান, পৰ্ব্বতে আরোহণ কিম্বা তাহার সীমা স্পর্শ করিও না ; যে কেহ পৰ্ব্বত স্পর্শ করিবে, ১৩ তাহার প্রাণদণ্ড অবগু হইবে । কোন হস্ত তাহাকে 을 > 0 যাত্রাপুস্তক । [ > b~ ; २१ - ९ ० ; ७ স্পর্শ করিবে না, কিন্তু সে অবশ্য প্রস্তরাঘাতে হত, কিম্বা বাণ দ্বারা বিদ্ধ হইবে ; পশু হউক কি মনুষ্য হউক, সে বাচিবে না। অধিকক্ষণ তুরীবাদ্য হইলে তাহারা পৰ্ব্বতে উঠিবে। পরে মোশি পৰ্ব্বত হইতে নামিয়া লোকদের নিকটে আসিয়া লোকদিগকে পবিত্র করিলেন, এবং তাহারী ১৫ আপন আপন বস্ত্র ধৌত করিল। পরে তিনি লোকদিগকে কহিলেন, তোমরা তৃতীয় দিনের জন্ত প্রস্তুত ১৬ হও ; কোন স্ত্রীলোকের কাছে যাইও না। পরে তৃতীয় দিন প্রভাত হইলে মেঘগর্জন ও বিদ্যুৎ এবং পৰ্ব্বতের উপরে নিবিড় মেঘ হইল, আর অতিশয় উচ্চরকে তুরীধ্বনি হইতে লাগিল ; তাহাতে শিবিরস্থ সমস্ত লোক ১৭ কপিতে লাগিল । পরে মোশি ঈশ্বরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করিবার জন্ত লোকদিগকে শিবির হইতে বাহির করিলেন, আর তাহারা পৰ্ব্বতের তলে দণ্ডায়মান হইল। ১৮ তখন সমস্ত সীনয় পৰ্ব্বত ধূমময় ছিল ; কেননা সদাপ্রভু অগ্নিসহ তাহার উপরে নামিয়া আসিলেন, আর ভাটীর ধূমের ন্তায় তাহা হইতে ধূম উঠিতে লাগিল, এবং সমস্ত ১৯ পৰ্ব্বত অতিশয় কাপিতে লাগিল। আর তুরীর শব্দ ক্রমশঃ অতিশয় বৃদ্ধি পাইতে লাগিল ; তখন মোশি কথা কহিলেন, এবং ঈশ্বর বাণী দ্বারা তাহাকে উত্তর ২০ দিলেন। আর সদাপ্রভু সীনয় পৰ্ব্বতে, পৰ্ব্বতের শিখরে, নামিয়া আসিলেন, এবং সদাপ্রভু মোশিকে সেই পৰ্ব্বত-শিখরে ডাকিলেন ; তাহাতে মোশি উঠিয়া ২১ গেলেন। তখন সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি নামিয়া গিয়া লোকদিগকে দৃঢ় আদেশ কর, পাছে তাহারা দেখিবার জন্ত সীমা লঙ্ঘন করিয়া সদাপ্রভুর ২২ দিকে যায়, ও তাহদের অনেকে পতিত হয়। আর যাজকগণ, যাহারা সদাপ্রভুর নিকটবৰ্ত্তী হইয়া থাকে, তাহারাও আপনাদিগকে পবিত্র করুক, পাছে সদাপ্রভু ২৩ তাহাদিগকে আক্রমণ করেন। তখন মোশি সদাপ্রভুকে কহিলেন, লোকের সীনয় পৰ্ব্বতে উঠিয়া আসিতে পারে না, কেননা তুমি দৃঢ় আজ্ঞা দিয়া আমাদিগকে বলিয়াছ, পৰ্ব্বতের সীমা নিরূপণ কর, ও তাহ পবিত্র ২৪ কর। আর সদাপ্রভু তাহাকে কহিলেন, যাও, নাম গিয়া ; পরে হারোণকে সঙ্গে করিয়া তুমি উঠিয়া আসিও, কিন্তু যাজকগণ ও লোকের সদাপ্রভুর নিকটে উঠিয়া আসিবার জন্ত সীমা লঙ্ঘন না করুক, পাছে ২৫ তিনি তাহাদিগকে আক্রমণ করেন। তখন মোশি লোকদের কাছে নামিয়া গিয়া তাহাদিগকে এই সকল কথা বলিলেন । দশ আজ্ঞা প্রদান । ২০ আর ঈশ্বর এই সকল কথা কহিলেন, আমি তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভু, যিনি মিসর দেশ হইতে, দাসগৃহ হইতে, তোমাকে বাহির করিয়া আনিলেন। ৩ আমার সাক্ষাতেই তোমার অন্য দেবতা না থাকুক ।

