প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/২১৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


¢iቀዛ ቀ§–፻Šስዛ ጓድማn | ] R ~ আপনার অভয় হস্ত দিয়া বরাভয়দায়িনী হইয়া দাড়ান তখন সেই মহীয়সী মূৰ্ত্তি যে দেখে নাই, তার জীবন বৃথা- ৷ তাহার নিরজন্ম বার্থ। 暴 . নারীকে এমনই করিয়া চিনিতে পারিলে তবে নারীর BYB D DBB DBDD DDYBD DBDD DD SS Sg DBBuBD ও নারীমহিমা বুঝিবার জন্য যে সাধনা-যে আকাঙ্ক্ষা লইয়া জগতে আসিয়াছি, জননীর উপাসক-সাধক-ব্ৰহ্মচারীআজ হে দুঃখাৰ্ত্ত দীনহীন জীব ! তোমাকে লালসাহীনকণ্ঠে মা বলিয়া ডাকিতে শিখাইবার জন্য দীনপুত্রের আকাঙ্ক্ষণ । আমরা হিন্দু। নারীকে এইরূপে যথাযোগ্য সম্মান প্ৰদান করিয়া নারীর পূজার মহিমা ঘোষণা করিয়াছি এবং নারীর ভিতরে ব্ৰহ্মাণ্ডের মূলাধারস্থিত কুলকুণ্ডলিনীর গভীর তত্ত্ব বুঝিতে পারিয়াছি। নারী আমাদের ভোগলালসার ভোগ্য নহে। নারী আমাদের পূজা-যজ্ঞের আরাধ্যা দেবী । গণেশ জগজ্জননী ভগবতীকে বলিয়াছিলেন, “সে কি ! তুমি আমায় বিবাহ করিতে বলিতেছ? ও যে লজ্জার কথা । আমি যখনই কোন নারীর মুখপানে চাহিয়াছি, তখনই সেই নারীতে তোমায় দেখিয়াছি। তুমি পূর্ণমহিমা লইয়া সেই নারীতে বিরাজিত রহিয়াছ। অগ্নি সৰ্ব্বভূতজননী জগদ্বাত্রি, তুমিই যে এই বিশ্বপ্রকৃতি। আপনি মাতা হইয়া গর্ভে ধারণ করিয়াছ এবং আপনি ধাত্রী হইয়াছ। মা, আমি যে নারীতে নারীতে তোমায় দেখিতে পাইয়াছি মা, সেই নারী তুমিযেই নারী জীবের জননী। আজ কোন ধৰ্ম্মানুসারে তুমি আমাকে সেই জননী নারীকে পত্নীরূপে গ্ৰহণ করিতে উপদেশ দিতেছ ?” মায়ের সাধক যে হইবে, সেই এমনই করিয়া দেখিবে । দেখিবে, তাহার গর্ভধারিণীর স্নেহময়ী মূৰ্ত্তি অপর নারীর মুখ ছবিতে প্ৰতিফলিত রহিয়াছে এবং সমগ্ৰ জগতবাসিনী নারীকে সে মা বলিয়া ডাকিতে শিখিয়াছে । জগতের মূলে আমরা দেখিতে পাই-প্রকৃতি । এই মহাপ্ৰকৃতি হইতে বিশ্বজগৎ প্ৰকটিত হইয়াছে। অনন্ত প্ৰকৃতি যেমন জননী হইয়া এই অনন্ত জগৎ প্ৰসব করিয়াSSYSLDLBDB DD BBS KBuDBD BB DBDD DL LOK KKK করিয়া। আপনি যে মহাপ্ৰকৃতির অংশভাগিনী, তাহা প্ৰজা গর্ভে ধারণ করিয়া সার্থক হইয়াছেন । এই প্রকারে হিন্দু, হিন্দুনারীকে বুঝিতে পারিলে তবে নারীর প্রকৃত মহিমা উপলব্ধি করিতে পরিবে। আর যে পৰ্য্যন্ত না এই নারীর ভিতরে ৰিশ্বপ্ৰকৃতি মায়ের পূজা করিতে শিক্ষা না করিবে এবং সংযমসাধনার ভিতরে বিশ্বব্যাপী মাতৃত্ব স্থাপন করিয়া পুত্র হইতে না পরিবে, (नई श्रृंगास्यु सीद उgथाडि व्यांड कब्रिgद। আমরা হিন্দুসাহিত্যে বহু সুভাগ ও সর্বোত্তম নারীর আদর্শ পাইয়াছি। সেই সকল চিরপূজনীয়া জননীগণের 8 R] श्छूि