প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/১৩৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Xềbr r অন্ধকারের আফ্রিকা গরম দুধ বিক্রি কুল। আমারই মত অনেকে গরম দুধ এবং ঘিয়ে ভাজা রুটি খেল * খাওয়া হয়ে গেলে, একটি নিগ্রোকে জিজ্ঞাসা করলাম-“এখানে বিশ্রাম করার স্থান কোথাও আছে ?” একটা লোক খালি মেজে দেখিয়ে বলল, “এতেই শুয়ে থাক।” লোকটিকে কিছু না বলে সাইকেলখানা ঘরের সামনে এনে পিঠ-ঝোধা হতে একখানা উত্তম কম্বল বের করে তাই মাটিতে বিছিয়ে শুয়ে পড়লাম। ভূমি শয্যা, আর ভূমিতে বসে থাওয়া' মাহ্মাতার যুগের সভ্যতা। যদিও নিগ্রোরা টেবিল চেয়ার ব্যবহার করতে শিখেছে। তবুও তারা এখনও চৌকী ইত্যাদি ব্যবহার করতে শিখেনি। মাচাং তৈরী করা তারাও জানে তবে মাচাং এর ব্যবহার খুব কমই করে। আমৱা চৌকী অর্থাৎ তত্তেফ্লগপোষা ব্যবহার করেই ভাবি বেশ সভ্য হয়েছি, আমাদের আর্থিক উন্নতি বেশ হয়েছে আসলে আমরাও কিন্তু সভ্যতার চত্ব প্রশ্ন উঠতে পারিনি । কতক্ষণ বিশ্রাম করার পর হঠাৎ একখানা মোটরের শব্দ শুনে পথের পাশে গিয়ে দাঁড়ালাম । দেখলাম একখানা মোটরবাস আসছে। ইচ্ছা হল না। আর সাইকেল চালিয়ে অগ্রসর হই। মৈাটর চালকের সংগে ঠিক হল সে আমাকে Rail Head পোর্টহেরান্ডে পৌছে দেবে এবং সেজন্য পাচ শিলিং নেবে। আমি তৎক্ষণাৎ সাইকেলখুনা নিয়ে এসে বাসের পেছনে বেঁধে ফেললাম এবং সামনের দিকে সিটে গিয়ে বসলাম । 酸 • বাস ছেড়ে দিল । লক্ষ্য করে দেখলাম নিগ্রোদেয় মনে কোনরূপ কুসংস্কার ঢুকেনি। তারা কেউ ঠাকুর দেবতার নাম করে লম্বা ভ্ৰমণ নির্বিঘ্নে সম্পন্ন হয়। সেজন্য প্ৰাৰ্থনা কয়ল না। গাড়ীখানা বেশ