  • ( বা ) ব্যতিরেকে ।

S 8 64 o by з о ; 8 — 3 • ; 9 о 11 ৪ তুমি আপনার নিমিত্তে খোদিত প্রতিমা নিৰ্ম্মাণ করিও না : উপরিস্থ স্বর্গে, নীচস্থ পৃথিবীতে ও পৃথিবীর ন'চস্থ জলমধ্যে যাহা যাহা আছে, তাহাদের কোন e মুৰ্ত্তি নিৰ্ম্মাণ করিও না ; তুমি তাহদের কাছে প্রণিপাত করিও না, এবং ত,হাদের সেবা কারও না ; কেননা তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভু আমি স্বগৌরব রক্ষণে উদযোগী ঈশ্বর ; আমি পিতৃগণের অপরাধের প্রতিফল সন্তানদেগের উপরে বক্তাই, যাহার। আমাকে দ্বেষ করে, ৬ তাহদের তৃতীয় চতুর্থ পুরুষ পযন্ত বৰ্ত্তই ; কিন্তু যাহার। আমাকে প্রেম করে ও আমার আগজী সকল পালন করে, আমি তাহদের সহস্ৰ । পুরুষ৷ পয্যন্ত দয়া করি। ৭ তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভুর নাম অনৰ্থক লইও নী, কেনন। যে কেহ তাহার নাম অনৰ্থক লয়, সদাপ্ৰভু তাহাক নির্দোষ করবেন না । ৮.৯ তুমি বিএমদিন স্মরণ করিয়া পবিত্র করিও । ছয় দিন এম করেও, আপনার সমস্ত কায্য কারও ; ১০ কিন্তু সপ্তম দিন তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভুর উদ্দেশে বিএমদিন ; সে দিন তুমি কি তোমার পুত্র কি কন্য, কি তোমার দাস কি দাসী, কি তোমার পশু, কি তোমার পুরদ্বারের মধ বৰ্ত্তী বিদেশী, কেহ কোন কাৰ্য্য ১১ কারও না ; কেননা সদাপ্রভু আকাশমণ্ডল ও পৃথিবী, সমুদ্র ও সেই সকলের মধ্যবৰ্ত্তী সমস্ত বস্তু ছয় দিনে নিৰ্ম্মাণ করিয়৷ সপ্তম দিনে বিশ্রাম করিলেন ; এই জন্য সদাপ্রভু বিশ্রামদিনকে আশীবাদ করলেন, ও পবিত্র করলেন । তোমার পিতাকে ও তোমার মাতাকে সমাদর করিও, যেন তোমার ঈশ্বর সদ্যপ্ৰভু তোমাকে যে দেশ দিবেন, সেই দেশে তোমার দীঘ পরমায়ু হয় । >ー ১৩ নরহত্য। কারও না । ১৪ ব্যভিচার কারও না । ১৫ চুরি করিও না । ১৬ তোমার প্রতিবাসীর বিরুদ্ধে মিথ্য সাক্ষ্য দিও না । ১৭ তোমার প্রতিবাসীর গৃহে লোভ করিও না ; প্রতি বাসীর স্ত্রীতে, কিম্ব। তাহার দাসে কি দাসীতে, কিম্বা তাহার গোরুতে fক গর্দভে, প্রতিবাসীর কোন বস্তুতেই লোভ করিও না । তখন সমস্ত লোক মেঘগর্জন, বিদ্যুৎ, তুরীধ্বনি ও ধুমময় পৰ্ববত দেখিল ; দেখিয় লোকের ত্ৰাসযুক্ত হইল, ১৯ এবং দূরে দাড়াইয়। রহিল । আর তাহার মোশিকে কহিল, তুমিই আমাদের সহিত কথা বল, আমরা শুনিব ; কিন্তু ঈশ্বর আমাদের সহিত কথা না বলুন, ২• পাছে আমরা মারা পড়ি । মোশি লোকদিগকে কহিলন, ভয় করিও না ; কেননা তোমাদের পরীক্ষা করণtcথ, এবং তোমরা যেন পাপ না কর, এই নি।মুক্ত আপন ভয়ানকত। তোমাদের চক্ষুগোচর করণ।থে ঈশ্বর ২১ আসিয়াছেন। তখন লোকের দূর দাড়াইয়া রহিল ; আর মোশি সেই ঘোর অন্ধকারের নিকটে গমন করেলেন, যেখানে ঈশ্বর ছিলেন । о. т. 5) যাত্রীপুস্তক । V & নানাবিধ আজ্ঞা । ২২ পরে সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি ইস্রায়েলসন্তানগণকে এই কথা কহ, তোমরা আপনারাই দেখিলে, আমি আকাশ হইতে তোমাদের সহিত কথা ২৩ কাহলাম। তোমরা আমার ও তিযোগী কিছু নিৰ্মাণ কারও না : আপনাদের নিমিত্তে রৌপ্যময় দেবতা কি স্বর্ণময় দেবতা নিৰ্ম্মাণ করিও না । তুমি আমার নিমিত্তে মৃত্তিকার এক বেদি নিৰ্ম্মাণ করিবে, এবং তাহার উপরে তোমার হোম বলি ও মঙ্গলার্যক বলি, তোমার মেষ ও তোমার গোরু উৎসর্গ করবে। আমি যে যে স্থান অপেন নাম স্মরণ করাইব, সেই সেচ স্থানে তোমার নিকট আসয়৷ ২৫ তোমাকে আশীৰ্ব্বাদ করিব । তুমি যদি আমার নিমিত্তে প্রস্তরর বেদি নিৰ্ম্মাণ কর, তবে খোদিত প্রস্তরে তাহ নিৰ্ম্মাণ করিও না, কেননা তাহার উপরে ২৬ অস্ত্ৰ তুলিলে তুমি তাহ অপবিত্র করবে। আর আমার বেদির উপরে সোপান দিয়া উঠিও না, পাছে তাহার উপরে তোমার উলঙ্গত। অনাহূত হয় । ミS আর তুমি এই সকল শাসন তাহদের সম্মুখে রাখিবে । ২ তুমি ইব্রীয় দাস ক্রর করিলে সে ছয় বৎসর দাসত্ব করিবে, পরে সপ্তম বৎসরে বিন মূল্য মুক্ত হইয়৷ ৩ চলিয়া যাইবে । সে যদি একাকী আইসে, তবে একাকী যাইবে ; আর যদি সঞ্জীক আইসে, তবে ৪ তাহার স্ত্রীও তাহার সহিত যাইব । যদি তাহার প্রভু তাহার বিবাহ দেয়, এবং সেই স্ত্রী তাহার জন্ত পুত্র কি কন্য। প্রসব করে, তবে সেই স্ত্রীতে ও তাহার সন্তানগণে তাহার প্রভুর স্বত্ব থাকিবে, সে একাকী ৫ চলিয়। যাইবে । কিন্তু ঐ দাস যদি স্পষ্টরূপে বলে, আমি আপন প্রভুকে এবং আপন স্ত্রী ও সন্তানগণকে ৬ ভাল বাসি, মুক্ত হইয়া চলিয়। যাইব না, তাহ হইলে তাহার প্রভু তাহাক ঈশ্বরের নিকট লইয়। যাইবে, এবং সে তাহাকে কপাটের কিম্ব বাজুর নিকটে উপস্থিত করবে, তথায় তাহার প্রভু গুজি দ্বারা তাহার কর্ণ বিদ্ধ করবে ; তাহাতে সে চিরকাল সেই প্রভুর দাস থাকিব । ৭ আর কেহ যদি আপন কল্পীকে দাসীরূপে বিক্রয় করে, তবে দাসের যেমন যায়, সে তদ্রুপ যাইবে না । ৮ তাহার প্রভু তাহাকে আপনার জন্য নিরূপণ করিলেও যদি তাহার প্রতি অসন্তুষ্ট হয়, তবে সে তাইকে মুক্ত হইতে দিবে ; তাহার সঙ্গে ও বঞ্চনা করতে তম্ভ জাতির কাছে তাহকে বিক্রয় করিবার অধিকার ৯ তাহার হইবে না । আর যদি সে আপন পুত্রের জন্ত তাহাকে নিরূপণ করে, তবে সে তাহার প্রতি কস্তাগণ ১০ সম্বন্ধীয় নিয়মনুযায়ী ব্যবহার করবে। যদি সে অন্ত স্ত্রীর সহিত তাহার বিবাহ দেয়, তব উহার অন্নের ও বস্ত্রের এবং সহবাসের বিষয়ে ক্রটি করতে পারিবে 3 3 65 や や ১১ না। আর যদি সে তাহার প্রতি এই তিনটী কৰ্ত্তব্য না করে, তবে সে স্ত্রী অমান মুক্ত হইয়৷ চলিয়া যাইবে ; রৌপ্য লাগিবে না । কেহ যদি কোন মনুষ্যকে এমন আঘাত করে যে, ১৩ তাহার মৃত্যু হয়, তবে অবশ্ব প্রাণদণ্ড হইবে। আর যদি কোন ব্যক্তি অন্তকে বধ করিতে চেষ্টা না পায়, কিন্তু ঈশ্বর তাহাকে তাহার হস্তে সমর্পণ করেন, তবে যে স্থানে সে পলাইতে পারে, এমন স্থান তোমার নিমিত্ত ১৪ আমি নিরূপণ করিব। কিন্তু যদি কেহ দুঃসাহস করিয়া ছলে আপন প্রতিবাসীকে বধ করণার্থ তাহার উপর চড়াউ হয়, তবে সে ব্যক্তির প্রাণদণ্ড করণার্থে তাহাকে আমার বেদির নিকট হইতেও লইয়া যাইবে । আর যে কেহ আপন পিতাকে কি আপন মাতাকে প্রহার করে, তাহার প্রাণদণ্ড অবগু হইবে। আর কেহ যদি কোন মনুষ্যকে চুরি করিয়া বিক্রয় করে, কিম্বা তাহার হস্তে যদি তাহাকে পাওয়া যায়, তবে তাহার প্রাণদণ্ড অবশ্য হইবে । আর যে কেহ আপন পিতাকে কি আপন মাতাকে শাপ দেয়, তাহার প্রাণদণ্ড অবগু হইবে। আর মনুষ্যর বিবাদ করিয়া এক জন অন্তকে প্রস্তরাঘাত কম্ব মুষ্ট্যাঘাত করিলে সে যদি না মরিয়া ১৯ শয্যাগত হয়, পশ্চাৎ উঠিয়া যষ্টি অবলম্বন করিয়া বাহিরে বেড়ায়, তবে সেই প্রহারক দণ্ড পাইবে না ; কেবল তাহার কৰ্ম্মক্ষতির ও চিকিৎসার ব্যয় তাহাকে দিতে হইবে । >ース Ꮌ ☾ >W。 > * Sb. প্রহার করিলে সে যদি তাহার হস্তে মরে, তবে সে অবষ্ঠ দণ্ডনীয় হইবে । কিন্তু সে যদি দুই এক দিন বাচে, তবে তাহার প্রভু দণ্ডাৰ্ছ হুইবে না, কেননা সে তাহার রৌপ্যস্বরূপ । আর পুরুষের বিবাদ করিয়া কোন গৰ্ত্তবর্তী স্ত্রীকে প্রহার কারলে যদি তাহার গৰ্ত্তপাত হয়, কিন্তু পরে আর কোন আপদ না ঘটে, তবে ঐ স্ত্রীর স্বামীর দাবী অনুসারে তাহার অর্থদণ্ড অবগু হইবে, ও সে বিচার২৩ কৰ্ত্তাদের বিচারমতে টাকা দিবে। কিন্তু যদি কোন আপদ ঘটে, তবে তোমাকে এই পরিশোধ দিতে হইবে ; ২৪ প্রাণের পরিশোধে প্রাণ, চক্ষুর পরিশোধে চক্ষু, দন্তের পরিশোধে দন্ত, হস্তের পরিশোধে হস্ত, চরণের পরিশোধে ২৫ চরণ, দাহের পরিশোধে দাহ, ক্ষতের পরিশোধে ক্ষত, কালশিরার পরিশোধে কালশিরা । আর কেহ আপল দাস কি দাসীর চক্ষুতে আঘাত করিল যদি তাহ নষ্ট হয়, তবে তাহার চক্ষুনাশের জন্ত ২৭ সে তাহাকে মুক্ত করবে। আর আঘাত দ্বারা আপন দাস কিম্বা দাসীর দন্ত ভাঙ্গিয় ফেলিলে ঐ দন্তের জন্য সে তাহাকে মুক্ত করবে। আর গোরু কোন পুরুষ কি স্ত্রীকে শৃঙ্গাঘাত করিলে সে যদি মরে, তবে ঐ গোরু অবখ্য প্রস্তরাঘাতে বধ্য হইবে, এবং তাহার মাংস অখাদ্য হইবে ; কিন্তু গোরুর SRN ミミ ર૭ ミbo যাত্রীপুস্তক । আর কেহ আপিন দাসকে কিম্বা দাসীকে যষ্টি দ্বারা | [ ९ > : >> - २ ९ ; ध्र । ২৯ স্বামী দণ্ড পাইবে না। পরস্তু ঐ গোরু পূর্বে শৃঙ্গাঘাত করিত, ইহার প্রমাণ পাইলেও তাহার স্বামী তাহাকে সাবধানে না রাখতে যদি সে কোন পুরুষকে কিম্বা স্ত্রীকে বধ করে, তবে সে গোরু প্রস্তরাঘাতে বধ্য হইবে : ৩০ এবং তাহার স্বামীরও প্রাণদণ্ড হইবে। যদি তাহার নিমিত্তে প্রায়শ্চিত্ত নিরূপিত হয়, তবে সে প্রাণমুক্তির ৩১ নিমিত্তে নিরূপিত সমস্ত মূল্য দিবে। তাহার গোরু যদি কাহারও পুত্রকে কি কন্যাকে শৃঙ্গাঘাত করে, তবে ঐ ৩২ বিচারানুসারে তাহার প্রতি করা যাইবে। আর তাহার গোরু যদি কাহারও দাস কিম্বা দাসীকে শৃঙ্গাঘাত করে, তবে সে তাহার প্রভুকে ত্রিশ শেকল রৌপ্য দিবে; এবং গোরু প্রস্তরাঘাতে বধ্য হইবে। ৩৩ আর কেহ যদি কোন কূপ অনাবৃত করে, কিম্বা কূপ খনন করিয়া তাহ আবুত না করে, তবে তাহার মধ্যে ৩৪ কোন গোরু কিম্বা গর্দভ পড়িলে সেই কুপের স্বামী ক্ষতিপূরণ করবে, সে পশুর স্বামীকে রৌপ্যমূল্য দিবে, কিন্তু ঐ মৃত পশু তাহারই হইবে । আর, এক জনের গোরু অষ্ঠ জনের গোরুকে শৃঙ্গাঘাত করিলে সেটা যদি মরে, তবে তাহারা জীবিত গোরু বিক্রয় করিয়া তাহার মূল্য দুই অংশ করিবে, এবং ঐ ৩৬ মৃত গোরুও দুই অংশ করিয়া লইবে । কিন্তু যদি জানা যায়, সেই গোরু পূৰ্ব্বে শৃঙ্গাঘাত করিত, ও তাহার স্বামী তাহাকে সাবধানে রাখে নাই, তবে সে তাহার পরিবর্তে অন্ত গোরু দিবে, কিন্তু মৃত গোরু তাহারই হইবে འབྲེལ་འདྲི། যে কেহ গোরু কিম্বা মেষ চুরি করিয়া বধ করে, কিম্বা বিক্রয় করে, সে এক গোরুর পরিশোধে পাচ গোরু, ও এক মেষের পরিশোধ চারি মেষ দিবে। ২ আর চোর যদি সিধ কাটিবার সময়ে ধরা পড়িয়া আহত হয়, ও মারা পড়ে, তবে তাহার জন্ত রক্তপাতের দোষ ৩ হইবে না। যদি তাহার উপরে সূৰ্য্য উদিত হয়, তবে রক্তপাতের দোষ হইবে ; ক্ষতিপূরণ করা চোরের কৰ্ত্তব্য ; যদি তাহার কিছু না থাকে, তবে চৌর্য্য ৪ হেতুক সে বিক্রীত হইবে। গোরু, গর্দভ বা মেষ, চুরির কোন বস্তু যদি চোরের হস্তে জীবৎ পাওয়া যায়, তবে সে তাহার দ্বিগুণ দিবে। ৫ কেহ যদি শস্তক্ষেত্রে কিম্ব দ্রীক্ষাক্ষেত্রে পশু চরায়, আর আপন পশু ছাড়িয়া দিলে যদি তাই অস্তের ক্ষেত্রে চরে, তবে সে ব্যক্তি আপন ক্ষেত্রের উত্তম শস্ত কিম্বা আপন দ্রাক্ষাক্ষেত্রের উত্তম ফল দিয়া ক্ষতিপূরণ করিবে । ৬ অগ্নি ধরিয়া উঠিয়া কণ্টকবনে লাগিলে যদি কাহ:রও শস্তরাশি কিম্বা শস্তের ঝাড় কিম্বা ক্ষেত্র দগ্ধ হয়, তবে সেই দাহকারী অবশু ক্ষতিপূরণ করবে। ৭ কেহ মুদ্র কিম্বা জিনিসপত্র আপন প্রতিবাসীর কাছে গচ্ছিত রাখিলে যদি তাহার গৃহ হইতে কেহ তাহা চুরি করে, এবং সেই চোর ধরা পড়ে, তবে সে ৮ তাহার দ্বিগুণ দিবে। যদি চোর ধরা না পড়ে, তবে ○○ 66 .* > ২২ ; ৯ – ২৩ ; ১৩ । ] গৃহস্বামী প্রতিবাসীর দ্রব্যে হাত দিয়াছে কি না, তাহ জানিবার জন্ত সে ঈশ্বরের সাক্ষাতে আনীত হইবে। ৯ সর্ববপ্রকার অপরাধের বিষয়ে, অর্থাৎ গোরু কিম্বা গর্দভ কিম্বা মেষ কিম্বা বস্ত্র, বা কোন হারাণ বস্তুর বিষয়ে যদি কেহ বলে, এ সেই দ্রব্য, তবে উভয়ের কথা ঈশ্বরের নিকটে উপস্থিত হইবে ; ঈশ্বর যাহাকে 響 করিবেন, সে আপন প্রতিবাসীকে তাহার দ্বিগুণ দবে। কেহ যদি আপন গর্দভ কিম্বী গোরু কিম্বা মেষ কিম্বা কোন পশু প্রতিবাসীর কাছে পালনার্থে রাখে, এবং লোকের অগোচরে সে পশু মরিয়া যায়, বা ভগ্নাঙ্গ ১১ হয়, কিম্বা তাড়িত হয়, তবে ‘আমি প্রতিবাসীর দ্রব্যে হস্তীর্পণ করি নাই, ইহা বলিয়া এক জন অন্ত জনের কাছে সদাপ্রভুর নামে দিব্য করিবে ; আর পশুর স্বামী সেই দিব্য গ্রাহ করিবে, ঐ ব্যক্তি ক্ষতিপূরণ করিবে ১২ না। কিন্তু যদি তাহার নিকট হইতে উহ চুরি যায়, তবে সে তাহার স্বামীর কাছে ক্ষতিপূরণ করিবে। ১৩ যদি সেটী বিদীর্ণ হয়, তবে সে প্রমাণার্থে তাহ উপস্থিত করুক ; সেই বিদীর্ণ পশুর জন্য সে ক্ষতিপূরণ করিবে না । আর কেহ যদি আপন প্রতিবাসীর পশু চাহিয়া লয়, ও তাহার স্বামী তাহার সহিত না থাকিবার সময়ে সে ভগ্নাঙ্গ হয় কিম্বা মরিয়া যায়, তবে সে অব ক্ষতি১৫ পূরণ করবে। যদি তাহার স্বামী তাহার কাছে থাকে, তবে সে ক্ষতিপূরণ করিবে না ; তাহা যদি ভাড়া করা পশু হয়, তবে তাহার ভাড়াতে শোধ হইল । আর কেহ যদি অবাগদত্ত কুমারীকে ভুলাইয় তাহার সহিত শয়ন করে, তবে সে অবস্থা কন্যাপণ দিয়া ১৭ তাহাকে বিবাহ করিবে। যদি সেই ব্যক্তির সহিত আপন কন্যার বিবাহ দিতে পিতা নিতান্ত অসন্মত হয়, 蠶 কন্তপণের ব্যবস্থানুসারে তাহাকে রৌপ্য দিতে বে । তুমি মায়াবিনীকে জীবিত রাখিও না। পশুর সহিত শৃঙ্গারকারী ব্যক্তির প্রাণদণ্ড অবশ্য হইবে। যে ব্যক্তি কেবল সদাপ্রভু ব্যতিরেকে কোন দেবতার কাছে বলিদান করে, সে সম্পূর্ণরূপে বিনষ্ট হইবে। ২১ তুমি বিদেশীর প্রতি অন্যায় করিও না, তাহার প্রতি উপদ্রব করিও না, কেননা মিসর দেশে তোমরা বিদেশী ২২ ছিলে। তোমরা কোন বিধবাকে কিম্ব পিতৃহীনকে ২৩ দুঃখ দিও না । তাহাদিগকে কোন মতে দুঃখ দিলে যদি তাহারা আমার নিকট ক্ৰন্দন করে, তবে আমি ২৪ অবঙ্গ তাঁহাদের ক্ৰন্দন শুনিব ; আর আমার ক্রোধ প্রজ্বলিত হইবে, এবং আমি তোমাদিগকে খড়গ দ্বারা বধ করিব, তাহাতে তোমাদের স্ত্রীর বিধবা ও তোমাদের সন্তানগণ পিতৃহীন হইবে। তুমি যদি আমার প্রজাদের মধ্যে তোমার স্বজাতীয় কোন দীন দুঃখীকে টাক। ধার দেও, তবে তাহার কাছে Y e S 8 うW。 >し* So ー&o 한C যাত্রীপুস্তক । や● সুদগ্রাহীর স্থায় হুইও না : তোমরা তাহার উপরে ২৬ সুদ চাপাইবে না। যদি তুমি আপন প্রতিবাসীর বস্ত্র বন্ধক রাখ, তবে স্বৰ্য্যাস্তের পূর্বে তাহ ফিরাইয়া দিও ; ২৭ কেননা তাহ তাহার একমাত্র আচ্ছদন, তাহার গাত্রের বস্ত্র ; সে কিসে শয়ন করিবে ? আর যদি সে আমার কাছে ক্ৰন্দন করে, তবে আমি তাহ শুনিব, কেননা আমি কৃপাবান । তুমি ঈশ্বরকে ধিক্কার দিও না, এবং স্বজাতীয় লোকদের অধ্যক্ষকে শাপ দিও না । তোমার পক্ক শস্ত্য ও দ্রাক্ষারস নিবেদন করিতে বিলম্ব করিও না । তোমার প্রথমজাত পুত্ৰগণ আমাকে ৩০ দিও। তোমার গো ও মেষ সম্বন্ধেও তদ্রুপ করিও : তাহ সাত দিন আপন মাতার সহিত থাকিবে, অষ্টম দিনে তুমি তাহ আমাকে দিও। আর তোমরা আমার উদ্দেশে পবিত্র লোক হইবে : ক্ষেত্রে বিদীর্ণ কোন মাংস খাইবে না ; তাহা কুকুরদের কাছে ফেলিয়া দিবে। ২৩ তুমি মিথ্যা জনরব উত্থাপন করিও না ; অন্তায় সাক্ষী হইয়। দুর্জনের সহায়তা করিও না । ২ তুমি দুষ্কৰ্ম্ম করিতে বহু লোকের পশ্চাদ্বত্তী হইও না, এবং বিচারে অন্তায় করণার্থে বহু লোকের পক্ষ ৩ হইয়া প্রতিবাদ করিও না। দরিদ্রের বিচারে তাহারও পক্ষপাত করিও না । ৪ তোমার শক্রর গোরু কিম্বা গর্দভকে পথহারা দেখিলে তুমি অবগু তাহার নিকটে তাহাকে লইয়া ৫ যাইবে । তুমি আপন শক্রর গর্দভকে ভারের নীচে পতিত দেখিলে যদ্যপি তাহাক ভারমুক্ত করিতে অনিচ্ছুক হও, তথাপি অবশ্ব উহার সঙ্গে তাহাকে ৬ ভারমুক্ত করবে। দরিদ্র প্রতিবাসীর বিচারে তাহার ৭ প্রতি অন্তায় করিও না। মিথ্যা বিষয় হইতে দুরে থাকিও, এবং নির্দোষের কি ধাৰ্ম্মিকের প্রাণ নষ্ট করিও না, কেননা আমি দুষ্টকে নির্দোষ করিব না। ৮ আর তুমি উৎকোচ গ্রহণ করিও না, কেননা উৎকোচ মুক্তচক্ষু দিগকে অন্ধ করে, এবং ধাৰ্ম্মিকদের কথা সকল ৯ উলটায়। আর তুমি বিদেশীর প্রতি উপদ্রব করিও না; তোমরা ত বিদেশীর হৃদয় জান, কেননা তোমরা মিসর দেশে বিদেশী ছিল । ১০ তুমি আপন ভূমিতে ছয় বৎসর যাবৎ বীজ বপন ১১ করিও, ও উৎপন্ন শস্ত্য সংগ্ৰহ করিও । কিন্তু সপ্তম বৎসরে তাহাকে বিশ্রাম দিও, ফেলিয়া রাখিও ; তাহাতে তোমার স্বজাতীয় দরিদ্রগণ খাইতে পাইবে, আর তাহারী যাহ অবশিষ্ট রাখে, তাহ বনপশুতে খাইবে ; এবং তোমার দ্রাক্ষাক্ষেত্রের ও জিতবৃক্ষের বিষয়েও ১২ সেইরূপ করিও । তুমি ছয় দিন আপন কৰ্ম্ম করিও, কিন্তু সপ্তম দিনে বিশ্রাম করিও ; যেন তোমার গোরু ও গর্দভ বিশ্রাম পায়, এবং তোমার দাসীপুত্র ও ১৩ বিদেশী লোক প্রাণ জুড়ায় । আমি তোমাদিগকে যাহ। যাহা কহিলাম, সকল বিষয়ে সাবধান থাকিও ; ইতর ২৮ ২৯ No. 3 67 やレ যাত্রাপুস্তক । [ ২ ৩ ; ১৪ – ২ ৪ ; ১০ } দেবগণের নাম উল্লেখ করিও না, তোমাদের মুখে যেন । ২৮ দিব। আর আমি তোমার অগ্ৰে অগ্রে ভিমরুল তাহ শুনা না যায় । ১৪ তুমি বৎসরের মধ্যে তিন বার আমার উদ্দেশে উৎসব ১৫ করিও। তাড় শূন্ত রুটীর উৎসব পালন করিও ; আমার আজ্ঞানুসারে, নিরূপিত সময়ে, আবীব মাসে, সাত দিন তাড় শূন্ত রুট ভোজন করিও, কেননা এই মাসে তুমি মিসর দেশ হইতে বাহির হইয়া আসিয়াছ । আর কেহ রিক্তহস্তে আমার নিকট উপস্থিত না হউক । ১৬ আর তুমি শস্ত্য-চ্ছদনের উৎসব, অর্থাৎ ক্ষেত্রে যাহা যাহা বুনিয়াছ, তাহার আশুপক্ক ফলের উৎসব পালন করিও । আর বৎসরের শেষে ক্ষেত্র হইতে ফল সংগ্ৰহ ১৭ করণ কালে ফলসঞ্চয়ের উৎসব পালন করিও । বৎসরের মধ্যে তিন বার তোমার সমস্ত পুংজাতি প্ৰভু সদাপ্রভুর সাক্ষাতে উপস্থিত হইবে । তুমি আমার বলির রক্ত তাড়ীযুক্ত দ্রব্যের সহিত নিবেদন করিও না ; আর আমার উৎসব সম্পকীয় মদ ১৯ প্রাতঃকাল পৰ্য্যন্ত সমস্ত রাত্রি না থাকুক। তোমার ভূমির আশুপক্ক ফলের অগ্রিমাংশ তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভুর গৃহ আনিও । ছাগবৎসকে তাহার মাতার দুগ্ধে পাক কারও না । ঈশ্বরীয় প্রতিজ্ঞ ও নিয়ম স্থাপন । দেখ, আমি পথে তোমাকে রক্ষা করিতে, এবং আমি যে স্থান ও স্তুত করিয়াছি, সেই স্থানে তোমাকে লইয়া যাইতে তোমার অগ্র অগ্ৰে এক দূত প্রেরণ করিতেছি । ২১ তাহা হইতে সাবধান থাকিও, এবং তাহার রবে অবধান করিও, তাহার অসন্তোষ জন্মাইও না ; কেনন। তিনি তোমাদের অধৰ্ম্ম ক্ষমা করবেন না ; কারণ তাহার ২২ অন্তরে আমার নাম রহিয়াছে। কিন্তু তুমি যদি নিশ্চয় তাহার রবে অবধান কর, এবং আমি যাহা যাহা বলি, সে সমস্ত কর, তবে আiম তোমার শক্রদের শক্র ও ২৩ তোমার বিপক্ষদের বিপক্ষ হইব । কেননা আমার দূত তোমার অগ্ৰে অগ্ৰে যাইবেন, এবং ইমেরীয়, হিৰ্ত্তীয়, পরিযায়, কনানীয়, হিববীয় ও যিখুষীয়ের দেশে তোমাকে ও বেশ করাইবেন ; আর আমি তাহাদিগকে উচ্ছিন্ন ২৪ করিব। তুমি তাহদের দেবগণের কাছে ৫ fণপাত করিও না, এবং তাহদের সেবা করিও না, ও তাঁহাদের ক্রিয়ার স্যায় fক্রয়। কারও না ; কিন্তু তাহ দিগকে সমূল উৎপাটন করিও, এবং তাহদের স্তম্ভ সকল ২৫ ভাঙ্গিয় ফেলও । তোমরা আপনাদের ঈশ্বর সদাপ্রভুর সেবা করিও ; তাহাত তিন তোমার অন্নজলে আশী ববাদ করি বন, এবং আtiম তোমার মধ্য হইতে রোগ ২৬ দুর করব । তোমার দেশে কাহারও গর্ভপাত ইহবে না, এবং কেহ বন্ধ্য হইবে না ; আমি তোমার আয়র হ৭ পরিমাণ পূর্ণ করিব । আমি তোমার অগ্রে অগ্রে অম।