পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অধিকার-তত্ত্ব । ه:لا আকাশের জ্ঞানলাভ করে । কিন্তু জগদীশ্বরের সহিত উহার স্বতন্ত্র সম্বন্ধ । উহা জ্ঞানস্বরূপ পরম চৈতন্যের জ্ঞানমাত্র লাভ করিয়া সস্তৃপ্ত হয় না, কিন্তু স্বয়ং উহাকেই লাভ করিবার জন্য ব্যাকুলত প্রকাশ করে । ৮ । ভোভিক পদার্থের জ্ঞান গ্রহণার্থে শরীরে যেমন ইন্দ্রিয় অাছে, ব্রহ্মজ্ঞান ও স্বয়ং ব্রহ্মকে গ্রহণজন্য সকলেরই আত্মাতে সেইরূপ একটি মূল-অধিকার আছে । কোন ব্যক্তি যেমন পরের চক্ষুতে দর্শন করে না, পরের কৰ্ণে শ্রবণ করে না, এবং পরের নাসিকা দ্বারা অস্ত্ৰাণ লয় না, কিন্তু কেবল আপনারই স্বাধীনতা ও ক্ষমতা সহকারে স্বকীয় ইন্দ্রিয়দ্বারা পদার্থের জ্ঞানলাভ করে, ভদ্রপ কোন ব্যক্তি অন্যের আত্মার দ্বারা ব্রহ্মকে শ্রবণ, মনন, গ্রহণ ও পূজা করিতে পারে না, কিন্তু কেবল আপনারই স্বাধীনতা ও ক্ষমতা সহকারে—কেবল আপনারই ধারণ ও অধিকার অনুসারে, স্বকীয় আত্মার দ্বারাই ভগবানকে লাভ করিয়া থাকে । এইরূপ অধিকারই ব্রহ্মজ্ঞানের মূলঅধিকার । f ৯ । ভৌতিক পদার্থ যেমন স্থল, অম্প এবং নশ্বর, ইন্দ্রিয়গণও তদনুযায়ী স্থল, অপ ও নশ্বর । পরমাত্মা যেমন সুক্ষম, অমৃত ও অনন্ত, ঐ মূল অধিকার ও তদ্রুপ স্থঙ্কম, অমৃত ও উন্নতিশীল । ১০ । ব্রহ্ম আত্মার গতি, সেজন্য তিনি আপনাকে অামারদের সকলের আত্মস্থ ও ভোগমুল্লভ করিয়াছেন। আমরা তাহাকে অনায়াসে ভোগ করিব বলিয়া তিনি এক