প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/২০২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জৈনধৰ্ম্ম । [ব্ৰহ্মচারী শ্ৰীযুত দুর্গাদাস কর্তৃক লিখিত। ] (পূৰ্ব্ব প্ৰকাশিতের পর ) জৈনধৰ্ম্মের উৎপত্তি-স্থান মধ্যভারত । মধ্যভারতীয় হিন্দুগণই প্ৰথম জৈনধৰ্ম্মের উপাসনাপদ্ধতি গ্ৰহণ করেন। DD sKBD DDBD DDBD DDBBBD BBDDDT BBBBuB পৰ্ব্বতেই ষে সাধন করিয়াছিলেন, তাহা বেশ বুঝা যায়। জৈনধৰ্ম্মগ্রন্থানুযায়ী জানা যায় যে, এ পর্যন্ত জৈনদিগের চবিবশ জন অবতার হইয়াছেন । তন্মধ্যে মহাবীর স্বামীই শেষ অবতার। জৈনিক ধৰ্ম্মভাষায় অবতারকে তীৰ্থংকর বলা হয়। মহাবীর স্বামী এই চবিবশ তীৰ্থংকর ৷ ২৪৪৩ বৎসর পূর্বে তিনি ভারতে অবতীর্ণ হইয়াছিলেন। তাহার সময় হইতে ষে সাল এ দেশে প্ৰচলিত হইয়াছে, তাহাকে বীরসিংবত বলা হয়। বৰ্ত্তমান বর্ষে বীরসিংবত চলিতেছে২৪৪৩ । খৃষ্ট জন্মিবার প্রায় সাড়ে পাঁচ শত বৎসর পূর্বে মহাবীর স্বামী ভারতবর্ষ অলঙ্কত করিয়া “অহিংসা পরমো ধৰ্ম্মঃ” এই ধৰ্ম্মমত জগতে প্ৰচারিত করিয়া যান । এই ধৰ্ম্মের প্রথম আবিষ্কৰ্ত্ত ঋষভ দেবাজী । অযোধ্যাতেই তঁাহার জন্ম এবং SBB KBD sKKD SDBD BS0muDt S DBBB S S SDBDB DDD মহেশ্বরের উপাসক বলিয়াই উহাদিগকে জৈন বলা হয়। পূর্ববারের প্রবন্ধে জৈনদর্শনের সামান্য কথা ব্যাখ্যা করিয়াছি । জৈনধৰ্ম্ম আলোচনাকালীন কয়টি কথাই আমাদিগের বিশেষরূপে মনে পড়ে। যে সময় ভগবান বুদ্ধ শাকাকুলে জন্মগ্রহণ করিয়া ভারতভূমিকে উজ্জল করিয়াছিলেন, ঠিক সেই সময় বা তাহারা কিছু পরেই অথবা সমসাময়িক সময়েই মহাবীর স্বামীর অভু্যদয়। ভারতে চিরদিন ঋষিগণ জন্মগ্রহণ করিয়া জীবের মঙ্গলের জন্য মঙ্গলময় ধৰ্ম্মশাস্ত্ৰাদি ব্যাখ্যা করতঃ এক একটি সমাজ গড়িয়া গিয়াছেন । কিন্তু সকলই আদি সনাতনধৰ্ম্মের মূল হইতে উদ্ধত। বেদের প্রথমেই আছে “অহিংসা পরমো ধৰ্ম্মঃ।” তাহাই যুগে যুগে মহাজনগণ বিশেষরূপে উপলব্ধি করিয়া জগতে প্রচার করিয়া গিয়াছেন। আমরা বর্তমান সময়ে ভারতবর্ষে বহু ধৰ্ম্মসম্প্রদায় দেখিতে পাই এবং পরপর সে গুলির নামও যথাসম্ভব লিপিবদ্ধ করিব । প্ৰথমতঃ শাক্ত, বৈষ্ণব, গাণপত্য, শৈব, সৌরি, ইহারাই ‘প্ৰধান। তাহার পর রামায়াত বৈষ্ণব ও গৌড়ীয় বৈষ্ণব नथांब्र, उंचांगैौ गाथांव्र, ब्रांत्रांश्य्क ब्र व्, ङश्रदान् শঙ্করাচাৰ্য্যের