প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/৩৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ՏԵ : অন্ধকারের আফ্রিকা এবং সেজন্য সে বার বার দীর্ঘনিশ্বাস ফেলছিল তবুও আমার মনে হচ্ছিল লোকটি সুখী । সে আমাকে সমুদ্রতীরে নিয়ে গেল। এদিকে লোকের বসতি নাই। শুধু সেই-ই থাকে। তার ঘরখানা সমূদ্র হতে একটু দূরে। সমুদ্রের বড় বড় ঢেউগুলি অমাবস্যা, পূর্ণিমা এবং একাদশীতে ঘরের দরজা পর্যন্ত আসে। এদিকে বান ডাকে না, সেজন্যই কোন বিপদের সম্ভাবনা ছিল না । তার ঘরখানা একতলা এবং চারকোণা ।। ঘরের ভেতর তিনখানি রুম এবং প্রত্যেকটিই রুম সজ্জিত। ঘরের দেওয়ালে কোনরূপ ছবি ছিল না, তবে বড় বড় কয়েকটা মাছের কঁটা কুলান ছিল। ঘরখানা শান্তিপূর্ণ এবং পরিষ্কার। প্রত্যেকটি রুমে একটি করে লোহার খাটিয়া এবং তার উপর জাজিম দিয়ে বিছানা করা ছিল। তার একটি গৃহরক্ষিণী ছিল। আমাদের যাওয়া মাত্র গৃহরক্ষিণী উন্থনের কাছে তিনখানা কৰ্মফর্ট চেয়ার এনে দিল । সে নিজে একখানা চেয়ারে বসে আমাকে বলল “তুমি কি কিছু খাবে?” খেতে আমার আপত্তি ছিল না। গৃহ:"ক্ষৈণী তিন পেয়ালা কাফি এবং কতকটা মিষ্টি এনে দিলা । মিষ্টি এবং কাফি খাবার সময় লোকটির পাকঘরের দিকে লক্ষ্য করে দেখলাম, এঘৱে সবই আছে। অথচ দেশী ভায়া পথে দ্বাড়িয়ে মাছ এবং পাপড় ভাজা বিক্রি করছিল। জিজ্ঞাসা করে জানলাম যাকে গৃহরক্ষিণী বলে পরিচয় করে দেওয়া হয়েছিল। সেই প্রকৃতপক্ষে গৃহের রাণী আর ইনি হলেন চাকয়। নিগ্রেী রমণী এত বুদ্ধিমতী হয় তা আমার ধারণা ছিল না। নিগ্রেী রমণী প্রায়ই উদ্ধৃঙ্খল এবং অলস হয় এই ছিল আমার BDuDSSiDS g DSDB BDBK DBBBD D LiBD BDD গেল।