नांद्री। აNტ(* --hm---- ax ھ আদর্শে আমাদের সমাজের নারীজাতিকে গঠন করিয়া আমরা সংসারের শ্ৰী বাড়াইব, ইহাই যুগ ধৰ্ম্মের উপদেশ। আমরা যে সত্য হইতে উৎপন্ন হইয়াছি এবং যে সত্যে আমাদের স্থিতি, আমরা সত্যময় শ্ৰীভগবানের শ্ৰীচরণতলে দাড়াইয়া পবিত্র কুসুমের ন্যায় পবিত্ৰ হইয়া যখন ভগবানের পূজার উপযুক্ত হৃদয় গঠন করিতে পারিব, তখনই প্ৰকৃতপক্ষে আমরা মনুষ্যজন্ম সার্থক করিতে পারিব। আর নারীকে সমাজের সর্বোচ্চশিখরে বসাইয়া, তাহার BBD DDDD DD D DD BB BBD BBDD DDBDB DBDBDB0S উজ্জল হইয়া উঠে, তাহার জন্য আমাদিগকে নারীর সাধনা করিয়া নারীর দেবীত্ব ফুটাইয়া তুলিতে হইবে। আমাদের নারীর আদর্শ সীতা-জনক-দুহিতা । ভগবতীর আর কি বাসনা ছিল ? রামধান, রামজ্ঞান, জগন্ময় রামমূৰ্ত্তি ব্যতীত তিনি কিছু দেখিতেন না। বনে, জঙ্গলে, সব্বত্র স্বনিসহ চারিণী হইয়া নারীর হৃদয়ের সর্বোচ্চ পূজা দিয়া স্বামীর পূজায়ই জীবন দিয়াছিলেন। মৃতস্বামী বক্ষে করিয়া সাবিত্রী স্বাসিসাধনা করিতে করিতে মৃতদেহে পুনর্জীবন আনয়ন করিয়াছিলেন, পতিব্ৰতা অনসূয় একমাত্র স্বামি ভক্তি প্ৰভাবেই ত্ৰিলোক জয় কয়িয়াছিলেন । আমরা সমাজে হীন হইয়া পড়িয়াছি। আমাদের হীনত্বের কারণ কি, তাহা অনেকেই বুঝিতে পারিতেছেন না। চিরসংযমসাধনার হৃদয় লইয়া যে হিন্দুজাতির অস্তিত্ব, আমরা সেই সংযমসাধনাকে দূরে পরিহার করিয়া ভোগবাসনায় ডুবিয়া গিয়াছি, সৰ্ব্ব অনর্গের মূল অর্থকে এবং সৰ্ব্বাপদের মূল কামকে একমাত্ৰ সুখের ও শান্তির আধার করিয়া জগতে তাহাই পাইবার জন্য ছুটিয়া চলিয়াছি । যে দেবত্বের মহিমা লইয়া আমরা জগতে আসিয়াছিলাম, সেই দেবত্ব পরিহার করিয়া কি মোহে লুব্ধ হইয়া জীবন বার্থ করিতেছি জানি না, কিন্তু সংসারের মূলাধার শক্তিকে উপেক্ষা করিয়া—আমরা পবিত্রতাকে অবহেলা করিয়া শ্ৰেয়ঃকে নাশ করিয়া অনবরতই প্ৰেয়ঃকে পাইবার জন্য লালায়িত হইয়াছি। হিন্দুসমাজ আজ কোথায়? শত শত ক্ষতিগ্রস্ত হৃদয়ের বেদনায় তুমি উৎপীড়িত হইয়াছ, তোমার শান্তিময় গৃহের সর্বশাস্তি পাপকামনায় লুপ্ত হইয়াছে, তুমি গৃহে গৃহে যে শান্তিজননীর অপাপবিদ্ধ মূৰ্ত্তি গড়িয়া রাখিয়াছ, পূজার অভাবে সে যে লুকাইয়াছে, আজ তোমায় ডাকিতেছি, মায়ের আদেশে তোমার প্রকািটনের দিন আসিয়াছে, তুমি জাগ্রত হইয়া তোমার মনুষ্যত্বপ্রাপ্তির আধার। পাইয়াছ, তাহা সংগ্ৰহ করিয়া আপনার দেবত্ব অটুট রাখা। ইহাই ব্যক্তি করিবার জন্য প্রথমেই তোমাকে তোমার গৃহের শ্ৰী, সংসারের শ্ৰী, শান্তির আধার তোমার নর-জন্মের মূলীভূত কারণ যাহা, তাঙ্গা দেখাইতেছি। বুঝ এবং সমাহিত হইয়া তোমার সাধনার পথে দাড়াইয়া তোমার भांनवख्रश्नृा गांर्थक कब्र ।