বষয়ক ত্রাস প্রেরণ করিব ; এবং তুমি যে সকল জাতির নিকটে উপস্থিত হইবে, তাহাদিগকে ব্যাকুল করিব, ও তোমার শক্রগণকে তোমা হইতে ফিরাইয়। y ース● পাঠাইব ; তাহার। হিববীয়, কনানীয় ও হিৰ্ত্তীয়কে ২৯ তোমার সম্মুখ হইতে খেদাইয়া দিবে। কিন্তু দেশ যেন ধ্বংসস্থান না হয়, ও তোমার বিরুদ্ধে বন্য পশুর সংখ্য: যেন বৃদ্ধি না পায়, এই জন্য আমি এক বৎসরেই তোমার সম্মুখ হইতে তাহাদিগকে খেদাইয়া দিব না। ৩• তুমি যে পৰ্য্যন্ত বৰ্দ্ধিত হইয় দেশ অধিকার না কর, তবং তোমার সম্মুখ হইতে তাহাদিগকে ক্রমে ক্রমে ৩১ খেদাইয়া দিব। আর স্বফসাগর অবাধ পলেষ্টয়দের সমুদ্র পযন্ত, এবং প্রান্তর অবধি [ফরাৎী নদী পৰ্য্যন্ত তোমার সীমা নিরূপণ কৰিব ; কেননা আমি সেই দেশনিবাসীদিগকে তোমার হস্তে সমর্পণ করিব, এবং তুমি তোমার ৩২ সম্মুখ হইতে তাহাদিগকে খেদাইয়া দিবে। তাহদের সহিত কিম্ব তাহাuদর দেবগণের সহিত কোন নিয়ম ৩৩ স্থির করিবে না । ত,হার তোমার দেশে বাস করিবে না, পাছে তাহারা আমার বিরুদ্ধে তোমাকে পাপ করায় ; কেননা তুমি যদি তাহদের দেবগণের সেবা কর, তবে তাহ অ বঙ্গ তোমার ফাদস্বরূপ হইবে । ૨8 আর তিনি মোfশকে কহিলেন, তুমি ও হারোণ, নাদব ও অবাঁহ এবং ইস্রায়েলের প্রাচীনবর্গের সত্তর জন, তোমরা সদাপ্রভুর নিকটে উঠয়। ২ আইস, আর দূরে থাকিয়া প্ৰণিপাত কর । কেবল মোশি সদাপ্রভুর নিকটে আসিবে, কিন্তু উহার নিকটে আসিবে না ; আর লোকের তাহার সহিত উপরে উঠবে না । ৩ তখন মোশি আসিয়া লোকদিগকে সদাপ্রভুর সকল বাক্য ও সকল শাসন কহিলেন, তাহাত সমস্ত লোক একস্বরে উত্তর করিল, সদাপ্রভু যে যে কথা ৪ কহিলেন, আমরা সমস্ত চ পালন করব । পরে মোশ সদাপ্রভুর সমস্ত বাক্য লিখিলেন, এবং প্রত্যুষে উঠয়। পৰ্ব্বতের তলে এক যজ্ঞ বাদ ও ইস্রায়েলের দ্বাদশ ৫ বংশানুসারে দ্বাদশ স্তম্ভ নিৰ্ম্মাণ করলেন । আর তিনি ইস্রায়েল-সন্তানগণর যুবকদিগকে পাঠাইলে তাহারা সদাপ্রভুর উদ্দেশে হোমাথক ও মঙ্গলাখক বলিরূপে ৬ বৃষদিগ-ক বলিদান করল । তখন মোশি তাহার অৰ্দ্ধেক রক্ত লইয়া থালে রাখিলেন, এবং অৰ্দ্ধেক রক্ত ৭ বেদির উপরে প্র-ক্ষপ করিলেন । আর তিনি নিয়মপুস্তকখানি লইয়। লাকদের কর্ণগোচরে পাঠ করলেন ; তাহাতে তাহারা কাহল, সদা ভু যাহা যাহা কহিলেন, ৮ আমরা সমস্তষ্ট পালন করিব ও আজ্ঞাবহ হইব । পরে মোশি সহ রক্ত লহয়। লোকদের উপরে প্রক্ষেপ করিয়া কহিলন, দেখ, এ সেই নিয়মর রক্ত, যাহা সদা ভু তোমাদের সহিত এই সকল বাক্য সম্বন্ধে স্থির করিয়াuছন । ৯ তখন মোশি ও হারোণ, নাদব ও অীহ, এবং ইস্রায়েলের ১ চানবগের মধ্যে সত্তর জন উঠিয়া গেলেন : ১০ আর তাহারা ইস্রায়েলের ঈশ্বরকে দর্শন করিলেন : তাহার চরণতলের স্থান নীলকান্তমণি-নিৰ্ম্মিত শিলা 66 ং ৪ ; ১১ – ২৫ ; ৩৩ ৷ ] স্তরের কার্য্যবৎ, এবং নিৰ্ম্মলতায় সাক্ষাৎ আকাশের ১১ তুল্য ছিল। আর তিনি ইস্রায়েল-সন্তানদের অধ্যক্ষগণর উপরে হস্তপণ করিলেন না, বরং তাহারা ঈশ্বরকে দর্শন করিয়া ভোজন পান করিলেন । আর সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি পৰ্ব্বতে আমার নিকটে উঠিয়া অসিয়৷ এই স্থানে থাক, তাহাতে আমি দুই খান প্রস্তরফলক, এবং আমার লিখিত ব্যবস্থা ও আজ্ঞ তোমাকে দিব, যেন তুমি লোকদিগকে শিক্ষা দিতে পার। পরে মোশি ও তাহার পরিচারক যিহেশুয় উঠলেন, এবং মেশি ঈশ্বরের পঞ্চ তে উঠলেন । আর তিনি প্রাচীনবর্গকে কহিলেন, আমরা যাবৎ তোমাদের নিকটে ফিরিয়া না আসি, তাবৎ তোমরা আমাদের অপেক্ষায় এই স্থানে থাক ; আর দেখ, হারোণ ও হ্রর তোমাদের কাছে রহিলেন ; কাহারও কোন বিবাদের কথা উপস্থিত হইলে সে ১৫ তাহদের কাছে যাউক । মোশি যগন পৰ্ব্বতে উঠিলেন, ১৬ তখন মেঘে পৰ্ববত আচ্ছন্ন ছিল । আর সীনয় পৰ্ব্বতের উপরে সদাপ্রভুর প্রতাপ অবস্থিতি করিতেছিল ; উহ। ছয় দিন মেঘাচ্ছন্ন রহিল ; পরে সপ্তম দিনে তিনি ১৭ মেঘের মধ্য হইতে মেশিকে ডকিলেন । আর ইস্রায়েল-সন্তানগণের দৃষ্টিতে সদাপ্রভুর প্রতাপ পৰ্ববতশৃঙ্গে ১৮ গ্রাসকারী অগ্নির দ্যায় প্রকাশিত হইল। আর মেশি মেঘের মধ্য প্রবেশ করিয়া পববতে উঠিলেন । মোশি চল্লিশ দিবারাত্র সেই পববতে অবস্থিতি করিলেন । ঈশ্বরীয় তাম্বু ও পাত্ৰাদি নিৰ্ম্মাণ বিষয়ক আদেশ । -२७ं পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি ইস্রায়েল-সন্তানদিগকে আমার নিমিত্তে উপহার ংগ্ৰহ করতে বল ; হৃদয়ের ই চছয় যে নিবেদন করে, তাহ হইতে তোমরা আমার সেই উপহার ৩ গ্রহণ করিও । এই সকল উপহার তাহদের হইতে ৪ গ্রহণ করবে ; স্বর্ণ, রৌপ্য, পিত্তল ; এবং নীল, ৫ বেগুনে ও লাল, এবং সাদ মদীন। স্বত্র ও ছাগলোম : ও ৬ রক্ত কৃত মেষচৰ্ম্ম, তহশ চৰ্ম্ম, ও শিটীম কষ্ঠ . দীপাথ তৈল, এবং অভিষেকার্য তৈলের ও মুগন্ধি ধূপের ৭ নিমিত্তে গন্ধদ্রব্য ; এবং এফাদের ও বুকপাটার জন্ত ৮ গোমেদক মণি প্রভূতি থচনীয় প্রস্তর। আর তাহার। আমার নিমিত্তে এক ধৰ্ম্মধাম নিৰ্ম্মাণ করুক, তাহতে ৯ অtiম তাহদের মধ্যে বাস করব। আবাসের ও তাহার সকল দ্রব্যের যে আদর্শ আমি তোমাকে দেখাই, তদনুসারে তোমরা সকলই করিবে । স্বাক্ষা-সিন্দুক ও পণপ্যবরণ । তাহার শিটীম কাণ্ডের এক সিন্দুক নিৰ্ম্মাণ করিবে: তাহা আড়াই হস্ত দীর্ঘ, দেড় হস্ত প্রস্থ ও দেড় হস্ত ১১ উচ্চ হইবে। পরে তুমি নিৰ্ম্মল হবৰ্ণে তাহ মুড়িবে: তাহার ভিতর ও বাহির মুড়িবে, এবং তাহার উপরে ১২ চারিদিকে স্বর্ণের নিকাল গড়িয়া দিবে। আর তাহার 18 Io e যাত্রাপুস্তক । 3 S) জন্য মুবর্ণের চারি কড়া ছাঁচে ঢালিয়। তাছার চারি গায়াতে দিবে ; তাহার এক পাশ্বে ছুই কড়া, ও অন্ত ১৩ পাখে দুই কড়া থাকিবে । আর তুমি শিটীম কাষ্ট্রের ১৪ দুঃ টী বহন-দও করিয়৷ স্বর্ণে মুড়িব । আর সিন্দুক বহুনাথে ঐ বহন-দও সিন্দুকের দুই পাশ্বস্থ কড়াতে ১৫ দিবে। সেই বহন দণ্ড সিন্দুকের কড়াতে থাকবে, ১৬ তাহ হইতে বহিস্কৃত হচবে না । তার আমি তোমাকে যে সাক্ষ্যপত্র দিব, তাহ ঐ সিন্দুকে রাখিবে। ১৭ পরে তুমি নিৰ্ম্মল স্বর্ণে আড়াই হস্ত দীর্ঘ ও দেড় হস্ত ১৮ প্রস্থ পাপবরণ প্রস্তুত করবে। আর তুমি স্বর্ণের দুষ্ট করব নিৰ্ম্মাণ করিবে ; পাপাবরণের দুই মুড়াতে ১৯ পিটন কাৰ্য্য দ্বারা তাহাদিগকে নিৰ্ম্মাণ করবে। এক মুড়াতে এক করব ও অন্ত মুড়াতে অস্ত করব, পাপীবর,ণর দুই মুড়াতে তৎসহিত অখণ্ড দুই করব ২• কfরবে। আর সেই দুই করব উদ্ধ পক্ষ বিস্তার করিয়া ঐ পক্ষ দ্বার। পাপাবরণক আচ্ছাদন করবে, এবং তাহদের মুখ পরস্পরের দিকে থাকিবে, করূব২১ দের দৃষ্টি পাপাবরণের দিকে থাকিবে । তুম এই পাপাবরণ সেই সিন্দুকর উপরে রাখিবে, এবং আমি তোমাকে যে সাক্ষ্যপত্র দিব, তাহ। ঐ সিন্দুকের মধ্যে ২২ রাখিব । আর আমি সেই স্থানে তে,মর সহিত সাক্ষাৎ করিব, এবং পাপাবরণের উপরিভাগ হইতে, সাক্ষ্য-সিন্দুকর উপরিস্থ দুই করবের মধ্য হইতে তোমার সঙ্গে আলাপ ক রয়৷ ইত্ৰায়েল-সন্তানগণের প্রতি আমার সমস্ত আজ্ঞ তোমাকে জ্ঞাত করিব । Lমজ । আর তুমি শিটীম কাঠের এক মেজ নিৰ্ম্মাণ করিবে: তাহা দুই হস্ত দীর্ঘ, এক হস্ত প্রস্থ ও দেড় হস্ত উচ্চ ২৪ হইবে । আর নিৰ্ম্মল স্বর্ণ তই মুড়িবে, এবং তাহার ২৫ চারিদিকে স্বর্ণের নিকাল গড়িয় দিবে। আর তাহার চারিদিকে চারি তাঙ্গুলি পরিমিত এক পাশ্বকাষ্ঠ করিবে, এবং পার্শ্বকাঠের চারিদিকে স্বর্ণের নিকাল ২৬ গড়িয়া দিবে। আর স্বর্ণের চারটা কড়া করিয়া চারি ২৭ পায়ার চারি কোণে রাখিবে । মেজ বহনাথ বহন-দণ্ডের ঘর হইবার নিমন্ত ঐ কড়া পার্শ্বকাgর নিকটে ২৮ থাকবে। আর ঐ মেজ বহনর্থে শিটীম কাঠের দুই ২৯ বহন-দও করিয়া তাহ৷ স্বর্ণে মুড়িবে। আর মেজর থল, চমস, শ্রুব ও ঢালিবার জন্ত সেকপত্র গড়িবে ; ৩০ এই সকল নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দ্বারা গড়িবে। আর তুম সেই মেজের উপরে আমার সম্মুখে নয়ত দর্শন-র টা রাখিবে। দীপবৃক্ষ ! আর তুমি নিৰ্ম্মল স্বর্ণের এক দীপবৃক্ষ প্রস্তুত করিবে ; পিটন কায্যে সেই দীপবৃক্ষ প্রস্তুত হইবে : তাহার কাণ্ড, শাখা, গোলাধার, কলিকা ও পুপ ৩২ তৎসহিত অখণ্ড হইবে । দীপবৃক্ষের এক পাশ্ব হইতে তিন শাখা ও দীপবৃক্ষের অন্ত পার্থ হইতে তিন শাখ, ৩৩ এই ছয় শাখা তাহার পার্থ হইতে নির্গত হইবে। এক শাখায় বাদামপুষ্পের স্তায় তিন গোলাধার, এক ২৩ vరి) 69 “) о কলিকা ও এক পুষ্প থাকিবে ; এবং অন্ত শাখায় বাদামপুষ্পের ন্যায় তিন গোলাধার, এক কলিক ও এক পুষ্প থাকিবে : দীপবৃক্ষ হইতে নির্গত ছয় শাখায় ৩৪ এইরূপ হইবে। দ্বীপবৃক্ষে বাদামপুষ্পের দ্যায় চারি গোলাধার, ও তাহীদের কলিকা ও পুষ্প থাকিবে । ৩৫ আর দীপবৃক্ষের যে ছয়ট শাখা নির্গত হইবে, তাহদের এক শাখাদ্বয়ের নীচে তৎসহ অখণ্ড এক কলিকা, অমৃত্যু শাখাদ্বয়ের নীচে তৎসহ অখণ্ড এক কলিকা ও অপর শাখাদ্বয়ের নীচে তৎসহ অখণ্ড এক কলিকা থাকিবে । ৩৬ কলিকা ও শাখা তৎসহ অখণ্ড হইবে ; সমস্তই পিটান ৩৭ নিৰ্ম্মল স্বর্ণের একই বস্তু হইবে। আর তুমি তাহার সাতটা প্রদীপ নিৰ্ম্মাণ করিবে ; এবং লোকেরা সেই সকল প্রদীপ জ্বালাইলে তাহার সম্মুখে আলো হইবে। ৩৮ আর তাহার চিমটা ও গুলতরাশ সকল নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দ্বার ৩৯ নিৰ্ম্মাণ করিতে হইবে। এই দীপবৃক্ষ এবং ঐ সমস্ত সামগ্রী এক তালন্ত পরিমিত নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দ্বারা নিৰ্ম্মিত ৪• হইবে। দেখিও, পৰ্ব্বতে তোমাকে এই সকলের যেরূপ আদর্শ দেখান গেল, সেইরূপ সকলই করিও । যবনিক সমূহ । Wり আর তুমি দশ যবনিক দ্বারা এক আবাস প্রস্তুত R করিবে ; সেগুলি পাকান সাদ। মসীন এবং নীল, বেগুনে ও লাল সূত্ৰে নিৰ্ম্মাণ করিবে ; সেই যবনিক ২ সমূহে শিল্পিত করুবগণের আকৃতি থাকিবে। প্রত্যেক যবনিক। দীৰ্ঘে আটাইশ হস্ত ও প্রত্যেক যবনিক। প্রস্থে চারি হস্ত হইবে ; সমস্ত যবনিকার এক পরিমাণ ৩ হইবে। আর একত্ৰ পাচ যবনিকার পরস্পর যোগ থাকবে, এবং অন্ত পাচ যবনিকার পরস্পর যোগ s থাকিবে । আর যোড়স্থানে প্রথম অন্ত্য যবনিকার মুড়াতে নীলস্থত্রের যুণ্টিঘরা করিয়া দিবে, এবং যোড়স্থানে দ্বিতীয় অন্ত্য যবনিকার মুড়াতেও তদ্রুপ করিবে । ৫ প্রথম যবনিকাতে পঞ্চাশ ঘুণ্টিঘর করিয়া দিবে ; এবং যৌড়স্থানের দ্বিতীয় যবনিকার মুড়াতেও পঞ্চাশ যুণ্টিঘর করিয়া দিবে; সেই দুই ঘুটিঘর শ্রেণী পরস্পর ৬ সম্মুখীন হইবে। আর পঞ্চাশ স্বর্ণখুণ্টি গড়িয় ঘুণ্টিতে যবনিকা সকল পরস্পর বদ্ধ করিবে ; তাহাতে তাহ একই আবাস হইবে। ● ৭ আর তুমি আবাসের উপরে আচ্ছাদনার্থ তাম্বর নিমিত্তে ছাগলোমজাত যবনিক। সকল প্রস্তুত করিবে, ৮ একাদশ যবনিক প্রস্তুত করিবে। প্রত্যেক যবনিক দীৰ্ঘে ত্রিশ হস্ত ও প্রত্যেক যবনিক প্রস্থে চারি হস্ত হইবে ; এই একাদশ যবনিকার একই পরিমাণ ৯ হইবে । পরে পাচ যবনিক। পরস্পর যোড় দিয়া পৃথক রাখিবে, অন্ত ছয় যবনিকাও পৃথক্ রাখিবে, এবং ইহাদের ষষ্ঠ যবনিক দোহার করিয়া তাম্বুর সম্মুখে ১০ রাখিবে । আর যোড়স্থানে প্রথম অন্ত্য যবনিকার মুড়াতে পঞ্চাশ ঘুণ্টিঘর করিয়া দিবে, এবং সংযোক্তব্য দ্বিতীয় যবনিকার মুড়াতেও পঞ্চাশ ঘুণ্টিঘর করিয়৷ যাত্রাপুস্তক । ১১ দিবে। পরে পিত্তলের পঞ্চাশ ঘুণ্টি গড়িয়া সেই ঘুণ্টি چیحp s [ a.G 5 ○8ー* や ; ○> ঘরাতে তাহ প্রবেশ করাইয়া তাম্বু সংযুক্ত করিবে ; ১২ তাহাতে তাহ একই তাম্বু হইবে ; তাম্বুর যবনিকার অতিরিক্ত অংশ, অর্থাৎ যে অৰ্দ্ধযবনিক। অতিরিক্ত থাকিবে, তাহ আবাসের পশ্চাৎপর্শ্বে ঝুলিয়া থাকিবে । ১৩ আর তাম্বুর যবনিকার দীর্ঘতার যে অংশ এপার্থে এক হস্ত, ওপার্শ্বে এক হস্ত অতিরিক্ত থাকিবে, তাহ আচ্ছাদন জন্ত আবাসের উপরে এপার্শ্বে ওপার্শ্বে ঝুলিয়৷ ১৪ থাকিবে । পরে তুমি তাম্বুর জন্ত রক্তীকৃত মেষচৰ্ম্মের এক ছাদ প্রস্তুত করিবে, আবার তাহার উপরে তহশচৰ্ম্মের এক ছাদ প্রস্তুত করিবে । তত্তণ ও অর্গল সমূহ। ১৫ পরে তুমি আবাসের জন্ত শিটীম কাষ্ঠের দাড় করান ১৬ তক্ত প্রস্তুত করিবে। প্রত্যেক তক্ত দীৰ্ঘে দশ হস্ত ও ১৭ প্রস্থে দেড় হস্ত হইবে। প্রত্যেক তক্তার পরস্পর সংযুক্ত দুই দুই পায়া থাকিবে ; এইরূপে আবাসের সকল ১৮ তক্তা প্রস্তুত করিবে। আবাসের নিমিত্তে তক্তা প্রস্তুত করিবে, দক্ষিণদিকে দক্ষিণ পাশ্বের নিমিত্তে বিংশতি ১৯ তক্ত । আর সেই বিংশতি তত্তগর নীচে চল্লিশ রৌপ্যের চুঙ্গি গড়িয়া দিবে ; এক তক্তার নীচে তাহার দুই পায়ার নিমিত্তে দুই চুঙ্গি, এবং অন্ত অন্ত তক্তার নীচেও তাহদের দুই দুই পায়ার নিমিত্তে দুই দুই ২০ চুঙ্গি হইবে। আর আবাসের দ্বিতীয় পাশ্বের নিমিত্তে ২১ উত্তরদিকে বিংশতি তক্ত ; আর সেইগুলির জষ্ঠ্য রোপ্যের চল্লিশ চুঙ্গি : এক তক্তার নীচে দুই চুঙ্গি ও ২২ অন্য অন্য তক্তার নীচেও দুই দুই চুঙ্গি ; আর আবাসের পশ্চিমদিকের পশ্চাদ্ভাগের নিমিত্তে ছয়খানি তক্ত। ২০ করবে। আর আবাসের সেই পশ্চাদ্ভাগের দুই কোণের ২৪ জন্য দুইখানি তক্তা করিবে । সেই দুই তক্তার নীচে যোড় হইবে, এবং সেইরূপ মাথাতেও প্রথম কড়ার নিকটে যোড় হইবে ; এইরূপ উভয়েতেই হইবে : ২৫ তাহ দুই কোণের নিমিত্ত হইবে ৷ তক্ত আটখান হইবে, ও সেইগুলির রৌপ্যের চুঙ্গি ষোলট হইবে : এক তক্তার নীচে দুই চুঙ্গি, ও অন্য তক্তার নীচে দুই চুঙ্গি থাকিবে। ২৬ আর তুমি শিটীম কাষ্ঠের অর্গল প্রস্তুত করিবে: ২৭ আবাসের এক পাশ্বের তক্তাতে পাচ অর্গল, ও আবাসের অন্ত পাশ্বের তক্তাতে পাচ অর্গল, এবং আবাসের পশ্চিমদিকের পশ্চাদ্ভাগের তত্তগতে পাচ অর্গল দিবে। ২৮ এবং মধ্যবৰ্ত্তী অর্গল তক্তাগুলির মধ্যস্থান দিয়া এক ২৯ প্রান্ত অবধি অন্ত প্রান্ত পৰ্য্যন্ত যাইবে । তার ঐ তক্তাগুলি স্বর্ণে মুড়িবে, এবং অর্গলের ঘর হইবার জন্য স্বর্ণকড় গড়িবে, এবং অর্গল সকল স্বর্ণ দিয়া মুড়িবে। ৩০ আবাসের যে আদর্শ পববতে তোমাকে দেখান গেল, তদনুসারে তাহী স্থাপন করিবে । তিরস্করিণী ও পর্দন । ৩১ আর তুমি নীল, বেগুনে ও লাল এবং পাকান সাদ মদীনা সূত্র দ্বারা এক তিরস্করিণী প্রস্তুত করিবে ; তাহ। শিল্পকারের কৰ্ম্ম হইবে, তাহাতে কক্সবগণের () ২ ৬ ; ৩২ – ২৮ ; ৭ । ] ৩২ আকৃতি থাকিবে। তুমি তাহ স্বর্ণে মুড়ান শিটীম কাঠের চারি স্তম্ভের উপরে খাটাইবে ; সেইগুলির আঁকড়া স্বর্ণময় হইবে, এবং সেইগুলি রৌপ্যের চারি ৩৩ চুঙ্গির উপরে বসিবে। আর যুণ্টি সকলের নীচে তিরস্করিণী খাটাইয়া দিবে, এবং তথায় তিরস্করিণীর ভিতরে সাক্ষ্য-সিন্দুক আনিবে ; এবং সেই তিরস্করিণী পবিত্র স্থানের ও অতি পবিত্র স্থানের মধ্যে তোমাদের ৩৪ জষ্ঠ্য প্রভেদ রাখিবে । আর অতি পবিত্র স্থানে সাক্ষ্য৩৫ সিন্দুকের উপরে পাপাবরণ রাখিবে। আর তিরস্করিণীর বাহিরে মেজ রাখিবে, ও মেজের সম্মুখে আবাসের পার্থে, দক্ষিণদিকে দীপবৃক্ষ রাখিবে ; এবং উত্তরদিকে মেজ ৩৬ রাখিবে। আর তাম্বুর দ্বারের নিমিত্তে নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদা মসীন সূত্রনিৰ্ম্মিত শিল্প৩৭ কারের কৃত এক পর্দা প্রস্তুত করিবে। আর সেই পর্দার নিমিত্তে শিটীম কাঠের পাচটী স্তস্ত নিৰ্ম্মাণ করিয়া স্বর্ণে মুড়িবে, ও স্বর্ণ দ্বারা তাহার আঁকড়া প্রস্তুত করিবে, এবং তাহার নিমিত্তে পিত্তলের পাচ চুঙ্গি ঢালিবে । হোমার্থক বেদি । २१ আর তুমি শিটীম কাষ্ঠ দ্বারা পাচ হস্ত দীর্ঘ, পাঁচ হস্ত প্রস্থ বেদি নিৰ্ম্মাণ করিবে । সেই বেদি ২ চতুষ্কোণ এবং তিন হস্ত উচ্চ হইবে। আর তাহার চারি কোণের উপরে শৃঙ্গ করিবে, সেই বেদির শৃঙ্গ সকল তৎসহ অখণ্ড হইবে, এবং তুমি তাহ পিত্তলে ৩ মুড়িবে। আর তাহার ভস্ম লইবার নিমিত্তে হাড়ী প্রস্তুত করিবে, এবং তাহার হাত, বাটি, ত্রিশূল ও অঙ্গরধানী গড়িবে ; তাহার সমস্ত পাত্র পিত্তল দিয়া গড়িবে। ৪ আর জালের স্যায় পিত্তলের এক ঝাঝর গড়িবে, এবং সেই ঝাঝরীর উপরে চারি কোণে পিত্তলের চারি কড়া ৫ প্রস্তুত করিবে । এই ঝাঝরী নিম্নভাগে বেদির বেড়ের নীচে রাখিবে, এবং ঝাঝরী বেদির মধ্য পয্যন্ত ৬ থাকিবে । আর বেদির নিমিত্তে শিটীম কাঠের বহন৭ দণ্ড করিবে, ও তাহ পিত্তলে মুড়িবে। আর কড়ার মধ্যে ঐ বহন-দণ্ড দিবে ; বেদি বহনকালে তাহার দুই ৮ পার্শ্বে সেই বহন-দণ্ড থাকিবে। তুমি ফাঁপা করিয়া তক্ত দিয়া তাহ। গড়িবে ; পৰ্ব্বতে তোমাকে যেরূপ দেখান গেল, লোকের সেইরূপে তাহা করিবে । প্রাঙ্গণ ৷ ৯ আর তুমি আবাসের প্রাঙ্গণ নিৰ্ম্মাণ করিবে ; দক্ষিণ পার্শ্বে, দক্ষিণদিকে পাকান সাদা মসীন সূত্রনিৰ্ম্মিত যবনিকা থাকিবে ; তাহার এক পাশ্বের দীর্ঘত এক ১০ শত হস্ত হইবে । তাহার বিংশতি স্তম্ভ ও বিংশতি চুঙ্গি পিত্তলের হইবে, এবং স্তস্তের আঁকড়া ও শলাক ১১ সকল রৌপ্যের হইবে । তদ্রুপ উত্তর পাশ্বে এক শত হস্ত দীর্ঘ যবনিকা হইবে, আর তাহার বিংশতি স্তন্ত ও বিংশতি চুঙ্গি পিত্তলের হইবে ; এবং স্তস্তের আঁকড় ১২ ও শলাকা সকল রৌপ্যের হইবে। আর প্রাঙ্গণের প্রস্থের নিমিত্তে পশ্চিমদিকে পঞ্চাশ হস্ত যবনিক ও যাত্রাপুস্তক ।

