পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/৫৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অধিকার-তত্ত্ব । 8 ○ ধৰ্ম্মালোচনার বিশেষ ক্ষেত্র ছিল । অতএব ধৰ্ম্ম সম্বন্ধে ভারত যাহা দেখিয়াছে ও করিয়াছে, তাহ কনিষ্ঠ দেশ সকল এত অল্প দিনের মধ্যে কোথা হইতে দেখিবেক ? অন্য দেশে ধর্মের ষে তত্ত্ব এখন বা পশ্চাৎ নুতন অবিস্কৃত হইবেক, ভারতে সহস্ৰ সহস্ৰ বৎসর পূৰ্ব্বে তাহা আবিষ্কৃত, বিচারিত, প্রচারিত ও শাস্ত্রভুক্ত হইয়াছিল । এখন ষে দেশে যিনি যে ধৰ্ম্ম প্রচার কৰুন, তাহা অতিবৃদ্ধ প্রপিতামহ-স্বরূপ ভারতের চক্ষুতে নুতন বোধ হইবে না। আর যে দেশে যিনি যত স্বেচ্ছাচার কৰুন, ভারত-ধৰ্ম্ম-সংহিতার মঙ্গলোদেশু দ্বারা ভাহা পরীক্ষা করিলেই তাহার অশুভ ফল লক্ষিত হুইবেক । 畿 ১১ । কিন্তু আক্ষেপের বিষয়, হিন্দুশাস্ত্রের মঙ্গলে দেশ্বানুসারে এদেশীয় দুৰ্ব্বলtfধকারী:দিগকে উন্নত করিয়া তোলার কোন উদ্যোগ হইতেছে না । এইক্ষণ প্রাচীন গুৰুগণ নিস্তেজ হইয়াছেন। পোঁতলিক ধৰ্ম্মের যে যে প্রকার আচরণ দুর্বলাধিকারীগণের পক্ষে ব্রহ্মজ্ঞানের সোপান, বিহিত বিধানে তাহার উপদেশ করিতে পারেন এমত উপদেশক পৌত্তলিকদিগের মধ্যে নাই । পৌত্তলিক গুৰু নিজে দুৰ্ব্বলাধিকারী । এক অন্ধ অন্য অন্ধের পথ প্রদর্শক হইলেই উভয়ে কুপে পতিত হইবেক । 機 ১২ । অতএব ব্রহ্মবাদীরা ষত দিন দুৰ্ব্বলাধিকারীদিগকে ঐ সকল আচরণের উপদেশ করিত্বে বিহিতবিধানে ব্রতী না হইবেন ততদিন দুৰ্ব্বলদিগের উন্নভির অধিকার প্রশস্ত হইবেক না । অনেকে মনে করেন “ পৌত্ত