প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/৫০১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Šბ8ხ“ অনাথবন্ধু। SMLSSLMSSSMSSSMSSSSSLLLSSLSLS حیح صحیح تک حصہ~مسح حSumitaBot (আলাপ)ہے [ প্ৰথম বর্ষ, পৌষ, ১৩২৩৷৷ তাহার উপর প্রভাব বিস্তুত করে। সে যদি পর পর ভাল কাজ করিয়া যায়, তাহা হইলে অন্তাজ, আন্তরালিক প্রভৃতি নিম্নস্তরের মনুষ্যযোনিতে জন্মিয় ক্ৰমে দ্বিজত্বপ্ৰাপ্ত হয়। ক্রমশঃ বৈশ্য-ক্ষত্ৰিয়াদি হইয়া শেষে ব্ৰাহ্মণকুলে জন্ম গ্ৰহণ করে । ব্রাহ্মণকালে জন্মিয়া ত্ৰিগুণের বন্ধন ছিন্ন করিলে তবে সে মৃক্তিলাভ করে । , কেবল যে মানুষের মধ্যেই জাতিভেদ আছে, তাত নহে। অগ্যান্য জীবে ৪ জাতিভেদ আছে। শাস্ত্ৰ বলিতেছেন ;- “ এষাতু মানবী সৃষ্টি: সৰ্ব্বশো হি চতুৰ্ব্বিধা । বাহ্মণঃ ক্ষত্ৰিয়ো বৈশ্যঃ শব্দশ্চেতি পৃথক পৃথক ৷ v; রাসুরিনারাঃ পক্ষী পশুদ্ৰমলতাদয়ঃ ॥ এবং চতৃপি পা সৰ্ব্বা প্ৰজাবৰ্ণচতুষ্টয়ী ॥ " মান যা সৃষ্টি চতুৰ্ব্বিধা ;--রাহ্মণ, ক্ষলিয়, বৈশ্য এবং শূদ্র । DBDS BKKS DELDgS KBBSSKKS DBBDBBDS DBBDD S S0D0DB তারতম্য অনুসারে চতুৰ্ব্বিধ । মানুষ চারিবর্ণের। বেদে দেবতাদিগের মপো ও জাতিভেদের উল্লেখ আছে। বৃহদারণ্যক উপনিষদে দেখা যায় যে, ব্যক্তি জগৎ যখন অব্যক্ত অবস্থায় ছিল, তপন একমাত্ৰ ব্ৰহ্মই ছিলেন, তখন জাতিলেদ ছিল না । তাহার পর ব্ৰহ্মা সৃষ্টি করিবার মনস্থ করিয়া অগ্নিকে সৃষ্টি করিলেন । অগ্নিরূপী বহ্ম বাহ্মণ জাতাভিমানবশতঃ ব্ৰহ্মা নামে অভিহিত হইলেন । কিন্তু কেবল পাহ্মণ চাইলে সৃষ্টি হয় ও না, থাকে ও না । তপন ব্ৰহ্মা রজো গুণ আশ্ৰয় করিয়া ক্ষল্লিয় হঠালেন । তখন সেই ব্ৰহ্মাই আবার ইন্দ্ৰ, যম, বরুণ, সোম, রুদ, পর্জন্য, মৃত্যু, ঈশানরূপ ক্ষলিয়দেবতায় বিভক্ত হইলেন। ইতারা সকলেই এক এক বিভাগের রাজা । কিন্তু কে বল ব্ৰাহ্মণ ও ক্ষত্ৰিয় তাইলেই সৃষ্টি চলে না । তপন তিনি আবার বৈশ্য দেবতা হইলেন । বৈশ্যাদিগের একাকী কোন কাৰ্য্যা হয় না, তাহাদের গণ বা , , ιιι) κι 1ιν থাকা 5ांठें । সেই জন্য অষ্টবসু, একাদশ রুদ, দ্বাদশ আদিত্য, ত্ৰিয়োদশ বিশ্বদেব এবং উনপঞ্চাশাৎ মরুৎ সৃষ্ট হইলেন। কিন্তু তথাপি সৃষ্টি সম্পূৰ্ণ হয় না । তখন তিনি শুদ্রিদেবতা পুষার সৃষ্টি করিলেন । এই পৃষার সৃষ্টির পর ব্ৰহ্মা সৃষ্টিকাৰ্য্যসাধনে সমর্গ হইয়াছিলেন । এই বৈদিক আখ্যান হইতে বুঝা যায় যে, আদৌ বাহ্মণ সৃষ্ট হইয়াছিল। দেবতার মধ্যে যাহা হইয়াছে, মানুষের পরে বাহ্মণ পক্ষে ৪ তাহাই হইয়াছে। পথমে বাহ্মণ, u- au- عصعص AA ہے۔ হইতে ক্ষলিয়, ক্ষত্ৰিয় হইতে বৈশ্য এবং বৈশ্য হইতে শূদ্র জন্মিয়াছে। ভৃগু বলিয়াছেন,- ন বিশেষোহিন্তি বৰ্ণনাং সৰ্ব্বং ব্রাহ্মমিদং জগৎ । ব্ৰহ্মণ পূৰ্ব্বসৃষ্টং চি কৰ্ম্মভিবর্ণতাং গতিম ৷ কামভোগপ্রিয়াস্তীক্ষাঃ ক্ৰোধনা: প্ৰিয়সাহসাঃ । YTBDDDBYDDD SDDD BBLBLL DBDBL গোভাং বৃত্তিং সমাস্থায় পীতাঃ কৃষুপজীবিনঃ। वक्षगांना डिट्टेड्ठि 6ड विख्l cदgउां९ १ऊां: ॥ হিংসা নুতপ্ৰিয় লুব্ধাঃ সৰ্ব্বকৰ্ম্মোপজীবিনঃ। কৃষ্ণা শৌচপরিভ্রষ্টাস্তে দ্বিজাঃ শূদ্ৰতাং গতাঃ ॥ মহাভারত, শান্তিপৰ্ব্ব । এই জগৎ ব্রহ্মময়, সুতরাং বর্ণের মধ্যে বৈশিষ্ট্য নাই । ব্ৰাহ্মণরাই প্ৰথম সৃষ্ট হইয়াছিলেন, কিন্তু কৰ্ম্মবশে সেই BBDBDBB BDDBDBDBB DDBD S DDD S KBDDSuYSS DDDB কামভোগে রত, উগ্ৰপ্ৰকৃতি, ক্ৰোধী ও সাহসী এবং রাজেগুণাধিক ব্যবশতঃ রক্তবর্ণ হইল, সেই দ্বিজগণই ক্ষত্ৰিয়, আর যাহারা গোপালন, কৃষিজীবী হইয়া ব্রাহ্মণোচিত ধৰ্ম্মানুষ্ঠান ত্যাগ করিল, সেই সকল দ্বিজাতি এবং রজ:স্তমোগুণাধিকো পীতবণ হইল, তাহারা বৈশ্য এবং হিংসুক, মিথ্যাবাদী, লোভী, সৰ্ব্বকৰ্ম্মোপজাবী, শৌচাচারবিহীন এবং তমোগুণাধিক্যহেতু কৃষ্ণবৰ্ণ হইল, সেই সকল দ্বিজ শূদ্র হইয়া গেল। সুতরাং বুঝা গেল, চারিবর্ণই আদিতে এক ছিল । পরে বহুপুরুষ ব্রাহ্মণোচিত কাৰ্য্য পরিত্যাগ করাতে তাহারা নানাবণে বিভক্ত হইয়াছে। ভূ গু অন্যত্র বলিয়াছেন,- সৰ্ব্বভক্ষ্যারতিনিতাং সৰ্ব্বকৰ্ম্মক রোহ শুচিঃ । ऊाखु (6श्न5ः । यः शृ शेङि ब्रूङः ॥ অর্থাৎ যে সকল ব্রাহ্মণ বেদপাঠ, শৌচ, আচার, সমস্তই বর্জন করিয়াছে, তাহারাই কালবশে শূদ্র হইয়া গিয়াছে। সুতরাং বুঝা গেল, শূদ্ৰগণ অনাৰ্য্য নহেন। পাশ্চাত্য পণ্ডিতগণ সিদ্ধান্ত করিয়াছেন যে, আর্যগণ এ দেশের আদিম অধিবাসী দিগকে পরাজিত করিয়া তাহাদিগকেই শূদ্র বা দাস করিয়াছেন, এ সিদ্ধান্ত ভুল। তবে যে সকল DDD SDBDBBDBDB DBDBS S0 KLDD DDD DBYu BDBB শূদ্রািত্বপ্রাপ্ত হইয়াছে, তাহদের সহিত অনাৰ্য্যজাতির মিশ্রণ অবশ্যম্ভাবী। সেই জন্য কোন কোন শূদ্ৰজাতির সহিত অনাৰ্য্যজাতির অস্থিসংস্থানগত কিছু সাদৃশ্য লক্ষিত হয়। বাস্তবিক শুদ্ৰ অনাৰ্য্য নহে। [ ক্রমশঃ ।