প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/৫২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


- sara ভগণের সহিত তাহদের শীঘ্ৰ কেন্দ্ৰ-ভগণ যোগ করিয়া পাত আনয়নের উপায় সিদ্ধান্তকারগণ লিখিয়াছেন,-পৃথিবীর ভ্ৰমণ স্বীকার না করিলে তাহার উপপত্তিই হয় না । পৃথিবীর ভ্ৰমণ সিদ্ধান্তকারদিগের অভিপ্রেত হইলেও তাহারা লোকপ্ৰতীতির জন্য সুৰ্য্যের ভ্ৰমণই বলিয়াছেন, ইহাতে গণনার কোন প্ৰকার বৈলক্ষণ্য ঘটে না । বহু প্ৰাচীন ভারতগৌরব আৰ্যভট বলিয়াছেন, -নৌকার আরোহিগণ তীরন্থ পৰ্ব্বতকেও যেরূপ নৌকার বিপরীতদিকে গমনকারী মনে করে, সেইরূপ পৃথিবীরই পশ্চিম হইতে পূৰ্ব্বদিকে ভ্ৰমণহেতু আমরা প্রভৃতিকে পশ্চিমগামী মনে করি। . তাহার উক্তি (4) Op অনুকুলগতিনৌ স্থঃ পশুত্যাচলং বিলোমগং যদ্বৎ । অচলানি ভানি তদ্বৎ সম পশ্চিমগানি লঙ্কায়াং ৷ আৰ্যভটের পরবর্তী লাল্লাচাৰ্য্য, শ্ৰীপতি প্ৰভৃতি কুযুক্তিদ্বারা পৃথিবীর ভ্ৰমণ খণ্ডন করিতে চেষ্টা করিলেও গ্ৰহভাগণ তাহাই ঠিক রাখিয়াছেন, সুতরাং পৃথিবীর ভ্ৰমণস্বীকারেই বর্তমানকালেও আমাদের পঞ্জিকা প্ৰভৃতি গণিত হইতেছে। বাপুদেব শাস্ত্রী মহোদয় প্ৰাচীন জ্যোতিষাচাৰ্য্যাশয়বৰ্ণন নামক পুস্তকে স্পষ্টভাবে ইহা কিঞ্চিদুদ্ধত প্ৰতিপাদনা করিয়াছেন, তাহা হইতে হইতেছে। अनार्थव। [ প্ৰথম বর্ষ, નો, ადRხ\ ভারতবর্ষীয়াঃ সকল মূলগ্ৰন্থকারা, সৰ্ব্বে গ্ৰহাস্তিরণীং পরিতে ভ্ৰমন্তীত্যভিপ্ৰেত্য গ্ৰহপাতভগণাননিরণারিযতেন্ত্যেতদুপপাদনার্থমুচ্যতে• • • • • • • • • • • • • • • VSV • ভোেমাদীনাং পঞ্চাণামপি গ্ৰহাণাং সুৰ্য্যকেন্দ্ৰকিং -- * ভ্ৰমণং সুলকারাণ অভিমতমিত্যবসীয়তে। অন্যথা তন্মতীয় পাতভগণপঠননেীচিত্যাৎ নাচ, • • • • • • • • • • • --সূৰ্য্যমভিতো গ্ৰহস্ৰমণমভিপ্রায়তা মান্যাচাৰ্য্যানাং ভূমিং পরিতে ভ্ৰমণপ্ৰদৰ্শনমসঙ্গতমিতি বাচাং,লোকপ্ৰতীত্যনুসৃতয়ে লাঘবেন গোলস্থিত্যাবগতয়ে চ সূৰ্য্যধৰ্ম্মণাং ধরণ্যামারোপণাস্ত তৈরঙ্গীকরণাৎ। তদেব আরোপারসিকা আচাৰ্য্যা বোধিলাঘবং লোকপ্ৰতীতিং চানুসরন্ত এবং কল্পনালাঘবেন সিদ্ধে অপি তরণিসহিতস্ত ভপঞ্জীরস্ত ধরণ্যাশ্চাচলত্ব চলত্বে অন্যোন্যস্মিন্নারোপ্যৈব। তাঁরণিং ভচক্ৰং চ চলং ধরণীং চাচলাং বৰ্ণাঞ্চকুরিত্যাপি প্ৰতীয়তে। ইত্যাদি। য়ুরোপীয়গণ সুৰ্য্যের স্থিরতা ও পৃথিবীর ভ্ৰমণ নিৰ্ব্বিবাদে স্বীকার করিলেও যেমন তাঙ্গারাও সুৰ্য্যোদয় (Sunrise) 's firg (Sunset) eyf5 Y Tris করেন, সেইরূপ পৃথিবীর ভ্ৰমণস্বীকারে আমাদের গণনা চলিলেও সাধারণতঃ লোকে সুৰ্য্যের ভ্রমণ ও পৃথিবীর স্থিরতাই বলিয়া থাকে। সুতরাং বুঝা গেল, য়ুরোপীয় গণনা লইতে আমাদের কোন দোষ নাই। [ ক্রমশঃ ।