প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/১০৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


So 8 অন্ধকারের আফ্রিকা তারা যাচ্ছে নিকটস্থ একটি গ্রামে। সেখানে মিশনারীদের পরিচালিত স্কুল আছে এবং সে স্কুলে থাকবার এবং খাবারের বন্দোবস্তও আছে । তাদের বাবা তাদেয় শিক্ষা এবং খাবার থাকবার প্রত্যেকের জন্য বৎসরে পচিশ পাউণ্ড করে দেন, ছুটতে উভয়ে মিলে তাদের মা বাপকে দেখতে গিয়েছিল । ফিরে আসবার সময় তাদের বাবা ছেলেটিকে দশ শিলিং এবং ছোট ছেলেটিকে পাচ শিলিং দিয়েছিলেন। ছোট ছেলেটি পাঁচ শিলিং কোথায় হারিরে ফেলেছে সেজন্য ছোট ছেলেটি বড়ই দুঃখিত ছিল। জিজ্ঞাসা করে জানলাম এই সামান্য অর্থ খরচ করে সারাটি বৎসর তারা মিঠাই কিনে খাবে। তাদের অবস্থা শুনে মনে হল, তাদের পিতা উপযুক্ত ব্যবস্থাই করেছেন। নিগ্রো স্ত্রীর গর্ভজাত ছেলে কোনমতেই ইউরোপীয় ষ্টেটাস্ পেতে পারে না। অতএব তাদের নিগ্ৰো আচারব্যবহার অভ্যাস কৱাই উচিত । বড় ছেলেটি আমাকে পরিষ্কার করে বলল, তার বড় ইচ্ছা ছিল ইউরোপ গিয়ে লেখাপড়া শিখে এবং ইউরোপে সে বাস করে, কিন্তু স্থানীয় আইন তাকে ইউরোপে বাস কক্সবার অধিকার দিচ্ছে না, ইউরোপীয় জনগণও তাদের মত লোককে মানুষ বলে স্বীকার করতে রাজি নয়। এরূপ অবস্থায় সে তার ভবিষ্যৎ কর্ম জীবন। এরই মাঝে স্থির করে নিয়েছে। আমি উৎসুক হয়ে তাকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম ; তার সেই ভব্যি্যুৎ কর্ম পদ্ধতিটা কি হবে ? সে বলেছিল, “যদি বেঁচে থাকি তবে আফ্রিকার কালো জাতির যাতে উন্নতি হয় তারই জন্য জীবন নিবেন্ন করে রেখেছি। আমি নিগ্ৰোই আর কিছু নই। আমার ধাম নাই, আমার” আর কোন কাজ নাই শুধু নিগ্রোদের মানুষ করা হবে আমার কম জীবন।” উত্তেজনা এবং উদ্দীপনা পূর্ণ কথায় আমায়,