প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/৪৪৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গান ৷ [ শ্ৰীযুক্ত কৃষ্ণচন্দ্ৰ দাস লিখিত । ] পূর্ণ প্ৰকাশিতের পাব । পূর্বে উল্লেখ করিয়াছি যে, বৈজ্ঞানিক {{2 י 「●、阪 エ7・1 वशrष्ट्र উপায়ে কণ্ঠস্বরসাধনা করি৩ে ध्छ: উপকারিত। শ্বাসপ্রশ্বাসের ব্যায়াম অবশ্য কি শুবা। এই বায়াম সাধনা করিলে কণ্ঠস্বরের উৎকর্ষতা লাভ ব্যতীত স্বাস্থ্যের উন্নতি, দেহে বলী-সঞ্চার ও সৌন্দৰ্য্য বৃদ্ধি হইয়া থাকে । গায়কের স্বাস্থ্যহানি তা হলে কণ্ঠস্বর বিকৃত হয় ও মনে সম্যকরূপে সঙ্গীতের রস খৃষ্টি হইতে পারে না । সেই জন্য তিনি নিজে গান করিয়া আনন্দলাভে বঞ্চিত ? শ্রোতৃগণের মনোরঞ্জনে অসমর্থ হন । নিয়ম করিয়া প্ৰত্যহ প্ৰাতঃকাল ও সন্ধার সময় ১৫২০ মিনিট কাল শ্বাস প্রশ্বাসের বায়াম সাধনা করিলে রোগাক্রমণের সম্ভাবনা হ্রাস হইয়া যায়। শ্বাস কাশ, যক্ষ্মাবিশেষতঃ শ্বাসযন্ত্র বা ফুসফুসসংক্রান্ত রোগসমূহ আক্ৰমণ করিতে পারে না এবং আক্রমণের সূত্ৰপাত ভইলে ও ক্রমে তাহা নিৰ্ম্মল হইয়া যায় ; দেহ ক্ৰমে সবল ও অধিকতর কাৰ্যক্ষম হয় এবং সেই জন্য মন ও সৰ্ব্বদা প্ৰফুল্লিত থাকে । বালক-বালিকাগণ এই ব্যায়াম অভ্যাস করিলে গঠনেব *šifr Kto čafs (Natural Development) a číT 9 সৌন্দৰ্য্য বুদ্ধি হইয়া থাকে। बTभूमिकक्ष প্ৰথমে এই শ্বাসপ্ৰশ্বাসসংক্রান্ত কতিপয় অত্যাবশ্যক সাধন উল্লেখ পরিসছদ । so করিয়া তৎপরে কণ্ঠস্বরসাধনার বিষয় আরম্ভ করিব । ব্যায়ামসাধন করিবার সময় গেঞ্জি অথবা কোন লঘুভার ও শ্লথ পরিচ্ছদ পরিধান কত্তব্য। প্ৰথম সাধন । উভয় গুলাফের (গোড়ালীর) উপর সমভাবে ভর দিয়া ঠিক সোজা হইয়া দণ্ডায়মান হইবে। গুলফ দুইটি যেন ৮ ইঞ্চি ব্যবধানে ও পদের অগ্রভাগদ্বয় ১ম চিত্রের ন্যায় কিছু বহিদিকে ফিরিয়া থাকে। বক্ষঃ, পৃষ্ঠ, মস্তক ও গ্ৰীৰ ঠিক সোজাভাবে এবং দুই হস্ত উভয়পাশ্বে যেন সমানভাবে বুলিতে থাকে। এইরূপ ভাবে দণ্ডায়মান অবস্থার নাম প্রথমাবস্থা । এই প্রথমাবস্থায় দণ্ডায়মান ও মুখবন্ধ করিয়া কেবল নাসিকাদ্বারা নিঃশব্দে ধীরে ধীরে নিঃশ্বাসবায়ু গ্রহণ ও তৎসঙ্গে মনে মনে এক, দুই, তিন, চার করিয়া সংখ্যাগণনা করিতে থাকিবে। বায়ুগ্রহণের