পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/৫১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


$o অধিকার-তত্ত্ব । 羲 ও সকল সম্প্রদায়ের গ্রন্থে পাওয়া যায় " ভারতবর্ষীয় প্রাচীন ও নব্য-শাস্ত্র-গ্রন্থ সমূহ ষে এই স্বাভাবিক নিয়মকে পোষণ করিয়া আসিয়াছে, এ বড় আনন্দের বিষয় । তাহার প্রধান কারণ এই যে বৈদিগ্‌কালের জড়োপাসনার অন্তে উপনিষদের ব্রহ্মজ্ঞান সকল মতের গুৰুদিগের হৃদয়ে এতই দৃঢ়তররূপে মুদ্রিত হইয়াছিল, যে উপহার। সেই ব্ৰহ্মজ্ঞানকেই স্ব স্ব মতের চরম ফল বলিয়া উপদেশ দিয়া किोंझांtछ्न ! ৫ । খৃষ্টানদিগের ধর্মের উক্ত প্রকার প্রকৃতি নহে । তাহার মধ্যে প্রায় স্থল ও প্রায় স্থশম এই দ্বিবিধভাৰ বিরাজ করিতেছে। রোমানকাথলিকেরা খৃষ্টের, তাহার মাতার ও অন্যান্য সাধুর মূৰ্ত্তি পূজা করেন । প্রোটেস্টন্টগণ শাখা প্রশাখায় বিভক্ত হইয়া বিনা প্রতিমায় যীযুগৃষ্টের যোগে ঈশ্বরের নিকট পূজা প্রেরণ করেন । কিন্তু খৃষ্টানরাজ্যে যাহারা অত্যন্তু দুৰ্ব্বলাধিকারী, তাহারদের ধৰ্ম্মভাবের সহ ঐক্য হয়, এমত লক্ষণ খৃষ্টান ধৰ্ম্মে নাই । তাহার। যাইতে হয় বলিয়া গ্রিজায় গিয়া থাকে, ফলে কিছুই বুঝিতে পারে না। সুতরাং তাদৃশ কনিষ্ঠ অধিকারীগণ সে দেশে ধৰ্ম্মভাবে অতি হীন । এই কারণে ভারতবর্ষের ছোটলোক অপেক্ষা ইউরোপীয় ছোটলোকের অতি ভয়ানক মনুষ্য । ৬ । পক্ষান্তরে, র্যাহারা অত্যন্ত জ্ঞানবান মনুষ্য র্তাহারদের উন্নত মনেরু সহ ঐক্য হয়, খৃষ্টানধৰ্ম্মে এমন লক্ষণও দেখা যায় না । ইহার আরম্ভেও খৃষ্ট, অন্তেও খৃষ্ট,