প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/১২৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


제8 - m 1] সঙ্গীতশাস্ত্ৰ । So O) হইতে মা অৰ্দ্ধস্বর, মা হইতে পা পূৰ্ণস্বর, পা হইতে ধা। পূর্ণস্বর, ধা হইতে নি পূর্ণস্বর, এবং নি হইতে সা অৰ্দ্ধস্বর। উক্ত প্ৰকার নিয়মের অধীন পাঁচটি পূর্ণ ও দুইটি অৰ্দ্ধস্বরের যোগে যে স্বরসপ্তক প্ৰস্তুত হয়, তাহাকে শুদ্ধ স্বরগ্রাম বা সচলঠাট বলে। মা ও নি এই দুইটি একমাত্ৰ স্বাভাবিক গ্রাম। উক্ত পাঁচটি পূর্ণ অন্তরের প্রত্যেকের মধ্যে এক একটি করিয়া আর পাঁচটি পর্দা বসাইলে তাহা হইতে যে পাঁচটি স্বরের উৎপত্তি হয়, তাহাদিগকে বিকৃত, কড়ি অথবা কোমল স্বর কহে । যেমন কোমল৷ ঋ, কোমল গা, কড়ি মা, কোমল ধা ও কোমল নি ; অথবা কড়ি সা, কড়ি ঋ, কোমল৷ ঋ, কড়ি পা, কড়ি ধা, ও কড়ি নি কহা যায়। ৪র্থ ও সপ্তম অন্তর BB DBBB K L D BBD DD ED K SSDL DDL কোমলত্ব নাই। গা ও নি'র কড়ি সহজেই মা ও উচ্চ সা, এবং মা ও উচ্চ সা’র কোমল গা ও নি। কারণ সম্পূর্ণ স্বর হইতে কড়ি ও কোমল স্বর অৰ্দ্ধেক উচ্চ বা খাদ্য। একটি সপ্তকের মধ্যে পাঁচটি বিকৃত স্বর বসাইলে সৰ্ব্বশুদ্ধ বারোটি অৰ্দ্ধস্বর উৎপন্ন হয়। যে গ্রামে এই ১২টি অৰ্দ্ধস্বর প্রস্তুত হয়, তাহাকে বিকৃত স্বরগ্রাম কহে । গানের সময় উদারাগ্রামে গভীর সুর আবশ্যক, মুদারগ্রামে সরিৎ অর্থাৎ মধ্যসুর ধরিতে হইবে এরং তারাগ্রামে তার অর্থাৎ উচ্চধ্বনি অবলম্বন করিতে হয় । কোন কোন সঙ্গীত গ্রন্থে উদারা, মুদারা, তারাগ্রামকে DBBBDS DDD 0 KLSOLLD BB KSBD S S BDDDBDBD গ্রন্থে তিন সপ্তকের তিনটি খরজকে অর্থাৎ যাহাকে অবলম্বন করিয়া ঋখবাদি ছয় সুরের উপলব্ধি হয়, তাহাকে তত্ত্বৎ সপ্তকের গ্ৰাম কহে। এই তিনটি গ্রামের প্রত্যেকের সাতটি করিয়া তিন গ্রামে সৰ্ব্বশুদ্ধ ২১ একুশটি মুচ্ছ না নির্দিষ্ট হয়। সেগুলি যথাকালে পরে প্রকাশ করিব। 牙颈-列廿可由 এক্ষণে স্বর-সাধনসম্বন্ধে কিঞ্চিৎ বলিয়া এই প্ৰস্তাব শেষ कब्र शांशेंडछ । স্বর-সাধন অভ্যাস করিতে হইলে একটি তানপুরার অতিশয় প্রয়োজন। তানপুরা ভিন্ন অন্য কোন যন্ত্রে স্বরসাধন সুপ্ৰণালীতে হয় না। তারে আঘাত করিলে বায়ুতরঙ্গ যেরূপ সুললিত প্রবাহে সপ্ত স্বর লইয়া কৰ্ণকুহরে। প্ৰবেশ করে, অন্য কোন প্ৰকার বায়ুযন্ত্র (হারমোনিয়া ) প্ৰভৃতি দ্বারা সেরূপ হইতে পারে না। তানপুরার সহিত স্বর সাধিত হইলে কিরূপে তানপুর বঁাধিতে হয়, তাহা অগ্ৰে জানা উচিত। তানপুরার লাৰু বাদকের দক্ষিণদিকে ও কাণ বামদিকে পড়ে—এইরূপে তাহাকে সম্মুখে রাখিলে সৰ্ব্বোপরি প্রথমেই যে একটি পিতলের তার দৃষ্ট হয়, তাঙ্গাকে পঞ্চম কহে। পঞ্চমের বামদিকে দুইটি ইস্পাতের