পন্থী, ব্ৰাহ্ম সমাজ, আৰ্য্য সমাজ, জৈন 开{悟1 সনাতনধৰ্ম্মের প্রথম উদ্দেশে গঠিত । শাক্তাগণ শক্তির উপাসক। বিষ্ণুর উপাসক বৈষ্ণব। গণপতি বা গণেশেৱ উপাসক গাণপত্য, শিবের উপাসক শৈব, সুৰ্য্যদেবের উপাসকগণ সৌর । भशंथडू ठेष्ड्छtत्र बांक्रांव्गांग्र बांविठ्ठॐ श्ब्रा उत्रांनश्र्হিমাচলকে ভগবানের সর্বপাপতাপহারী নাম প্ৰদান করেন । তিনি আচণ্ডালে ভাগবৎ নাম বিতরণ করিয়া - ছিলেন। তঁহা হইতেই গৌড়ীয় বৈষ্ণব-সমাজের উদ্ভব । শিবোপাসক বিশিষ্টশৈব বাঙ্গালায় অতি বিরল। কিন্তু আধুনিক সময়ে মহাত্মা ভোলানন্দ গিরি, বৃন্দাবনের স্বগীয় কাটিয়া বাবা, ধনিয়াপাহাড়ের বাবা ঠাকুরদাস প্ৰভৃতি মহাত্মগণও এক একটি ধৰ্ম্মসম্প্রদায় স্থাপন করিয়া সর্বত্র শিষ্য করিতেছেন। উহার সকলকেই প্ৰাচীন সনাতনধৰ্ম্মের আশ্রয় গ্ৰহণ করিয়া সনাতন ধৰ্ম্মকে বজায় রাখিয়া ধৰ্ম্ম প্রচার করিতেছেন এবং করিয়াছেন । জৈন গুরুগণ ও সেই হিসাবে বৈদিক অহিংসাধিৰ্ম্মের প্রচারের জন্য জৈন, ধৰ্ম্মের প্রচার করেন । মহাত্মা দয়ানন্দ স্বামী আৰ্য্যধৰ্ম্ম প্রচার করেন। আৰ্য্যধৰ্ম্ম প্রচার করিতে গিয়া তিনি আৰ্য সমাজের অভু্যাখানে সাহায্য করেন। বেদামার্গানুযায়ী ধৰ্ম্ম চরণ করাই উহার উদ্দেশ্য । ব্ৰাহ্মসমাজের প্রতিষ্ঠাতা রাজ! রামমোহন রায় ও উপনিষদাংশ গ্ৰহণ করিয়া ব্রহ্মোপাসনার সৃষ্টি করেন । তাহা হইতে ‘আজ আমরা ব্ৰাহ্মসমাজকে জীবন্ত দেখিতে পাইতেছি । এখন কথা হইতেছে এই যে, এই সকল ধৰ্ম্মসম্প্রদায় DB BB DBDBDBB DDD BB BDDDD DuuDuB uBDBBDD S S SDSSS এক সনাতন ধৰ্ম্মই নানাপ্রকারে সাধক কর্তৃক ব্যাখ্যাত ও প্ৰচারিত হইয়া এক একটা সম্প্রদায় গঠিত করিয়াছে { বস্তুতঃ সকলেই সনাতনধৰ্ম্মের গভীর অন্তভূক্ত। - মূল ধৰ্ম্মকে আপনার সাধনানুযায়ী ব্যাখ্যা করিয়া উহার BuBDB DBDDD DLS DBBB BD KK SLD DDS মত দেখিয়া সময়ে সময়ে মনে করি, এই ভারতে অসংখ্য ধৰ্ম্ম, ংখ্য সমাজ, অতএব ভারতীয় ধৰ্ম্ম বুঝিয়া চলা বড়ষ্ট বিপদ! প্ৰকৃতপক্ষে তাহা নহে। এই সকল ধৰ্ম্ম-উপধৰ্ম্ম द आंथी, जनांङन्श्युंद्ध ख्वातंत्र भांड । জৈনধৰ্ম্মও সেই হিসাবে সনাতনধৰ্ম্মের অংশ । * যিনি

  • বৰ্ত্তমান জৈনীরা বেদকে অস্বীকার করেন । আমরা জৈনধন্মে{ LuuE LtSL LLLDDDDS BBDDBD DB DDBDB LLLLt DDS

শাক্ত, বৈষ্ণব, গাণপতা, সৌর, হঁহারা ভারতের আদি কৱিৰ।