পাতা:অনাথ আশ্রম - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/৪৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মহে। তুমি, আবার কে ? তোমাকে । আমি আশ্রমে এনে কি না সৰ্ব্বনাশ করলুম! : সৰ্ব্বাণী। আমি । মারলুম দিদি ? ' ' মহে । শোকের গান গেয়ে মেরে ফেললে। অামার বুকে শেল নিক্ষেপ করলে! আমার এ || 0 আনন্দ-কানন । আনন্দময়ী আকাশ-গঙ্গার ; প্রবাহে ভেসে এসে আমার এই সমস্ত প্রিয় ! DBDDSLL SDDLDB KKSL0LLSOL S BBDT আনন্দসুধা পান ক’রে তারা প্ৰফুল্ল । সামান্য তুণগাছটা পৰ্যন্ত আনন্দ-কেবল আনন্দ- } সকালে সন্ধ্যায়, দিবাসু নিশায়ু, কেবল আনন্দ পান ক’রে বেঁচে আছে—তাদের তুমি কি না । শোক-সন্তপ্ত করে মেরে ফেললে! আমার এতদিনের সহচরী, অকালে শোক বিদলিত । হয়ে কিনা মরে গেল! সৰ্ব্বাণী । তাহলে আমি কি ক আর কি তারা বঁচিবে না ? মহে । বঁাচে, এখনও বঁাচে-যদি তুমি তানন্দ সঙ্গীতে এই কাননভূমি পূর্ণ করতে পাের, তা হলে এখনও বঁাচে । বিলম্ব করলে কিন্তু আর বঁচিবে না । সৰ্বাণী। আনন্দ ? আনন্দ কেমন করে করব ? প্ৰাণে আমার বড় যাতনা । মনে আমার বিষম ভয়, আমি কেমন ক’রে আনন্দ করব দিদি ? s | ॐ* षांघ्रिं ।। ऊब्ज-- বুলুম ! | | তখনও যদি বাগানের এই অবস্থাই দেখি, । তাহ’লে আর আসব না। [ প্ৰস্থান ( নেপথ্যে শৈলেশ্বর ও গোবিন্দ ) । শৈলে। জল—জলী- জল-পিপাসায় । গোবিন্দ। সুন্দরি ! শীঘ্ৰ দাও । শৈলে। তৃষ্ণায় প্ৰাণ যায়। জীবন রক্ষা : কর-সুন্দরী জীবন রক্ষা কর । সৰ্ব্বাণী। এ্যা-জল ! কে চাইলেকে কথা কইলে ? তরু ! তুমি ? লতা ! তুমি ? তোমাদের আমি তৃষ্ণাৰ্ত্ত করে, মেরে ফেললুম! আনন্দ ! এস আনন্দ ! কোথা আছি-এস. এসে আমার হৃদয় পূর্ণ করা। আনন্দ ! আনন্দ ! [2 || যদি জল নিকটে থাকে । উভয়ে । জল-জল । (শৈলেশ্বর ও গোবিন্দের প্রবেশ ) { শৈলে। আনন্দ ! আনন্দ ! তৃষ্ণায় কণ্ঠা- ৷ গত প্ৰাণ আমি ৷ একফোটা জলের কাঙ্গালী আমি-নিষ্ঠুরে । শুনে তোমার আনন্দ ! ফিরে চেয়ে দেখলে না । আর কেন সখা ঘরে যাও, আমার জীবন শেষ । [ শয়ন । গোবিন্দ। কি হল ! রাজকুমার !! রাজকুমার । জল-জল - ঐ জল । আমার স্কন্ধে ভর দাও । ঐ দুরে অপূৰ্ব্ব সরোবর-ঐ | দেখুন প্রস্ফুটিত কুমুদ-কঙ্কলার-ঐ দেখুন। নীল- | মহে। তা আমি কেমন ক’রে জানিব ? ? যদি আমার গাছগুলি পুনরুজ্জীবিত করতে চাও, তাহ’লে যেমন ক’রে পার, আনন্দ কর । , আমাৰু কথা শোন, আমার অনেক যত্নের রচিত । উষ্ঠান। যদি তোমা হতে এ বাগান মরুভূমে । পরিণত হয়, তাহলে আমি আর আসব না। । আমি এখন চলুম। সন্ধ্যায়। আর একবার ফিরব । ) জলে সঞ্চরমান শ্বেত শতদলের ন্যায় লীলামুখর রাজহংস, আসুন রাজকুমার-উঠুন রাজকুমার ! মুহূৰ্ত্তের জন্য সবলে জীবন ধারণ করে উঠে শৈলে । মরীচিকা-মৰীচিকা ! : গোবিন্দ। রাজকুমার! রাজকুমার। - ! তাইত কি হল । রাজকুমার। অনন্ত ঐশ্বর্ঘ্যের