প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অন্ধকারের আফ্রিকা যারা অত্যাচারিত হয়েছিল, তারাও মুসলমান। ভারতবাসী তুমি যে সাজে সাজ তাতে ক্ষতি নাই তুমি শুধু ভারতবাসীই। তোমাদের দুঃখে৷ আমার দুঃখ হবেই। জাহাজে পেম্বা দ্বীপের একজন ভারতীয় বাসিন্দাও ছিলেন। তঁর কাছ থেকে পেম্বা সম্বন্ধে যা শুনেছিলাম। তাই লিপিবদ্ধ করলাম । পেম্বা দ্বীপে যে কয়টি ভারতীয় পরিবার ব্লাস করত তারা সকলেই মুসলমান ধমাবলম্বী এবং জাতে গুজরাতী। তারা সকলেই লবংগের ব্যবসা করত এবং তাদের নিজেরও গবাগের বাগিচাও ছিল। কোন যুগে যে এরা লবংগ ব্যবসা করতে পেম্বা দ্বীপে গিয়েছিল তা অনেকেই ভুলে গিয়েছিল। অনেকে তাদের মাতৃভাষা গুজরাতীও বলতে পারত না । ভারতবাসী, তুমি তোমার মাতৃভাষা ভুলে যাও, তুমি অপরের ধর্ম গ্ৰহণ কর। কিন্তু তুমি ভারতবাসীই, আরব তোমাকে কখনও মুসলমান বলে ডাকবে না তোমাকে হিন্দিই বলবে। পেম্বাতে তার নমুনা আরবগণ দেখিয়েছিল। আরবগণ সর্বপ্রথম বলতে আরম্ভ করছিল, পেস্থার আসল বাসিন্দা আরব, অতএব হিন্দিরা পেম্বার ন!ঙ্গ করবার অধিকার পেলেও লবংগ ব্যবসা তারা কোন মতেই ৰূঃ ত পারে না। আইনের প্রণেতা এবং আইনের দণ্ডমুণ্ডের কৰ্ত্তা ছিল বৃটিশ। লবংগ ব্যবসা হতে যদি ভারতবাসীকে উচ্ছেদ করতে হুয়, তবে আইনমতে উচ্ছেদ করা যায় না। শক্তির ব্যবস্থা করতে হয়। শক্তির ব্যবহারও আইনমতে নিষিদ্ধ। তবে কি করে ভারতবাসীকে লবংগ ব্যবসা হতে উচ্ছেদ করা যায়? সাম্রাজ্যবাদী বৃটিশ সে উপায় ভাল করেই জানত। সেই উপায়টি হ’ল দাংগা বাধিয়ে দেওয়া । আরবগণ পেম্বার ভারতীয় মুসলমানদের আক্ৰমণ করে অনেকের তিন পুরুষের নির্মিত বাসগৃহ উৎখাত করে দিল । পুলিশ বােধ হয়। পেস্বত্ব ছিল