পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/১৭৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কমলা। ... এক নয় দুইজনে : দেখেছি কুমার। রণসাজে নারী, আর : বীণা সহচরী, এক নয় ;-এক রূপে । দুইটী ভগিনী । সঙ্গ। একি কথা শুনি-দেৰি ? ? রণসাজে বীণার ভগিনী ? : কমলা । ] বহু কথা বলিব তোমারে। বলিবারে হে কুমার নিত্য আসি বীণা সনে এ কাননে। এবে চল যাই তরুমূলে ; এখনি আসিবে । তব বীণা ৷ . . সঙ্গ । মোৱ বীণ !!--দেবি अछि cन अश्विग्नि । কমল । জীবন ফুলের তোড়া-স্তবকে স্তবকে আশা ফুল ফুটে তার শিরে-শুকাইয়া । যায়, কিন্তু পড়ে নাতি ঝ’রে I 牙鄂1( আর এক । কথা। যবে অনাহারে উদ্ধত অন্তরে - মাথা দিয়ে প’ড়েছিনু মরণের দ্বারে, । দয়াবতী অমিয় যচন সনে, নব । ! মোর বীণা প্ৰাণ দিয়ে, জীবন রাজত্বে এনেছিল।" | যাই চলে উচ্চৈঃস্বরে বলিল সারণ " “শুন-গুন রাণা বংশধর । শুধিবার বালিকার ধার।” । সকলি শুনিবে দেব! :

  • ঋণবদ্ধ বীণার জীবন! দগ্ধ বক্ষে

সুরধুনী করিয়া ধারণ, নয়ত্বের ২ সঙ্গ। বালিকার ধার! : . . (N . 'ኳ i . - আছ ? থাক যুবরাজ !== কেঁপে গেছে প্রাণ -একি হেরি ! কেন দেবি । | গেছে বহুক্ষণ। ਝੋ । করি কোলে-মহাঋণ শুধেছে ধরণী। কমলা। চল দেল ! বসি গিয়া তরুতলে। বীণা ৷ সঙ্গ । দেবি । জানি না কি ধন । দিয়ে কেনা ; কিন্তু জানি আমি ক্রীতদাস । কমলা । কথা রাখ-চল যুবরাজ ! ! সঙ্গ। ] ক্রীতদাসসুদ্ধ তার নয় ; বীণা যার-মোর বীণা ৷ আমার বলিয়ে যাবে করে সম্বোধন, । তার ক্রীতদাস আমি-সে যে ধন করে । উপার্জন, প্ৰভু যে সকলি পায় ; তবে - কি দিয়া শুধিব তার ধার ?-বীণা কেন, , আজ্ঞা কর দাসে দেবি —মরণে করিব । সখা-প্ৰাণ ভ’রে দিব তারে আলিঙ্গন। কমলা। অজ্ঞান যুবক ! তবে দেহপাতে কেন

  • ছুটে ছিলে ? ( হস্তধারণ)

আদরের ধন তুমি । ক্রীতদাস ! যতনে যাতনা বাড়ে-ভাবি ৷ যতন হ’ল না বুঝি মানের মতন। " ঋণ শোধ কেন দেব ! বিশ্বরাজ্য দিতে । ! পার তারে। এ হৃদয় মন্দারের শীত ছায়াতলে ক্ষুদ্র বালিকায় দিও স্থান । , মহাবাহুপাশে বেড়ি, বিপুল উরসবৰ্ম্মে দিয়ে আচ্ছাদন, ক্ষুদ্র বালিকার রেখ’ প্ৰাণ। কহেছে প্ৰাণের কথা-দেব। মিথ্যা কথা কহেনি। সারণ । সেই ক্ষুদ্র বালিকার বুকে সহস্ৰ বাণের লেখা সেই ক্ষুদ্র বালিকার চ’খে আছে ভরা সাগরের জল। যদি সে লেখা মুছা'তে। পাের, সে জল শুখা’তে পাের, তবে, চির ঋণ পাশে দেব বাধ বালিকায়। । চল সাথে-বড়ই অধীরা বালা-যাদি |