প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/১৩০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মৃত্যুাসালেণ্ড a SRG তাদের প্রত্যেককে পরিত্যাগ করেছে বলেই বোধ , করি এদের মাঝে এত বন্ধুত্ব আপনা থেকেই গড়ে উঠেছে। লিম্বীসহঁর দেখবার মত কিছুই ছিল না, সেজন্য সেখানে দুদিন থেকেই আমি “পোর্ট হেরােন্ড”- এর দিকে রওয়ান হই । ” অনেকে আমাকে বলেছেন, “দেখুন মশায়, আপনার ভ্রমণকাহিনীতে যে সকল স্থানের নাম থাকে ম্যাপে তা পাওয়া যায় ন৷ ” কথাটা অতীব সুন্দর এবং সরলতায় পূর্ণ। এ কথাটার উত্তরে আমি বলব, “বিদেশ সম্বন্ধে আমাদের দেশের লোকের অতি সামান্য জ্ঞান থাকার জন্য, আমাদের এই দুর্দশা। আমাদের দেশের বা দেওয়াল পনর্জীতে দেবদেবীর ছবি থাকে, রাষ্ট্র নায়কদের ছবি থাকে, কিন্তু জাপানে, তুৰ্কীয়ায় এবং বর্তমানে ইরানের দেওয়াল পাৰ্জী দেশবিদেশের ভৌগোলিক তথ্যে সমৃদ্ধ থাকে। লোকশিক্ষা দেবার এটাও একটা প্ৰকৃষ্ট উপায়। জাপানে দেওয়াল পন্যজী নাই বললেও চলে, কিন্তু লোকশিক্ষা দেবার জন্য জাপানীদের পাইখানায়ু বিদেশের মানচিত্র সম্বলিত দেওয়াল পাঞ্জী এবং দুর্গন্ধ নাশের জন্য এক প্রকারের সাবান থাকে। যারা জাপানে জাপানীদের ঘরে থেকেছেন তারাই এই সত্য জেনেছেন । বিদেশের শোক শিক্ষার্থে নানারূপ উপায় উৎভাবন করে, আর আমরা গণেশ ঠাকুরকে জ্বল দিয়ে ভাগ্য ফেরাতে চাই, সরস্বতীকে ফুল দিয়ে জ্ঞানার্জন করতে চাই, সেজন্যই আমার ভ্রমণ কাহিনীর স্থানগুলির মুমি সকলে ম্যাপ খুলেঃ দেখতে পান না ।” আৰ্জকে আর একটি স্থানের নাম বলছি, সেই স্থানটির নাম চলি * পোর্ট-হেরােন্ড। পোর্ট শব্দের অর্থ বন্দর। কিন্তু যেস্থানে পোর্ট হেমন্ড অবস্থিত তার আশে পাশে কোথাও জল নাই প্রকৃত পক্ষে স্থানটি