  • >

১৩ তাহার দশ স্তস্ত ও দশ চুঙ্গি হইবে । আর প্রাঙ্গণের ১৪ প্রস্থ পুৰ্ব্ব পার্থে পূর্বদিকে পঞ্চাশ হস্ত হইবে। দ্বিারের] এক পাশ্বের জন্ত পনের হস্ত যবনিক, তিন স্তম্ভ ও ১৫ তিন চুঙ্গি হইবে। আর অন্ত পাশ্বের জন্তও পনের ১৬ হস্ত যবনিক, তিন স্তম্ভ ও তিন চুঙ্গি হইবে। আর প্রাঙ্গণের দ্বারের নিমিত্তে নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদ। মসীন সূত্রে শিল্পকারের কৃত বিংশতি হস্ত এক পর্দা ও তাহার চারি স্তম্ভ ও চারি চুঙ্গি হইবে। ১৭ প্রাঙ্গণের চারিদিকের স্তম্ভ সকল রৌপ্য-শলাকাতে বদ্ধ হইবে, ও সেগুলির আঁকড়া রৌপ্যময়, ও চুঙ্গি পিত্তলের হইবে । প্রাঙ্গণের দীর্ঘত এক শত হস্ত, প্রস্থ সৰ্ব্বত্র পঞ্চাশ হস্ত, এবং উচ্চতা পাচ হস্ত হইবে, সকলই পাকান সাদা মসীন স্থত্রে করা যাইবে, ও তাহার পিত্তলের ১৯ চুঙ্গি হইবে। আবাসের যাবতীয় কাৰ্য্য সম্বন্ধীয় সমস্ত দ্রব্য ও গোজ এবং প্রাঙ্গণের সকল গোজ পিত্তলের হইবে। আর তুমি ইস্রায়েল-সন্তানগণকে এই আদেশ করিবে, যেন তাহারা আলোর জন্ত উথলিতে প্রস্তুত জিততৈল তোমার নিকটে আনে, যাহাতে নিয়ত ২১ প্রদীপ জ্বালান থাকে। আর সমাগম-তাম্বুতে সাক্ষ্যসিন্দুকের সম্মুখে স্থিত তিরস্করিণীর বাহিরে হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ সন্ধ্য অবধি প্রাতঃকাল পর্য্যন্ত সদাপ্রভুর সম্মুখে তাহ প্রস্তুত রাখিবে ; ইহা ইস্রায়েলসন্তানদের পুরুষানুক্রমে পালনীয় চিরস্থায়ী বিধি । যাজকীয় বস্ত্র । રbr আর তুমি আমার যাজনার্থে ইস্রায়েল-সন্তানগণের মধ্য হইতে তোমার ভ্রাত। হারোণকে ও তাহার সঙ্গে তাহার পুত্রগণকে আপনার নিকটে উপস্থিত করিবে ; হারেীণ এবং হারোণের পুত্ৰ নাদব, অবীহ্, ইলীয়াসর ও ঈখামরকে উপস্থিত করিবে। ২ আর তোমার ভ্রাতা হারোণের জন্য, গৌরব ও শোভার নিমিত্তে তুমি পবিত্র বস্ত্র প্রস্তুত করবে। ৩ আর আমি যাহাদিগকে বিজ্ঞতার আত্মায় পুর্ণ করিয়াছি, সেই সকল বিজ্ঞমন লোকদিগকে বল, যেন আমার যাজনার্থে হারোণকে পবিত্র করিতে ৪ তাহারা তাহার বস্ত্র প্রস্তুত করে। এই সকল বস্ত্র তাহার প্রস্তুত করিবে ; বুকপাট, এফোদ, পরিচ্ছদ, চিত্রিত অঙ্গরক্ষক বস্ত্র, উষ্ণীষ ও কটিবন্ধন ; তাহার। আমার যাজনার্থে তোমার ভ্রাতা হারোণের ও তাহার ৫ পুত্ৰগণের নিমিত্তে পবিত্র বস্ত্র প্রস্তুত করবে। তাহার স্বর্ণ এবং নীল, বেগুনে ও লাল এবং সাদা মদীনা সূত্ৰ লইবে । ৬ আর তাহারা স্বর্ণ এবং নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদা মদীনা স্থত্রে শিল্পকারের কৰ্ম্ম দ্বারা এফোদ ৭ প্রস্তুত করিবে। তাহার দুই মুড়াতে পরস্পর সংযুক্ত দুই স্কন্ধপটি থাকিবে ; এইরূপে তাহ যুক্ত হইবে ; >b* Ro 71 १ १. ৮ এবং তাহ বদ্ধ করিবার জন্য বুনানি করা যে পটুকী তাহার উপরে থাকবে, তাহ। তৎসহিত অখণ্ড এবং সেই বস্ত্রের তুল্য হইবে ; অর্থাৎ স্বর্ণে এবং নীল, ৯ বেগুনে, লাল ও পাকান সাদা মদীনা সুত্রে হইবে । পরে তুমি দুই গোমেদক মণি লইয়া তাহার উপরে ইস্রা১০ য়েলের পুত্রদের নাম খুদিবে। তাহীদের জন্মক্রম অনুসারে ছয় নাম এক মণির উপরে, ও অবশিষ্ট ছয় ১১ নাম অন্ত মণির উপরে খুদিবে। শিল্পকৰ্ম্ম ও মুদ্র। খুদনের ন্যায় সেই দুই মণির উপরে ইস্রায়েলের পুত্রদের নাম খুদিব, এবং তাহা দুই স্বর্ণস্থালীতে বদ্ধ করিবে । ১২ আর ইস্রায়েল-সন্তানদের স্মরণার্থক মণিস্বরূপে তুমি সেই দুই মণি এফোদের দুই স্কন্ধপটিত দিবে ; তাহতে হারোণ স্মরণ করাইবার নিমিত্তে সদাপ্রভুর সম্মুখ আপনার দুই স্কন্ধ তাহদের নাম বহিবে । ১৩ আর তুমি দুই স্বর্ণস্থালী করিবে, এবং নিৰ্ম্মল স্বর্ণ ১৪ দ্বারা পাকান দুই মাল্যবৎ শৃঙ্খল করিয়৷ সেই পাকান ১৫ শৃঙ্খল সেই দুই স্থালীতে বদ্ধ করিবে। আর শিল্পকারের কৰ্ম্মে বিচারাখক বুকপট। করিবে ; এফেদের কৰ্ম্মামুসারে করবে ; স্বর্ণ এবং নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদ। মসীন সূত্রর দ্বার। তাহ প্রস্তুত করিবে । ১৬ তাহ চতু ক্ষণ ও দোহার হইবে ; তাহার দীর্ঘত এক ১৭ বিঘত ও ২ স্থ এক বিঘ ত হইবে । আর তাহ চারি পংক্তি মণিতে খচিত করিবে ; তাহার প্রথম পংক্তিতে ১৮ চুণী, পী তমণি ও মরকত ; দ্বিতীয় পংক্তিতে পদ্মরাগ, ১৯ নীলকান্ত ও হ রক ; তৃতীয় পংক্তিতে পেরোজ, যিন্ম ও ২• কটাহেল ; এবং চতুখ পঃক্তিতে বৈদূৰ্য্য, গোমেদক ও সূৰ্য্য কান্ত ; এই সকল স্ব স্ব পংক্তি-ত স্বর্ণে অাট। ২১ হহবে । এই মণি হস্রায়েলের পুত্রদের নামানুযায়ী হইবে, তাহদের নাম নুসারে দ্বাদশটা হইবে ; মুদ্রার দ্যায় খোদিত ও ত্যেক মণিতে ঐ দ্বাদশ বংশের জন্ত ২২ এক এক পুত্রের নাম থাকিবে । আর তুমি নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দিয়া বুকপাটার উপরে মাল্যবৎ পাকান দুই শৃঙ্খল ২৩ নিৰ্ম্মাণ করিয়া দিবে। আর বুকপটার উপরে স্বর্ণের দুই কড়া গড়য়া দিবে, এবং বুকপাটার দুই প্রান্ত ঐ ২৪ জুই কড়া বাধিবে । আর বুকপটার দুই প্রান্তস্থিত দুই কড়ার মধ্যে পাকান স্বর্ণের ঐ দুই শৃঙ্খল রাখিবে । ২৫ আর পাকান শৃঙ্খলের দুই মুড়া সেই দুই স্থালীতে বদ্ধ করিয়া এফোদের সম্মুখে দুই স্কন্ধপটির উপরে রাখিবে । ২৬ তুমি স্বর্ণের দুই কড়া গড়িয়া বুকপাটার দুই প্রান্তে ২৭ এফোদের সম্মুখস্থ ভিতরভাগে রাখিলে । আরও দুই স্বর্ণকড় গড়িয়া এফেদের দুই স্কন্ধপটির নীচে তাহার সম্মুখভাগে যোড়স্থানে এফোদের বুনন করা পটুকর ২৮ উপরে তাহ রাখবে। তাহাতে বুকপাট৷ যেন এফদের বুনানি করা পটুকার উপরে থাকে, এফোদ ইহতে খসিয়া না পড়ে, এই জন্য তাহার কড়াতে নীলস্বত্র দিয়া এফোদের কড়ার সহিত বুকপট বদ্ধ করিয়া ২৯ রাখিবে । যে সময়ে হারাণ পবিত্র স্থানে এ বেশ করিবে, তৎকালে সদাপ্রভুর সম্মুখে নিয়ত স্মরণ যাত্রীপুস্তক । [ ペレ; ケー8○ l করাইবার জন্ত সে বিচারার্থক বুকপাটাতে ইস্রায়েলের পুত্রদের নাম আপন হৃদয়ের উপরে বহন করিবে । আর সেই বিচারাথক বুকপাটায় তুমি উরম ও তুৰ্ম্মম দীপ্তি ও সিদ্ধত] দিবে , তাহতে হারাণ যে সময়ে সদাপ্রভুর সম্মুখে প্রবেশ করিবে, তৎকালে হারোণের হৃদয়ের উপরে তাহ থাকিবে, এবং হারোণ সদা ভুর সম্মুখে ইস্রায়েল-সন্তানদের বিচার নিয়ত আপন হৃদয়ের উপরে বহিবে । আর তুমি এফোদের সমুদয় পরিচ্ছদ নীলবর্ণকরবে। ৩২ তাহার মধ্যস্থলে শিরঃপ্রuবশাথে এক ছিদ্র থাকিবে : বৰ্ম্মের গলার স্থায় সেই ছিদ্রের চারিদিকে তত্ত্ববায়ের ৩৩ কৃত ধ।fর থাকিবে, তাহাতে তাহ ছাড়বে না । আর তুমি তাহার আচলায় চারিদিকে ন ল, বেগুনে ও লাল দাড়িম করিবে, এবং চারিদিকে তাহার ৩৪ মধ্যে মধ্যে স্বর্ণের কিঙ্কিণী থাকিবে । ঐ পরিচ্ছদের আঁচলায় চারিদিকে এক স্বর্ণকিঙ্কণ ও এক দাড়িম এবং ৩৫ এক স্বর্ণকিঙ্কিণী ও এক দাড়িম থাকিবে। আর হারাণ পরিচর্য্য৷ করিবার নিমিত্তে তাহ পরিধান করিবে: তাহাতে সে যখন সদাপ্রভুর সম্মুখে পবিত্র স্থান প্র-বশ করবে, ও সেখান হইতে যখন বাহির হইবে, তখন কিঙ্কিণার শব্দ শুন যাইবে ; তাহতে সে মারবে না। আর তুমি নিৰ্ম্মল স্বর্ণের এক পাত প্রস্তুত করিয়৷ মুদ্রার স্যায় তাহার উপরে "সদাপ্রভুর উদ্দেশে পবিত্র” ৩৭ এহ কথা খুদিবে। তুমি তাহী নল স্থত্রে বদ্ধ করিয়া রাখিবে ; তাহ উধীষের উপরে থাকবে, উষ্ণীফের ৩৮ সম্মুখভাগেই থাকিবে । আর তাহ হারোণের কপালের উপরে থাকবে, তাহাতে হস্রায়েল-সন্তানেরা আপনাদের সমস্ত পবিত্র দানে যে সকল দ্রব্য পবিত্র করবে, হারোণ সেই সকল পবিত্র দ্রব্যের অপরাধ বহুন করিবে, এবং তাহারা যেন সদাপ্রভুর কাছ গ্রাহ হয়, এই জন্য উহ। নিয়ত তাহার কপালে র উপরে থাকিব । আর তুমি চিত্রিত সাদ মদীনা স্বত্র দ্বার অঙ্গরক্ষিণী বুনিবে, এবং সাদ। মসন। স্বত্র দ্বারা উষ্ণীষ প্রস্তুত করবে ; এবং কটিবন্ধন স্বচ দ্বার। শল্পিত করিব । আর হারোণের পুত্ৰগণের জন্ত অঙ্গরক্ষক বস্ত্র ও কটিবন্ধন ও স্তুত করবে, এবং গৌরব ও শোভার ৪১ জন্য শিরোভূষণ করিয়া দিবে। আর তোমার ভ্রাত হারোণের ও তাহার পুত্ৰগণের গাত্র সে স ফল পরাইবে, এবং তাহদের অভিষেক ও হস্তপূরণ কfরয় তাহাদিগকে পবিত্র করিব, তাহাত তােহর আমার ৪২ যাজনকৰ্ম্ম করবে। তুমি তাই।দর উলঙ্গ তার আচ্ছাদনাথে কটি অবধি জঙ্ঘ। পয্যন্ত শুক্ল জডিধয়া ৪৩ প্রস্তুত করিবে । আর যখন হারোণ ও ত৷হার পুত্ৰগণ সমাগম-তত্ত্বতে প্রবেশ করবে, কিম্ব। পবিত্র স্থান পরিচয্য করণার্থে বেদির নিকটবৰ্ত্তী হইবে, তৎকালে যেন অপরাধ বহিয়া না মর, এই জন্ত তাহার এই বস্ত্র পরিধান করিবে ; ইহা হারাণ ও তাহার ভাবী ংশের পালনীয় চিরস্থায়ী বিধি । చిe ○3 33 vులిసె 8 e 72 *> ; >ーや81] যাজকদের নিয়োগ বিষয়ক আদেশ । ২৯ আর আমার যাজন কৰ্ম্ম করার্থে তাহাদিগকে পবিত্র করিবার জন্ত তুমি তাহদের প্রতি এই সকল কৰ্ম্ম করিবে ; নির্দোষ একটা পুংগোবৎস ও ২ দুইটী মেধ লইবে ; আর তাড়াশুন্ত রুট, তৈলমিশ্রিত তাড় শুষ্ঠ পিষ্টক ও তৈলাক্ত তাড়াশূন্ত সরুচাকলী ৩ গোমের ময়দা দ্বারা প্রস্তুত করবে ; এবং সেইগুলি এক ডালিতে রাখিবে, আর সেই ডালিতে করিয়৷ ৪ আনিবে, এবং ঐ গোবৎস ও দুই মেষ আনিবে। আর হারেশকে ও তাহার পুত্রগণকে সমাগম-তাম্বুর দ্বার৫ সমীপে আনিয়া জলে স্নান করাইবে । আর সেই সকল বস্ত্ৰ লইয়া হারোণকে অঙ্গ রক্ষিণী, এফোদের পরিচ্ছদ, এফেদ ও বুকপাট পরাইবে, এবং এফোদের বুনানি ৬ করা পটুক তাহাত আবদ্ধ করিবে। আর তাহার মস্তকে উৎীষ দিবে, ও ডক্টধের উপরে পবিত্র মুকুট ৭ দিবে। পরে অভিষেকাৰ্থ তৈল লইয়। তাহার মস্তকের ৮ উপরে ঢালিয় তাহাকে অভিষিক্ত করবে। আর তুমি তাহার পুত্ৰগণক আনিয়া অঙ্গরক্ষক বস্ত্র পরাইবে । ৯ আর হারাণকে ও তাহার পুত্রগণকে কটিবন্ধন পরাইবে, ও তাহীদের মস্তকে শিরোভূষণ বাধিয়া দিব ; তাহাতে যাজক স্বপদে তাহদের চিরস্থায়ী অধিকার থাকবে। আর তুমি হারোণের ও তাহার ১• পুত্ৰগণের হস্তপূরণ করবে। পরে তুমি সমাগম-তমুর সমুখ সেই গোবৎসকে আনাইবে, এবং হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ গোবত্সটার মস্তক হস্তার্পণ করবে । ১১ তখন তুমি সমাগম-তাম্বুর দ্বারসমীপে সদাপ্রভুবু সন্মুখ ১২ ঐ গোবৎস হনন কার.ব । পরে গোবৎসের কিঞ্চিৎ রক্ত লইয়া অঙ্গুলি দ্বারা বেদির শৃঙ্গর উপরে দিব, ১৩ এবং বেদির মূল সমস্ত রক্ত ঢালয় দিবে। আর তাহার অন্ত্রের উপরিস্থত সমস্ত মেদ ও যকৃতের উপরিস্থ অন্ত প্লাবক ও &ই মেটিয়া ও তদুপরিস্থ মেদ ১৪ লইয়। বেদিত দগ্ধ করবে। কিন্তু গোবং টার মাংস ও তাহার চৰ্ম্ম ও গোময় শিবিরের বাহিরে অগ্নিতে পোড়াহয়। দিবে ; তাহ পাপার্থক বলি। ১৫ পরে তুমি প্রথম মেষটা আনিবে, এবং হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ সেই মেষের মস্তক হস্তার্পণ করবে। ১৬ পরে তুমি সেই মেষ হনন করিয়া তাহার রক্ত লইয়৷ ১৭ বেদির উপরে চারিদিক ছিটাইয়া দিবে। পরে তুমি মেষটী খণ্ড খণ্ড করিবে, তাহার অন্ত্র ও পদ ধৌত করিবে, আর ঐ খণ্ড সকলের ও মস্তকের উপরে ১৮ রাখিব। পর সমস্ত মেষটী বেদিতে দগ্ধ করিবে ; তাহ সদাপ্রভুর উদ্দেশে হোমবলি, সদাপ্রভুর উদেশে সৌরভার্থক অগ্নিকুত উপহার। ১৯ পরে তমি দ্বিতীয় মেঘট লইবে, এবং হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ ঐ মে.ষর মস্তকে হস্তপণ করিবে । ২০ পরে তুমি সেই মেষ হনন করিয়া তাহার কিঞ্চিৎ রক্ত লইয়া হারোণের দক্ষিণ কর্ণের প্রান্তে ও তাহার পুত্র যাত্রাপুস্তক। 今 ○ গণের দক্ষিণ কর্ণের প্রান্তে ও তাহদের দক্ষিণ হস্তের অঙ্গু গুর উপরে ও দক্ষিণ পদের অঙ্গুষ্ঠের উপরে দিবে, এবং বেদির উপরে চারিদিকে রক্ত ছিটাইয়া দিবে। ২১ পরে বেদির উপরিস্থিত রক্তের ও অভি.ষকাৰ্থ তৈলের কিঞ্চিৎ লইয়া হারোণের উপরে ও তাহার বস্ত্রের উপরে এবং তাহার সহিত তাহার পুত্র.দর উপরে ও তাহাদের বস্ত্রের উপরে ছিটাইয়া দিবে ; তাহাতে সে ও তাহার বস্ত্র এবং তাহার সহিত তাহার পুত্ৰগণ ও তাহtuদর বস্ত্র ২২ পবিত্র হইবে । পরে তুমি সেই মেষর মেদ, লাঙ্গুল ও অন্ত্রের উপরিস্থ মেদ ও যকৃতের উপরিস্থ অন্ত্রাপ্লাবক ও দুই মেটিয়া ও তদুপরিস্থ মেদ ও দক্ষিণ জঙ্ঘা লইবে, ২৩ কেননা সে হস্তপূরণার্থক মেষ। পরে তুমি সদাপ্রভুর সম্মুখ স্থত তাড় শূন্ত রটার ডালি হইতে এক রুট ও তৈলমিশ্রিত এক পিষ্টক ও এক সরুচাকলী লইবে : ২৪ এবং হারোণের হস্তে ও তাহার পুত্ৰগণের হস্তে তৎসমুদয় দিয়া দোলনীয় উপহারার্থে সদাপ্রভুর সম্মুখে তাহ। ২৫ দোলাইবে । পরে তুমি তাহীদের হস্ত হইতে তাহ। লইয়া সদাপ্রভুর সম্মুখে সোরভার্থে বেদত হোমর্থক বলির উপরে দগ্ধ করিব ; তাহ সদাপ্রভুর উদ্দেশে অগ্নিকৃত উপহার। ২৬ পরে তুমি হারোণের হস্তপূরণার্থক মেষের বক্ষঃস্থল লইয়। দোলনীয় উপহারার্থে সদাপ্রভুর সম্মুখ দোলা২৭ ইবে ; তাহা তোমার অংশ হইবে। পরে হারোণের ও তাহার পুত্ৰগণের হস্তপুরণার্থক মেষের যে দোলনীয় উপহার বক্ষঃস্থল দোলায়িত ও যে উত্তালনীয় উপহার জঙ্ঘ উত্তলিত হইল, তাহা তুমি পবিত্র করিবে । ২৮ তাহতে ইস্রায়েল-সন্তানগণ হইতে তাহ। হারোণের ও তাহর সন্তানগণের চিরস্থায়ী অধিকার হইবে, কেননা তাহাই উত্তোলনীয় উপহার ; ইস্রায়েল-সন্তানগণের এই উত্তালনীয় উপহার তাহদের মঙ্গলার্থক বলি হইতে দেয় ; ইহ সদাপ্রভুর উদ্দেশে তাহদের উত্তোলনীয় উপহার। ২৯ আর হারোণের পরে তাহার পবিত্র বস্ত্র সকল তাহার পুত্ৰগণের হইবে ; অভিষেক ও হস্তপুরণ সময়ে ৩০ তাহারা তাহ পরিধান করিবে । তাহার পুত্রদের মধ্য যে তাহার পদে যাজক হইয়। পবিত্র স্থানে পরিচর্য্য। করিতে সমাগম তাম্বুতে প্রবেশ করবে, সে সেই বস্ত্র সাত দিন পারবে । পরে তুমি সেই হস্তপূরণার্থক মেষের মাংস লইয়! কোন পবিত্র স্থানে পাক করিবে, এবং হারাণ ও তাহার পুত্ৰগণ সমাগম-তাম্বুর দ্বারে সেই মেঘমাংস ৩০ ও ডালিতে স্থিত সেই রুট ভোজন করিবে । আর হস্তপূরণ দ্বারা তহদিগক পবিত্র করণাথে যাহা দিয়া প্রায়শ্চিত্ত করা হইল, তাহ তাহারা ভোজন করিবে ; কিন্তু অপর কোন লোক তাহ। ভোজন করিবে না, ৩s কারণ সে সকল পবিত্র বস্তু । আর ঐ হস্তপুরণার্থক মাংস ও রুট হইতে যদি প্রাতঃকাল পয্যন্ত কিছু অবশিষ্ট থাকে, তবে সেই অবশিষ্ট অংশ অগ্নিতে う ు) 73 8 পোড়াইয়া দিবে ; কেহ তাহ ভোজন করিবে না, ৩৫ কারণ তাহ পবিত্র বস্তু। আমি তোমাকে এই যে সকল আজ্ঞা করিলাম, তদনুসারে হারোণের প্রতি ও তাহার পুত্ৰগণের প্রতি করিবে ; সাত দিন তাহদের ৩৬ হস্তপূরণ করবে। আর তুমি প্রায়শ্চিত্তের কারণ প্রতিদিন পাপার্থক বলিরূপে এক একটী পুংগোবৎস উৎসর্গ করিবে, এবং প্রায়শ্চিত্ত করিয়া বেদিকে মুক্তপাপ করিবে, আর তাহ পবিত্র করণার্থে অভিষেক ৩৭ করিবে। তুমি বেদির নিমিত্তে সাত দিন প্রায়শ্চিত্ত করিয়া তাহ পবিত্র করিবে ; তাহাতে বেদি অতি পবিত্র হইবে ; যে কেহ বেদি স্পর্শ করে, তাহার পবিত্র হওয়া চাই । দৈনিক উপহার। ৩৮ সেই বেদির উপরে তুমি এই বলি উৎসর্গ করিবে ; ৩৯ নিয়ত প্রতিদিন একবর্ষীয় দুইটী মেষশাবক : একটা মেষশাবক প্রাতঃকালে উৎসর্গ করিবে, ও অন্তটী ৪০ সন্ধ্যাকালে উৎসর্গ কfরবে। আর প্রথম মেষশাবকের সহিত উথলিতে প্রস্তুত হিন পাত্রের চতুর্থাংশ তৈলে মিশ্রিত [ঐফ] পাত্রের দশমাংশ ময়দা, এবং পেয় নৈবেদ্যের কারণ হিনের চতুর্থাংশ দ্রাক্ষারস দিবে। ৪১ পরে দ্বিতীয় মেষশাবকট সন্ধ্যাকালে উৎসর্গ করিবে, এবং প্রাতঃকালের মতানুসারে ভক্ষ্য ও পেয় নৈবেদ্যের সহিত তাহাও সদাপ্রভুর উদ্দেশে সৌরভার্থক অগ্নিকৃত ৪২ উপহার বলিয়৷ উৎসর্গ করিবে । ইহা তোমাদের পুরুষানুক্রমে নিয়ত [কৰ্ত্তব্য) হোম ; সমাগম-তাম্বুর দ্বারসমীপে সদাপ্রভুর সম্মুখে, যে স্থানে আমি তোমার সহিত আলাপ করিতে তোমাদের কাছে দেখা দিব, ৪৩ সেই স্থানে [ইহ। কৰ্ত্তব্য]। সেখানে আমি ইস্রায়েলসন্তানগণের কাছে দেখা দিব, এবং আমার প্রতাপে ৪৪ তাম্বু পবিত্রীকৃত হইবে। আর আমি সমাগম-তাঞ্জু ও বেদি পবিত্র করিব, এবং আমার যাজনকৰ্ম্ম করণার্থে ৪৫ হারোণকে ও তাহার পুত্রগণকে পবিত্র করিব। আর আমি ইস্রায়েল-সন্তানগণের মধ্যে বাস করিব, ও ৪৬ তাহদের ঈশ্বর হইব। তাঁহাতে তাহারা জানিবে যে, আমি সদাপ্রভু, তাহদের ঈশ্বর, আমি তাহাদের মধ্যে বাস করণার্থে মিসর দেশ হইতে তাহাদিগকে বাহির করিয়া আনিয়াছি; আমিই সদাপ্রভু, তাহদের ঈশ্বর। তাম্বু সম্বন্ধীয় পাত্রাদির বিষয়। ধুপৰেদি | ඌය ) তুমি ধূপদাহ করিবার জন্য এক বেদি নিৰ্ম্মাণ করিবে , শিটীম কাষ্ঠ দিয় তাহ নিৰ্ম্মাণ করিবে। তাহ এক হস্ত দীর্ঘ ও এক হস্ত প্রস্থ চতুস্কোণ হইবে, এবং দুই হস্ত উচ্চ হইবে, তাহার শৃঙ্গ ৩ সকল তাহার সহিত অখণ্ড হইবে। আর তুমি সেই বেদি, তাহার পৃষ্ঠ ও চারি পাশ্ব ও শৃঙ্গ নিৰ্ম্মল স্বর্ণে মুড়িবে, এবং তাহার চারিদিকে স্বর্ণের নিকাল যাত্রাপুস্তক । [ R> ; ○cー○o ; Rot ৪ গড়িয়া দিবে। আর তাহার নিকালের নীচে দুই কোণের নিকটে স্বর্ণের দুই দুই কড়া গড়িয়া দিবে, দুই পার্থে গড়িয়া দিবে ; তাহা বেদি বহনাৰ্থ বহন৫ দণ্ডের ঘর হইবে। আর ঐ বহন-দও শিটীম কাষ্ঠ দ্বারা ৬ প্রস্তুত করিয়া স্বর্ণ দিয়া মুড়িবে। আর সাক্ষ্য-সিন্দুকের নিকটস্থ তিরস্করিণীর অগ্রদিকে, সাক্ষ্য-সিন্দুকের উপরিস্থ পাপাবরণের সম্মুখে তাহ রাখিবে, সেই ৭ স্থানে আমি তোমার কাছে দেখা দিব। আর হারোণ তাহার উপরে সুগন্ধি ধূপ জ্বালাইবে ; প্রতি প্রভাতে প্রদীপ পরিষ্কার করিবার সময়ে সে ঐ ধুপ জ্বালাইবে। ৮ আীর সন্ধ্যাকালে প্রদীপ জ্বালাইবার সময়ে হারোণ ধূপ জ্বালাইবে, তাহাতে তোমাদের পুরুষানুক্রমে ৯ সদাপ্রভুর সম্মুখে নিয়ত ধূপদাহ হইবে । তোমরা তাহার উপরে ইতর ধুপ কিম্বা হোমবলি কিম্বা ভক্ষ্য নৈবেদ্য উৎসর্গ করিও না, ও তাহার উপরে পেয় ১০ নৈবেদ্য ঢালিও না । আর বৎসরের মধ্যে এক বার হারোণ তাহার শৃঙ্গের জন্য প্রায়শ্চিত্ত করিবে ; তোমাদের পুরুষানুক্রমে বৎসরের মধ্যে এক বার প্রায়শ্চিত্তার্থক পাপবলির রক্ত দিয়া তাহার জন্য প্রায়শ্চিত্ত করিবে; এই বেদি সদাপ্রভুর উদ্দেশে অতি পবিত্র। প্রাণের প্রায়শ্চিত্ত । ১১ পরে সদাপ্রভু মোশিকে এই কথা কহিলেন, ১২ তুমি যখন ইস্রায়েল সন্তানদের সংখ্যা গ্রহণ কর, তখন যাহাদিগকে গণনা করা যায়, তাহারা প্রত্যেকে গণনাকালে সদাপ্রভুর কাছে আপন আপন প্রাণের জন্ত প্রায়শ্চিত্ত করিবে, যেন তাহীদের মধ্যে গণনাকালে ১৩ আঘাত না হয়। তাহীদের দেয় এই : যে কেহ গণিত লোকদের মধ্যে আসিবে, সে পবিত্র স্থানের শেকল অনুসারে অৰ্দ্ধশেকল দিবে ; বিংশতি গেরাতে এক শেকল হয় ; সেই অৰ্দ্ধশেকল সদাপ্রভুর উদ্দেশে ১৪ উপহার হইবে । বিংশতি বৎসর বয়স্ক কিম্বা তাহার অধিক বয়স্ক যে কেহ গণিত লোকদের মধ্যে আসিবে, ১৫ সে সদাপ্রভুকে ঐ উপহার দিবে। তোমাদের প্রাণের জন্য প্রায়শ্চিত্ত করণার্থে সদাপ্রভুকে সেই উপহার দিবার সময়ে ধনবান অৰ্দ্ধ শেকলের অধিক দিবে না, ১৬ এবং দরিদ্র তাহার কম দিবে না। আর তুমি ইস্রায়েল-সন্তানগণ হইতে সেই প্রায়শ্চিত্তের রৌপ্য লইয়া সমাগম-তাম্বুর কার্য্যের জন্ত দিবে ; তোমাদের প্রাণের প্রায়শ্চিত্তের নিমিত্তে তাহ ইস্রায়েল-সন্তানদের স্মরণার্থে সদাপ্রভুর সম্মুখে থাকিবে । প্রক্ষালন-পাত্ৰ । ১৭,১৮ আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি প্রক্ষালন কার্য্যের জন্ত পিত্তলময় এক প্রক্ষালন-পাত্র ও তাহার পিত্তলময় খুর প্রস্তুত করিবে ; এবং সমাগম-তমুর ও বেদির মধ্যস্থানে রাখিবে, ও তাহার মধ্যে জল দিবে। ১৯ হারোণ ও তাঁহার পুত্ৰগণ তাহাতে আপন আপন হস্ত ২• ও পদ ধৌত করিবে । তাহারা যেন না মরে, 74 ○o ; ミ>ー○> ; >b I ] এই জষ্ঠ সমাগম-তাম্বুতে প্রবেশ কালে জলে আপনাদিগকে ধৌত করিবে ; কিম্বা পরিচর্য্য করণার্থে, সদাপ্রভুর উদ্দেশে অগ্নিকৃত উপহার দগ্ধ করণার্থে বেদির ২১ নিকটে আগমন কালে আপন আপন হস্ত ও পদ ধৌত করিবে, তাহারা যেন না মরে, এই জন্ত করিবে ; ইহা তাহাদের পক্ষে চিরস্থায়ী বিধি, পুরুষানুক্রমে হারোণ ও তাহার বংশের নিমিত্ত । পবিত্র তৈল ও ধূপ ৷ ২২২৩ আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি আপনার নিকটে উত্তম উত্তম সুগন্ধি দ্রব্য, অর্থাৎ পবিত্র স্থানের শেকল অনুসারে পাচ শত শেকল নিৰ্ম্মল গন্ধরস, তাহার অৰ্দ্ধ অর্থাৎ আড়াই শত শেকল সুগন্ধি দারু২৪ চিনি, আড়াই শত শেকল হগন্ধি বচ, পাঁচ শত শেকল স্বক্ষ দারুচিনি ও এক হিন জিততৈল লইবে । ২৫ এই সকলের দ্বারা তুমি অভিষেকাৰ্থ পবিত্র তৈল, গন্ধবণিকের প্রক্রিয় মতে কৃত তৈল প্রস্তুত করবে, তাহ ২৬ অভিষেকীর্থ পবিত্র তৈল হইবে । আর তদ্বারা তুমি ২৭ সমাগম-তাম্বু, সাক্ষ্য-সিন্দুক,মেজ ওতাহার সকল পাত্র, ২৮ দ্বীপবৃক্ষ ও তাহার সকল পাত্র, ধূপবেদি, হোমবেদি ও তাহার সকল পাত্র, এবং প্রক্ষালনপাত্র ও তাহার ২৯ খুর অভিষেক করিবে। আর এই সকল বস্তু পবিত্র করিবে, তাহাতে তাহ অতি পবিত্র হইবে ; যে কেহ ৩০ তাহ স্পশ করে, তাহার পবিত্র হওয়া চাই। আর তুমি হারোণকে ও তাহার পুত্ৰগণকে আমার যাজন৩১ কৰ্ম্ম করণার্থে অভিষেক করিয়া পবিত্র করিবে। আর ইস্রায়েল-সন্তানগণকে বলিবে, তোমাদের পুরুষানুক্রমে আমার নিমিত্তে তাহ পবিত্র অভিষেকাৰ্থ তৈল হইবে । ৩২ মনুষ্যর গাত্রে তাহ ঢাল। যাইবে না ; এবং তোমরা তাহার দ্রব্যের পরিমাণানুসারে তৎসদৃশ আর কোন তৈল প্রস্তুত করিবে না : তাহ পবিত্র, তোমাদের ৩৩ পক্ষে পবিত্র হইবে । যে কেহ তাহীর মত তৈল প্রস্তুত করে, ও যে কেহ পরের গাত্রে তাহার কিঞ্চিৎ দেয়, সে আপন লোকদের মধ্য হইতে উচ্ছিন্ন হইবে । আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি আপনার নিকটে সুগন্ধি দ্রব্য লইবে,— গুগগুলু, নর্থী, কুন্দুরু ; এই সকল সুগন্ধি দ্রব্যের ও নিৰ্ম্মল লবানের প্রত্যেকটী ৩৫ সমভাগ করিয়া লইবে । আর উহা দ্বারা গন্ধবণিকের প্রক্রিয় মতে কৃত ও লবণমিশ্রিত এক নিৰ্ম্মল পবিত্র ৩৬ সুগন্ধি ধূপ প্রস্তুত করিবে। তাহার কিঞ্চিৎ চুর্ণ করিয়া, যে সমাগম-তাম্বুতে আমি তোমার সহিত সাক্ষাৎ করিব, তাহার মধ্যে সাক্ষ্য-সিন্দুকের সম্মুখে তাহ রাখিবে ; তাহ তোমাদের জ্ঞানে অতি পবিত্র হইবে । ৩৭ এবং তুমি যে সুগন্ধি ধূপ প্রস্তুত করিবে, তাহার দ্রব্যের পরিমাণানুসারে তোমরা আপনাদের জন্ত তাহ করিও না, তাহ তোমার জ্ঞানে সদাপ্রভুর উদ্দেশে ৩৮ পবিত্র হইবে । যে কেহ আম্ৰাণ জন্য তাহার সদৃশ ধূপ প্রস্তুত করিবে, সে অপেন লোকদের মধ্য হইতে উচ্ছিন্ন হইবে। wog 75 যাত্রাপুস্তক । (g দুই জন প্রধান শিল্পকার । আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, দেখ, আমি ○S যিহুদী-বংশীয় হরের পৌত্র উরির পুত্র বৎস৩ লেলের নাম ধরিয়া ডাকিলাম। আর আমি তাহাকে ঈশ্বরের আত্মায়—জ্ঞানে, বুদ্ধিতে, বিদ্যায় ও সর্বপ্রকার ৪ শিল্প-কৌশলে—পরিপূর্ণ করিলাম ; যাহাতে সে কৌশলের কার্য্য কল্পনা করিতে পারে, স্বর্ণ, রৌপ্য ও পিত্তলের ৫ কাৰ্য্য করিতে পারে, খচনার্থক মণি কাটিতে, কান্ত খুদিতে ও সৰ্ব্বপ্রকার শিল্পকাৰ্য্য করিতে পারে। ৬ আর দেখ, আমি দান-বংশজাত অহীষামকের পুত্ৰ অহলীয়াবকে তাহার সহকারী করিয়া দিলাম, এবং সকল বিজ্ঞমন লোকের হৃদয়ে বিজ্ঞতা দিলাম ; অতএব আমি তোমাকে যাহা যাহ আজ্ঞা করিয়াছি, সে ৭ সমস্ত তাহার। নিৰ্ম্মাণ করিবে ; সমাগম-তাম্বু, সাক্ষ্যসিন্দুক, তাহার উপরিস্থ পাপাবরণ, এবং তাম্বুর সমস্ত ৮ পাত্র ; আর মেজ ও তাহার পাত্র সকল, নিৰ্ম্মল ৯ দীপবৃক্ষ ও তাহার পাত্র সকল, এবং ধূপবেদি ; আর হোমবেদি ও তাহার পাত্র সকল, এবং প্রক্ষালনপাত্র ১০ ও তাহার খুর ; এবং স্বক্ষশিল্পিত বস্ত্র, যাজনকৰ্ম্ম করণার্থে হারোণ যাজকের পবিত্র বস্ত্র, ও তাহার ১১ পুত্রদের বস্ত্র ; এবং অভিষেকাৰ্থ তৈল, ও পবিত্র স্থানের জন্য সুগন্ধি ধূপ ; আমি তোমাকে যেমন আজ্ঞা করিয়াছি, তদনুসারে তাহার। সমস্তই করিবে । - বিত্র মদিন । ১২ আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি ইস্রায়েল১৩ সন্তানগণকে আরও এই কথা বল, তোমরা অবশ্য আমার বিশ্রামদিন পালন করিবে ; কেননা তোমাদের পুরুষানুক্রমে আমার ও তোমাদের মধ্যে ইহা এক চিহ্ন রহিল, যেন তোমরা জানিতে পার যে, আমিই তোমাদের পবিত্রকারী সদাপ্রভু। অতএব তোমরা বিশ্রামদিন পালন করিবে, কেননা তোমাদের নিমিত্তে সেই দিন পবিত্র; যে কেহ সেই দিন অপবিত্র করিবে, তাহার প্রাণদণ্ড অবশ্য হইবে ; কারণ যে কেহ ঐ দিনে কাৰ্য্য করিবে, সে আপন লোকদের মধ্য হইতে উচ্ছিন্ন হইবে । ছয় দিন কাৰ্য্য করা হইবে, কিন্তু সপ্তম দিন সদাপ্রভুর উদেশে বিশ্রামার্থক পবিত্র বিশ্রামদিন, সেই বিশ্রামদিনে যে কেহ কাৰ্য্য করিবে, তাহার প্রাণদণ্ড অবশ্য হইবে । ইস্রায়েল-সন্তানগণ চিরস্থায়ী নিয়ম বলিয়। পুরুষানুক্রমে বিশ্রামদিন মান্ত করিবার জন্ত বিশ্রামদিন পালন করিবে । আমার ও ইস্রায়েলসন্তানগণের মধ্যে ইহা চিরস্থায়ী চিহ্ন ; কেননা সদাপ্রভু ছয় দিনে আকাশমণ্ডল ও পৃথিবী নিৰ্ম্মাণ করিয়াছিলেন, আর সপ্তম দিনে বিশ্রাম করিয়া আপ্যায়িত হইয়াছিলেন । পরে তিনি সীনয় পৰ্ব্বতে মোশির সহিত কথা সাঙ্গ করিয়া সক্ষ্যের দুই ফলক, ঈশ্বরের অঙ্গুলি দ্বারা লিখিত দুই প্রস্তরফলক, তাহাকে দিলেন। > & > も › ግ >bア ইস্রায়েলের প্রতিমাপূজা ও মোশির ক্রোধ । లిచి পৰ্ব্বত হইতে নামিতে মোশির বিলম্ব হইতেছে দেখিয়া লোকেরা হারোণের নিকটে একত্র হইয়া তাহাকে কহিল, উঠন, আমাদের অগ্রগামী হইবার জন্ত আমাদের নিমিত্ত দেবতা নিৰ্ম্মাণ করুন, কেনন। যে মোশি মিসর দেশ হইতে আমাদিগকে বহির করিয়া আনিয়াছেন, সেই ব্যক্তির কি হইল, তাই। ২ আমরা জানি না। তখন হারেীণ তাহাদিগকে কহিলেন, তোমরা আপন আপন স্ত্রী ও পুত্ৰকস্তাগণের কর্ণের সুবর্ণ কুণ্ডল খুলিয়া আমার কাছে আন । ৩ তাহাতে সমস্ত লোক তাহদের কর্ণ হইতে সুবর্ণ ৪ কুণ্ডল সকল খুলিয়া হারোণের নিকটে আনিল । তখন তিনি তাহাuদর হস্ত হইতে তাহা গ্রহণ করিয়া শিল্পাস্ত্রে গঠন করিলেন, এবং একটী ঢাল গোবৎস নিৰ্ম্মাণ করিলেন ; তখন লোকের বলিতে লাগিল, হে হস্রা য়েল, এই তোমার দেবতা, যিনি মিসর দেশ হইতে ঐ তোমাকে বাহির করিয়া আনিয়াuছন । আর হারেীণ তাহ দেখিয় তাহার সম্মুখে এক বেদি নিৰ্ম্মাণ করিলেন, এবং হারেীণ ঘোষণা করিয়া দিলেন, বলিলেন, ৬ কল্য সদা প্রভুর উদ্দেশে উৎসব হইবে । তার লোকের পরদিন প্রত্যুষে উঠিয়া হোমবলি উৎসর্গ করিল, এবং মঙ্গলার্থক নৈবেদ্য অনিল ; তার লোকেরা ভোজন পান করিতে বসিল, পরে ক্রীড়। করিতে উঠিল । ৭ তখন সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি নামিয়। যাও, কেননা তোমার যে লোকদিগকে তুমি মিসর হইতে বাহির করিয়া অনিয়াছ, তাহার। ভ্ৰষ্ট হইয়াছে । ৮ আমি তাহাদিগকে যে পথে চলিবার আজ্ঞা দিয়। ছ. তাহার। শীঘ্রই সেই পথ হইতে ফিরিয়াছে ; তাহার। আপনাদের নিমিত্ত এক ছাচে ঢাল গোবৎস নিৰ্ম্ম।ণ করিয়। তাহার কাuছ প্ৰণিপাত করিয়াছে, এবং ত৷হর উদ-শ বলিদান করিয়াছে ও বলিয়luছ, হে ইস্রায়েল, এই তোমার দেবতা, যিনি মিসর দেশ হইতে তোমাকে ৯ বাহির করিয়া আনিয়াছেন। সদাপ্রভু মেশিকে আরও কহিলেন, আমি সেই লোকদিগকে দেখিলাম ; ১০ দেখ, তাহরী শক্ত গ্রীব জাতি । এখন তুমি ক্ষাত্ত হও, তাহীদের বিরুদ্ধে আমার ক্রোধ প্রজ্বলিত হউক, আমি তাহাদিগ-ক সংহার করে, তার তেম৷ হইতে ১১ এক বড় জাতি উৎপন্ন করি। তখন মোশি তাপন ঈশ্বর সদাপ্রভুকে বিনয় করিয়া কহিলেন, হে সদাপ্রভূ, তোমার যে প্রজাদিগকে তুম মহাপরাক্রম ও বলবন হস্ত দ্বারা মিসর দেশ হইতে বাহির করিয়ছ, তাহtcদর বিরুদ্ধে তোমার ক্রোধ কেন প্রজ্বলিত হইবে ? -১২ মিত্ৰীয়ের কেন বলিব, অনিষ্টর নিমিত্তে, পৰ্ববতময় অঞ্চলে তাহাদিগকে নষ্ট করিতে ও ভূতল হইতে লোপ করিতে, তিনি তাহাদিগকে বাহির করিয়৷ যাত্রীপুস্তক । [ <) * ; > - २१ ।। আনিয়াছেন ? তুমি নিজ প্রচণ্ড ক্ৰোধ সংবরণ কর, ও আপন প্রজluদর অনিষ্টকরণ বিষয়ে ক্ষান্ত হও । ১৩ তুমি নজ দাস অব্রাহাম, ইসহাক ও যাকোবকে স্মরণ কর, যাহাঁদের কাছে তুমি নিজ নামের দিব্য করিয়া বলিয়া,ছল, আমি আকাশের তারগণের স্থায় তোমাদের বংশবৃদ্ধি করিব, এবং এই যে সমস্ত দেশের কথা কহিলাম ইহ। তোমাদের বংশকে দিব, তাহার চিরকালের জন্য ইহা অধিকার করিবে । তখন সদাপ্রভু আপন প্রজাuদর যে অনিষ্ট করবার কথা বলিয়tছিলেন, তাহ হইতে ক্ষান্ত হইলেন । পরে মোশে মুখ ফিরাইলেন, সাক্ষ্যের সেই দুই প্রস্তরফলক হস্তে লইয়৷ পকত হইতে না,মলন ; সেই প্রস্তরফলকের এপুঞ্জ ওপৃষ্ঠ ছুই পৃষ্ঠই লেখা ছিল। ১৬ সেই প্রস্তরফলক ঈশ্বরের নিৰ্ম্মিত, এবং সেই লেখা ১৭ ঈশ্বরের লেখা, ফলকে খোদিত । পরে যিহে।শুয় কোলাহলকারী লোকদের রব শুনিয়া মোশক কহলেন, শিবিরে যুদ্ধের শব্দ হইতেছে । তিনি কহিলন, উহ। ত জয়ধ্বনির শব্দ নয়, পরাজয়ধ্বনিরও শব্দ নয় ; আমি গtuনর শবদ শুনিতে পাইতেছি । পরে তিনি শিবিরের নিকটবৰ্ত্তী হইলে ঐ গে। বৎস এবং নু ত্য দেখিলেন ; তাহাতে মোশি ক্রোধে প্রজ্বলিত হইয়। পববতের তলে আপন হস্ত হইতে সেই দুই খান প্রস্তরফলক ন-ক্ষপ কfরয় ভ।iঙ্গয় ফেলিলেন । ২০ আর তাহদের নিৰ্ম্মিত গোবৎস লইয়। আগুনে পোড়াইয়া দিলেন, এবং তাহ ধূলিবৎ পিষিয়া জলের উপরে ছড়াইয়৷ ই শ্রয়েল-সন্তানগণকে পান করাহলেন । পরে মোশি হার ৭cক কহিলন, ঐ লোকেরা তোমার কি করিয়াfছল যে, তুমি উহাদের উপরে ২২ এমন মহাপাপ বৰ্ত্ত। -লে ? হারোণ কহিলন, আমার প্রভুর ক্রোধ প্রজ্বলিত না হউক । আপনি লোক২৩ দিগ-ক জানেন যে, তাহার। &ষ্টতায় আসক্ত । তাই রা আমাক কহিল, তামcদর অগ্রগামী হইবার জন্ত আমাদের নিমত্ত দেবতা নিৰ্ম্ম।ণ করুন, কেননা যে মোশি মিসর দেশ হইতে আম৷fদগকে বাহির করিয়৷ আ নিয়ছেন, সেই ব্যক্তির কি হইল, তাহ। আমরা জানি না । তথন আlাম কহিলাম, তোমাদের মধ্যে যাহার যে স্বর্ণ থাকে, সে তাই খুলিয়।দউক : তাহার। তামাক দিল ; পরে ত৷ম তাহ। আগ্র-ত নিক্ষেপ করিলে ঐ বৎসটা নির্গত হইল । পরে মোশি দেখিলন, লেt.কম স্বেচ্ছাচারী হইয়tuছ, কেনন। হারেীণ শক্র.দর মধ্যে বিএ পর জন্তু ২৬ তাহাদিগকে স্বচ্ছাচারী ইহতে দিয়াছিলেন । তখন মেশ শিবিরের দ্বারে দড় হয়। কহিলেন, সদাপ্রভুর পক্ষ কে ? সে আমার নিকটে আইথক । তাহতে লেবির সন্তানের সকল তাহার নিকটে একত্ৰ হই ল ৷ তিনি তাহাদিগকে কহিলন, সদাপ্রভু, ইস্রায়েলের ঈশ্ব , এই কথা কহেন, তোমরা ও ত্যেক জন আiপন আপন ডকুতে খড়গ বধ, ও শিবরের মধ্য দেয়। এক > 8 y & > b సి ミ8 こ● 76 ○ ; ミbrー○○ ; >s l ] দ্বার অবধি অন্ত দ্বার পর্য্যন্ত যাতায়ীত কর, এবং প্রতিজন আপন আপন ভ্রাতা, মিত্র ও প্রতিবাসীকে ২৮ বধ কর। তাহতে লেবির সন্তানের মোশির বাক্যানুসারে তদুপ করিল, আর সেই দিন লোকদের মধ্যে ২৯ নুনিধিক তিন সহস্ৰ লোক মারা পড়িল। কেননা মোশি বলিয়াছিলেন, আদা তোমরা প্রত্যেক জন আপন আপন পুত্র ও ভ্রাতার বিপক্ষ হইয়া সদপ্রভুর উদ্দেশে আপনাদের হস্তপূরণ কর, তাহাতে তিনি এই দিনে তোম। দিগকে আশীৰ্ব্বাদ করবেন। ইস্রায়েলের জন্ত মোশির সাধ্যসাধনা। পরদিন মোশি লোকদিগকে কহিলেন, তোমরা মহাপাপ করিলে, এখন আমি সদাপ্রভুর নিকটে উঠিয়া যাইতেছি ; যদি সম্ভব হয়, তোমাদের পাপের ৩১ প্রায়শ্চিত্ত করিব। পরে মোশি সদাপ্রভুর নিকটে ফিরিয়া গিয়া কহিলেন, হায় হয়, এই লোকেরা মহাপাপ করিয়াছে, আপনাদের জন্ত স্বর্ণ-দেবতা ৩২ নির্মাণ করিয়াছে । আহা। এখন যদি ইহাদের পাপ ক্ষমা কর – : আর যদি না কর, তবে তামি বিনয় করিতেছি, তোমার লিখিত পুস্তক হইতে আমার ৩৩ নাম কটিয়া ফেল। তখন সদাপ্রভু মোশকে কহিলেন, যে ব্যক্তি আমার বিরুদ্ধ পাপ করিয়াছে, তাহারই নাম আমি আপন পুস্তক হইতে কাটিয়া ৩৪ ফেলিব। এখন যাও, আমি ষে দেশের বিধয়ে তোমাকে বলিয়াছি, সেই দেশে লোকদিগকে লইয়া যাও ; দেগ, আমার দূত তোমার অগ্রে অগ্ৰে যাইবেন, কিন্তু অtiম প্রতিফলর দিনে তাহাদের পাপের প্রতিফল ৩৫ দিব। সদাপ্রভু লোকদিগকে আঘাত করলেন কেননা লোকেরা হারোণের কুত সেই গোবৎস নিৰ্ম্মণ করাইয়াছিল । ৩৩ আর সুদপ্রভু মিশিকে কইলেন, আমি অব্রাহামের, ইসহাকর ও যাকোবর কাছে দিব্য করিয়া যে দশ তাহীদের বংশকে দিতে ও তিজ্ঞা করিয়ছিলাম, সেই দেশে যাও, তুমি মিসর দেশ হইতে যে লোকদিগকে বাহির করিয়া তানিয়ছ, তাহাদের ২ সহিত এথন হইতে প্রস্থান কর । আমি তোমার আগ্ৰে এক দূত পঠাইয়া দিব, এবং কনানয়, ইমারীয় হিৰ্ত্তীয়, পরিষীয়, হিবীয় ও যিখুষীয়কে দূর করিয়া ৩ দিব । ছুশ্বমধুপ্রবাহী দেশ যাও ; কিন্তু আমি তোমার মধ্যবৰ্ত্তী হইয়। যাইব না, কেননা তুমি শক্তগ্রীব জাতি ; পাছে পথের মধ্য তোমাক স°হার করি। ৪ এই অশুভ বাক্য শুনিয়া লোকের শোক করিল, ৫ কেহ গাত্রে আভরণ পরিধান করল না । সদাপ্রভু মোশিক বলিয়াছিলেন, তুমি ইস্রায়েল-সন্তানগণকে এই কথা বল, তোমরা শক্তগ্রীব জাতি, এক নিমিষের জন্তু তে ম{uদর মধ্য গেলে আমি তোমাদিগকে সংহার করতে পারি ; তোমরা এখন আপন আপন গাত্র হইতে আভরণ দূর কর, তাহাতে জানিতে পারিব, \లిa যাত্রীপুস্তক ।

