পাতা:অধিকার-তত্ত্ব.pdf/৫৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ 86 সপ্তম-অধ্যায় । سیستمهای سح ভারতীয় দুৰ্ব্বলাধিকারীদিগের বর্তমানকালীন-অবৈধাচার। ১ । অামারদের দেশের লোক সকল আপিন অপেন বুদ্ধির গ্রাহ স্থলোপাসনার মধ্যে নৃত্যগীত রঙ্গরস প্রবেশ করিয়া দিয়া ক্রমেই ভ্রষ্টাচারী হইয়া পড়িতেছেন । বিষয়ান্ধকারের মধ্যে থাকিয়া ব্ৰহ্মজ্ঞান-লাভের অবশ্যকতা ভুলিয়া রহিয়াছেন । ২ । এদেশের দুর্বলণধিকারীগণ যদি আপন আপন অধিকার মত শাস্ত্রানুসারে ত্রিসন্ধ্যা, পূজা, জপ, তপ, অধ্যয়ন, অধ্যাপনা ইত্যাদি সদাচার সমূহ মুমুক্ষরে সহিত সম্পাদন করিতেন তাহা হইলে অবশ্যই তাহারদের শ্রেয়ের পথ মুক্ত হইত । ৩ । এদেশের ইতরলোকদিগের গুৰুগণ যদি সদুপদেশ প্রদানের উপযুক্ত হইতেন, অথবা উচ্চজ্ঞানির। যদি তরগণকে জ্ঞান ও ধৰ্ম্ম শিক্ষা দেওয়ার ভার লইতেন তাহ। হইলে এত দিন ইতর লোকদিগেরও উীবৃদ্ধি হুইত । ৪ । তাহ না করিয়া এদেশের গুৰুরা কেবল বিত্তাপঃহারী হইয়াছেন, সদৃগুৰুর অভাবে শিষ্যগণের সন্তাপ দূর হইতেছে না । তাহার উপরি আবার গুৰু শিষ্য, যাজক যজমান, পিতাপুত্ৰ সকলে ঐক্য হইয় পৌত্তলিক ধর্মের মধ্যে নানা প্রকার কলুষ প্রবেশ করিয়া দিতেছেন।