প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


যোগশাস্ত্ৰ। {ঐতারিণীপ্রসাদ জ্যোতিৰী লিখিত। ] যোগশাস্ত্র অতি কঠিন শাস্ত্র। ইহা আলোচনা ও অধ্যয়নের দ্বারা আয়ত্ত হয় না, এই শাস্ত্ৰ স্কুল কলেজে গিয়া শিখিবার শাস্ত্র নহে, ইহা মানুষের ভোগে ও সুখস্বচ্ছন্দে থাকিয়া শিখিবার শাস্ত্ৰ নহে, এই শাস্ত্ৰ শিখিতে হইলে প্রকৃত যোগীর ও সদগুরুর আবশ্যক এবং আপনার দেহ ও মনকে বাল্যকাল হইতেই যোগসাধনোপযোগী প্ৰস্তুত করা আবশ্যক । বালাবস্থা হইতেই ব্ৰহ্মচৰ্য্য অভ্যাস ও গুরুভক্তি শিক্ষা করিতে হয়, তারপর ক্রমশঃই বিষয়ত্যাগাভাস দ্বারা মন ও শরীরকে , अबिद्ध कब्रिड इन। cगमन भूखिकांच बैौबबशन कब्रिया তাহার ফলপ্রত্যাশী হইতে হইলে পুর্বেই সেই স্মৃত্তিক চাষবাসাদি দ্বারা খনন, পরিষ্কার ও কোমল করিয়া লইতে হয়, সেইরূপ ব্ৰহ্মচৰ্য্যাদি দ্বারা মনুষোর মন পবিত্র ও কোমলভাবে প্ৰস্তুত হইলে, তৎপর উহাতে যোগ-বীজ বপন করিয়া মোক্ষফল লাভ করা যায়। যোগ ভিন্ন শরীর নিৰ্ম্মল ও দৃঢ় হয় না। যোগ প্ৰধানতঃ দুই প্ৰকার, হঠযোগ ও রাজযোগ । भौज्ञ छु कब्रिांद्र खन्छ श्र्राष्षांशांड्यांग कब्राहे ग्रंथ कर्डबा । হঠযোগ অভ্যাসে কৃতকাৰ্য্য হইলে অনায়াসেই রাজযোগের সোপানে উপস্থিত হইয়া মনের নিবৃত্তি করা যায়। দেহ যেমন ক্ষণভঙ্গুর, মনও তেমনই চঞ্চল। ভগ্নপাত্রে যেমন জল ঢালিলে উহা পড়িয়া যায়, ক্ষণভঙ্গুর দেহকে অগ্ৰে হঠসাধন দ্বারা দৃঢ়তর না করিলে, উহাতে চঞ্চল মনকে স্থিরতর করা शाश्व्र नl, श्डब्रां९भन श्ब्रिडद्र ना शरेष्ण ऊंशष्क कथन विषम्र । इंद्देख् नित्रूद्ध कब्र शांव्र बो । श्रड्ज्ञां३ विश्वव्र श्रेष्ठ निब्रुख না হইলে সেই মন দ্বারা রাজযোগ কি উপায়ে সাধন হইতে পারে ? মনুষ্য দেহ ষড়রিপুর আঘাতে সর্বদা কাতর, মন সেই রিপুকণ্টক লইয়া সৰ্ব্বদা ক্রীড়া করিয়া আপনার কৰ্ম্ম‘সুত্রে আপনি ব্যথিত হইতেছে। যে পৰ্যন্ত দেহের সংশোধন S BBB DDBB D S BBD DBBD DBD DDD বেদনার শান্তি না হয়, সে পৰ্য্যন্ত যোগাভ্যাসকাৰ্য্যে রত হইয়া প্ৰাণায়ামাদি কাৰ্য্য করা বিড়ম্বন মাত্র। যেমন ঘটনিৰ্ম্মাণ করিতে হইলে প্রথমতঃ কোমল আমমৃত্তিকা হইতে ইচ্ছানু সারে কুম্ভকারীচক্ৰে স্থাপন করিয়া বিবিধ প্রকার ঘাটনিৰ্ম্মিত হয়, শেষে অগ্নিসংযোগে দৃঢ়তর করা যাইতে পারে, সেইরূপ : আমাদের মাংসপূর্ণ কোমল দেহকেও ইচ্ছানুরূপ গুরুর উপদেশচক্র দ্বারা প্ৰকৃত সাধক-আকারে পরিণত