  • *

৬ তোমাদের বিষয়ে আমার কি করা কর্তব্য। তখন ইস্রায়েল-সন্তানগণ হোরেব পৰ্ব্বত অবধি যাত্রাপথে আপন আপন সমস্ত আভরণ দূর করিল। ৭ আর মোশি তাম্বু লইয়া শিবিরের বাহিরে ও শিবির হইতে দূরে স্থাপন করিলেন, এবং সেই তাম্বুর নাম সমাগম-তাম্বু রাখিলেন ; আর সদাপ্রভুর অন্বেষণকারী প্রত্যেক জন শিবিরের বাহিরে স্তিত সেই সমাগম৮ তমুর নিকটে গমন করিত। আর মোশি যখন বাহির হইয়া সেই তাম্বর নিকটে যাইতেন, তখন সমস্ত লোক উঠিয় প্রত্যেকে আপন আপন তস্বর দ্বারে দাড়াইত, এবং যাবৎ মোশি ঐ তাম্বুতে প্রবেশ না করিতেন, ৯ তাবৎ তাহার পশ্চাৎ দৃষ্টি করিতে থাকিত। আর মোশি তাম্বুতে প্রবেশ করলে পর মেঘস্তস্ত নামিয়া তাম্বুর দ্বারে অবস্থিতি করিত, এবং [সদাপ্রভু! মোশির ১০ সহিত আলাপ করতেন । সমস্ত লোক তাম্বুর দ্বারে অবস্থিত মেঘন্তস্ত দেখিত ; ও সমস্ত লোক উঠিয়৷ প্রত্যেকে আপন আপন তাম্বর দ্বারে থাকিয়া প্ৰণিপাত ১১ করত। আর মনুষ্য যেমন মিত্রের সহিত আলাপ করে, তদ্রুপ সদাপ্রভু মোশির সহিত সন্মুখসম্মুখি হইয়া আলাপ করতেন। পরে মোশি শিবিরে ফিরিয়া আসিতন, কিন্তু নুনের পুত্ৰ যিহোশূয় নাম তাহার যুব পরিচারক ত স্কুর মধ্য হইতে বাহিরে যাইতেন না । আর মোশি সদাপ্রভুকে কাহ লন, দেগ, তুমি আমাকে বলিতেছ, এই লোকদিগ-ক লইয়া যাও, কিন্তু আমার সঙ্গী করিয়া যাহাকে প্রেরণ করবে: তাহার পরিচয় আমাকে দেও নাই ; তথাপি বলিতেছ. আমি নাম দ্বারা তোমাকে জানি, এবং তুমি আমার ১৩ দৃষ্টতে অনুগ্রহ প্রাপ্ত হইয়াছ । ভাল, আমি যদি তোমার দৃষ্টিত অনুগ্রহ প্রাপ্ত হইয়া থাকি, তবে বিনয় করি, আমি যেন তোমাকে জানিয়া তোমার দৃষ্টিত অনুগ্রহ পাই, এই জন্ত আমাকে তোমার পথ সকল জ্ঞাত কর ; এবং এই জাতি যে তোমার প্রজা, ১৪ ইহা বিবেচনা কর । তখন তিনি কহলেন, আমার ভ্রমুখ তোমার সহিত গমন করবেন, এবং তামি ১৫ তোমাকে বিশ্রাম দিব । তাহাতে তিনি তাহাকে কহিলেন, তোমার শ্ৰীমুখ যদি সঙ্গে না যান, তবে ১৬ এখন হইতে আমাদিগ-ক লইয়া যাইও না । কেননা আমি ও তোমার এই প্রজাগণ যে তোমার দৃষ্টিতে অনুগ্রহ প্রাপ্ত হইয়াছি, ইহা কিসে জানা যাইবে ? আমাদের সহিত তোমার গমন দ্বারা কি নয় ? তদ্বারাই আমি ও তোমার প্রজাগণ ভূমণ্ডলস্থ যাবতীয় জাতি ১৭ হইতে বিশিষ্ট । পরে সদাপ্রভু মেশিকে কছিলেন, এই যে কথা তুমি বলিলে, তাহাও আমি করব, কেননা তুমি তামার দৃষ্টিতে অনুগ্রহ প্রাপ্ত হইয়াছ, এবং আমি নাম দ্বারা তোমাকে জানি । ১৮ তখন তিনি কহিলন, বিনয় করি, তুমি আমাকে ১৯ তোমার প্রতাপ দেখিতে দেও । ঈশ্বর কiহলেন, আমি তোমার সম্মুখ দিয়া আপনার সমস্ত উত্তমত গমন N R 77 ' Ꮔ Ꭽ করাইব, ও তোমার সম্মুখে সদাপ্রভুর নাম ঘোষণা করিব ; আর আমি যাহাকে দয়া করি, তাহাকে দয়। করিব ; ও যাহার প্রতি করুণা করি, তাহার প্রতি ২০ করুণা করিব। আরও কহিলেন, তুমি আমার মুখ দেখিতে পাইবে না, কেননা মনুষ্য আমাকে দেখিলে ২১ বাচিতে পারে না। সদাপ্রভু কহিলেন, দেখ, আমার নিকটে এক স্থান আছে; তুমি ঐ শৈলের উপরে ২২ দাড়াইবে। তাহাতে তোমার নিকট দিয়া আমার প্রতাপের গমন সময়ে আমি তোমাকে শৈলের এক ফাটালে রাখিব, ও আমার গমনের শেষ পর্য্যন্ত করতল দিয়া ২৩ তোমাকে আচ্ছন্ন করিব ; পরে আমি করতল উঠাইলে তুমি আমার পশ্চাদ্ভাগ দেখিতে পাইবে, কিন্তু আমার মুখের দর্শন পাওয়া যাইবে না। ঈশ্বরীয় নিয়মের পুনঃস্থাপন।

  • 38 পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি পূর্বের স্থায় দুই প্রস্তরফলক খুদ ; প্রথম যে দুই ফলক তুমি ভাঙ্গিয়া ফেলিয়াছ, তাহতে যাহা যাহা লিখিত ছিল, সেই সকল কথা আমি এই দুই ফলকে লিখিব । ২ আর তুমি প্রাতঃকালে প্রস্তুত হইও, প্রাতঃকালে সৗনয় পৰ্ব্বতে উঠিয়া আসিও, ও তথায় পৰ্ব্বতশৃঙ্গে আমার ৩ নিকটে উপস্থিত হইও । কিন্তু তোমার সহিত কোন মনুষ্য উপরে ন৷ আইমুক, এবং এই পৰ্ব্বতে কোথাও কোন মনুষ্য দৃষ্ট না হউক, আর গোমেষাদি পালও এই পৰ্ব্বতের সম্মুখে না চক্লক । ৪ পরে মোশি প্রথম প্রস্তরের স্থায় দুই প্রস্তরফলক খুদিলেন, এবং সদাপ্রভুর আজ্ঞানুসারে প্রাতঃকালে উঠিয়া সীনয় পৰ্ব্বতের উপরে গেলেন, ও সেই দুই প্রস্তর৫ ফলক হস্তে করিয়া লইলেন। তখন সদাপ্রভু মেঘে নামিয়া সে স্থানে তাহার সহিত দণ্ডায়মান হইয়৷ ৬ সদাপ্রভুর নাম ঘোষণা করিলেন। ফলতঃ সদাপ্রভু তাহার সম্মুখ দিয়া গমন করতঃ এই ঘোষণা করিলেন,

“সদাপ্রভু, সদাপ্রভু, স্নেহশীল ও কৃপাময় ঈশ্বর, ক্ৰোধে ধীর এবং দয়াতে ও সত্যে মহান ; ৭ সহস্ৰ সহস্ৰ [পুরুষ] পৰ্য্যন্ত দয়ারক্ষক, অপরাধের, অধৰ্ম্মের ও পাপের ক্ষমাকারী ; তথাপি তিনি অবস্থা পাপের] দণ্ড দেন ; পুত্র পৌত্রদের উপরে, তৃতীয় ও চতুর্থ পুরুষ পৰ্য্যন্ত, তিনি পিতৃগণের অপরাধের প্রতিফল বৰ্ত্তান।” ৮ তখন মোশি ত্বর করিলেন, ভূমিতে নতমস্তক হইয়৷ ৯ প্ৰণিপাত করিলেন, আর কহিলেন, হে প্রভু, আমি যদি তোমার দৃষ্টিতে অনুগ্রহ পাইয়া থাকি, তবে বিনয় করি, প্রভু, আমাদের মধ্যবৰ্ত্তী হইয়া গমন করুন, কারণ ইহার শক্তগ্রীব জাতি ; আপনি আমাদের অপরাধ ও পাপ মোচন করিয়৷ আমাদিগকে আপন অধিকারার্থে গ্রহণ করুন। যাত্রাপুস্তক । [ ७७ ; २० - © 8 ; २8 । ১০ তখন তিনি কহিলেন, দেখ, আমি এক নিয়ম করি : সমস্ত পৃথিবীতে ও যাবতীয় জাতির মধ্যে যাদৃশ কখনও করা হয় নাই, এমন আশ্চৰ্য্য আশ্চৰ্য্য কাৰ্য্য আমি তোমার সমস্ত লোকের সাক্ষাতে করিব : তাহাতে যে সকল লোকের মধ্যে তুমি আছ, তাহার সদাপ্রভুর কার্য্য দেখিবে, কেননা তোমার নিকটে যাহা ১১ করিব, তাহা ভয়ঙ্কর । অদ্য আমি তোমাকে যাহা আজ্ঞা করি, তাহাতে মনোযোগ কর ; দেখ, আমি ইমোরীয়, কনানীয়, হিৰ্ত্তীয়, পরিষীয়, হিববীয় ও যিবুধীয়কে তোমার সম্মুখ হইতে খেদাইয়া দিব। ১২ সাবধান, যে দেশে তুমি যাইতেছ, সেই দেশনিবাসীদের সহিত নিয়ম স্থির করিও না, পাছে তাহ তোমার ১৩ মধ্যবৰ্ত্তী ফাদস্বরূপ হয়। কিন্তু তোমরা তাহদের বেদি সকল ভাঙ্গিয়া ফেলিবে, তাহদের স্তম্ভ সকল খণ্ড খণ্ড করিবে, ও তথাকার আশের-মূৰ্ত্তি সকল কাটিয়া ১৪ ফেলিবে। তুমি অন্ত দেবতার কাছে প্ৰণিপাত করিও না, কেননা সদাপ্রভু স্বগৌরব রক্ষণে উদযোগী নাম ধারণ করেন ; তিনি স্বগৌরব রক্ষণে উদযোগ ঈশ্বর। ১৫ কি জানি, তুমি তদেশনিবাসী লোকদের সহিত নিয়ম করিবে ; করিলে যে সময়ে তাহার। নিজ দেবগণের অনুগমনে ব্যভিচার করে, ও নিজ দেবগণের কাছে বলিদান করে, সে সময়ে কেহ তোমাকে ডাকিলে ১৬ তুমি তাহার বলিদ্রব্য খাইবে কিম্ব তুমি আপন পুত্রদের জন্ত তাহদের কন্যাগণকে গ্রহণ করিলে তাহাদের কন্যার নিজ দেবতাদের অনুগমনে ব্যভিচার করিয়া তোমার পুত্রদিগকে আপনাদের দেবগণের ১৭ অনুগামী করিয়া ব্যভিচার করাইবে । তুমি আপনার নিমিত্তে ছাচে ঢালা কোন দেবতা নিৰ্ম্মাণ করিও না । তুমি তাড়াশূন্ত রটার উৎসব পালন করবে। আবীব মাসের যে নিরূপিত সময়ে যেরূপ করিতে তোমাকে আজ্ঞা করিয়াছি, সেইরূপে তুমি সেই সাত দিন তাড়াশুন্ত রুট খাইবে, কেননা সেই আবীব মাসে তুমি মিসর দেশ হইতে বাহির হইয়া আসিয়াছিলে । ১৯ গৰ্ত্ত উন্মাচক সকলে এবং গোমেষাদি পালের মধ্যে ২০ প্রথমজাত পুংপশু সকল আমার। প্রথমজাত গর্দভের পরিবর্তে তুমি মেষের বৎস দিয়া তাহাকে মুক্ত কারবে ; যদি মুক্ত না কর, তবে তাহার গলা ভাঙ্গিবে। তোমার প্রথমজাত পুত্র সকলকে তুমি মুক্ত করিবে। আর কেহ রিক্তহস্তে আমার সম্মুখে উপস্থিত হইবে না। ২১ তুমি ছয় দিন পরিশ্রম করবে, কিন্তু সপ্তম দিনে বিশ্রাম করিবে ; চাসের ও ফসল কাটিবার সময়েও বিশ্রাম করিবে । ২২ তুমি সাত সপ্তাহের উৎসব, অর্থাৎ কাটা গোমের আশুপক্ক ফলের উৎসব, এবং বৎসরের শেষভাগে ফলসংগ্রহের উৎসব পালন করিবে । বৎসরের মধ্যে তিন বার তোমাদের সমস্ত পুরুষলোক ইস্রায়েলের ঈশ্বর প্রভু সদাপ্রভুর সাক্ষাতে উপস্থিত ২৪ হইবে। কেননা আমি তোমার সম্মুখ হইতে জাতি >bア ミ○ 78 ● 8 ; २९ – ७G ; २G I] গণকে দূর করিয়া দিব, ও তোমার সীমা বিস্তার করিব, এবং তুমি বৎসরের মধ্যে তিন বার আপন ঈশ্বর সদাপ্রভুর সম্মুখে উপস্থিত হইবার জন্ত গমন করিলে তোমার ভূমিতে কেহ লোভ করিবে না। তুমি আমার বলির রক্ত তাড়ীযুক্ত ভক্ষ্যের সহিত উৎসর্গ করিবে না, ও নিস্তারপববীয় উৎসবের বলিদ্রব্য ২৬ প্রাতঃকাল পর্য্যন্ত রাখা যাইবে না। তুমি নিজ ভূমির আশুপক্ক ফলের অগ্রিমাংশ আপন ঈশ্বর সদাপ্রভুর গৃহে আনিবে। তুমি ছাগবৎসকে তাহার মাতার দুগ্ধে সিদ্ধ করিবে না । আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি এই সকল বাক্য লিপিবদ্ধ কর, কেননা আমি এই সকল বাক্যানুসারে তোমার ও ইস্রায়েলের সহিত নিয়ম স্থির ২৮ করিলাম। সেই সময়ে মোশি চল্লিশ দিবারাত্র সেখানে সদাপ্রভুর সহিত অবস্থিতি করিলেন, অন্ন ভোজন ও জল পান করিলেন না। আর তিনি সেই দুই প্রস্তরে নিয়মের বাক্যাবলি অর্থাৎ দশ আজ্ঞা লিখিলেন । পরে মোশি দুই সাক্ষ্যপ্রস্তর হস্তে লইয়া সীনয় পৰ্ব্বত হইতে নামিলেন ; যখন পৰ্ব্বত হইতে নামিলেন, তখন, সদাপ্রভুর সহিত আলাপে তাহার মুখের চৰ্ম্ম যে উজ্জ্বল হইয়াছিল, তাহ মোশি জানিতে পারিলেন ৩০ না । পরে যখন হারোণ ও সমস্ত হস্রায়েল-সন্তান মোশিকে দেখিতে পাইল, তখন দেখ, তাহার মুখের চৰ্ম্ম উজ্জ্বল, আর তাহারা তাহার নিকটে আসিতে ভীত ৩১ হইল। কিন্তু মোশি তাহাদিগকে ডাকিলে হারোণ ও মণ্ডলীর অধ্যক্ষ সকল তাহার নিকটে ফিরিয়া আসিলেন, আর মোশি তাহীদের সহিত আলাপ করিলেন । ৩২ তৎপরে ইস্রায়েল-সন্তানগণ সকলে তাহার নিকট আসিল ; তাহাতে তিনি সৗনয় পৰ্ব্বতে কথিত সদাপ্রভুর ৩৩ আজ্ঞা সকল তাহাদিগকে জানাইলেন। পরে তাহদের সহিত কথোপকথন সমাপ্ত হইলে মোশি আপন মুখে ৩৪ আবরণ দিলেন। কিন্তু মোশি যখন সদাপ্রভুর সহিত কথা কহিতে ভিতরে তাহার সম্মুখে যাইতেন, তখন, যাবৎ বাহিরে আসিতেন, তাবৎ সেই আবরণ খুলিয়। রাখিতেন ; পরে যে সকল আজ্ঞা পাইতেন, বাহির হইয়া ইস্রায়েল-সন্তানগণকে তাহ বলিতেন । ৩৫ মোশির মুখের চৰ্ম্ম উজ্জ্বল, ইহা ইস্রায়েল-সন্তানগণ তাহার মুখের প্রতি দৃষ্টিপাত করিয়া দেখিত ; পরে মোশি সদাপ্রভুর সহিত কথা কহিতে যে পর্য্যন্ত না যাইতেন, তাবৎ আপন মুখে পুনর্বার আবরণ দিয়৷ রাখিতেন । তাম্বুর জন্ত ইস্রায়েলের স্বেচ্ছাদত্ত উপহার। θ0ζ পরে মোশি ইস্রায়েল-সন্তানগণের সমস্ত মণ্ডলীকে একত্র করিয়া তাহাদিগকে কহিলেন, সদাপ্রভু তোমাদিগকে এই সকল বাক্য পালন করিতে 출C: ミ守 ーふ যাত্রাপুস্তক ।

  • >

২ আজ্ঞা দিয়াছেন। ছয় দিন কাৰ্য্য করা যাইবে, কিন্তু সপ্তম দিন তোমাদের পক্ষে পবিত্র দিন হইবে ; তাহ। সদাপ্রভুর উদ্দেশে বিশ্রামার্থক বিশ্রামদিন হইবে : যে কেহ সেই দিনে কাৰ্য্য করিবে, তাহার প্রাণদণ্ড ৩ হইবে । তোমরা বিশ্রামদিনে আপনাদের কোন বাস স্থানে অগ্নি জালিও না । ৪ আর মোশি ইস্রায়েল-সন্তানগণের সমস্ত মণ্ডলীকে ৫ কহিলেন, সদাপ্রভু এই আজ্ঞা দিয়াছেন –তোমরা সদাপ্রভুর নিমিত্তে আপনাদের নিকট হইতে উপহার লও ; যে কেহ মনে ইচ্ছুক, সে সদাপ্রভুর উপহারস্বরূপ ৬ এই সকল দ্রব্য আনিবে ; স্বর্ণ, রৌপ্য ও পিত্তল, এবং নীল, বেগুনে, লাল ও সাদা মসীন সূত্র ও ৭ ছাগের লোম, এবং রক্তীকৃত মেষচৰ্ম্ম ও তহশচৰ্ম্ম, ৮ শিটীম কাঠ, এবং দীপাৰ্থ তৈল, আর অভিষেকার্থ ৯ তৈলের ও সুগন্ধি ধূপের নিমিত্তে গন্ধদ্রব্য, এবং এফোদের ও বুকপাটার জন্ত গোমেদকাদি খচনার্থক মণি । ১০ আর তোমাদের প্রত্যেক বিজ্ঞমনা লোক আসিয়া সদাপ্রভুর আজ্ঞাপিত সকল বস্তু নিৰ্ম্মাণ করুক — ১১ আবাস, আবাসের তাম্বু, ছাদ, ঘুণ্টী, তক্তা, অর্গল, স্তম্ভ ১২ ও চুঙ্গি, আর সিন্দুক ও তাহার বহন-দণ্ড, পাপাবরণ ও ১৩ ব্যবধানের তিরস্করিণী, মেজ, তাহার বহন-দণ্ড ও সমস্ত ১৪ পাত্র, দর্শন রুট, এবং দীপ্তির জন্ত দীপবৃক্ষ ও তাহার ১৫ পাত্র সকল, প্রদীপ ও দীপাৰ্থ তৈল, এবং ধূপের বেদি ও তাহার বহন-দণ্ড, এবং অভিষেকাৰ্থ তৈল ও সুগন্ধি ১৬ ধূপ, আবাসের প্রবেশদ্বারের পর্দা, হোমবেদি, তাহার পিত্তলের জাল, বহন-দণ্ড ও সমস্ত পাত্র, এবং প্রক্ষণ১৭ লন-পাত্র ও তাহার খুর, প্রাঙ্গণের যবনিক, তাহার ১৮ স্তম্ভ ও চুঙ্গি এবং প্রাঙ্গণের দ্বারের পর্দা, এবং আবাসের ১৯ গোজ, প্রাঙ্গণের গোজ ও উভয়ের রজু, এবং পবিত্র স্থানে পরিচর্য্যা করিবার নিমিত্তে সূক্ষ্মশিল্পিত বস্ত্র, অর্থাৎ হারণ যাজকের জন্য পবিত্র বস্ত্র ও যাজন কৰ্ম্ম করণার্থে তাহার পুত্রদের বস্ত্র । ২০ পরে ইস্রায়েল-সন্তানগণের সমস্ত মণ্ডলী মোশির ২১ সম্মুখ হইতে প্রস্থান করিল। আর যাহাদের হৃদয়ে প্রবৃত্তি ও মনে ইচ্ছা হইল, তাহারা সকলে সমাগম-তান্থ নিৰ্ম্মাণ জন্ত এবং তৎসম্বন্ধীয় সমস্ত কায্যের ও পবিত্র ২২ বস্ত্রের জন্ত সদাপ্রভুর উদ্দেশে উপহার আনিল । পুরুষ ও স্ত্রী যত লোক মনে ইচ্ছুক হইল, তাহারা সকলে আসিয়া বলয়, কুণ্ডল, অঙ্গুরীয়ক ও হার, স্বর্ণময় সৰ্ব্বপ্রকার অলঙ্কার আনিল । যে কেহ সদা ভুর উদেশে ২৩ স্বর্ণের উপহার আনিতে চাহিল, সে আনিল । আর যাহাঁদের নিকটে নীল, বেগুনে, লাল ও সাদা মসীন৷ স্বত্র, ছাগলোম, রক্তীকৃত মেষচৰ্ম্ম ও তহশচৰ্ম্ম ছিল, ২৪ তাহারা প্রত্যেকে তাহ আনিল । যে কেহ রৌপ্য ও পিত্তলের উপহার উপস্থিত করিল, সে সদাপ্রভুর উদেশে সেই উপহার আনিল ; এবং যাহার নিকটে কোন কার্য্যে প্রয়োগের নিমিত্তে শিটীম কান্ত ছিল, সে তাহ। ২৫ আনিল। আর বিজ্ঞমন স্ত্রীলোকেরা আপন আপন 79 be o হস্তে স্থত কাটিয়া, তাহদের কাটা নীল, বেগুনে, লাল ২৬ ও সাদা মসীন। স্বত্র আনিল । আর বিজ্ঞান প্রবৃত্তমন। ২৭ শ্ৰীলোকের সকল ছাগলোমের সূতা কাটিল । আর অধ্যক্ষগণ এফেদের ও বুকপাটার জন্য গোমেদকাদি ২৮ খচনার্থক মণি, এবং দীপের, অভিষেকাৰ্থ তৈলর ও সুগন্ধি ধূপের নিমিত্ত গন্ধদ্রব্য ও তৈল আনিলেন । ২৯ ইস্রায়েল-সন্তানগণ ইচ্ছাপূৰ্ব্বক সদাপ্রভুর উদেশে উপহার আনিল,সদা প্ৰভু মোশি দ্বারা যাহা যাহা করিতে আজ্ঞা করিয়াছিলেন, তাহার কোন প্রকার কৰ্ম্ম করণার্থে যে পুরুষ ও স্ত্রীলোকদিগের হৃদয়ে ইচ্ছ। হইল, তাহার প্রত্যেকে উপহার আনিল । পরে মোশি ইস্রায়েল-সন্তানগণকে কহিলেন, দেখ, সদাপ্রভু যিহুদী বংশীয় হরের পৌত্র উরির পুত্র বৎস৩১ লেলের নাম ধরিয়া ডাকিলেন ; আর তিনি তাহাকে ঈশ্বরের আত্মায় – জ্ঞানে,বুদ্ধিতে, বিদ্যায়, ও সর্বপ্রকার ৩২ শিল্প-কৌশলে—পরিপূর্ণ করিলেন, যাহাতে তিনি কৌশলের কায্য কল্পনা করিতে, স্বর্ণ, রৌপ্য ও পিত্তলের ৩৩ কার্য্য করিতে, খচনাথক মণি কাটিতে, কান্ত খুদিতে ও সৰ্ব্বপ্রকার কৌশলযুক্ত শিল্পকৰ্ম্ম করিতে পারেন । ৩৪ আর এই সকলের শিক্ষা দিতে তাহার ও দান-বংশীয় অহীষামকের পুত্র অহলীয়াবের হৃদয়ে প্রবৃত্তি দিলেন । ৩৫ তিনি খুদিতে ও শিল্পকৰ্ম্ম করিতে এবং নীল, বেগুনে, লাল ও সাদা মসীন সূত্রে সুচিকৰ্ম্ম করিতে ও তাতির কৰ্ম্ম করিতে, অর্থাৎ যাবতীয় শিল্পকৰ্ম্ম ও চিত্ৰকৰ্ম্ম করিতে তাহদের হৃদয় বিজ্ঞতায় পরিপূর্ণ করিলেন । ON অতএব সদা ভুর সমস্ত আজ্ঞানুসারে পবিত্র স্থানের কার্য্য সকল কিরূপে করিতে হইবে, তাহ জানিতে সদাপ্রভু বৎসলেল ও অহলীয়াব এবং আর যাহাদিগকে বিজ্ঞতা ও বুদ্ধি দিয়াছেন, সেই সকল বিজ্ঞমন লোক কৰ্ম্ম করিবেন। তাম্বু ও তৎসংক্রান্ত পাত্ৰাদি নিৰ্ম্মাণ । ২ পরে মোশি বৎসলেল ও অহলীয়াবকে এবং সদাপ্রভু র্যাহীদের হৃদয়ে বিজ্ঞতা দিয়াছিলেন, সেই অন্ত সকল বিজ্ঞমন লোককে ডাকিলেন, অর্থাৎ সেই কৰ্ম্ম করবার নিমিত্তে উপস্থিত হইতে যাহাদের মনে প্রবৃত্তি ৩ জন্মিল, তাহাদিগকে ডাকিলেন । তাহাতে তাহারা পবিত্র স্থানের কায্যের উপাদান সম্পন্ন করণ থ হস্রায়েল-সন্ত।নগণের আনীত সমস্ত উপহার মোশির নিকট হইতে গ্রহণ করিলেন । আর লোকের তখনও প্রতিপ্রভাতে তাহার নিকটে ইচ্ছাপূর্বক আরও দ্রব্য ৪ আifনতেছিল । তখন পবিত্র স্থানের সমস্ত কর্য্যে ব্যাপৃত বিজ্ঞ লোক সকল আপন আপন কৰ্ম্ম হইতে ৫ আসিয়া মোশিকে কহিলন, সদাপ্রভু যাহা যাহা রচন। করিতে অজ্ঞা করিয়াছিলেন, লোuকরা সেই রচনাকায্যের জন্ত অতিরিক্ত অধিক বস্তু আনিতেছে । ৬ তাহাতে মোশি আজ্ঞা দিয়া শিবিরের সববত্র এই ঘোষণা করিয়া দিলেন যে, পুরুষ কিম্ব স্ত্রীলোক S) ) যাত্রাপুস্তক । [ ७G ; २७- ७७ ; २७ ? পবিত্র স্থানের জন্য আর উপহার প্রস্তুত না করুক । ৭ তাহাতে লোকেরা আনিতে নিবৃত্ত হইল। কেননা সকল কৰ্ম্ম করণার্থে তাহদের যথেষ্ট, এমন কি, প্রয়োজনের অতিরিক্ত দ্রব্য প্রস্তুত ছিল । পরে কৰ্ম্মকারী বিজ্ঞমন লোক সকল পাকান সাদ মসীনা সূত্র, নীল, বেগুনে ও লাল স্বত্রনিৰ্ম্মিত দশ যবনিক দ্বারা আবাস প্রস্তত করিলেন . এবং সেই যবনিক সমূহে শিল্পকারের কৃত করূবগণের ৯ আকৃতি ছিল । প্রত্যেক যবনিক আটাইশ হস্ত দীর্ঘ, ও প্রত্যেক যবনিক চারি হস্ত প্রস্থ, সমস্ত যবনিকার ১০ একই পরিমাণ ছিল । পরে তিনি তাহার পাচ যবনিক। একত্র যোগ করিলেন, এবং অন্ত পাচ যবনিকাও ১১ একত্র যোগ করিলেন । আর যোড়স্থানে প্রথম অন্ত্য যবনিকার মুড়াতে নীলবর্ণ ঘুণ্টীঘরা করিলেন, এবং যোড়স্থানের দ্বিতীয় অন্ত্য যবনিকার মুড়াতেও তদ্ধপ ১২ করিলেন। প্রথম যবনিকাতে পঞ্চাশ ঘুণ্টীঘরা করিলেন, এবং যোড়স্থানের দ্বিতীয় যবনিকার মুড়াতেও পঞ্চাশ ঘুণ্টীঘরা করিলেন ; সেই দুই যুটীঘরাশ্রেণী ১৩ পরস্পর সম্মুখীন হইল। পরে তিনি স্বর্ণের পঞ্চাশটী ঘুণ্টী গড়িয়া সেই যুটীতে যবনিকা সকল পরস্পর যোড় দিলেন : তাহাতে একই আবাস হইল । পরে তিনি আবাসের উপরে আচ্ছাদনার্থক তাম্বর নিমিত্তে ছাগলোমজাত যবনিকা সকল প্রস্তুত করিলেন : ১৫ একদশ যবনিক প্রস্তুত করিলেন । তাহার প্রত্যেক যবনিক। ত্রিশ হস্ত দীর্ঘ, ও প্রত্যেক যবনিক চারি হস্ত ১৬ প্রস্থ ; একাদশ যবনিকার একই পরিমাণ ছিল। পরে তিনি পাচ যবনিক পৃথক্ যোড় দিলেন, ও ছয় ১৭ যবনিক পৃথক যোড় দিলেন । আর যোড়স্থানের অন্ত্য যবনিকার মুড়াতে পঞ্চাশ ঘুণ্টীঘরা করিলেন, এবং দ্বিতীয় ঘোড়স্থানের অন্ত্য যবনিকার মুড়াতেও ১৮ পঞ্চাশ ঘুণ্টীঘরা করিলেন। আর যোড় দিয়া একই তাম্ব ১৯ করণার্থে পিত্তলের পঞ্চাশ ঘুণ্টী গড়িলেন। পরে রাষ্ট্ৰীকৃত মেষচৰ্ম্মে তাম্বুর এক ছাদ, আবার তাহার উপরে তহশচন্মের এক ছাদ, প্রস্তুত করি লন । ২০ পরে তিনি আবাসের জন্ত শিটাম কাঠের দাড় করান ২১ তক্ত সকল নিৰ্ম্মাণ করিলেন। এক এক তক্ত দীঘে দশ ২২ হস্ত ও প্রত্যেক তত্তল প্রস্থে দেড় হস্ত । প্রত্যেক তক্ততে পরস্পর সংযুক্ত দুই দুই পায় ছিল ; এইরূপে তিনি ২৩ অবাসের সকল তক্ত প্রস্তুত করিলেন । তিনি আবাসের নিমিত্তে তক্ত প্রস্তুত করলেন, দক্ষিণদিকে ২৪ দক্ষিণ পাশ্বের নিমিত্তে বিংশতি তক্ত ; আর সেই বিংশতি তত্তণর নীচে রৌপ্যের চল্লিশ চুঙ্গি গড়িলেন, এক তক্তার নীচে তাহার দুই পায়ার নিমিত্ত দুই চুঙ্গি, এবং অন্ত অন্ত তত্তণর নীচেও তাহাদের দুই দুই পায়ার ২৫ নিমিত্তে দুই দুই চুঙ্গি গড়িলেন । আর আবাসের দ্বিতীয় পার্থের নিমিত্তে উত্তরদিকে বিংশতি তক্তা ২৬ করিলেন, ও সেইগুলির জন্য চল্লিশট রৌপ্যের চুঙ্গি গড়িয়া দিলেন ; এক তক্তার নীচে ছুহ ছুহ ছুঙ্গি, ও Ե՛ S 8 Տ0 ७७ ; २१ - ७१ ; २४ । ] ২৭ অন্ত অন্ত তক্তার নীচেও দুই দুই চুঙ্গি হইল। আর পশ্চিমদিকে আবাসের পশ্চাৎ পাশ্বের নিমিত্তে ছয় ২৮ খান তক্ত করিলেন। আর আবাসের সেই পশ্চাৎ ২৯ ভাগে দুই কোণে দুই খানি তক্তা রাখিলেন। সেই দুই তক্তার নীচে দোহারা ছিল, এবং সেইরূপে মাথাতেও প্রথম কড়ার নিকটে অখণ্ড ছিল ; এইরূপে তিনি দুই ৩০ কোণের তক্ত বদ্ধ করিলেন। তাহাতে আটগানি তক্ত, এবং সে গুলির রৌপ্যের ষোলটা চুঙ্গি হইল, এক এক তক্তার নীচে দুই দুই চুঙ্গি হইল । ৩১ পরে তিনি শিটাম কাষ্ঠ দ্বারা অর্গল প্রস্তুত করিলেন : ৩২ আবাসের এক পাশ্বের তক্তার জন্য পাচ অর্গল, আবাসের অন্ত পাশ্বের তক্তার জন্ত পাচ অর্গল, এবং পশ্চিমদিকে আবাসের পশ্চাৎ পাশ্বের তক্তার জন্ত পাচ অর্গল । ৩৩ আর মধ্যবৰ্ত্তী অর্গলটকে তক্তাগুলির মধ্যস্থান দিয়া এক প্রান্ত অবধি অন্ত্য প্রান্ত পর্যান্ত বিস্তার করিলেন। ৩৪ পরে তিন তক্তাগুলি স্বর্ণে মুড়িলেন, এবং অর্গলের ঘর হইবার জন্ত স্বর্ণের কড়া গড়িয়া অর্গলও স্বর্ণে মুড়িলেন। আর তিনি নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদ মসীনা স্বত্র দিয়া তিরস্করিণী প্রস্তুত করিলেন, তাহাতে ৩৬ করূবাকৃতি করিলেন, তাহ শিল্পকারের কৰ্ম্ম । আর তাহার নিমিত্ত শিটাম কাঠের চারি স্তন্ত নিৰ্ম্মাণ করিয়া স্বর্ণে মুড়িলেন, এবং তাহদের আঁকড়াও স্বর্ণের করিলেন, এবং তাহার জন্ত রৌপ্যের চারি চুঙ্গি ঢালিলেন । পরে তিনি তাম্বুর দ্বারের নিমিত্তে নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদা মসীন। স্বত্র দ্বারা স্থচি-ক্রিয়াবিশিষ্ট ৩৮ এক পর্দা নিৰ্ম্মাণ করিলেন । আর তাহার পাচ স্তম্ভ ও সেগুলির আঁকড়া করিলেন, এবং ঐ সকলের মাথল ও শলাক স্বর্ণ মুড়িলন, কিন্তু সেগুলির পাচ চুঙ্গি পিত্তল দিয়া গড়িলেন । ©ፃ আর বৎসলেল শটাম কাঠ দ্বার সিন্দুক নিৰ্ম্মাণ করিলেন : তাহা আড়াই হস্ত দীর্ঘ, দেড় হস্ত প্রস্থ ২ ও দেড় হস্ত উচ্চ করা হইল ; আর ভিতর ও বাহির নিৰ্ম্মল স্বর্ণে মুড়িলেন, এবং তাহার চারিদিকে স্বর্ণের ৩ নিকাল গড়িয়া দিলেন। আর তাহার চারি পায়ার জন্ত স্বর্ণের চারি কড়া ঢালিলেন : তাহার এক পার্শ্বে দুই কড়া ৪ ও অন্ত পাশ্বে দুই কড়া দিলন। আর তিনি শিটাম ৫ কাস্তুের দুইটী বহন-দণ্ড করিয়া স্বর্ণে মুড়িলেন, এবং সিন্দুক বইনার্থে ঐ বহন-দণ্ড সিন্দুকের দুই পার্শ্বস্থ কড়াতে প্রবেশ করাইলেন। ৬ পরে তিনি নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দ্বারা পাপাবরণ প্রস্তুত করিলেন ; তাহ আড়াই হস্ত দীর্ঘ ও দেড় হস্ত প্রস্থ করা ৭ হইল। আর পিটান স্বর্ণ দ্বারা দুই করব নিৰ্ম্মাণ করিয়া ৮ পাপাবর পর দুই মুড়াতে দিলেন। তাহার এক মুড়াতে এক করব ও অন্ত মুড়াতে অন্ত কন্ধব, পাপাবরণের দুই মুড়াতে তৎসহিত অখণ্ড দুই করূব দিলেন । ৯ তাহাত সেই দুই করব উদ্ধে পক্ষ বিস্তার করিয়া ঐ 6]

