পাতা:অজাতশত্রু শ্রীমৎ স্বামী ব্রহ্মানন্দ মহারাজের অনুধ্যান - মহেন্দ্রনাথ দত্ত.pdf/৬০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| ৪৪ অজাতশত্রু শ্রীমৎ স্বামী ব্রহ্মানন্দ মহারাজের অনুধ্যান উচ্চ শাল, তালঅভ্রভেদী শির আনন্দে হেলায়, অনিলে করিয়ে আবাহন রয়েছে মগন আপন আনন্দ ভরে ; হেরি জ্ঞান হয়, মৃতু্যকে না করে ভয়। তরু মম গুরুতাপ, হিম, বাত্যা, জল, শিখায়েছে সহিতে সকল। আছে সমভাবে আত্মকা নাহি ভােলে ; তবে কি তেতু বা অকার্যা ভুলিব ? মগ্ন হই পুনঃ মহাধ্যানে। ত্যজিয়াছি সকল মমতা-- জীবনে মমতা কিবা হেতু ?” অনেকে মনে করিতে পারেন যে, গিরিশচন্দের বর্ণিত বুদ্ধদেবের এই ভাব কবির কল্পনা; কিন্তু আমি প্রত্যক্ষভাবে দেখিয়াছি যে এই সময়টা রাখালের ঠিক এই ভাব আসিয়াছিল। আমি পরমহংস মহাশয়ের সাধন-অবস্থা দেখি নাই, কেবলমাত্র উহার বিষয় শুনিয়াছি ; কিন্তু রাখালের কঠোর তপস্যার কিছু দেখিয়াছি। কি একনিষ্ঠ ভাব, প্রাণের কি আকুলি বিকুলিএই সকলই স্পষ্ট দেখিয়াছি এবং সেইজন্য সেই সময়কার ভাবের অতি সামান্য আভাস দিতে চেষ্টা করিতেছি মাত্র। কারণ, সে এত উচ্চ অবস্থায় উঠিত যে, তাহা ভাষায় প্রকাশ করা যাইতে