প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/৪৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8° 河 অন্ধকারের আফ্রিকা একটা লিষ্ট করে নিয়ে যুবকদের জিজ্ঞাসা করলাম তারা আরও আগিয়ে । যাবে কি না ? কেউ আগিয়ে যেতে রাজি হল না। যুবকগণ বন দেখে ভয় খেয়ে গিয়েছিল। ভয় ইবাৰু কথাই, কারণ শহরবাসী ছেলে এই প্ৰথম বনে আসছে। 翰 দ্বার-এ-সেলামে অনেক ধনী ভারতবাসীর বাস। ঐ ভারতবাসীদের তিন শ্রেণীতে বিভক্ত করা যেতে পারে। গুজরাতী, পান্‌জাবী এবং হিন্দুস্থানী ; গুজরাত্রীদেরই সংখ্যা শতকরা নব্বই জন আর বাকি দশ হ’ল পান্‌জাবী এবং হিন্দুস্থানী। গুজরাতীদের মাঝে নানা শাখা আছে যেমন বেনে, ইস্নেসেৱী, খোজা, ইসমাইলী খোজা, সুন্নি, বোরা এবং অন্যান্য । ৬. বিদেশে এসেও এরা নিজেদের ছোট খাটো প্ৰভেদ ভুলতে সক্ষম হয় নি। চোখের সামনে দেখছে আরবি ভারতীয় মুসলমানকে অবহেলা করছে এমন কি পারলে অবমাননা করছে তবুও ওদের মাঝে আরবপ্ৰেম লেগেই আছে। হিন্দুরা কিন্তু এ হিসেবে অনেক উপরে গিয়েছে। স্থানীয় নিগ্ৰোৱা এখনও ধমকে শ্ৰেষ্ঠ স্থান দেয় না, সেজন্যই বোধ হয়। ভারতবাসীর বিরুদ্ধে তারা এত তাড়াতাড়ি জনমত গঠন করতে সক্ষম হয়েছে। নিগ্রো, আরব, গ্ৰীক এবং অন্যান্য ইউরোপীয় জাত ভারতবাসীর বিরুদ্ধে ক্ৰমেই এমন একটি মনোভাব গড়ে তুলছে যার ফলে এদেশেও ভারতবাসীর ভবিষ্ণুতে টেকা কষ্টকর হবে। সুখের বিষয় এখানে কতকগুলি ভারতবাসী একটা ‘কমন ফ্রন্ট’ তৈরি করেছে । তারা DBBD DLDDB DBBDB BYKSS MBLBBS BDBY D DLDB DDD এবং পথ বদলিয়ে বসবাস করে তবেই ভারতবাসী টাংগানিয়াকা এলাকায় স্বাস করতে পারবে, নতুবা শুধু পদাঘাতে ভারতবাসী বৃটিশ পূৰ্ব-আফ্রিকা পরিত্যাগ করতে বাধ্য হবে ।