প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/৩৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


૨૭8,

̄ Alth. la Za حصہ

ഞ്ഞു ܦܫܝܒܫܫܝܫܒܩܫܝܫ পরিচিত হইবার বাসনা তঁহার মনে এই সময় অত্যন্ত , दशबडी श्य। ऊँशब्र cनश् अर्डिड अडिअड्डा ऊँiशब्र পিতার জীবদ্দশায় তাহার স্থলাভিষিক্ত হইয়া দায়িত্বপূর্ণ কাৰ্য্যা করিবার সময় বিশেষ প্ৰয়োজনে আসিয়াছিল । কি সাংসারিক ব্যবস্থায়, কি রাজকাৰ্য্য-পরিচালনে, সকল * বিষয়ে তাহার সেই জ্ঞান তাহার কাৰ্যোর গৌরববৃদ্ধি করিত। তিনি যে বংশে জন্মগ্রহণ করিয়াছেন, সেই বংশের নরপালকগণ কখনও পশুবলে রাজ্যশাসন করেন নাই ; তাহারা সকলেই ন্যায়ধৰ্ম্মানুমত বিচার-বুদ্ধিতে এবং প্ৰজাদিগের প্রয়োজনসাধনের দিকে দৃষ্টি রাখিয়া রাজাপালন করিতেন। র্যাহারা বৰ্ত্তমান নবাব বাহাদুরের চরিত্ৰবল অবগত আছেন, তঁাহারা সকল বিষয়ে সৰ্ব্বদাই তাহার পরামর্শ গ্ৰহণ করিয়া থাকেন। র্যাহারাই নবাব বাহাদুরের সংস্পর্শে আইসেন, র্তাহারাই তাহার প্রতিভা প্রোজ্জ্বল সুন্দর বদনমণ্ডলদর্শনে তঁহার প্রতি আকৃষ্ট হইয়া থাকেন । ইংলণ্ডে অবস্থিতিকালে তিনি ইংরেজীভাষায় ও সাহিত্যে বিশেষ বুৎপত্তিলাভ করিয়াছিলেন। নবাব বাহাদুরের প্রত্যুৎপন্নমতিত্ব ও অদম্য কাৰ্য্যকারী শক্তি এবং সর্বপ্রকার অসুবিধাজনক ও প্রতিকুল অবস্থাতে প্ৰত্যেক ব্যাপারের ভাল দিকটা দেখিবার প্রবৃত্তিই তঁাহার চরিত্ৰকে বৈশিষ্টা প্ৰদান করিয়াছে । নবাব বাহাদুর যখন মুর্শিদাবাদের মিউনিসিপ্যালিটীর চেয়ারম্যান হইয়াছিলেন, তখন তঁহার কার্য্য করিবার শক্তির যথেষ্ট পরিচয় পাওয়া গিয়াছিল। ১৯০১ খৃষ্টাব্দে বাঙ্গালার তদানীন্তন ছোটলাট সারা জন উডবার্ণ র্তাহাকে বাঙ্গালার ব্যবস্থাপক-পরিষদের সদস্য মনোনীত করিয়াছিলেন এবং তাহার পরবৎসরই লর্ড কার্জন বাহাদুর তাছাকে বাঙ্গালার প্রতিনিধিস্বরূপ সমাট সপ্তম এডোয়ার্ডের দিল্লীর অভিষেক দরবারে নিমন্ত্রণ 夺乙颈可长 নবাব বাহাদুরকে দুইবার বঙ্গীয় ব্যবস্থাপক-সভায় সদস্য भानांनौड कब्रिग्रांछन। SDDD DDDB KBBDBD DBDBS0 DBi BD SS তঁহতে প্ৰাচ্য রাজ গুণের ও প্রতীচা ভদ্রলোকের গুণাবলীর একত্ৰ সমাবেশ লক্ষিত হয়। ইনি ক্রিকেট, ফুটবল, টেনিস প্রভৃতি পুরুষোচিত ক্রীড়া ভালবাসেন, ব্যাঘ্ৰ শিকার করিতে নিবিড় জঙ্গলে গমন করেন । পোলো খেলিতে ইনি বিশেষ বুৎপন্ন। ইনি যে পোলোদলের কাপ্তেন, সে পোলোদল প্রায় অন্য দলের নিকট পরাজিত হয় না। किल। निडोंभ९ । যুরোপে ও ভারতে নবাব বাহাদুরের বহু প্ৰাসাদ আছে সত্য, কিন্তু যাহার সহিত পৈতৃক ও পারিবারিক সম্বন্ধ দৃঢ়ভাবে সম্বন্ধ-যাহাকে প্রকৃতপক্ষে 'বাড়ী” বলা যায়, তাহার সংখ্যা অপেক্ষাকৃত অল্প। তঁহার বাড়ীর মধ্যে अनांशबघू । নবাবের গদী বা সিংহাসন অবস্থিত। ইদানীং । বাঙ্গালার বর্তমান গবৰ্ণর বাহাদুর [ প্ৰথম বর্ষ, কাৰ্ত্তিক, «1 ܘܪܘ সৰ্ব্বাপেক্ষ প্রিয় নিজামৎ কেল্লা বা দুর্গ। বঙ্গবাসীর নিকট উহা “হাজার দেউড়ী” নামেই পরিচিত। ইহাই মুর্শি দাবাদের নবাব বাহাদুরের প্রাসাদ । ১৮২৯ খৃষ্টাব্দে এই প্ৰাসাদ নিৰ্ম্মিত হইতে আরব্ধ হয়। ১৮৩৭ খৃষ্টাব্দে এই গৃহে তদানীন্তন নবাব বাহাদুর প্রবেশ করেন । তদবধি ইহা नदांबदशtद्ध दांनश्ट्रांन श्रेक्षा अभिंडtछ । এই প্ৰাসাদ দৈর্ঘ্যে ৪১৬ ফিট, প্রস্থে ২০৪ ফিট এবং डेफ़डाब्र vc कि । श्। निर्मीभ कब्रिड २७॥० व्यय कि খরচ হইয়াছিল। ইহার চারিদিকেই সুন্দর বৃক্ষরাজি বিরাজিত। ভাগীরথীর পূর্বতীরে এই প্রাসাদ অবস্থিত। ইহা দেখিতে অতি সুন্দর। ইহার চতুঃপাশ্বস্থিত |- চ্ছাদিত হরিৎ ক্ষেত্ৰ, সুঠাম গঠন বক্স এবং প্রাসাদসংলগ্ন ইমামবাড়ীর গুম্বজ দশকের নয়নমন আকৃষ্ট করে । ইতিহাস ও কলা-বিদ্যার হিসাবে এ প্ৰাসাদ ভারতের মধ্যে বিশেষ উল্লেখযোগ্য । এই প্ৰাসাদ যে কেবল ওলন্দাজ, ফুেলিশ, ফরাসী ও ইটালীয় কারুশিল্প, অমূল্য DBBDDmB S 0 DuDuYB DDDBBtDDB KBBYSDD BDBDDS পরন্তু ইহার সহিত ৰে সকল সুকোমল ভাবপূর্ণ পারিবারিক স্মৃতি বিজড়িত আছে, তাহাই ইহাকে বিশেষরূপে চিত্তাকর্ষী করিয়া তুলিয়াছে, এ কথা আবিসম্বাদে বলা যাইতে পারে। এই প্রাসাদ ডোরিক ভঙ্গীতে রচিত। ইহাতে উঠিবার সিঁড়িতে ৩৬টি ধাপ আছে। ইহার নিম্ন ধাপ ১০৮ Bu 0 DBBku D0D BBD SDDDLL BB 0DD S DBBDDBBDD