  • ○○

©ጫ O. T. যাত্রাপুস্তক । レ> পক্ষ দ্বারা পাপাবরণ আচ্ছাদন করিল, এবং তাহদের মুখ পরস্পরের দিকে রহিল ; করুবদের দৃষ্টি পাপবরণের দিকে রহিল । পরে তিনি শিটীম কাষ্ঠ দ্বারা মেজ নিৰ্ম্মাণ করিলেন ; তাহা দুই হস্ত দীর্ঘ এক হস্ত প্রস্থ ও দেড় হস্ত উচ্চ করা ১১ হইল। আর তাহ নিৰ্ম্মল স্বর্ণে মুড়িলেন,ও তাহার চারি ১২ দিকে স্বর্ণের নিকাল গড়িয়া দিলেন। আর তিনি তাহার নিমিত্তে চারিদিকে চারি অঙ্গুলি পরিমিত এক পার্শ্বকাঞ্জ করিলেন, ও পার্শ্বকাঠের চারিদিকে স্বর্ণের ১৩ নিকাল গড়িয়া দিলেন। আর তাহার জন্ত স্বর্ণের চারি কড়া ঢালিয়। তাহার চারি পায়ার চারি কোণে ১৪ রাখিলেন। সেই কড়। পাশ্বকাষ্ঠের নিকটে ছিল, এবং ১৫ মেজ বহনাৰ্থ বহন-দণ্ডের ঘর হইল। পরে তিনি মেজ বহনাৰ্থ শিটাম কান্ত দ্বারা দুই বহন-দণ্ড করিয়া স্বর্ণে ১৬ মুড়িলেন। আর মেজের উপরিস্থিত পাত্র সকল নিৰ্ম্মাণ করিলেন, অর্থাৎ তাহার থাল, চমস, ঢালিবার জন্ত সেকপাত্র ও শ্রুব সকল নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দিয়া নিৰ্ম্মাণ করিলেন । পরে তিনি নিৰ্ম্মল পিটান স্বর্ণ দ্বারা দীপবৃক্ষ নিৰ্ম্মাণ করিলেন : তাহার কাণ্ড, শাখা, গোলাধার, কলিকা ১৮ ও পুষ্প তৎসহিত অখণ্ড ছিল । সেই দীপবৃক্ষের এক পাশ্ব হইতে তিন শাখা, ও দীপবৃক্ষের অন্ত পার্শ্ব হইতে তিন শাখা, এই ছয় শাখা তাহার পাশ্ব হইতে ১৯ নির্গত হইল। এক শাখায় বাদাম পুষ্পের দ্যায় তিন গোলাধার, এক কলিকা ও এক পুষ্প, এবং অন্ত শাখায় বাদাম পুষ্পের স্থায় তিন গোলাধার, এক কলিকা ও এক পুষ্প, দীপবৃক্ষ হইতে নির্গত ছয় ২০ শাখায় এইরূপ হইল। আর দীপবৃক্ষের বাদাম পুষ্পের হ্যায় চারি গোলাধার ও তাহদের কলিকা ও পুষ্প ২১ ছিল । আর দীপবৃক্ষের যে ছয়টা শাখা নির্গত হইল, সেগুলির এক শাখাদ্বয়ের নীচে তৎসহ অখণ্ড এক কলিক, অন্ত শাখাদ্বয়ের নীচে তৎসহ অখণ্ড এক কলিকা, ও অপর শাখাদ্বয়ের নীচে তৎসহ অখণ্ড এক ২২ কলিকা ছিল । এই কলিকা ও শাখা তৎস হত অখণ্ড ছিল, এবং সমস্তই পিটন নিৰ্ম্মল কুবর্ণের একই বস্তু ২৩ ছিল । আর তিনি তাহার সাতটা প্ৰদীপ এবং তাহার চিমটা ও শীষধানী নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দিয়া নিৰ্ম্মাণ করিলেন । ২৪ তিনি এই দীপবৃক্ষ এবং ঐ সমস্ত সামগ্রী এক তলন্ত পরিমিত নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দ্বারা নিৰ্ম্মাণ করিলেন । পরে তিনি শিটীম কাষ্ঠ দ্বারা ধূপবেদি নিৰ্ম্মাণ করিলেন : তাহ এক হস্ত দীর্ঘ, এক হস্ত প্রস্থ ও দুই হস্ত উচ্চ চতুস্কাণ তাহার শৃঙ্গ সকল তাহার সহিত অখণ্ড ২৬ ছিল। পরে সেই বেদি, তাহীর পৃষ্ঠ, তাহার চারি পার্শ্ব ও তাহার শৃঙ্গ সকল নিৰ্ম্মল স্বর্ণে মুড়িলেন, এবং তাহার ২৭ চারিদিকে স্বর্ণের নিকাল গড়িয়া দিলেন। আর তাহা বহিবার জন্ত বহন দণ্ডের ঘর করিয়া দিতে তাহার নিকালের নীচে দুই পাশ্বের দুই কোপের নিকটে ২৮ স্বর্ণের দুই দুই কড়া গড়িয়া দিলেন। আর শিটীম У о S on ૨ ? 81 bア & কাষ্ঠ দ্বারা বহন-দণ্ড প্রস্তুত করিলেন ও তাঁহা স্বর্ণে মুড়িলেন। পরে তিনি গন্ধবণিকের প্রক্রিয়ানুসারে অভিষেকীর্থ পবিত্র তৈল ও হুগন্ধি দ্রব্যের নিৰ্ম্মল ধূপ প্রস্তুত করিলেন। ○プ আর তিনি শিটীম কাষ্ঠ দ্বারা হোমবেদি নিৰ্ম্মাণ করিলেন ; তাহ পাচ হস্ত দীর্ঘ, পাচ হস্ত প্রস্থ ও ২ তিন হস্ত উচ্চ চতুষ্কোণ করা হইল। আর তাহার চারি কোণের উপরে শৃঙ্গ নিৰ্ম্মাণ করিলেন ; সেই শৃঙ্গ সকল তাহার সহিত অখণ্ড ছিল ; তিনি তাহ পিত্তলে মুড়ি৩ লেন। পরে তিনি বেদির সমস্ত পাত্র, অর্থাৎ হাড়ী, হাত, বাটি, ত্রিশূল ও অঙ্গরধানী, এই সকল পাত্র ৪ পিত্তল দিয়া গড়িলেন। আর বেদির জন্ত বেড়ের নীচে অধঃ অবধি মধ্য পর্য্যন্ত জালবৎ কাজ করা পিত্তলের ও ঝাঝরী প্রস্তুত করিলেন। তিনি বহন-দণ্ডের ঘর করিয়া দিতে সেই পিত্তলময় ঝাঝরীর চারি কোণে চারি কড়া ৬ ঢালিলেন। পরে তিনি শিটীম কাষ্ঠ দ্বারা বহন-দণ্ড ৭ নিৰ্ম্মাণ করিয়া পিত্তলে মুড়িলেন। আর বেদি বহুনাথে তাহার পার্শ্বস্থ কড়াতে ঐ বহন-দণ্ড পরাইলেন ; তিনি ফাপা রাখিয় তাহ দিয়া বেদি নিৰ্ম্মাণ করিলেন । ৮ আর যাহারা সমাগম তাম্বুর দ্বারসমীপে সেবার্থে শ্ৰেণীভূত হইত, সেই শ্রেণীভুত স্ত্রীলোকদের পিত্তল নিৰ্ম্মিত দর্পণ দ্বারা তিনি প্রক্ষালন-পাত্র ও তাহার খুর। নিৰ্ম্মাণ করিলেন । ৯ আর তিনি প্রাঙ্গণ প্রস্তুত করিলেন ; দক্ষিণদিকে প্রাঙ্গণের দক্ষিণ পার্শ্বে পাকান সাদা মদীনা সুত্রে এক ১০ শত হস্ত পরিমিত যবনিক ছিল। তাহার বিংশতি স্তম্ভ ও বিংশতি চুঙ্গি পিত্তলের, এবং সেই স্তম্ভের ১১ আঁকড়া ও শলাকা সকল রৌপ্যের ছিল। আর উত্তর দিকের যবনিক এক শত হস্ত, ও তাহার বিংশতি স্তস্ত ও বিংশতি চুঙ্গি পিত্তলের, এবং স্তম্ভের আঁকড়া ও ১২ শলাক সকল রৌপ্যের ছিল। আর পশ্চিম পাশ্বের ঘবনিক পঞ্চাশ হস্ত, ও তাহার দশ স্তম্ভ ও দশ চুঙ্গি, এবং স্তন্তের আঁকড়া ও শলাকা সকল রৌপ্যের ছিল । ১৩ আর পূর্বদিকে পূর্ব পাশ্বের দীর্ঘতা পঞ্চাশ হস্ত ছিল । ১৪ প্রাঙ্গণের দ্বারের এক পার্থের নিমিত্তে পনের হস্ত যব১৫ নিক, তাহার তিন স্তম্ভ ও তিন চুঙ্গি, এবং অন্ত পাশ্বের জন্তও সেইরূপ ; প্রাঙ্গণের স্বারের এদিক ওদিক্‌ পনের হস্ত যবনিক ও তাহার তিন স্তম্ভ ১৬ ও তিন চুঙ্গি ছিল। প্রাঙ্গণের চারিদিকের সকল ১৭ যবনিকা পাকান সাদা মদীন সূত্রে নিৰ্ম্মিত। তার স্তস্তের চুঙ্গি সকল পিত্তলময়, স্তস্তের আঁকড়া ও শলাক সকল রৌপ্যময়, ও তাহার মাথলা রৌপ্যমণ্ডিত, এবং প্রাঙ্গণের সকল স্তম্ভ রোপ্যের শলাকায় সংযুক্ত ১৮ ছিল । আর প্রাঙ্গণের দ্বারের পর্দা নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদা মদীনা সুত্রের স্থচিকৰ্ম্মে প্রস্তুত, এবং তাহার দীর্ঘত বিংশতি হস্ত, আর প্রাঙ্গণের যবনিকার দ্যায় উচ্চতা প্রস্থপরিমাণে পঞ্চ হস্ত । ২৯ যাত্রাপুস্তক । [ ৩৭ ; ২৯ – ৩১ ; ৪ . ১৯ আর তাহার চারি স্তম্ভ ও চারি চুঙ্গি পিত্তলের ও আঁকড়া রৌপ্যের, এবং তাহার মাখল রৌপ্যমণ্ডিত ও ২০ শলাকা রৌপ্যময় ছিল । আর আবাসের ও প্রাঙ্গণের চারিদিকের গোজ সকল পিত্তলময় ছিল । তাবাসের, সাক্ষ্যের আবাসের, দ্রব্য-সংখ্যার বিবরণ এই । মোশির আজ্ঞানুসারে সেই সমস্ত গণনা করা হইল ; লেৰীয়দের কার্য্য বলিয় তাহ হীরোণ যাজকের ২২ পুত্র ঈথামরের দ্বারা করা হইল। আর সদাপ্রভু মোশিকে যে আজ্ঞা দিয়াছিলেন, তদনুসারে যিহুদীবংশজাত হরের পৌত্র উরির পুত্র বৎসলেল সকলই ২৩ নিৰ্ম্মাণ করিয়াছিলেন। তার দান-বংশজাত অহীষামকের পুত্র অহলীয়াব তাহার সহকারী ছিলেন ; তিনি খোদক ও শিল্পকুশল, এবং নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদ মসীন। সুত্রের শিল্পকার ছিলেন। পবিত্র আবাস নিৰ্ম্মাণের সমস্ত কৰ্ম্মে এই সকল স্বর্ণ লাগিল, উপহারের সমস্ত স্বর্ণ পবিত্র স্থানের শেকল অনুসারে উনত্রিশ তালন্ত সাত শত ত্রিশ শেকল ২৫ ছিল । আর মণ্ডলীর গণিত লোকদের রৌপ্য পবিত্র স্থানের শেকল অনুসারে এক শত তালন্ত এক সহস্ৰ সাত ২৬ শত পচাত্তর শেকল ছিল । গণিত প্রত্যেক লোকের জন্ত, অর্থাৎ যাহারা বিংশতি বৎসর বয়স্ক কিম্বা তদপেক্ষা অধিক বয়স্ক ছিল, সেই ছয় লক্ষ তিন সহস্ৰ সাড়ে পাঁচ শত লোকের মধ্যে প্রত্যেক জনের জন্য এক এক বেক, অর্থাৎ পবিত্র স্থানের শেকল অনুসারে ২৭ অৰ্দ্ধ অৰ্দ্ধ শেকল দিতে হইয়াছিল। সেই এক শত তালন্ত রৌপ্যে পবিত্র স্থানের চুঙ্গি ও তিরস্করিণীর চুঙ্গি ঢাল গিয়াছিল ; এক শত চুঙ্গির কারণ এক শত তালন্ত, এক এক চুঙ্গির কারণ এক এক তলন্ত ২৮ ব্যয় হইয়াছিল। তার ঐ এক সহস্ৰ সাত শত পচাত্তর শেকলে তিনি স্তন্ত সকলের জন্ত আঁকড়া নিৰ্ম্মাণ করিয়াছিলেন, ও তাহদের মাথলা মণ্ডিত ও শলাকায় ২৯ সংযুক্ত করিয়াছিলেন। আর উপহারের পিত্তল সত্তর ৩০ তালন্ত দুই সহস্ৰ চারি শত শেকল ছিল। তাহা দ্বারা তিনি সমাগম-তাম্বুর দ্বারের চুঙ্গি, পিত্তলময় বেদি ও ৩১ তাহার পিত্তলময় কাঝরী ও বেদির সকল পাত্র, এবং প্রাঙ্গণের চারিদিকের চুঙ্গি ও প্রাঙ্গণের দ্বারের চুঙ্গি ও তাবাসের সকল গোজ ও প্রাঙ্গণের চারিদিকের গোজ নিৰ্ম্মাণ করিয়াছিলেন । లి) পরে শিল্পীরা নীল, বেগুনে ও লাল সূত্র দ্বারা পবিত্র স্থানে পরিচর্য্য করণার্থ সূক্ষ্মশিল্পিত বস্ত্র প্রস্তুত করিলেন, বিশেষতঃ হারোণের জন্ত পবিত্র বস্ত্র প্রস্তুত করিলেন ; যেমন সদাপ্রভু মোশিকে আজ্ঞ ২ দিয়াছিলেন । তিনি স্বর্ণ দ্বারা এবং নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদা মসীন সুত্র দ্বারা এফেদ ৩ নিৰ্ম্মণ করিলেন । ফলতঃ তাহারা স্বর্ণ পিটাইয়া পাত করিয়া শিল্পকৰ্ম্মের নীল, বেগুনে, লাল ও সাদা মসীন হুত্রের মধ্যে বুনিবার জন্য তাহা কাটিয়া তার ৪ প্রস্তুত করিলেন। আর তাহারা যোড়া দিবার জন্ত ス> ર 8 82 కలి ఎ ; ৫ – ৪৩ ৷ ] তাহার দুই স্কন্ধপটি প্রস্তুত করিলেন ; দুই মুড়াতে ৫ পরস্পর যোড়া দেওয়া গেল ; আর তাহ বন্ধ করিবার জষ্ঠ শিল্পকৰ্ম্মে বোন যে পটুক তাহার উপরে ছিল, তাহা তৎসহিত অখণ্ড, এবং সেই বস্ত্রের তুল্য ছিল, তাহা স্বর্ণ দ্বারা এবং নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদ মদীনা স্বত্র দ্বারা প্রস্তুত হইল ; যেমন সদাপ্রভু ও মেশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন। পরে তাহার ক্ষোদিত মুদ্রার স্যায় ইস্রায়েলের পুত্রদের নামে ক্ষোদিত স্বর্ণময় স্থালীতে খচিত দুই গোমেদক মণি খুদিলেন। আর এফেদের দুই স্কন্ধপটির উপরে ইস্রায়েলের পুত্রদের স্মরণার্থক মণিস্বরূপে তাহা বসাইলেন; যেমন সদাপ্রভু মেশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন । ৮ পরে এফোদের কৰ্ম্মের দ্যায় তিনি স্বর্ণ দ্বারা এবং নীল, বেগুনে, লাল ও পাকান সাদা মদীনা সূত্র ৯ দ্বারা শিল্পকর্মের বুকপাট প্রস্তুত করিলেন। তাহ চতুষ্কোণ; তাহারা সেই বুকপট দোহারা করিলেন ; তাহা এক বিঘত দীর্ঘ ও এক বিঘত প্রস্থ ও দোহারা • করিলেন। আর তাহ চারি পঙক্তি মণিতে খচিত করিলেন ; তাহার প্রথম পর্ভূক্তিতে চুণী, পীতমণি ও ১১ মরকত, দ্বিতীয় পঙক্তিতে পদ্মরাগ, নীলকান্ত ও ১২ হীরক, তৃতীয় পঙক্তিতে পেরোজ, যিন্ম ও কটাহেলা, ১৩ এবং চতুর্থ পঙক্তিতে বৈদুৰ্য, গোমেদক ও স্বৰ্য্যকান্ত ১৪ ছিল ; স্বর্ণস্থালী এই সকল মণিতে খচিত হইল। এই সকল মণি ইস্রায়েলের পুত্রদের নামানুসারে হইল, তাহাঁদের নামানুসারে দ্বাদশট হইল ; মুদ্রার স্থায় ক্ষোদিত প্রত্যেক মণিতে দ্বাদশ বংশের জন্ত এক এক ১৫ পুত্রের নাম হইল। পরে তাহারা বুকপাটায় নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দ্বারা মালাবৎ পাকান দুই শৃঙ্খল গড়িলেন। আর স্বর্ণের দুই স্থালী ও স্বর্ণের দুই কড়া নিৰ্ম্মাণ করিয়া বুকপাটার দুই প্রান্তে সেই দুই কড়া বদ্ধ করিলেন। ১৭ আর বুকপাটার প্রান্তস্থিত দুই কড়ার মধ্যে পাকান -৮ স্বর্ণের সেই দুই শৃঙ্খল রাখিলেন। এবং পাকান শৃঙ্খলের দুই মুড়া দুই স্থালীতে বদ্ধ করিয়া এফোদের ৯ সন্মুখে দুই স্কন্ধপটির উপরে রাখিলেন। আর স্বর্ণের দুইটী কড়া গড়িয়া বুকপাটার দুই প্রান্তে ভিতরভাগে এফেদের সম্মুখস্থ মুড়াতে রাখিলেন। এবং স্বর্ণের দুইটা কড় গড়িয়া এফেদের দুই স্কন্ধপটির নীচে তাহার সম্মুখভাগে তাহার যোড়ের স্থানে এফেদের বুনানি করা পটুকার উপরে রাখিলেন। আর বুকপাট যেন এফেদের শিল্পিত পটুকার উপরে থাকে, এফোদ হইতে খসিয়া না যায়, এই জন্ত তাহারা কড়াতে নীল স্বত্র দিয়া এফেীদের কড়ার সহিত বুকপাট বদ্ধ করিয়া রাখিলেন ; যেমন সদাপ্ৰভু মোশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন । পরে তিনি এফেদের পরিচ্ছদ বুনিলেন ; তাহ তত্ত্ববায়ের কৃত ও সমুদয় নীলবর্ণ। আর সেই পরিচ্ছদের গলা তাহার মধ্যস্থানে ছিল ; তাহ বৰ্ম্মের গলার সদৃশ ; তাহ যেন ছিড়িয়া না যায়, এই জন্য

