পাতা:অচলায়তন - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৬৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\S)ხr অচলায়তন রাজা । সেইজষ্ঠেই তো ছুটে এলুম। তোমাদের কাছে আমার প্রশ্ন এই যে আমাদের প্রাচীর ভাঙল কেন ? মহাপঞ্চক। শিখাসচ্ছন্দ মহাভৈরব তো আমাদের প্রাচীর রক্ষা করছেন । রাজা । তিনি অনাচারী শোণপাংশুদের কাছে আপন শিখা নত করলেন ! নিশ্চয়ই তোমাদের মন্ত্ৰ-উচ্চারণ অশুদ্ধ হচ্ছে, তোমাদের ক্রিয়াপদ্ধতিতে স্খলন হচ্ছে নইলে এ যে স্বপ্নের অতীত । মহাপঞ্চক । আপনি সত্যই অনুমান করেছেন মহারাজ । সঞ্জীব । একজটা দেবীর শাপ তো আর ব্যর্থ হতে পারে না । রাজা । একজটা দেবীর শাপ | সর্বনাশ । কেন তার শাপ ? মহাপঞ্চক। যে উত্তরদিকে তার অধিষ্ঠান এখানে একদিন সেই দিককার জানলা খোলা হয়েছে । রাজা । ( বসিয়া পড়িয়া ) তবে তো আর আশা নেই। মহাপঞ্চক । আচার্য অদীনপুণ্য এ-পাপের প্রায়শ্চিত্ত করতে দিচ্ছেন না । তৃণাঞ্জন । তিনি জোর করে আমাদের ঠেকিয়ে রেখেছেন । রাজা। তবে তো মিথ্যা আমি সৈন্য জড়ো করতে বলে এলুম দাও, দাও, অদীনপুণ্যকে এখনই নির্বাসিত করে দাও । মহাপঞ্চক । আগামী অমাবস্যায়— রাজা । না, না, এখন তিথিনক্ষত্র দেখবার সময় নেই। বিপ আসন্ন। সংকটের সময় আমি আমার রাজ-অধিকার খাটাতে পাৰ্বিশাস্ত্রে তার বিধান আছে। মহাপঞ্চক । হা আছে। কিন্তু আচার্য কে হবে ? রাজা। তুমি, তুমি। এখনই আমি তোমাকে আচার্যের পীে