পাতা:অচলায়তন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


૨૨ - অচলায়তন উপাধ্যায়। কিন্তু তোমার সংসর্গে যে ওরা অসংযত হয়ে উঠছে। সেদিন পটুবর্ম আমার কাছে এসে নালিশ করেছে শুক্রবারের প্রথম প্রহরেই উপতি তার গায়ের উপর হাই তুলে দিয়েছে। পঞ্চক। তা দিয়েছে বটে, আমি স্বয়ং সেখানে উপস্থিত ছিলুম। উপাধ্যায়। সে আমি অনুমানেই বুঝেছি নইলে এতবড়ে আয়ূক্ষয়কর অনিয়মটা ঘটবে কেন । শুনেছি তুমি নাকি সকলের সাহস বাড়িয়ে দেবার জন্য পটুবর্মকে ডেকে তোমার গায়ের উপর এক-শ বার হাই তুলতে বলেছিলে ? পঞ্চক । আপনি ভুল শুনেছেন । উপাধ্যায়। ভুল শুনেছি ? পঞ্চক। একলা পটুবমকে নয় সেখানে যত ছেলে ছিল প্রত্যেককেই আমার গায়ের উপর অন্তত দশটা করে হাই তুলে যাবার জন্যে ডেকেছিলুম—পক্ষপাত করিনি। উপাধ্যায়। প্রত্যেককেই ডেকেছিলে ? পঞ্চক। প্রত্যককেই । আপনি বরঞ্চ জিজ্ঞাসা করে জানবেন । কেউ সাহস করে এগোল না। তার হিসাব করে দেখলে পনেরো জন ছেলেতে মিলে দেড়-শ হাই তুললে তাতে আমার সমস্ত আয়ু ক্ষয় হয়ে গিয়েও আরও অনেকটা বাকি থাকে, সেই উদ্ধৃত্তটাকে নিয়ে যে কী হবে তাই স্থির করতে না পেরে তারা মহা পঞ্চকদাদাকে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে গেল, তাতেই তো অামি ধরা পড়ে গেছি । উপাধ্যায়। দেখো, তুমি মহাপঞ্চকের ভাই বলে এতদিন অনেক সহ করেছি কিন্তু আর চলবে না। আমাদের গুরু আসছেন শুনেছ ? পঞ্চক । গুরু আসছেন ? নিশ্চয় সংবাদ পেয়েছেন ?