প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অনাথবন্ধু.pdf/৫২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


gala N8 - Tea, et অন্বেষণ করিবার জন্য যাইতে নিষেধ করিয়াছিলাম । তোমরা আমার কথা উপেক্ষা করিয়া হাসিয়া উড়াইয়া দিয়াছিলে । ভাব দেখি । আমি যদি না যাই তাম, তাহা হইলে নিশ্চয় তোমরা দেশে ফিরিয়া আসিতে পারিতে না । খাদ্যাভাবে সেইখানেই তোমাদের মরিতে হইত। নিশ্চয় জানিও, আমি তোমাদের স্বর্ণপিণ্ডলাভের আশায় সেখানে যাইয়া চাষ করি নাই । তোমাদের পরিণাম ভাবিয়া খাদ্যাদির DDD DBBDBD BBBD tuBBS DDBB KBDDDBDDB निशांsलांछे। (مهره BBK KD BKKK DDD DDBDBD BDBBBLSDSBDDBBD জন্য আমি অত্যন্ত দুঃখ পাইয়াছি । এক্ষণে আপনি আপন কষ্টলব্ধ ধন গ্ৰহণ করা। মনে রাখিও, পৃথিবীর সকল স্থানের মাটিতে স্বণ। অর্থাৎ ধন আছে । ধে সংগ্ৰহ করিতে জানে, তাহার সমুদ পারে। যাইবার BDDBDBDB D BB STT BBDD DD BBD BDSBES BDDDJ করিয়া প্ৰত্যেকের স্বর্ণপিণ্ড প্ৰত্যপণ করিয়া বিদায় করিলেন । দিয়াশলাই বা দেকাঠী আজকাল আমাদের অত্যন্ত আবশ্যক SBB DBBDDLYS DBDBBDBD BB DDDD DBBD দিয়াশলাইয়ের বাক্সটি বালিসের নীচে বা হাতমহড়ার কোন স্থানে রাখিয়া নিদ্রা যাওয়াই বিধি ৷ প্ৰয়োজন হইলে ঘর্ষণদ্বারা অনায়াসেই আলো জালা যাইতে পারে। পূৰ্ব্বকালে আমাদের দেশে পাতকাঠীর মুখে গন্ধক লাগাইয়া দেশালাই প্ৰস্তুত করা হইত। ঘরেই তুষ ও ঘুটের সজ্জিত মালসা থাকিত। মালসায় প্রধূমিত অগ্নি থাকিত। তখন আবশুক হইলে লোক সেই গন্ধকমুখ পাতকাঠী বা পাকাঠা আগুনের মালসায় ধরিত। গন্ধক জলিয়া পাকাঠা ধরিত। লোক রাত্ৰিতে আবশ্যক হইলে তাহা দিয়া প্ৰদীপ জ্বলিত । আধা পয়সার গন্ধকে আর বিনা পয়সার পাতকাঠাতে তখন যে পরিমাণ দেশলাই প্ৰস্তুত হইত, তাহাতে মাঝারি রকম গৃহস্থের বোধ হয় এক বৎসর চলিয়া যাইত, কোন কষ্ট হইত না । সে কালের সরল সভ্যতার একটা লক্ষণ এই ছিল যে, সকলেই নিজের আবশ্যক জিনিসপত্র নিজেই তৈয়ারী করিয়া লাইত, অধিকাংশ অত্যন্ত আবশ্যক জিনিধের জন্য লোককে পরের নিকট নগদ পয়সা ফের্লিতে হইত না । যাহাতে নগদ পয়সার অভাবেও সংসার চালান যায়, হাতে পয়সা না থাকিলে মুখে মাছি না চুকে, সেইরূপই ব্যবস্থা ছিল, কাজেই সে কালে এত হাহাকার ছিল না । তখন পয়সার জন্য লোককে পরকাল খোয়াইতে হইত না । তবে সে কালের সেই সোজা দেশালাইয়ের একটু BBDBBD GB DD DDS DBD DBDD S SDBBBDB DDBD কাছে অ্যাটিবাধা গন্ধক-দেশালাই বাধা থাকিত আর আগুনের মালসাটা বিছানা হইতে কিছু দূরে রক্ষিত হইত। অন্ধকারে হাতড়াইয়া দেকাঠী টানিয়া লইয়া শয্যা হইতে উঠিতে হইত এবং তথা হইতে বীরবিক্রমে পাঁচ ছয়বার চরণ বাড়াইয়া আগুনের মালসার সন্নিহিত হইতে চাইত, তৎপরে দেশলাইয়ের সহিত অগ্নির গাঢ় সংযোগ সম্পাদন করিলে তবে আলো জ্বলিত । সুতরাং তাহার আখড়াইট বড়ই জটিল ছিল। আর হাল আমলের দেশলাই কিবা চমৎকার ! বালিসের নীচে হইতে টানিয়া লইয়া ফস আর আমনই দাপ! কোন বালাই নাই। কাজেই বিলাতী দেশলাই প্ৰতিযোগিতায় জয়যুক্ত হইল। এই দেশলাই জালিতে আর অন্ধকারে গৃহের মেঝোয় পদন্তাস করিতে যাইয়া সৰ্পদষ্ট DBDBD BDD DDS KD BgBg DYDS DDBDBBDBS DBBDL DBBBBK KK BDB BBDDB DDS ODDB DDDD BDD छाप्लि८द ? এই সুবিধাটুকুর জন্য আমাদের বৎসর বৎসর কত টাকা বিদেশীকে গণিয়া দিতে হইতেছে, তাহার একটা খতিয়ান করিয়া দেখা আবশ্যক। ১৯১২-১৩ খৃষ্টাব্দে এই ভারতে বিদেশ হইতে দেড় শত কোটি গ্রোস দেশালাই আমদানী হইয়াছে। বারোটায় এক ডজন হয়, বারো ডজনে এক গ্রোস হইয়া থাকে । অতএব অঙ্কশাস্ত্রের নিয়ম অনুসারে ১ শত ৪৪টিতে এক গ্রোস হইয়া থাকে । সুতরাং আলোচ্য বর্ষে ২১ হাজার ৬ শত কোটি বাক্স দেশলাই বিদেশ হইতে ভারতে আসিয়াছে অর্থাৎ আমাদের দেশের বালক-বৃদ্ধ-বনিতানিৰ্ব্বিশেষে প্ৰত্যেক লোক গড়ে প্ৰায় ৭ শত বাক্স দেশালাই খরচ করিয়াছে। ঐ বৎসর ৯৮ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা মূল্যের দেশালাঙ্গ ভারতে আমদানী হুইয়াছে অর্থাৎ এই আগুন জ্বালিবার সুবিধাটুকুর জন্য আনাদিগকে প্ৰায় এক কোটি টাকা প্ৰতি বৎসর পিদে শীকে গণিয়া দিতে হইতেছে ! যে দেশ তহঁতে এত টাকা বিদেশে BBDBD DBDBD DDS DDD BY DBD DBuDD D S S S DBB JDBB কোন দেশ ?