  • *

ー ○ যাত্রাপুস্তক । 霞ヶ○ ২৪ সেই গলার চারিদিকে ধারি ছিল। আর তাহারা ঐ পরিচ্ছদের আঁচলে নীল, বেগুনে ও লাল পাকান সূত্রে ২৫ দাড়িম নিৰ্ম্মাণ করিলেন। পরে তাহারা নিৰ্ম্মল স্বর্ণের কিঙ্কিণী গড়িলেন ও সেই কিঙ্কিণীগুলি দাড়িমের মধ্যে মধ্যে পরিচ্ছদের আঁচলের চারিদিকে দাড়িমের মধ্যে ২৬ মধ্যে দিলেন। পরিচর্য্যার্থক পরিচ্ছদের আঁচলে চারি দিকে এক কিঙ্কিণী ও এক দাড়িম, এক কিঙ্কিণী ও এক দাড়িম, এইরূপ করিলেন ; যেমন সদাপ্রভু মেশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন । ২৭ পরে তাহার হারোণের ও র্তাহার পুত্ৰগণের জন্ত সাদ মসীন স্বত্র দ্বারা তন্তুবায়ের নিৰ্ম্মিত অঙ্গরক্ষিণী, ২৮ ও সাদা মসীনা সূত্রনিৰ্ম্মিত উষ্ণীষ ও সাদা মদীন। সূত্রনিৰ্ম্মিত শিরোভূষণ ও পাকান সাদা মসীন স্বত্র২৯ নিৰ্ম্মিত শুক্ল জাজিয়া প্রস্তুত করিলেন। আর পাকান সাদ মদীন স্থত্রে, এবং নীল, বেগুনে ও লাল হুত্রে সুচিকৰ্ম্ম দ্বারা এক কটিবন্ধন প্রস্তুত করিলেন ; যেমন সদাপ্রভু মোশিকে আজ্ঞ দিয়াছিলেন । পরে তাহারা নিৰ্ম্মল স্বর্ণ দ্বারা পবিত্র মুকুটের পাত প্রস্তুত করিলেন, এবং ক্ষোদিত মুদ্রার স্থায় তাহার ৩১ উপরে লিখিলেন, “সদাপ্রভুর উদ্দেশে পবিত্র”। পরে উদ্ধে উষ্ণীষের উপরে রাখিবার জন্ত তাহ নীল সূত্র দিয়া বধিলেন ; যেমন সদাপ্ৰভু মেশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন । এই প্রকারে সমাগম-তাম্বুরূপ আবাসের সমস্ত কাৰ্য্য সমাপ্ত হইল ; মোশির প্রতি সদাপ্রভুর আজ্ঞানুসারে ৩৩ ইস্রায়েল-সন্তানগণ সমস্ত কৰ্ম্ম করিল। পরে তাহারা মোশির নিকটে ঐ আবাস আনিল, তাম্বু, তৎসংক্রান্ত সমস্ত দ্রব্য, এবং ঘুণ্টী, তক্ত, অর্গল, স্তম্ভ ও চুঙ্গি, ৩৪ রক্তাকৃত মেষ-চৰ্ম্মনিৰ্ম্মিত ছাদ, তহশ-চৰ্ম্মনিৰ্ম্মিত ছাদ ৩৫ ও ব্যবধানের তিরস্করিণী, এবং সাক্ষ্য-সিন্দুক ও ৩৬ তাহীর বহন-দণ্ড, পাপাবরণ এবং মেজ, তাহার সমস্ত ৩৭ পাত্র ও দর্শন-কুটী, নিৰ্ম্মল দীপবৃক্ষ, তাহার প্রদীপ সকল অর্থাৎ প্রদীপাবলি, তাহার সমস্ত পাত্র ও দীপার্থ ৩৮ তৈল, এবং স্বর্ণময় বেদি, অভিষেকাৰ্থ তৈল, ধুপার্থ ৩৯ হুগন্ধি দ্রব্য ও তাম্বু-দ্বারের পর্দ, পিত্তলময় যেদি, তাহার পিত্তলময় বাবরী, তাহার বহন-দণ্ড ও সমস্ত পত্র, ৪ প্রক্ষালন-পাত্র ও তাহার খুর, এবং প্রাঙ্গণের যুবনিক, তাহার স্তম্ভ ও চুঙ্গি এবং প্রাঙ্গণ-দ্বারের পর্দা, ও তাহার রজ্জ, গোজ ও সমাগম-তাম্বুর জন্ত তাবা৪১ সের কার্য্যের সমস্ত পাত্র, পবিত্র স্থানে পরিচর্য্যা করণার্থ হুঙ্কাশিল্পিত বস্ত্র, হারোণ যাজকের পবিত্র বস্ত্র ও তাহার পুত্রদের যাজনকৰ্ম্ম সম্বন্ধীয় বস্তু। ৪২ সদাপ্রভু মোশিকে যেমন আজ্ঞা করিয়াছিলেন, তদনু৪৩ সারে ইস্রায়েল-সন্তানগণ সমস্তই সম্পন্ন করিল। পরে মোশি ঐ সকল কার্য্যের প্রতি দৃষ্টি করিলেন, আর দেখ, তাহারা করিয়াছে ; সদাপ্রভুর আজ্ঞানুসারেই করিয়াছে ; আর মোশি তাহাদিগকে আশীৰ্ব্বাদ করিলেন । vరి a చిని 83 1ヶ8 তাম্বুর স্থাপন ও প্রতিষ্ঠা। 8o পরে সদাপ্ৰভু মেশিকে কহিলেন, তুমি প্রথম মাসের প্রথম দিনে সমাগম-ত।মুরূপ আবাস ৩ স্থাপন করবে। আর তাহর মধ্যে সাক্ষ্য-সিন্দুক রাখিয়া তিরস্করিণী টাঙ্গাইয়৷ সেই সিন্দুক আড়াল ৪ করবে। পরে মেজ ভিতরে আনিয়া তাহার উপরে সজাইবার দ্রব্য সাজাচয়। রাখিবে, এবং দীপৰ্ব্বক্ষ ভিতর আনিয়া তাহার প্রদীপ সকল জালিয়া দিবে । ৫ আর স্বর্ণময় ধূপবেদি সাক্ষ্য-সিন্দুকের সম্মুখ রাখিবে, ৬ এবং আবাস-দ্বারের পর্দ টাঙ্গাইবে । আর সমাগমতাস্বরূপ আবাসের দ্বারের সম্মুখ হোমবেদি রাখিবে । ৭ তার সমাগম-তাম্বু ও বেদির মধ্যে প্রক্ষালন-পাত্র ৮ রাখিয় তাহার মধ্যে জল দিবে। আর চারিদিক প্রক্ষণ প্রস্তুত করিবে ও প্রাঙ্গণের দ্বারে পর্দা ৯ টাঙ্গাইবে । পরে অভিষেকীর্থ তৈল লইয়। আবাস ও তাহার মধ্যবৰ্ত্তী সমস্ত বস্তু অভিষেক করিয়া তাহ ও তৎসংক্রান্ত সকল দ্রব্য পবিত্র করিবে ; তাহতে ১০ তাহ পবিত্র হইবে । আর তুমি হোমবেদি ও তৎসংক্রান্ত সমস্ত পাত্র অভিষেক করিয়া, হোমবেদি পবিত্র করিবে ; তাহীতে সেই বেদি অতি পবিত্র ১১ হইবে। আর তুমি ও ক্ষালন-পাত্র ও তাহার খুর। অভিষেক করিয়া পবিত্র করিবে । পরে তুমি হারোণকে ও তাহার পুত্ৰগণকে সমাগমতাম্বুর দ্বারসমীপে আনিয় জলে স্নান করাইবে । ১৩ তার হারে।ণকে পবিত্র বসু সকল পরাইবে এবং অভিষেক করিয়া পবিত্র করিবে, তাহাতে তাহার। ১৪ আমার যাজনকৰ্ম্ম করিবে । আর তাহার পুত্রগণকে ১৫ অনিয়া অঙ্গ রক্ষিণা পরাইবে । আর তাহদের পিতাকে যেমন অভিষেক করিয়াছ, তদ্রুপ তাহাদিগকেও অভিষেক করিব, তাহাতে তাহারা আমার যাজনকল্প করিবে ; তাহদের সেই অভিষেক পুরষানুক্রমে চির১৬ স্থায়ী যাজকত্বের জন্ত হইবে । মোশি এইরূপ করিলেন ; তিনি সদাপ্রভুর সমস্ত আজ্ঞানুসারে কার্য্য করিলেন । ১৭ পরে দ্বিতীয় বৎসরের প্রথম মাসের প্রথম দিনে ১৮ আবাস স্থাপিত হইল । মোশি আবাস স্থাপন করিলেন, তাহার চুঙ্গি দিলেন, তক্ত বসাইলেন, অর্গল ভিতরে দিলেন ও তাহার স্তন্ত সকল তুলিলেন । ১৯ পরে ঐ আবাসের উপরে তাম্বু বিস্তার করিলেন, এবং তাম্বুর উপরে ছাদ দিলেন ; যেমন সদাপ্রভু মেশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন । পর তিনি সাক্ষ্যলিপি লইয়া সিন্দুকের মধ্যে রাখিলেন, সিন্দুকে বহন-দণ্ড দিলেন, এবং সিন্দুকের >ペ 이 যাত্রীপুস্তক । [ 8 o ; > ー ○ゲ ২১ উপরে পাপাবরণ রাখিলেন, তার তাবাসের মধ্যে সিন্দুক আনিলেন এবং বাবধানের তিরস্করিণী টাঙ্গ।ইয়া সাক্ষ্য-সিন্দুক আড়াল করলেন ; যেমন সদাপ্রভু মোশিকে অজ্ঞা দিয়াছিলেন। ২২ পরে তিনি আবাসের উত্তর পাশ্বে তিরস্করিণীর ২৩ বাহিরে সমাগম-তন্তুতে মেজ রাখিলেন, এবং তাহার উপরে সদা প্রভুর সম্মুখে রুট সাজাইয়। রাখিলেন : - যেমন সদাপ্রভু মেশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন। ২৪ পরে তিনি সমাগম তাস্বতে মেজের সম্মুখে আবা২৫ সের পার্শ্ব দক্ষিণদিকে দীপৰ্ব্বক্ষ রাখিলেন, এবং সদাপ্রভুর সম্মুখে ও দীপ জ্বলিলেন : যেমন সদাপ্রভু মেশিকে তাজ্ঞা দিয়াছিলেন । ২৬ পরে তিনি সমাগম-তাম্বতে তিরস্করিণীর সম্মুখে ২৭ স্বর্ণবেদি রাখিলেন, এবং তাহার উপরে সুগন্ধি ধূপ জুলাইলেন ; যেমন সদাপ্রভু মোশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন। পরে তিনি আবাসের দ্বীরে পর্দা টাঙ্গাইলেন । ২৯ আর তিনি সমাগম-তাম্বরূপ আবাসের দ্বারসমীপে হোমবেদি রাখিয় তাহার উপরে হোমবলি ও ভক্ষ্য নৈবেদ উৎসর্গ করিলেন ; যেমন সদাপ্রভু মোশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন । পরে তিনি সমাগম তাম্ব ও বেদির মধ্যস্থানে প্র ক্ষালন-পাত্র রাখিয় তাহীর মধ্যে প্রক্ষালনার্থ জল ৩১ দিলেন। তাহ হইতে মোশি, হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ আপন আপন হস্ত পদ ধৌত করিতেন ; ৩২ যখন তাহারা সমাগম-তাম্বুতে প্রবেশ করিতেন, কিম্বা বেদির নিকটবত্ত হইতেন, তৎকালে ধৌত করিতেন ; ৩৩ যেমন সদাপ্রভু মেশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন। পরে তিনি আবাসের ও বেদির চারিদিকে প্রাঙ্গণ প্রস্তুত করিলেন, এবং প্রাঙ্গণের দ্বারের পর্দা টাঙ্গাইলেন । এইরূপে মাশি কায্য সমাপ্ত করিলেন । ৩৪ তখন মেঘ সমাগম-তান্তু আচ্ছাদন করিল, এবং ৩৫ সদপ্রভুর প্রতাপ আবাস পরিপূর্ণ করিল। তাহাতে মোশি সমাগম-তাম্বুতে প্রবেশ করিতে পারিলেন না, কারণ মেঘ তাহার উপরে অবস্থিতি করিতেছিল, এবং সদাপ্রভুর প্রতাপ আবাস পরিপূর্ণ করিয়াছিল। আর আবাসের উপর হইতে মেঘ নীত হইলে, ইস্রায়েল-সন্তানগণ আপনাদের প্রত্যেক যাত্রায় অগ্রসর ৩৭ হইত। কিন্তু মেঘ যদি উদ্ধ নীত ন হইত, তবে যে দিন উদ্ধে নীত না হইত, সে দিন পৰ্য্যন্ত তাহার। ৩৮ যাত্রা করিত না । কেননা সমস্ত ইস্রায়েল-কুলের দৃষ্টিগোচরে তাহদের সমস্ত যাত্রাতে দিবাতে সদাপ্রভুর মেঘ এবং রাত্রিতে অগ্নি আবাসের উপরে অবস্থিতি করিত। ミb*