সময় কেবল প্রদেশ স্ফীত হইয়া উপরে উঠবে, কিন্তু উদর স্ফীত wo হইবে না এবং স্কন্ধ দুইটি যেন উপরে না উঠে, সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখিবে । এই রূপে যােত সংখ্যা গণনা করিয়া নিঃশ্বাসবায়ুদ্বারা বক্ষঃপূর্ণ করিবে, তাহা মনে রাখিবে ও প্ৰতিবার নিঃশ্বাস টানিবার সময় তােত সংখ্যা গণনা করিয়া বক্ষঃ বায়ু, পুণ করিবে। নিঃশ্বাস টানিয়া বক্ষঃ সম্পূর্ণরূপে বায়ুপূর্ণ অর্থাৎ বায়ু টানিবার ক্ষমতা শেষ হইলে মুখ অল্প খুলিয়া BDBLS BBC0 BEkYS 0 DDDD KDD DBBBS SDD টানা হইয়াছিল, তত সংখ্যা মনে মনে গণনা করিতে করিতে মুখ দিয়া শ্বাস ত্যাগ করিবে । চারিবার করিয়া এহ রূপ দীর্ঘ নিঃশ্বাস-প্ৰশ্বাস করিয়া চারিবার সহজ। শুশ্বাসপ্ৰশ্বাস করিবে । পুনরায় চারিবার এইরূপ দীর্ঘ শ্বাস-প্ৰশ্বাস করিবে । কিন্তু এইবাবে মুখ দিয়া শ্বাসত্যাগ না করিয়া নাসিক দিয়া ত্যাগ করিবে । এইরূপে প্ৰথমে চারিবার , দীর্ঘশ্বাস নাসিকাদ্বারা টানা ও মুখ দিয়া ফেলা, পরে চারিবার সহজ শশ্বাস প্ৰশ্বাস, পরে চারিবার নাসিকাদ্বারা দীর্ঘনিশ্বাস টানা ও ছাড়া, পুনরায় চারিবার সহজ স্বাস-প্ৰশ্বাস, পরে চারিবার নাসিকায় দীর্ঘশ্বাস টানা ও মুখ দিয়া ছাড়া, চাবি বাব সহজ খাস প্রশ্বাস এবং চারিবার নাসিকায় দীর্ঘশ্বাস টানা ও ছাড়া, পরে চারিবার সহজ স্বাস-প্ৰশ্বাস অর্থাৎ সৰ্ব্বসমেত ১৬বার দীর্ঘ ও ১৬ বার সহজ স্বশ্বাস-প্ৰশ্বাস হইলেই . প্রথম সাধন পূৰ্ণ হইবে। এই সাধনসমূহ প্ৰথমে দিবসে চারিবার অর্থাৎ প্ৰাতে, দ্বিপ্রহরে, সন্ধ্যায় ও রাত্ৰি ৯টা হইতে ১১টায় ; মধ্যে সাধনা করিবে। সাধনার সময় যেন উদর পূর্ণ না থাকে অর্গাৎ আহার করিবার পূৰ্ব্বে অথবা ৩।৪ ঘণ্টা পরে সাধনা করিবে। বালক, বালিকা, মহিলা ও শীর্ণকায় । BDBuK S SOKD DD DBDLS SsK KDS উপাধানবিহীন হইয়া (বালিসে মাথা न ब्रांश्lि) छेखांनडांप्रद (रुि इंद्देश) শয়নাবস্থায়, দ্বিতীয় সপ্তাহে উপবেশনাदशब्र qद फूडीघ्र नatश् श्ड উপরের বর্ণনামত দণ্ডায়মান অবস্থায় সাধনা कब्रिएवं। দ্বিতীয় সাধন । SLLDDDB LBDBB DBBDBS DDD EEE Ht L ব্যবধানে থাকিবে। উভয়পার্থে হস্তদ্বয় দৃঢ় রূপে মুষ্টিবন্ধ ኣfቫUጓቑ xff¥ማ ! ব্যক্তিবিশেষে সাধনের পার্থক্য ।