পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/১৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SqV» পরিস্ত বল-তোকেও যুদ্ধবিন্থা শিখাই! বীণা। গুরুদেব! তবে কি পিতার রাজ্য উদ্ধার হবে না ? ? ... গুরু । হ’বে কি না হ’বে ভবানী জানে। তোর পিতৃরাজ্য উদ্ধার করা প্রয়োজন-তাতে । নরহিংসার প্রয়োজন। কত বৃদ্ধ পিতার বক্ষে ছুরিকাঘাত করতে হবে ; কত জননীর কোমলকণ্ঠনিঃস্থত হা পুত্ৰ হা পুত্র রবে কত নরঘাতী নিৰ্ম্মম দমু্যর চক্ষেও জল আনতে হবে ; কত ববন রমণীর-স্বামী বিয়োগবিধুৱা কত সতী যাব- | নীর-নবনীত বক্ষে চির চিন্তানল প্ৰজ্বলিত করতে হবে ; কত লক্ষপতির পিতৃহারা সন্তানকে অনাথ আশ্রয়হীন-পথের ভিখারী করতে হবে। বীণা ! তুই পারবি ? মৃগয়ায় পশুবধদর্শনে যার চক্ষে শ্রাবণের বারিধারা বয়, সে কি নরশরীরে অস্ত্ৰ নিক্ষেপ করতে পারে ? বীণা। গুরুদেব।-আমায় অস্ত্ৰবিষ্ঠা শিক্ষা দাও । আমি ভগিনীর শরীর রক্ষা করব । গুরুদেব ! আমাকে সে সুখে বঞ্চিত করবেন। না।--আর কেন পারব না ?-বাবার যে এই of | করেছি ? : | कांच अछि । হাজার হাজার বীর সন্তান যেখানে স্থান পায়নি; সেখানে মেয়ে তুই কি করবি | মা বীণা -যা-গুরুদেব অনেকক্ষণ থেকে । হরতকী চাচ্চেন। (বীণার প্রস্থান ) কি কথা। শুনি ঠাকুর! আমি কি তবে দুটী পুত্র গর্ভে ধারণ গুরু। যথার্থই মহারাণি! তুমি বীরজননী । ) শূর। সেই তারা - বলেন । কি প্ৰভো | আমি যে অবাক হয়েছি। গুরু। যথার্থ মহারাজ ! তুমি বনবাসে লক্ষ নৃপতির ঐশ্বৰ্য্য ভোগ করুচ --রাণি ! দেখতে ইচ্ছা কর তোমার তারার কেমন অস্ত্ৰচালন কৌশল ? এস-আমার সঙ্গে এস। . লক্ষ্মী । চল মহারাজ দেখে আসি ।। ২ শূর। হরীতকী চাইলেন যে ? ७४लू । cन अछूिक नt, bल ggथ अनेि । (সকলের প্রস্থান ও বীণার পুনঃপ্ৰবেশ। ) { বীণা। প্ৰাণ যদি নর হতে চায়, কি ক্ষতি মা হ’ক না সে নারী ? পুরাতে সে অভিলাষ দুর্দশ করেছে, মায়ের যে এই দুর্দশ করেছে, - তার বুকে অস্ত্ৰ মাৰ্বতে কেন পারব না ? আমি । হৃদয় কঠিন করুব-প্রয়োজন হ’লে আমি আদিরের শারীর গায়েও আঘাত করতে কুষ্ঠিত হ’ব না । মা-মা ! গুরুদেবকে ব’লে দাও, আমাকে দিদির সঙ্গিনী করুন। } গুরু। আচ্ছা, তাই হবে মা ! এখন | একটি হরীতকী নিয়ে এস। . লক্ষ্মী। যা-ও ঘরের কোণের হাড়িতে আছে নিয়ে আয়। মা ! তুই ওর কথা শুনিস কেন ? মেয়ে-সে কোথায় যাবে? আর তারে । যদি ছুটে মন, সে ত করে না। দর্শন :- সে বাধা কেমন, তারে রাখিবে যে ধ’রে । , আত্মজ্ঞান থাকে না যে আর-অবলার | সে কোমল বুকে হয়গো মা শত শত । মাতঙ্গের বল ; তাই বলি তারা তোর 11 ছেলে। ওমা ! সে ছেলের বলে রণস্থলে । চূৰ্ণ হবে যবনের শির। দেখ, দেখ, রাজস্থান ভ’রে যাবে তারকার নামে। : গুরুদেব হরীতকী চেয়ে গেলেন কোথায় ? ? একি ! বাবা মাও ত নেই। : পাঠাবেই বা কে? যুদ্ধ করবার জন্য নারীর সৃষ্টি | হয় নি ; নারীর মহত্ব দেখাবার যুদ্ধ ছাড়া অনেক ' ' প্রস্থান ।