  • 3 o

○○ 84 লেবীয় পুস্তক । হোমবলির নিয়ম । S পরে সদাপ্রভু মেশিকে ডাকিয় সমাগম-তামু হইতে এই কথা কইলেন, তু ম ইস্রায়েলসন্তানগণকে কহ, তাহাদিগকে বল, তোমাদের কেহ যদি সদা ভুর উদ্দেশে উপহার উৎসর্গ করে, তবে সে পশুপাল হইতে অর্থাৎ গোরু কিম্ব মেষপাল হইতে আপন উপহার লইয়া উৎসর্গ করুক । ৩ সে যদি গোপাল হইতে হোমবলির উপহার দেয়, তবে নির্দাষ এক পুংপশু আনিবে ; সদাপ্রভুর সম্মুখে গ্রাহ হইবার জন্ত সমাগম-তাঞ্জুর দ্বারসমীপে আনয়ন ৪ করিবে। পরে হোমবলির মস্তকে হস্তপণ করিব ; আর তাহ তাহার প্রায়শ্চিত্তরূপে তাহার পক্ষে গ্রাহ ৫ হইবে । পরে সে সদাপ্রভুর সম্মুখে সেই গোবৎস হনন করিবে, ও হারোণের পুত্র যাজকগণ তাহার রক্ত নিকট আনিবে, এবং সমাগম-তাম্বুর দ্বারসমীপে স্থিত বেদির উপরে সেই রক্ত চারিদিকে প্রক্ষেপ করিবে । ৬ আর সে ঐ হোমবলির চৰ্ম্ম খুলিয় তাহাকে খণ্ড খণ্ড ৭ করিবে । পরে হারোণ যাজকের পুত্ৰগণ বেদির উপরে অগ্নি রাখিবে, ও অগ্নির উপরে কাষ্ঠ সাজাইবে । ৮ আর হারোণের পুত্র যাজকের সেই বেদির উপরিস্থ অগ্নির ও কাণ্ডের উপরে তাহার খণ্ড সকল এবং মস্তক ৯ ও মেদ রাখিবে । কিন্তু তাহার অন্ত্র ও পদ জলে ধৌত করিবে ; পরে যাজক বেদির উপরে সে সমস্ত দগ্ধ করিবে ; ইহা হোমবলি, সদাপ্রভুর উদেশে সৌরভার্থক অগ্নিকৃত উপহার। ১০ আর যদি সে মেষের কিম্বা ছাগের পাল হইতে হোমবলিরূপে উপহার দেয়, তবে নির্দোষ এক পুংপশু ১১ আনিবে। তার তাহ বেদির পাশ্বে উত্তরদিকে সদাপ্রভুর সম্মুখ হনন করিবে, এবং হারোণের পুত্ৰ যাজকের বেদির উপরে চারিদিকে তাহার রক্ত ১২ প্রক্ষেপ করিবে । পরে সে তাহ খণ্ড খণ্ড করিবে, আর যাজক মস্তক ও মেদ শুদ্ধ তাহ বেদির উপরিস্থ ১৩ অগ্নির ও কাম্ভের উপর সজাইবে । কিন্তু তাহার অন্ত্র ও পদ জলে ধৌত করিবে ; পরে যাজক সমস্তট৷ উৎসর্গ করিয়া বেদির উপরে দগ্ধ করিবে ; তাহ। হেমবলি, সদাপ্রভুর উদেশে সৌরভার্থক অগ্নিকৃত উপহার। ১৪ আর যদি সে সদাপ্রভুর উদ্দেশে পক্ষিগণ হইতে হোমবলির উপহার দেয়, তবে ঘুঘু কিম্ব কপোত১৫ শাবকদের মধ্য হইতে আপন উপহার দিবে। পরে যাজক তাহ বেদির নিকটে আনিয় তাহার মস্তক মুচড়াইয় তাহীকে বেদিতে দগ্ধ করিবে, এবং তাহার ১৬ রক্ত বেদির পথে নিপীড়ন করবে। পরে সে তাহার মলের সহিত আমাশয় লইয়। বেদির পূর্ব পার্শ্বে ভল্পের ১৭ স্থানে নিক্ষেপ করবে। পরে উহার পক্ষ ভাঙ্গিবে, কিন্তু পক্ষ টা ছিড়িয়া ফেলিবে না ; এবং যাজক বেদির উপরে, অগ্নির উপরিস্থ কাম্ভের উপরে তাহকে দগ্ধ করিবে ; তাই হোম বলি, সদাপ্রভুর উদেশে সৌরভার্থক অগ্নিকৃত উপহার। ভক্ষ্য-নৈবেদ্যের নিয়ম। २ আর কেহ যখন সদাপ্রভুর উদ্দেশে ভক্ষ্যনৈবেদ্য উপহার দেয়, তখন স্বক্ষ হুজি তাহার উপহার হইবে, এবং সে তাহার উপরে তৈল ঢালিবে ও ২ কুন্দুরু দিবে ; আর হারোণের পুত্র যাজকদের নিকটে সে তাহ আনিবে, এবং সে তাহ হইতে এক মুষ্টি স্বাক্ষ স্বজি ও তৈল এবং সমস্ত কুন্দুর লইবে ; পরে যাজক সেই নৈবেদ্যের স্মরণার্থক অংশ বলিয় তাহ। বেদির উপরে দগ্ধ করিবে ; তাহ সদাপ্রভুর উদ্দেশে ৩ সোরভার্থক অগ্নিকৃত উপহার। এই ভক্ষ্য-নৈবেদ্যর অবশিষ্ট অংশ হারোণের ও তাহার পুত্ৰগণের হইবে : সদাপ্রভুর অগ্নিকৃত উপহার বলিয়৷ ইহা অতি পবিত্র । ৪ আর যদি তুমি তুন্দুরে পক্ক ভক্ষ্য-নৈবেদ্য উপহার দেও, তবে তৈলমিশ্রিত তাড়ীশূন্ত স্বক্ষ হুজির পিষ্টক বা তৈলাক্ত তাড়াশূন্ত সরুচাকলী দিতে ৫ হইবে। আর যদি তুমি ভর্জনপত্রে ভর্ত্তত ভক্ষ্য-নৈবেদ্য উপহার দেও, তবে তৈলমিশ্রিত ৬ তাড়াশূন্ত স্থল্ম স্বজি দিতে হইবে। তুমি তাহ খণ্ড খণ্ড করিয় তাহার উপরে তৈল ঢালিবে ; ইহ ভক্ষ্য-নৈবেদ্য । ৭ আর যদি তুমি কটাস্থে পক্ক ভক্ষ্য-নৈবেদ্য উপহার দেও, তবে তৈলপক্ক সূক্ষ্ম স্থজি দিতে হইবে । ৮ এই সকল দ্রব্যের যে ভক্ষ্য নৈবেদ্য তুমি গদাপ্রভুর উদেশে দিবে ; তাহ আiনয়। যাজককে দিও, সে ৯ তাহ বেদির নিকটে আনিবে । এবং যাজক সেই ভক্ষ্য-নৈবেদ্যের স্মরণার্থক অংশ লইয়। বেদিতে দগ্ধ করিবে ; তাহ সদাপ্রভুর উদ্দেশে সৌরভর্থক অগ্নি১০ কৃত উপহার। আর সেই ভক্ষ্য-নৈবেদ্যর অবশষ্ট অংশ হারোণের ও তাহার পুত্ৰগণের হইবে ; সদtপ্রভুর অ প্পকৃত উপহার বলিয়। তাই অতি পবিত্র। ১১ তোমরা সদাপ্রভুর উদ্দেশে যে কোন ভক্ষ্য-নৈবেদ্য আনিবে, তাহ। তাড়ীতে প্রস্তুত হইবে না, কেনন। 85 リアや তোমরা তাড়া কিম্ব মধু, ইহার কিছুই সদাপ্রভুর উদ্দেশে অগ্নিকৃত উপহার বলিয়া দগ্ধ করিবে না । ১২ তোমরা অগ্রিমাংশের উপহার বলিয় তাহ সদাপ্রভুর উদ্দেশে নিবেদন করিতে পার, কিন্তু সৌরভার্থে ১৩ বেদির উপরে তাহা রাখা যাইবে না। আর তুমি আপন ভক্ষ্য-নৈবেদ্যের প্রত্যেক উপহার লবণাক্ত করিবে ; তুমি আপন ভক্ষ্য-নৈবেদ্যে আপন ঈশ্বরের নিয়মের লবণদানে ক্রটি করিবে না ; তোমার যাবতীয় উপহারের সহিত লবণ দিবে। আর যদি তুমি সদাপ্রভুর উদ্দেশে আশুপক্ক শস্তের ভক্ষ্য-নৈবেদ্য নিবেদন কর, তবে তোমার আশুপক্ক শস্তের ভক্ষ্য-নৈবেদ্যরূপে অগ্নিতে ঝলুসান শীষ অর্থাৎ ১৫ মার্দত কোমল শীষ নিবেদন করিবে । এবং তাহার উপরে তৈল দিবে ও কুন্দুর রাখিবে ; ইহা ভক্ষ্য১৬ নৈবেদ্য । পরে যাজক তাহার স্মরণার্থক অংশরূপে কিছু মৰ্দ্দিত শস্ত, কিছু তৈল ও সমস্ত কুন্দুর দগ্ধ করিবে; ইহ সদাপ্রভুর উদ্দেশে অগ্নিকৃত উপহার। মঙ্গলার্থক বলিদানের নিয়ম । ৩ কাহারও উপহার যদি মঙ্গলার্থক বলিদান হয়, এবং সে গোপাল হইতে পুং কিম্ব স্ত্রী গোরু | দেয়, তবে সে সদাপ্রভুর সম্মুখে নির্দোষ পশু আনিবে। ২ সে আপন উপহারের মস্তকে হস্তপণ করিয়া সমাগমতাম্বুর দ্বারসমীপে তাহাকে হনন করিবে; পরে হারোণের পুত্র যাজকগণ তাহার রক্ত বেদির উপরে চারি | ৩ দিকে প্রক্ষেপ করবে। পরে সে সদাপ্রভুর উদ্দেশে সেই মঙ্গলার্থক বলি সম্বন্ধীয় অগ্নিকৃত উপহার উৎসর্গ ৷ করিলে, তাহার আঁতড়িঢাকা মেদ ও অন্ত্রেীপরিস্থিত । ৪ সমস্ত মেদ, এবং দুই মেটিয়, তদুপরিস্থিত পার্শস্থ | মেদ ও যকৃতের উপরিস্থ অন্ত্রাপ্লাবক মেটিয়ার সহিত ৫ ছাড়াইয়া লইবে । পরে হারোণের পুত্ৰগণ বেদির উপরিস্থ অগ্নির, কাঠের ও হব্যের উপরে তাহ দগ্ধ করিবে ; তাহ সদাপ্রভুর উদেশে সৌরভার্থক অগ্নিকৃত উপহার। আর যদি সে সদাপ্রভুর উদ্দেশে মঙ্গলার্থক বলিদানের উপহার মেষাদিপাল হইতে দেয়, তবে সে নির্দোষ পুং ৭ কিম্ব স্ত্রী পশু উৎসর্গ করিবে । কেহ যদি উপহারার্থে মেষশাবক দেয়, তবে সে সদাপ্রভুর সম্মুখে তাহ ৮ আনিবে ; আর আপন উপহারের মস্তকে হস্তাপণ করিয়া সমাগম-তাম্বুর সম্মুখে তাহাকে হনন করিবে, এবং হারোণের পুত্ৰগণ বেদির উপরে চারিদিকে ৯ তাহার রক্ত প্রক্ষেপ করিবে। আর মঙ্গলার্থক বলি হইতে কিছু লইয়। সদাপ্রভুর উদেশে অগ্নিকৃত উপহীর উৎসর্গ করিবে ; ফলতঃ তাহার মেদ ও সমস্ত লাঙ্গুল মেরুদণ্ডের নিকট হইতে ছাড়াইয়া লইবে, আর ১• আঁতড়িঢাকা মেদ ও অন্ত্রের উপরিস্থ সমস্ত মেদ, এবং দুই মেটিয়া ও তদুপরিস্থিত পার্শ্বস্থ মেদ, এবং যকৃতের X 3 శ్రి লেবীয় পুস্তক । উপরিস্থিত অস্ত্রাপ্লাবক মেটিয়ার সহিত ছাড়াইয়। [ २ ; २२ - 8 ; >२ ॥ ১১ লইবে । পরে যাজক তাহ বেদির উপরে দগ্ধ করিবে ; ইহ সদাপ্রভুর উদেশে অগ্নিকৃত উপহাররূপ ভক্ষ্য। ১২ আর যদি সে উপহারার্থে ছাগল দেয়, তবে সে তাহ ১৩ সদাপ্রভুর সম্মুখে আনিবে ; তাহার মস্তকে হস্তীর্পণ করিয়া সমাগম-তাম্বুর সম্মুখে তাহাকে হনন করিবে, এবং হারোণের পুত্ৰগণ বেদির উপরে চারিদিকে ১৪ তাহীর রক্ত প্রক্ষেপ করিবে। পরে সে তাহ হইতে আপনার উপহার, সদাপ্রভুর উদেশে অগ্নিকৃত উপহার উৎসর্গ করিবে, অর্থাৎ আঁতড়িঢাকা মেদ ও অন্ত্রের ১৫ উপরিস্থ সমস্ত মেদ এবং দুই মেটিয়া, তাহার উপরিস্থিত পার্শ্বস্থ মেদ, ও যকৃতের উপরিস্থিত অস্ত্রাপ্লাবক মেটিয়ার ১৬ সহিত ছাড়াইয়া লইবে । পরে যাজক বেদির উপরে সে সমস্ত দগ্ধ করিবে ; তাহ সৌরভার্থক অগ্নিকৃত উপহার১৭ রূপ ভক্ষ্য; সমস্ত মেদ সদাপ্রভুর । তোমাদের পুরুষানুক্রমে তোমাদের সকল নিবাসে পালনীয় চিরস্থায়ী বিধি এই, তোমরা মেদ ও রক্ত কিছুই ভোজন করিবে না। পাপার্থক ও দোষার্থক বলিদানের নিয়ম । 8。蠶 মেশিকে কহিলেন, তুমি ইস্রায়েল-সন্তানগণকে বল, কেহ যদি প্রমাদবশতঃ পাপ করে, অর্থাৎ সদাপ্রভুর আজ্ঞানিষিদ্ধ কৰ্ম্মের ৩ কোন এক কৰ্ম্ম যদি করে : বিশেষতঃ অভিষিক্ত যাজক বদি এমন পাপ করে, যাহাতে লোকদের উপরে দোষ অর্শে, তবে সে স্বকৃত পাপের জন্ত সদাপ্রভুর উদ্দেশে নির্দোয এক গোবৎস পাপার্থক বলি৪ রূপে উৎসর্গ করিবে। পরে সমাগম-তামুর দ্বারসমীপে সদাপ্রভুর সম্মুখে সেই গোবৎস আনিবে ; তাহার মস্তকে হস্তীৰ্পণ করিয়া সদাপ্রভুর সম্মুখে তাহাকে হনন ৫ করিবে । আর অভিষিক্ত যাজক সেই গোবৎসের কিঞ্চিৎ রক্ত লইয়া সমাগম-তাম্বুর মধ্যে আনিবে। ৬ আর যাজক সেই রক্তে আপন অঙ্গুলি ডুবাইয়। পবিত্র স্থানের তিরস্করিণীর অগ্রভাগে সদাপ্রভুর সম্মুখে সাত ৭ বার তাহার কিঞ্চিৎ রক্ত ছিটাইয় দিবে। পরে যাজক সেই রক্তের কিছু লইয়া সমাগম-তাম্বুর মধ্যে সদাপ্রভুর সম্মুখে স্থিত জগদ্ধি ধূপের বেদির শৃঙ্গে দিবে, পরে গোবৎসের সমস্ত রক্ত লইয়া সমাগম-তাম্বুর দ্বারে স্থিত ৮ হোমবেদির মূলে ঢালিবে । আর পাপার্থক বলির গোবৎসের সমস্ত মেদ, অর্থাৎ আঁতড়িঢাকা মেদ, অন্ত্রের ৯ উপরিস্থিত সমস্ত মেদ, এবং দুই মেটিয়া ও তদুপরিস্থিত পার্শ্বস্থ মেদ ও যকৃতের উপরিস্থ অন্ত্রাপ্লবিক মেটিয়ার ১০ সহিত ছাড়াইয়া লইবে । মঙ্গলার্থক বলির গোবৎস হইতে যেমন লইতে হয়, তদ্রুপ লইবে ; এবং যাজক ১১ হোমবেদির উপরে তাহ দগ্ধ করিবে । পরে ঐ গোবৎসের চৰ্ম্ম, সমস্ত মাংস, মস্তক ও পদ, অন্ত্র ও গোময়, ১২ সৰ্ব্বশুদ্ধ বৎসটা লইয়। শিবিরের বাহিরে কোন শুচি স্থানে, ভস্ম ফেলিয়া দিবার স্থানে, তানিয়া কাষ্ঠের উপরে অগ্নিতে পোড়াইয়া দিবে ; ভস্ম ফেলিয়া দিবার স্থানেই তাহ পোড়াইতে হইবে। 86 ৪ ; ১৩ – ৫ ; ৯ । ] আর ইস্রায়েলের সমস্ত মণ্ডলী যদি প্রসাদবশতঃ পাপ করে, এবং তাহ সমাজের দৃষ্টির অগোচর থাকে, এবং সদাপ্রভুর আজ্ঞানিষিদ্ধ কোন কৰ্ম্ম করিয়৷ যদি ১৪ দোষী হয়, তবে তাহদের কৃত সেই পাপ যখন জ্ঞাত হইবে, তৎকালে সমাজ পাপার্থক বলিরূপে এক গোবৎস উৎসর্গ করিবে ; লোকের সমাগম তাম্বুর ১৫ সম্মুখে তাহাকে আনিবে। পরে মণ্ডলীর প্রাচীনবর্গ সদাপ্রভুর সম্মুখে সেই গোবৎসের মস্তকে হস্তার্পণ করবে, এবং সদাপ্রভুর সম্মুখে তাহাকে হনন করা ১৬ যাইবে। পরে অভিষিক্ত যাজক সেই গোবৎসের ১৭ কিঞ্চিৎ রক্ত সমাগম-তাম্বুমধ্যে আনিবে। আর যাজক সেই রক্তে আপন অঙ্গুলি ডুবাইয় তাহার কিঞ্চিৎ তিরস্করিণীর অগ্রে, সদাপ্রভুর সম্মুখে সাত বার ছিটা১৮ইবে । এবং সেই রক্তের কিঞ্চিৎ লইয়া সমাগম-তাম্বুর মধ্যে সদাপ্রভুর সম্মুখে স্থিত বেদির শৃঙ্গের উপরে দিবে; পরে সমাগম তাম্বুর দ্বারসমীপে স্থিত হোম১৯ বেদির মূলে অন্ত সমস্ত রক্ত ঢালিয়া দিবে। আর বলি হইতে তাহার সমস্ত মেদ লইয়া বেদির উপরে ২০ দগ্ধ করিবে । সে ঐ পাপার্থক বলির বৎসকে যেরূপ করে, ইহাকেও তদ্রুপ করিবে ; এইরূপে যাজক তাহাদের জন্ত প্রায়শ্চিত্ত করিবে, তাহাতে তাহদের ২১ পাপের ক্ষম হইবে। পরে সে গোবৎসকে শিবিরের বাহিরে লইয়া গিয়া প্রথম বৎসট যেমন পোড়াইয়াছিল, তেমনি তাহাকেও পোড়।হয়। দিবে ; ইহ সমাজের পাপার্থক বলিদান । আর যদি কোন অধ্যক্ষ পাপ করে, অর্থাৎ প্রমাদবশতঃ আপন ঈশ্বর সদাপ্রভুর আজ্ঞানিষিদ্ধ কোন ২৩ কৰ্ম্ম করিয়া দোষী হয়, তবে তাহার কৃত সেই পাপ যখন সে জ্ঞাত হইবে, তৎকালে আপনার উপহার ২৪ বলিয়া এক নির্দোষ পুংছাগ আনিবে। পরে ঐ ছাগের মস্তকে হস্তপণ করিয়া হোমবলি হননের স্থানে সদাপ্রভুর সম্মুখে তাহাকে হনন করিবে ; ইহা পাপ২৫ খক বলিদান। পরে যাজক আপন অঙ্গুলি দ্বারা সেই পাপার্থক বলির কিঞ্চিৎ রক্ত লইয়া হোমবেদির শৃঙ্গের উপরে দিবে, এবং তাহার রক্ত হোমবেদির মূলে ঢালিয়। ২৬ দিবে। আর মঙ্গলার্থক বলিদানের মেদের দ্যায় তাহার সমস্ত মেদ লইয়া বেদিতে দগ্ধ করিবে; এইরূপে যাজক তাহার পাপমোচনার্থ প্রায়শ্চিত্ত করিবে, তাহাতে তাহার পাপের ক্ষম হইবে । আর সাধারণ লোকদের মধ্যে যদি কেহ প্রমাদবশতঃ সদাপ্রভুর কোন আজ্ঞানিষিদ্ধ কৰ্ম্ম দ্বারা পাপ ২৮ করিয়া দোষী হয়, তবে সে যখন আপনার কৃত পাপ জ্ঞাত হুইবে, তখন আপনার কৃত সেই পাপের জন্ত আপনার উপহার বলিয়া পালের মধ্য হইতে এক ২৯ নির্দোষ ছাগী আনিবে । পরে ঐ পাপার্থক বলির স্তকে হস্তীর্পণ করিয়া হোমবলি-স্থানে সেই পাপার্থক ৩০ বলি হনন করিবে। পরে যাজক অঙ্গুলি দ্বারা তাহার কিঞ্চিৎ রক্ত লইয়া হোমবেদির শৃঙ্গের উপরে দিবে, 3 ২২ ՀԳ লেবীয় পুস্তক । ペー এবং তাহার সমস্ত রক্ত বেদির মূলে ঢালির দিবে। ৩১ আর মঙ্গলার্থক বলি হইতে নীত মেদের ন্তায় তাহার সকল মেদ ছাড়াইয়া লুইবে ; পরে যাজক সদাপ্রভুর উদ্দেশে সৌরভার্থে বেদির উপরে তাহ দগ্ধ করিবে: এইরূপে যাজক তাহার জন্য প্রায়শ্চিত্ত করিবে, তাহাতে তাহার পাপের ক্ষম হইবে। ৩২ যদি সে পাপার্থক বলির উপহারার্থে মেষশাবক ৩৩ অনে, তবে একটী নির্দোষ মেষবৎসা আনিবে। আর সেই পাপার্থক বলির মস্তকে হস্তপণ করিয়া হোমবলি ৩৪ হননের স্থানে সেই পাপার্থক বলি হনন করিবে। পরে যাজক অঙ্গুলি দ্বারা সেই পাপার্থক বলির কিঞ্চিৎ রক্ত লইয়া হোমবেদির শৃঙ্গগুলির উপরে দিবে, ও সমস্ত ৩৫ রক্ত বেদির মূলে ঢালিবে । পরে মঙ্গলার্থক বলির যে মেষশাবক, তাহার মেদ যেমন ছাড়ান যায়, তেমনি যাজক ইহার সকল মেদ ছাড়াইয়া লইবে, এবং সদাপ্রভুর উদ্দেশে অগ্নিকৃত উপহারের রীতি অনুসারে তাহা বেদিতে দগ্ধ করিবে ; এইরূপে যাজক তাহার কৃত পাপের প্রায়শ্চিত্ত করিবে ; তাহাতে তাহার পাপের ক্ষম হইবে । ( আর যদি কেহ এইরূপে পাপ করে, সাক্ষী হইয়া, দিব্য করাইবার কথা শুনিলেও, যাহ। দেখিয়াছে কিম্বা জানে, তাহ সে প্রকাশ না করে, তবে ২ সে আপন অপরাধ বহন করিবে । কিম্বা যদি কেহ কোন অশুচি দ্রব্য স্পর্শ করে, অশুচি জন্তুর শক হউক, কিম্বা অশুচি গোমেষাদির শব হউক, কিম্বা অশুচি সরীস্বপের শব হউক ; যদি সে তাহ জানিতে ন পায় ৩ ও অশুচি হয়, তবে সে দোষী হইবে। কিম্বা মনুষ্যের কোন অশৌচ, অর্থাৎ যাহা দ্বারা মনুষ্য অশুচি হয়, এমন কিছু যদি কেহ স্পর্শ করে, ও তাহ জানিতে না ৪ পায়, তবে সে তাহ জ্ঞাত হইলে দোষী হইবে। আর কেহ অবিবেচনাপূর্বক যে কোন বিষয়ে শপথ করুক না কেন, যদি কেহ আপন ওষ্ঠে অবিবেচনাপূর্বক ভাল বা মন্দ কাৰ্য্য করিব বলিয়া শপথ করে, ও তাহ। জানিতে না পায়, তবে সে তাহ জ্ঞাত হইলে তদ্বিষয়ে ৫ দোষী হুইবে । আর তদ্রুপ কোন বিষয়ে দোষী হইলে ৬ সে নিজকৃত পাপ স্বীকার করিবে। পরে সে পাপার্থক বলির নিমিত্তে পাল হইতে মেষবৎসা কিম্বা ছাগবৎসা লইয়। সদাপ্রভুর উদ্দেশে আপনার কৃত পাপের উপযুক্ত দোষার্থক বলি উৎসর্গ করিবে ; তাহাতে যাজক তাহার পাপমোচনার্থ প্রায়শ্চিত্ত করিবে । ৭ আর সে যদি মেষবৎসা আনিতে অসমর্থ হয়, তবে আপনার কৃত পাপের জন্ত দুই ঘুঘু কিম্বা দুই কপোতশাবক, এই দোষার্থক বলি সদাপ্রভুর নিকটে আনিবে : ৮ তাহার একটী পাপার্থ, অন্তটা হোমর্থ হইবে। সে তাহাদিগকে যাজকের নিকটে আনিবে, ও যাজক অগ্ৰে পাপার্থক বলি উৎসর্গ করিয়া তাহার গলা মুচ৯ ড্রাইবে, কিন্তু ছিড়িয়া ফেলিবে না। পরে পাপার্থক বলির কঞ্চিৎ রক্ত লইয়া বেদির গাত্রে ছিটাইবে, এবং 87 レbア অবশিষ্ট রক্ত বেদির মূলে ঢালিয়া দেওয়া যাইবে ; ইহা ১০ পাপাখক বলি। পরে সে বিধিমতে দ্বিতীয়ট হোমার্থে উৎসর্গ করিবে ; এইরূপে যাজক তাহার কৃত পাপের জন্ত প্রায়শ্চিত্ত কfরবে, তাহাতে তাহার পাপের ক্ষমা হইবে । আর সে যদি দুই ঘুঘু কিম্বা দুই কপোতশাবক অনিতেও অসমর্থ হয়, তবে তাহার কুত পাপের জন্ত তাহার উপহার বলিয়। ঐফার দশমাংশ সুজি পাপার্থক বলিরূপে আনবে ; তাহার উপরে তৈল দিবে না, ও কুন্দুরু রাখিবে না, কেনন। তাহ পাপার্থক বলি । ১২ পরে সে তাহ। ষাজকের নিকটে আনিলে যাজক তাহার স্মরণার্থক অংশ বলিয় তাহ হইতে এক মুষ্টি লইয় সদাপ্রভুর উদ্দেশে অগ্নিকৃত উপহারের রীতি অনুসারে ১৩ বেদিতে দগ্ধ করিবে ; ইহা পাপার্থক বলি। যাজক এই সকলের মধ্যে তাহার কৃত কোন পাপের জন্ত প্রায়শ্চিত্ত করবে, তাহাতে তাহার পাপের ক্ষম হইবে : এবং [ অবশিষ্ট দ্রব্য ] ভক্ষ্য-নৈবেদ্যের মত যাজকের ङ्३८द । ১৪ পরে সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, যদি কেহ সদা১৫ প্রভুর পবিত্র বস্তুর বিষয়ে প্রমাদবশতঃ সত্য লজন করিয়া পাপ করে, তবে সে সদাপ্রভুর নিকটে দোষীর্থক বলি আনিবে, পবিত্র স্থানের শেকল অনুসারে তোমার নিরূপিত পরিমাণে রৌপ্য দিয়া পাল হইতে এক নির্দেষ মেষ তানিয়া দোষার্থক বলি উপস্থিত ১৬ করিবে । আর সে পবিত্র বস্তুর বিষয়ে যে পাপ করিয়াছে, তাহার পরিশোধ করিবে, তদ্ভিন্ন পাচ ংশের এক অংশও দিবে, এবং যাজকের নিকটে তাহ আনিবে ; পরে যাজক সেই দোষাখক মেঘবলি দ্বার। তাহার জন্ত প্রায়শ্চিত্ত করবে, তাহাতে তাহার পাপের ক্ষম হইবে । ১৭ আর যদি কেহ সদাপ্রভুর আজ্ঞানিষিদ্ধ কোন কৰ্ম্ম করিয়া পাপ করে, তবে সে তাহ না জানিলেও ১৮ দোষী, সে আপন অপরাধ বহন করিবে । সে তোমার নিরূপিত মূল্য দিয়া পাল হইতে এক নির্দোষ মেষ আনিয়া দোষার্থক বলিরূপে যাজকের নিকটে উপস্থিত করবে, এবং সে প্রমাদবশতঃ অজ্ঞাতসারে যে দোষ করিয়াছে, যাজক তাহার জন্য প্রায়শ্চত্ত করিবে, ১৯ তাহাতে তাহার পাপের ক্ষম হইবে । ইহাই দোষার্থক বলি, সে অবশ্য সদাপ্রভুর কাছে দোষী । \b আর সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, কেহ যদি পাপ করিয়া সদাপ্রভুর বিরুদ্ধে সত্য লজঘন করে, যদি গচ্ছত অথবা বন্ধকরূপে দত্ত কিম্বা অপহৃত বস্তুর বিধয়ে সজাতীয়ের কাছে মিথ্যা কথা কহে, ৩ কিম্ব সজাতায়ের প্রতি অন্যায় করে, কিম্ব হারণ দ্রব্য পাহয়৷ তদ্বষয়ে মিথ। কথা কহে ও মিথ্যা দিব্য করে, ইহার যে কোন কৰ্ম্ম দ্বার কোন ব্যক্ত তদ্বিধায় ৪ পাপ কর, যদি সে এরূপ পাপ করিয়া দোষী হহয়! থাকে, তবে সে যাই। সবলে হরণ করিয়াছে, অথব। > y লেবীয় পুস্তক । [ G ; >・ーや ; >レI অদ্যায় দ্বারা পাইয়াছে, কিম্ব যে গচ্ছিত বস্তু তাহার কাছে সমৰ্পিত হইয়াছে, কিম্বাসে যে হারাণ বস্তু পাইয়৷ ৫ রাগিয়াছে, যি স্ব যে কোন বিষয়ে সে মিথ্যা দিব্য করিয়াছে, সেই বস্তু সম্পূর্ণ ফিরাইয় দিবে, এবং তাহার পাচ অংশের এক অংশ অধিক ফিরাইয়া দিবে ; তাহার দোষ প্রকাশের দিবসে সে দ্রব্যস্বামীকে তাহা দিবে। ৬ আর সে সদাপ্রভুর নিকটে আপনার দোষাধক বলি উপস্থিত করিবে, ফলতঃ তোমার নিরূপিত মূল্য দিয়া পাল হইতে এক নির্দোষ মেধবলি দোষার্থে যাজকের ৭ নিকটে আনিবে। পরে যাজক সদাও ভুর সম্মুখে তাহার নিমিত্তে প্রায়শ্চিত্ত করিবে ; তাহাতে যে কোন কৰ্ম্ম দ্বারা সে দোষী হইয়াছে, তাহার ক্ষম পাইবে। বিবিধ বলি বিষয়ক নিয়ম। ৮.৯ পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি হারোণ ও তাহার পুত্রগণকে এই আজ্ঞা কর । হোমের এই ব্যবস্থা ; হোম বলি ও ভাত পৰ্য্যন্ত সমস্ত রাত্রি বেদির অগ্নিকুণ্ডের উপরে থাকিবে, এবং বেদির অগ্নি প্রজ্বলিত • থাকিবে । আর যাজক নিজ গাত্রীয় মদীন-বস্ত্র পরিবে, ও মসীনা-বস্ত্রের জাজিয়া শরীরে পরিধান করিবে, এবং বেদির উপরে অগ্নকৃত হোমের যে ভস্ম আছে, ১১ তাই তুলিয়া বেদির পার্শ্বে রাখিবে। পরে সে আপনার বস্ত্র ত্যাগ করিয়া অন্ত বস্ত্র পরিধানপুৰ্ব্বক শিবিরের ১২ বাহিরে কোন শুচি স্থানে ভস্ম লহয়। যাইবে । আর বেদির উপরিস্থ অগ্নি ও জ্বলিত থাকিব, নিববাণ হইবে না ; যাজক প্রতিদিন প্রাতঃকালে তাহার উপরে কান্ত দিয়া জ্বলিবে, এবং তাহার উপরে হোমবলি সাজাইয়। দিবে, ও মঙ্গলার্থক বলির মেদ তাহাতে ১৩ দগ্ধ করবে। বেদির উপরে অগ্নি সৰ্ব্বদা জ্বালিয়৷ রাখিতে হইবে ; নির্ববাণ হইবে না। আর ভক্ষ্য-নৈবেদ্যের এই ব্যবস্থা ; হারোণের পুত্রগণ বেদির অগ্ৰে সদাপ্রভুর সম্মুখ তাই আনিবে। ১৫ পরে যাজক তাহা হইতে আপন মুষ্টি পূর্ণ করিয়া, . নৈবেদ্যের কিঞ্চিৎ স্বাজ ও কিঞ্চিৎ তৈল এবং নৈবেদ্যের উপরিস্থ সমস্ত কুন্দুরু লইয় তাহার স্মরণার্থক অংশরূপে সদাপ্রভুর উদেশে সৌরভর্থে বেদিতে দগ্ধ ১৬ করবে। আর হারাণ ও তাহার পুত্ৰগণ তাহার অবশষ্ট অংশ ভোজন করিবে ; বিনা তাড়ীতে কোন পবিত্র স্থানে তাহ ভোজন করিতে হইবে ; তাহার ১৭ সমাগম তাম্বুর প্রাঙ্গণে তাহ ভোজন করিবে। তাড়ীর সহিত তাহ পাক করা হইবে না । আমি আপনার অগ্নিকৃত উপহার হইতে তাহীদের প্রাপ্য অংশ বলিয়। তাহ দিলাম ; পাপাথক বলির ও দোষার্থক ১৮ বলির দ্যায় তাহা অতি পবিত্র । হারোণের সন্তানগণের মধ্যে সমস্ত পুরুষ তাই ভোজন করবে ; সদাপ্রভুর অগ্নিকুত উপহার হইতে ইহা পুরুষানুক্রমে চিরকাল তোমাদের অধিকার ; যে কেহ তাই স্পর্শ করিবে, তাহার পবিত্র হওয়া চাই । > 8 88 ৬ ; ১৯ – ৭ ; ২৬ । ] ১৯২• পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন,অভিষেক দিনে হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ সদাপ্রভুর উদ্দেশে এই উপহার উৎসর্গ করিবে, নিত্য ভক্ষ্য-নৈবেদ্যের জন্য ঐফার দশমাংশ স্বল্প স্বজি, প্রাতঃকালে অৰ্দ্ধেক ও সন্ধ্যাকলে ২১ অৰ্দ্ধেক । তাহারা ভজ্জন-পাত্রে তৈল দিয়া তাছা ভজিবে উহ তৈলসিক্ত হইলে তুমি তাহ আনিয়া ঐ ভক্ষ্য-নৈবেদ্যের খণ্ড খণ্ড পক্কান্ন সকল সদাপ্রভুর ২২ উদেশে সৌরভাথে উৎসর্গ করিবে । পরে হারোণের পুত্ৰগণের মধ্যে যে তাহার পদে অভিষিক্ত যাজক হুইবে, সে তাহ উৎসর্গ করিবে ; চিরস্থায়ী বিধিমতে ২৩ তাহ সদাপ্রভুর উদেশে সম্পূর্ণরূপে দগ্ধ হইবে। আর যাজকের প্রত্যেক ভক্ষ্য-নৈবেদ্য র্ণরূপে দগ্ধ করিতে হইবে ; তাহার কিছু খাইতে হইবে না। ২৪,২৪ পরে সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণকে বল, পাপার্থক বলির এই ব্যবস্থা : যে স্থানে হোমবলির হনন হয়, সেই স্থানে সদাপ্রভুর সম্মুখে পাপাথক বলিরও হনন হইবে ; তাহ ২৬ অতি পবিত্র । যে যাজক পাপার্থে তাহ উৎসর্গ করে, সে তাহ ভোজন করিবে ; সমাগম-তাম্বুর প্রাঙ্গণে ২৭ কোন পবিত্র স্থানে তাহ খাইতে হইবে । যে কেহ তাহার মাংস স্পশ করে, তাহার পবিত্র হওয়া চাই ; এবং তাহার রক্তের ছিটা যদি কোন বস্ত্রে লাগে, তবে তুমি, যাহাতে ঐ র-ক্তর ছিটা লাগে, তাহ পবিত্র ২৮ স্থানে ধৌত করিবে। আর যে মৃৎপাত্রে তাহ পাক করা যায়, তাহ ভাঙ্গিয়া ফেলিতে হইবে ; যদি পিত্তলর পাত্রে তাহ পাক করা যায়, তবে তাহ। ২৯ জল মাজিয়া পরিষ্কার করিতে হইবে। যাজকদের মধ্যে সমস্ত পুরুষ তাহ ভোজন করিতে পারিবে: ৩• তাহ অতি পবিত্র। কিন্তু পবিত্র স্থানে প্রায়শ্চিত্ত করিতে যে কোন পাপাথক বলির রক্ত সমাগমতাম্বুর ভিতরে আনীত হইবে, তাহ ভোজন করিতে হইবে না, অগ্নিতে পোড়াইয় দিতে হইবে । ‘. আর দোৰাখক বলির এই ব্যবস্থা ; তাহ অতি পবিত্র । যে স্থানে লোকের হোমবলি হনন করে, সেই স্থানে দোষথিক বলি হনন করিবে, এবং যাজক বেদির উপরে চারিদিকে তাহার রক্ত প্রক্ষেপ করবে । ৩ আর বলির সমস্ত মেদ উৎসর্গ করিবে, লাঙ্গুল ও ৪ আঁতড়িঢাক মেদ, এবং দুই মেটিয়া ও তদুপরিস্থিত পাশ্বস্থ মেদ, ও দুই মেটিয়ার সহিত যকৃতের উপরিস্থ ং অন্ত্রাপ্লাবক ছাড়াইয়া লইবে । আর যাজক সদা ভুর উদেশে অগ্নিকৃত উপহারার্থে বেদির উপরে এই সকল ৬ দগ্ধ করিবে ; ইহা দোষার্থক বলি। যাজকগণের মধ্যে সমস্ত পুরুষ তাহ ভোজন করিবে, কোন পবিত্র স্থানে তাহা ভোজন করিতে হইবে ; তাহ অতি পবিত্র। ৭ পাপার্থক বলি যেরূপ, দোষার্থক বলিও সেইরূপ : উভয়েরই এক ব্যবস্থা : যে যাজক তাহ দ্বার। প্রায়শ্চিত্ত ৮ করে, তাহ। তাহারই হইবে। আর যে যাজক কাহারও হোমবলি উৎসর্গ করে, সেই যাজক তাহার উৎস্তষ্ট হোম লেবীয় পুস্তক । レ> ৯ বলির চৰ্ম্ম পাইবে । এবং তুন্দুরে কিম্ব কটাহে কিম্বা ভজ্জনপত্রে পক্ক যত ভক্ষ্য-নৈবেদ্য, সে সকল ১• উৎসর্গকারী যাজকের হইবে । তৈলমিশ্রিত কিম্ব। শুষ্ক ভক্ষ্য-নৈবেদ্য সকল সমানরূপে হারোণের সকল পুত্রের হইবে। ১১ আর সদাপ্রভুর উদ্দেশে উৎস্যজ্য মঙ্গলার্থক বলির ১২ এই ব্যবস্থ। কেহ যদি স্তবার্থক বলি আনে, তবে সে স্তববলির সহিত তৈলমিশ্রিত তাড়াশুন্ত রুটী, তৈলাক্ত তাড়াশুন্ত সরুচাকলা, তৈলসিক্ত স্বক্ষ স্বজি ও ১৩ তৈলাক্ত পিষ্টক নিবেদন করিবে । সে মঙ্গলার্থক স্তববলির সহিত তাড়ীযুক্ত রুট লইয়া উপহার দিবে। ১৪ আর সে তাহ হইতে, অর্থাৎ প্রত্যেক উপহার হইতে, এক একখানি পিষ্টক লইয়। উত্তোলনীয় উপহাররূপে সদাপ্রভুর উদ্দেশে নিবেদন করিবে ; যে যাজক মঙ্গলাথক বলির রক্ত প্রক্ষেপ করে, সে তাহ পাইবে । ১৫ আর মঙ্গলাথক স্তববলির মাংস উৎসর্গর দিনেই ভোজন করিতে হইবে ; তাহার কিছুই প্রাতঃকাল পৰ্য্যন্ত ১৬ রাখিতে হইবে না । কিন্তু তাহার উপহারের বলি যদি মানত অথবা স্বেচ্ছাকৃত উপহার হয়, তবে বলি উৎসর্গের দিনে তাহ ভোজন করিতে হইবে, এবং পরদিনেও তাহার অবশিষ্ট অংশ ভোজন করা যাইবে । ১৭ কিন্তু তৃতীয় দিনে বলির অবশিষ্ট মাংস অগ্নিতে ১৮ পোড়াইয় দিতে হইবে। যদি তৃতীয় দিনে তাহার মঙ্গলাথক যলির কিঞ্চিৎ মাংস ভোজন করা যায়, তবে সেই বলি গ্ৰহ হইবে না, এবং সেই বলি উৎসর্গকারীর পক্ষে গণ্য হইবে না, তাহ ঘুণাই হুইবে : এবং যে জন তাহ ভোজন করে, সে আপন ১৯ অপরাধ বহন করিবে । তার কোন অশুচি বস্ততে যে মাংস স্পৃষ্ট হয়, তাহা ভক্ষ্য হইবে না, অগ্নিতে পোড়াইয়া দিতে হইবে । অন্ত মাংস প্রত্যেক শুচি ২• লোকের খাদ্য । কিন্তু যে কেহ অশুচি থাকিয়| সদাপ্রভুর উদ্দেশে উৎকৃষ্ট মঙ্গলাখক বলির মাংস ভোজন করে, সেই প্রাণী আপন লোকদের মধ্য হইতে উচ্ছিন্ন ২১ হইবে । আর যদি কেহ কোন অশুচি বস্তু, অর্থাৎ মনুষ্যের অশুচি বস্তু কিম্ব অশুচি পশু কিম্ব কোন অশুচি ধৃণই বস্তু স্পশ করিয়া সদাপ্রভু সম্বন্ধীয় মঙ্গলাখক বলির মাংস ভোজন করে, তবে সেই প্রাণী আপন লোকদের মধ্য হইতে উচ্ছিন্ন হইবে । ২২,২৩ আর সদাপ্রভু মেশিকে কহিলেন, তুমি ইস্রায়েলসন্তানগণকে বল, তোমরা গোরুর কিম্ব মেষের কিম্ব৷ ২৪ ছাগের মেদ ভোজন করিও না । এবং স্বয়ংমৃত কিম্বী পশু দ্বারা বিদীর্ণ পশুর মেদ অন্তান্ত কৰ্ম্মে ব্যবহার করিবে ; কিন্তু কোন মতে তাহ ভোজন করিবে ২৫ না ; কেনন যে কোন পশু হইতে সদাপ্রভুর উদেশে অগ্নিকুত উপহার উৎসর্গ করা যায়, সেই পশুর মেদ যে কেহ ভোজন করিবে, সেচ ভোক্ত আপন লোক২৬ দের মধ্য হইতে উচ্ছিন্ন হইবে । আর তোমাদের কোন বাসস্থানে তোমরা কোন পশুর কিম্বা পক্ষীর 89 У о লেবীয় পুস্তক। ২৭ রক্ত ভোজন করিও না । যে কেহ কোন প্রকারের রক্ত ভোজন করে, সেই প্রাণী আপন লোকদের মধ্য হইতে উচ্ছিন্ন হইবে। ২৮,২৯ আর সদাপ্রভু মোশিকে কহিলেন, তুমি ইস্রায়েলসন্তানগণকে বল, যে ব্যক্তি সদাপ্রভুর উদ্দেশে মঙ্গলার্থক বলি উৎসর্গ করে, সেই ব্যক্তি আপন মঙ্গলার্থক বলি হইতে সদাপ্রভুর উদ্দেশে নিজ উপহার আনিবে। ৩• ফলতঃ সদাপ্রভুর উদ্দেশে অগ্নিকৃত উপহার অর্থাৎ বক্ষের সহিত মেদ স্বহস্তে আনিবে ; তাহাতে সেই বক্ষঃ দোলনীয় নৈবেদ্যার্থে সদাপ্রভুর সম্মুখে দোলায়িত ৩১ হইবে। আর যাজক বেদির উপরে সেই মেদ দগ্ধ করবে, কিন্তু বক্ষঃ হারোণের ও তাহার পুত্ৰগণের ৩২ হইবে। আর তোমরা আপন আপন মঙ্গলার্থক বলির দক্ষিণ জজা উত্তোলনীয় উপহাররূপে যাজককে দিবে। ৩৩ হারোণের পুত্ৰগণের মধ্যে যে কেহ মঙ্গলার্থক বলির রক্ত ও মেদ উৎসর্গ করে, সে আপন অংশরূপে তাহার ৩৪ দক্ষিণ জজা পাইবে। কেননা ইস্রায়েল-সন্তানগণ হইতে আমি মঙ্গলার্থক বলির দোলনীয় নৈবেদ্যার্থে বক্ষঃ ও উত্তোলনীয় নৈবেদ্যার্থে জঙ্ঘা লইয়। ইস্রায়েল-সন্তানগণের দেয় বলিয়া চিরস্থায়ী অধিকাররূপে তাহ হারোণ যাজক ও তাহার পুত্রগণকে দিলাম। ৩৫ যে দিনে তাহারা সদাপ্রভুর যাজনকৰ্ম্ম করিতে নিযুক্ত হয়, সেই দিনবিধি সদাপ্রভুর অগ্নিকৃত উপহার হইতে ইহাই হারোণের ও তাহার পুত্ৰগণের অভিষেক ৩৬ জন্ত অধিকার। সদাপ্রভু তাহদের অভিষেক দিনে পুরুষানুক্রমে ইস্রায়েল-সন্তানগণের দেয় বলিয়া চিরস্থায়ী অধিকাররূপে ইহা তাহাদিগকে দিতে আজ্ঞা ৩৭ করিলেন । হোমের, ভক্ষ্য-নৈবেদ্যের, পাপার্থক বলির, দোষার্থক বলির, হস্তপূরণের ও মঙ্গলার্থক বলির এই ৩৮ ব্যবস্থা । সদাপ্রভু যে দিন সীনয় প্রান্তরে ইস্রায়েলসন্তানগণকে সদাপ্রভুর উদ্দেশে আপন আপন উপহার উৎসর্গ করিতে আজ্ঞা দিলেন, সেই দিন সীনয় পৰ্ব্বতে মেশিকে এই বিষয়ের আজ্ঞা দিলেন। হারোণ ও র্তাহার পুত্ৰগণের হস্তপূরণ । bp : *** মোশিকে কহিলেন, তুমি হারোণকে ও তাহার সহিত তাহার পুত্রগণকে, এবং বস্ত্র সকল, অভিষেকার্থক তৈল ও পাপার্থক বলির গোবৎস, দুই মেষ ও তাড়ীশূন্ত রুটীর ডালি ৩ সঙ্গে লও, আর সমাগম তাম্বুর দ্বারসমীপে সমস্ত মণ্ড৪ লীকে একত্র কর । তাহাতে মোশি সদাপ্রভুর আজ্ঞানুসারে সেইরূপ করিলেন ; এবং সমাগম-তাম্বুর দ্বার৫ সমীপে মণ্ডলী সমবেত হইল। তখন মোশি মণ্ডলীকে কহিলেন, সদাপ্রভু এই কৰ্ম্ম করিতে আজ্ঞা করিলেন। ৬ পরে মোশি হারোণ ও তাহার পুত্রগণকে নিকটে ৭ আনিয়া জলে স্নান করাইলেন । আর হীরোণকে অঙ্গরক্ষিণী পরাইলেন, কটিবন্ধনে বদ্ধকটি করিলেন, তাহার গাত্রে পরিচ্ছদ ও র্তাহার উপরে এফোদ [ ৭ ; ২৭ – ৮ ; ২৩ ৷ দিলেন, এবং এফেীদের বুনানি করা পটুকাতে গাত্র বেষ্টন করিয়া তাহার সঙ্গে এফোদখানি বদ্ধ ৮ করিলেন। আর তাহার বক্ষে বুকপাট দিলেন, এবং ৯ বুকপাটায় উরম ও তুৰ্ম্মীম বদ্ধ করিলেন। আর তাহার মস্তকে উষ্ণীষ দিলেন, ও তাহার কপালে উর্ষীষের উপরে স্বর্ণময় পাতের পবিত্র মুকুট দিলেন : ১• যেমন সদাপ্রভু মোশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন। পরে মোশি অভিষেকাৰ্থ তৈল লইয়। আবাস ও তাহার মধ্যস্থিত সকল বস্তু অভিষেক করিয়া পবিত্র করি১১ লেন। আর তাহার কিছু লইয়। বেদির উপরে সাত বার ছিটাইয়া দিলেন, এবং বেদি ও তৎসংক্রান্ত সকল পাত্র, প্রক্ষালন-পাত্র ও তাহার খুর পবিত্র করণার্থে ১২ অভিষেক করিলেন। পরে অভিষেকাৰ্থ তৈলের কিঞ্চিৎ হীরোণের মস্তকে ঢালিয়া তাহাকে পবিত্র করণার্থে ১৩ অভিষেক করিলেন। পরে মোশি হারোণের পুত্রগণকে নিকটে আনিয় তাহাদিগকেও অঙ্গরক্ষিণী পরাইলেন, কটিবন্ধনে বদ্ধকটি করিলেন, ও তাহীদের মাথায় শিরোভূষণ বাধিয়া দিলেন ; যেমন সদাপ্রভু মৌশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন। ১৪ পরে মোশি পাপার্থক বলির গোবৎস আনিলেন, এবং হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ সেই পাপার্থক বলির ১৫ গোবৎসের মস্তকে হস্তাপণ করিলেন । তখন তিনি তাহা হনন করিলেন, এবং মোশি তাহার রক্ত লইয়া, অঙ্গুলি দ্বারা বেদির চারিদিকে শৃঙ্গে দিয়া বেদিকে মুক্তপাপ করিলেন, এবং বেদির মূলে রক্ত ঢালিয়৷ দিলেন, ও তাহার জন্ত প্রায়শ্চিত্ত করণার্থে তাহ পবিত্র ১৬ করিলেন। পরে তিনি অন্ত্রের উপরিস্থ সমস্ত মেদ, ও যকৃতের অন্ত্রাপ্লাবক এবং দুই মেটিয়া ও তাহার মেদ লইলেন, ও মোশি তাহ বেদির উপরে দগ্ধ করি১৭ লেন । আর তিনি চৰ্ম্ম, মাংস ও গোময়শুদ্ধ গোবৎসট লইয়া গিয়া শিবিরের বাহিরে অগ্নিতে পোড়াইয়া দিলেন ; যেমন সদাপ্রভু মোশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন। ১৮ পরে তিনি হোমার্থক মেষটী আনিলেন ; আর হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ সেই মেষের মস্তকে হস্তাপণ ১৯ করিলেন। আর তিনি তাহ হনন করিলেন, এবং মোশি বেদির উপরে চারিদিকে তাহার রক্ত প্রক্ষেপ ২• করিলেন। আর তিনি মেষটা খণ্ড খণ্ড করিলেন, এবং মোশি তাহার মস্তক, মাংসখণ্ডসমূহ ও মেদ দগ্ধ ২১ করিলেন। পরে তিনি তাহার অন্ত্র ও পদ জলে ধৌত করিলেন, এবং মোশি সমস্ত মেধটী বেদির উপরে দগ্ধ করিলেন ; ইহা সৌরভার্থক হোমবলি : ইহা সদাপ্রভুর উদ্দেশে অগ্নিকৃত উপহার ; যেমন সদাপ্রভু মেশিকে আজ্ঞা দিয়াছিলেন। ২২ পরে তিনি দ্বিতীয় মেষ অৰ্থাৎ হস্তপূরণার্থক মেষট আনিলেন ; এবং হারোণ ও তাহার পুত্ৰগণ ঐ মেষের ২৩ মস্তকে হস্তপণ করিলেন । আর তিনি তাহাকে হনন করিলেন, এবং মোশি তাহার কিঞ্চিৎ রক্ত লইয়। হারোণের দক্ষিণ কর্ণের প্রান্তে ও দক্ষিণ হস্তের 90