  • সম্মুখস্থ গাড়িবারান্দা ডোরিক স্তন্তে অলঙ্কত, দেউড়ী বা

তোরণ বাদামাকৃতি, উহার মেঝে ইটালী হইতে আনীত ধূসরবর্ণের মৰ্ম্মর প্রস্তরে আস্তৃত। প্রাসাদে প্ৰবেশ করিলেই সম্মুখে দরবার-গৃহ। উহাতে উহা মৰ্ম্মর নিৰ্ম্মিত ও সুবর্ণখচিত। রাজা সম্পর্কিত-ব্যাপারে সুবর্ণের আসনই ব্যবঙ্গত হইয়া থাকে। বিশিষ্ট ব্যক্তিগণের জন্য বহুমূল্য আসন অনেক আছে। দরবার-গৃহের পরই ভোজ-গৃহ । ভোজ-গৃহ দৈর্ঘ্যে ৯৪ ফিট, প্রস্থে ৫৭ ফিট। কিন্তু যখন নবাব ভোজদি প্ৰদান করেন, তখন পাশ্বের সরান দ্বারগুলি উন্মুক্ত করিয়া দেওয়া হয় এবং পূর্ব ও পশ্চিম দিকের গৃহগুলিতে প্ৰায় সাড়ে তিন শত নিমন্ত্রিত ব্যক্তির স্থান সন্ধুলান হয় । নবাববাড়ী দেখিতে গেলে নবাবপ্রাসাদের চিত্ৰশালিকা DBY D DB DBDBDS DDSDB BDBBDD sgB BBDBBLYBD DuDD অতি সুন্দর সুন্দর চিত্ৰ আছে। তাহার মধ্যে কোনটিকে ছাড়িয়া কোনটির কথা বলা যাইবে, তাহা নির্ণয় করা কঠিন। স্কোটেলের অঙ্কিত “সাগর-দৃশ্য” অতি সুন্দর। চিত্র কর এমন অপূৰ্ব্ব কৌশলে সেই ঝটিকাতাড়িত সাগর-দৃশ্য অঙ্কিত করিয়াছেন যে, তাহার চিত্ৰকাৰ্য্যের গুণে ভ্ৰকুটDBDDD S DBDBBDBDB SgES DBDtDBBD S BBBD