প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অক্ষয়কুমার বড়াল গ্রন্থাবলী.djvu/৫২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিবিধ : কবিতা ও গান ১২৫ কারে দৃষ্টি, কারে শ্বাস, কভু কারে স্পর্শ কি লবে না আপনা করি আর এ হৃদয় ? পিরীতি, কল্পনা, আশা, স্থখ, ছখ, হর্ষ কি এ জীবনে পাবে না গে। কাহারে আঞ্জয় ? এই পথ দিয়ে যাবে সারা বসন্তটি ধ’রে অফুট গোলাপ তুলি, বেছে বেছে ফেলে দেছি ছোট ছোট কাটা-গুলি ; ছড়ায়ে রেখেছি পথে, এই পথ দিয়ে যাবে, যেতে যেতে একবার মৃত্যু হেসে পাশে চাবে । সেধেছি বঁাশীটি ল’য়ে কত-না যতন ক’রে, একটি মুখের স্বর সারাটি যৌবন ধ’রে ; যখন সে যাবে আজ, শুনিবে কি বঁাশী বাজে । চাহিবে নিকুঞ্জ-দিকে, থমকি দাড়াবে লাজে । সারাটি জীবন ধ’রে জমায়েছি ভালবাসা, জমায়েছি রাশি রাশি কল্পনা, মত্ততা, অtশ ; দেখাইব এত—তারে বুক দিয়ে ঢেকে রেখে । কোন আঁাখি এত তারা আকাশেতে নাহি দেখে । —ফুল ত দলিয়। গেল, চেয়ে ত গেল না, হায় ? কত ফুল বৈশাখে ত মাটিতে শুকায়ে যায় । —গান ত শুনিয়া গেল, কই দাড়াল না ফিরে ? কত পাখী কল-কল করে ত সমুদ্র-তীরে । —দেখে গেল রত্ন তোর, কই নিল উপহার ? দূরে যা নিষ্ঠুর সত্য ; ভাঙ্গিও না অর্থ আর । —সে ত গেল চ’লে, হায়, কুটীরে যা ধীরে ধীরে । এই পথ দিয়ে গেছে, এই পথে যাবে ফিরে ।