প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/১১৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छनळ९} , SSo) ডকে লাগবার পর থেকেই আখি মাছের খেলা মন দিয়ে দেখছিলাম । এদিকে নিগ্ৰোযাত্রীরা তাড়াতাড়ি করে জাহাজ হতে নেমে পড়ল। কেউ তাদের একটা কথাও জিজ্ঞাসা করল না। সমুদ্র-তীরের বন্দরগুলিতে ডেক প্যাসেম্জারদের উপর অত্যাচার হয় বেশি। এখানে তার বিপরীত। নিগ্রোরা জাহাজ হতে নেমে যাওয়ার পর একজন বৃটিশ অফিসার এসৈ বিদেশী যাত্রীদের পাশ পোর্ট দেখতে লাগলেন। বিদেশী যাত্রীদের মধ্যে একজন ইউরোপীয়ানও ছিলেন । সেই লোকটি কাস্টম অফিসারকে সুপ্রভাত 'বলমাত্র অফিসারও তাকে সুপ্ৰভাত বলে করমর্দন করলেন । তারপর পাসপোর্ট শিল মোহর করে তঁকে বিদায় দিলেন। আমার মনে হল লোকটি জামান হবে। জামানরা বৃটিশের অনেক দিনের শত্ৰু । কিন্তু বৃটিশ অফিসার যেভাবে তার সংগে সৎব্যবহার করলেন তাতে বুঝলাম “বৃটিশ” শক্তিশালী শত্রু র সংগে সৎব্যবহার করে। তারপরই আমাদের পালা । আমার পাসপোর্ট পরীক্ষা করতে দেরী হল না। কারণ আমি এদেশে থাকতে আসিনি। উপরন্তু আমার সংগে পর্তুগীজ, পূর্ব আফ্রিকায় প্রবেশেরও আদেশপত্র ছিল । আমারই সংগের অন্য তিন জন ভারতবাসীকে বৃটিশ অফিসার নানারূপ প্রশ্ন করে ব্যতিব্যস্ত করে তুলেছিলেন।* অবশেষে তাদেরও ন্যাসাল্যাণ্ডে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়েছিল । এদের অবস্থা দেখে মনে হচ্ছিল, সাম্রাজ্যবাদী বৃটিশের 2ष् ब হন্মে, শক্র হলেও, বন্ধু হওয়া যায়। প্ৰজা হলে শুধু পদাষােতই cश्रद्ध ईश्व। ‘ীরে অবতরণ করে আমি লছমন নামীয় একজন লৱী ড্রাইভারের ঘরোয় খোজ করতে লাগলাম। অতি অল্প সময়ের মাঝেই می