করাইয়া যোগরূপ দৃঢ়তর করা যাইতে পারে। দেহ ও মনের দৃঢ়তাসাধন না হইলে যোগসাধনে প্ৰবৃত্ত হওয়া অতীৰ अब्यानडांत्र की । शंशब भूप्रांप्ी अर्थी९बांशंगांश्न S DDBD DDD SYBEE BDD DDBDB uuD DDBD BED • অর্থাৎ প্ৰাণ, অপান, নাদ, যোগভ্ৰষ্ট হইয়া কিয়দিন পরে পরলোকগমন করিয়াছেন,তাহাদিগের পূর্বকৰ্ম্মানুসারে ইহজন্মে যোগাভ্যাসের ইচ্ছা স্বভাবতঃই अभिग्रा शाप्क। बनि डैशब्रा डांशावण नखक्र गांड कब्रिन, अथवा ग९नएचब अौन इश्वा जैश्डे हान cयाशनाथन गङ्गबान् श्मन, डांश श्ष्ण ऊँशब्रा दबकाजभाशा अडोडे क्नडाङ कझिझा थोgकत्र । পূর্বে উক্ত হইয়াছে, হঠযোগ ভিন্ন রাজযোগের কৰ্ম্ম বৃথা হয়, সেইরূপ হঠযোগ সাধন করিয়া রাজযোগে অভ্যন্ত না হইলে সেই হঠযোগও বাজীকরের ভোজবাজীর ন্যায় দৃশ্যমান হুইয়া থাকে। অতএব হঠযোগ ও রাজযোগ উভয়ই পরস্পরের সাহায্যের জন্তু শিক্ষা করিয়া ক্রমশঃ ধ্যান, ধারণা ও সমাধির পথে অগ্রসর হওয়া কৰ্ত্তব্য। যিনি সমাধিগত হইয়া যোগবলে পরব্রহ্মে চিত্ত সমাহিত্যপূর্বক তন্ময় হইতে পারেন, তাহার পক্ষেই যোগসাধন সফল হইয়া থাকে। যোগসাধনের প্ৰকৃত উদ্দেশ্য ইহা ভিন্ন আর কিছুই নহে। শিবসংহিতা বলেন,- “প্ৰাণাপাননাদবিন্দুঃ জীবাত্মাপরমাত্মনঃ। মিলিত্বা ঘটতে যম্মাত্তিস্মান্ধৈ ঘট উচ্যতে।” বিন্দু, জীবাত্মার ও পরমাত্মার একত্ৰ সন্মিলন যাহা হইতে সংঘটিত হয়, তাহাকে ঘাট অর্থাৎ দেহ কহে । এই দেহের শোধনের জন্য আবার সপ্তপ্রকার সাধনের আবশ্যক করে ; কারণ দেহ স্বভাবতঃ তামোগুণ হইতে তামসিকশক্তির বশে উৎপন্ন হয়। ইহা বায়ু, পিত্ত, কফাদি দ্বারা সর্বদাই সন্ত্রান্ত ও বিকারপ্রাপ্ত এবং তন্ধেতু বিবিধপ্রকার ক্লেদযুক্ত। মলমূত্ৰ, ঘৰ্ম্ম ও শোণিতাদি সেই সকল ক্লেদের প্রবাহ স্বরূপ ; কাম, ক্ৰোধ, লোভ, মোহ প্ৰভৃতি রিপুসকল উক্ত দেহত্বারের ৰিবিধ বিস্ত্র ও বাধাস্বরূপ ; আর শব্দ, স্পর্শ, রূপ, রস, গন্ধ-এই পাঁচটি উক্ত দেহের আগন্তুক মনশ্চাঞ্চল্যের হেতুস্বরূপ; সুতরাং উক্ত দেহকে শোধন না করিলে কোন প্রকারেই যোগমার্গে উপস্থিত হওয়া যায় না । তজন্ত শিবসংহিতায় পুনরুক্ত হইয়াছে :- , A “শোধনং দৃঢ়তা চৈব স্থৈৰ্য্যং ধৈৰ্য্যঞ্চ লাঘবম। প্রত্যক্ষঞ্চ নির্লিপ্তক ঘটত সপ্তসাধনম৷” “ । শোধন, দৃঢ়তা, স্থৈৰ্য্য, ধৈৰ্য্য, লাঘব, প্ৰত্যক্ষ ও নিলিপ্ত, ইহাদিগকে শরীরের সপ্তসাধন বলে। যোগাভ্যাস করিতে হাঁটুলে প্ৰথমতঃ এই সপ্তসাধন দ্বারা শরীরকে সংশুদ্ধ করিতে