পাকা তার থাকে, K. ~ ாதுராா-ா ܡ তাহার প্রথমটির নাম সুর ও দ্বিতীয়টির নাম জুড়ি ; জুড়ির বামদিকে খরজ নামে আর একগাছি পিতলের তার থাকে। তানপুরার সর্বশুদ্ধ পঞ্চম, সুর, জুড়ি ও খািরজ-এই চারিটি সুর বঁাধা থাকে, চারিটি তারই সমান DBDBBB DBD DDD DDS DDDS 0 Du KKB BBBuLDB অনায়াসসাধ্য স্বাভাবিক কণ্ঠস্বরের সহিত ঐক্য করিয়া বঁাধিতে হয়, খরজসুর জুড়ি অপেক্ষা এক গ্রাম অথবা সাত ঘাট নরম করিয়া বাধা হয়, আর পঞ্চমসুর জুড়ি অপেক্ষা তিন ঘাট নরম করিয়া বাধা হয়। এইরূপে চারিটি তার চড়াইয়া প্ৰত্যেক তারের নিম্ন দিয়া সোয়ারী নামক কাষ্ঠখণ্ডের উপর কিঞ্চিৎ সুতার গুচ্ছ বসাইলে যে প্ৰবল সুর হয়, তাহাকে জোয়াড়ি মিল কহে। তানপুরার সুর ও জুড়ি বঁধিবার নিয়ম অতি সহজ ; খরজ, পঞ্চম বাধা ও জোয়ারি মিল করা কিঞ্চিৎ কঠিন । যিনি তানপুরার সুর বঁাধিতে না জানেন, তিনি যথেচ্ছাক্ৰমে তার চড়াইতে চড়াইতে হয় তা তারটি ছিড়িয়া ফেলেন। DBDD DLDD DBB SLDDS BBD LBBDBD BD BB DDDS পর স্বর হ্রস্ব ও দীর্ঘ করেন ; উহা করিলে বুঝিবেন, কোন না কোন স্থলে তানপুরার সুরের সহিত র্তাহার গলার সুর একামিল হইয়া গিয়াছে। যে সুরটি মিল হইয়া গিয়াছে, তাহার নাম সা.-এই সা সুরটি নির্দেশ করিয়া পরে এক সুর, দুই সুর, তিন সুর-এইরূপে ক্ৰমে গলা চড়াইলে এমন একটি উচ্চস্বর উৎপন্ন হইবে, যাহার সহিত আবার তানপুরার তারের সুরে সম্পূর্ণ মিল হইবে। যাহার গলা হইতে আরও উচ্চধ্বনি নিৰ্গত হয়, তিনি আবার তাহার পরে ক্রমশঃ চড়িয়া গেলে পুনর্বার তারের সুরে ও গলার সুরে ঐক্য হইবে। উহার অনুসন্ধান করিলে জানা যাইবে যে, স্যা হইতে ক্রমশঃ সপ্তম সুর চড়িয়া গেলে ঐ রূপ ঐকা হয়। সা সুর দিয়া পরে সাতটি সুর চড়াইলে যে সুর নির্গত হয়, সে সুর আর প্রথম সার সুর ঠিক তুল্য হয়, তবে একটি খাদ ও একটি চড়া হয়, এই মাত্ৰ প্ৰভেদ । স্ত্রী-পুরুষে একত্রে গাইলে এক জন উচ্চ এক জন সরু সুর ব্যবহার করে, কিন্তু তাহাদের পরস্পরের সুর অমিল হয় না, ইহা বুঝিতে পারা যায়। ইহাতেই জ্ঞান হয় যে, সুর সর্বসমেত সাতটি মাত্র, যেহেতু সপ্তম সুর হইতে ক্রমশঃ চড়াইলে আবার সেই প্ৰথম সুরই ° 3ध्र राष्ट्र ! তানপুরার সহিত সুর অনুলোম-বিলোমক্রমে উত্তমরূপে DBB DD DDBBYS Dg SKS KS KS DS KS ES SSS এই সাতটি সুর ক্রমান্বয়ে সমান ওজনে অনুলোমিক ক্রমে উচ্চ করিতে শিখিলে, বিলোমক্রমে সুর উল্টা করিয়া আবার উহাদিগকে নীচুমুখে আনা অভ্যাস করা কীৰ্ত্তব্য ; যথা—নি, ধা, পা, মা, গা, ঋ, স্যা। স্বরগ্রাম অভ্যস্ত করিতে হইলে সুরগুলি সমান অন্তর ক্ৰমে উচ্চ-নীচ না করিয়া একেবারে এক সুর হইতে তাহার তৃতীয়, চতুৰ্থ, পঞ্চম পৰ্যন্ত উঠিতে