পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অধিকার-তত্ত্ব । >Xう 攀 কৃষ্ণপ্রেম উথলিয়া উঠিতেছে । এখন আমরা এই কথা বলিতেছি ব্রাহ্মদিগের ব্রহ্মারাধনায় এ সকল থাকা উচিত নহে । এ সকল মোহজনক ব্যাপার ব্রাহ্মসমাজে প্রবেশ করিতে দেওয়া উচিত নহে । তাছা হইলে অধ্যাত্মিক উৎসাহের পরিবর্তে ব্রাহ্মধৰ্ম্মে পার্থিব-উল্লাস প্রবেশ করিবে এবং ব্রহ্ম-দৰ্শন জন্য আনন্দাশ্ৰুর পরিবর্তে পার্থিব-মোহের অশ্রুপণত হইবেক এক দিগে ব্রহ্মোপাসনার মধ্যে এই সকল পৌত্তলিকতাকে যেমন প্রবেশ করিতে দেওয়া উচিত নহে, অন্য দিগে সেইরূপ ত্রহ্মোপাসনার অঙ্গ বলিয়া ঐ সকল ভাব দেশমধ্যে প্রচার করণও কর্তব্য নহে , কিন্তু দুৰ্ব্বলাধিকারীগণের আত্মার মঙ্গলার্থে, যে সময়ে কনিষ্ঠধৰ্ম্মের কোন প্রকার ভাব প্রচার করিতে হইবেক, তখন তাহাকে পৌত্তলিকতা বলিয়াই প্রচার করা উচিত । অতএব উন্নত ত্রাহ্মেরা নিজে নিল্লি গু থাকিয়া, নিস্বtধ হইয়া, এবং সাম্প্রদায়িক ভাব পরিত্যাগ করিয়া, দুৰ্ব্বলাধিকারীগণকে ব্রহ্ম পূজার উপযুক্ত করিবার নিমিত্তে র্তাহারদিগকে যথ। অধিকার হরিনাম সঙ্কীৰ্ত্তন করিতে, শ্ৰীমদ্ভাগবৎ ও মহাভারতের কথা শুনিতে, জপ তপ, ধ্যান, ধারণা, যোগ, প্রভৃতি সাধন করিতে, উৎসাহ দিউন এবং সাত্বিক ভাবে পুত্তলিকার অরধনা করিতে উপদেশ প্রদান কৰুন । তাহাতে অামারদের কোন আপত্তি নাই । অতঃপর ব্রাহ্মের ইংরাজগণের আচার ব্যবহার অনু- ক্ৰী করণ করেন তাহাও অনুচিত । অনুকরণ করা: হীনতা ও অহঙ্কার মাত্র । ইংরাজগণ যত জ্ঞানী ও বিজ্ঞ হউন না