প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/১৩৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ন্যাসালেণ্ড ܘܧܠ ܐ গেলে বয় আমাকে জিজ্ঞাসা করল ছুৎমাৰ্গ মানে কি হয় জানতে চাই, বানা । আমি তাকে সংক্ষেপে বললাম “এটাও বর্ণবৈষম্যেরই একটা অংশ৷ ” বয় চলে গেলে নিজেকেই ধিক্কার দিতে লাগলাম। সত্য কথা বলবারও যে সাহস ক্লামে গেছে ? প্ৰতিজ্ঞা করলাম “এরূপ মিথ্যা কথা আর বলব না।” কেপ টাউনে যাবার পর আর্গস নামক এক সংবাদপত্র আমার সত্য কথা বলার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে আমাদের দেশের বিরুদ্ধে এক প্ৰকাণ্ড প্ৰবন্ধ লিখেছিল । আমি তার প্ৰতিবাদ জানিয়েছিলাম এবং বলেছিলাম। এটাও সাম্রাজ্যবাদেরই একটা অংশ। এই মারাত্মক ব্যাধি যাতে করে পৃথিবী হতে লোপ পায় তারই চেষ্টা করা উচিত। আর্গাস তা না করে, ভারতেঁর কুপ্ৰথাকে৷ ” ঘুরিয়ে ফিরিয়ে সাহায্য করেছিলেন। পরে পুনরায় প্রতিবাদ করে বলেছিলাম, এ সব বদখেয়ালীর জন্যই সোভিয়েট রুশ সাম্রাজাবাদী মতবাদে দুষ্ট এবং পুষ্ট সংবাদপত্রের রিপোর্টারদের তাদের দেশে স্বাধীনভাবে বেড়াতে দেয় না। আর্গাস আমার পত্র ছাপিয়ে ছিলেন। বৃটেনে কিন্তু সেরূপ প্ৰতিবাদপত্র ছাপানো হয় না। বৃটেনে যাবার পর সেরূপই একটা ঘটনা ঘটেছিল এবং তার প্রতিবাদও করেছিলাম। কিন্তু আমার কথা কেউ শুনে নি । ঠিক বোলা তিনটার সময় আমরা বৃটিশ সীমান্ত পার হয়েছিলাম। f ভেবেছিলাম। এবার অশ্বেতকাররা ডাইনিং কারে গিয়ে খেতে পাবে। কিন্তু তা হতে পারল না। এই রেলগাড়ী বৃটিশের। বৃটিশের রেলগাড়ী পর্তুগীজদের দেশে গেলেও কালার-বার নিয়মটি বজায় রেখেই চলে। পর্তুগীজ পূর্ব আফ্রিকাতে বৰ্ণ বৈগম্য নেই বলেই ঘোষণা করা হয়, কিন্তু সেখানে যাবার পর যা দেখলাম তাতে মনে হয়েছিল, কালোয় আর পােদায় সহজে মিশ থাবে না ।