পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/৪১১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তাঁজ। বোধ श्याः कूाँ বাপ,~ দেখছি তুমি রণক্লান্ত-আমার কোলে উঠে পিতার অনুসন্ধান কর। ; বাহা । কে ड्रंभेि ? আদিল। আমরা তোমার পিতার প্রজা, র্তার অবৰ্ত্তমানে তোমার ; সুতরাং আমরা | তোমার পরিচারক পরিচারিকা। এস সাজাদা আমরা সকলে মিলে তোমার পিতার অনুসন্ধান করি। - [ সকলের প্রস্থান । তৃতীয় দৃশ্য। আমেদনগর প্রাসাদ । দেলাওয়ার । ( নেপথ্যে রণকোলাহল ) , দেল। ওরে কে আছিস ? রণকোলাহল যে প্ৰবল। কে আছিস আমায় অস্ত্ৰ দে । রাজা গেল-বুদ্ধের ওপর মহল রক্ষার ভার দিয়ে গেল। বুদ্ধবীরের যোগ্য ভার। কিন্তু মহলের পথ ভুলেছি। এস। আমেদনগরে সাতজন রাজার উখন পতন . ... ۲ . لیا . . j' . l ..' . . . . i ዶ ... . ' ... - | আমার চোখের উপর দিয়ে চলে মিলিয়ে গেল। : আমারই সম্মুখে, আমার তীব্র “আক্রমণের ফল । স্বরূপ, বিজয়নগর ধ্বংস হ’ল-বেরার আমেদনগর । डूङ श्ल-6गशे अभि कि 6उन्ने यनशार्थ८य রমণীতেও কোন সাহায্যের প্রার্থনায় আমার ! কাছে আসে না ? বেশ, কেউ আমাকে সাহায্য করতে না চায়, আমি নিজেই নিজের সাহায্যে। অস্ত্র ধরি না কেন ? ওরে কে আছিস, অস্ত্ৰ দে ? একি মা ! তুমি এখানে এরূপভাবে ছুটে ५éळ 6न ? ན་ ( মরিয়মের প্রবেশ ) } । মরি। আপনি যে অস্ত্ৰ চাইলেন খানখানান । দেল। তা তুমি কেন এলে মা ? ? মরি। আরত কেউ নেই। : দেল ; কেউ নেই ? মরি। কেল্লার চারিদিকেই আক্ৰমণ, সমস্তদিক রক্ষা করতে পারে এত সৈন্য কেল্লার ভেতরে ত নেই। কাজেই মহলরক্ষী সমস্ত । মালিক রাণী থেকে আরম্ভ করে একটা বাদী খোজা এমন কি রমণী পৰ্যন্ত কেল্লা বাঁচাবার পৰ্য্যন্ত আমার সাহায্যের প্রত্যাশা রাখলে না ! অপেক্ষায় অপেক্ষায় বসে রইলুম, সকাল থেকে সন্ধ্যা পৰ্যন্ত ঘণ্টা শুনলুম, তবুত কেউ আমায় ডাকলে না ! সকাল থেকে সন্ধ্যা পৰ্যন্ত কেল্লার । বাইরে গগণভেদী চীৎকার-সকাল থেকে সন্ধ্যা । পৰ্য্যন্ত কামানের মুহুমুই গর্জন-অথচ আমি | গৃহরক্ষী-সংবাদ জানিবার জন্য ব্যগ্র হয়ে বসে | S S AA SMS MqSqSqq SSSSSSSLSSSDSSS অস্ত্র নিন। আমি চললুম। : আছি, কিন্তু কোথায় যে কি হচ্ছে, কেউতে কিছু এসে বললে না ! এরা কি আমাকে এতই নিবীৰ্য্য মনে করেছে ? পোনের বৎসর বয়স থেকে আরম্ভ করে তিন কুড়ি বৎসর আমি । যুদ্ধব্যবসায়ী পাঠান—এই ষাট বৎসরে আমি ৷ বার অনেক লড়াই হয়ে গেছে। জন্য লড়াই করতে গেছে। । দেল। তুমি এক আছ ? : মরি। তাও আমি আছি কই-পশ্চিম ফটকেই ভয়ঙ্কর যুদ্ধ-কিন্তু কে যুদ্ধ করছে।-- কার সঙ্গে যুদ্ধ করছে জানতে পারছি না। ’ আমি প্রাসাদের সর্বোচ্চ ছাদে উঠে তাই দেখতে চলেছি। এই নিন খানখানান। আপনার | দেল। হায়রে নদীব। কোন ফাকে তুমি । भांनवन्नाएँ कि ओप्ल् कहा, डांडा किछूछे বোঝবার যো নেই। আমেদনগরে অনেক . . ,