প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/৬৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


なb〜 অন্ধকারের আফ্রিকা বলল। আমার স্বান হয়ে গেলে তারাও মান করল । তারা সস্ত্য জগতের প্রথামতে নেংটিা হয়েই স্নান কয়ল। নেংটি হয়ে স্নান করাটাকে আমি সভ্যতার একটা অংশ • বলেছি { নেংটি হয়ে স্নান করতে হলে ঘরের ভেতরই স্বান করতে হয় এবং সেজন্য স্নানাগার বলে একটা কুঠুরিও তৈরি করতে হয়। আমরা এত হাংগামায় যেতে চাই না। বলেই গামছা পরে পুকুরে ঝাঁপিয়ে পড়ি। আমাদের স্নান হয়ে গেলে প্ৰত্যেকে এক একখানা লুংগি জড়িয়ে বিছানায় বসন্সাম এবং একজন অপরের শরীর হতে ডুডু পোকা বের করে তা আগুনে নিক্ষেপ করতে লাগিল । আমার শরীর হতে সেদিন পনর হতে কুড়িটা ডুডু পোকা বের করা হয়েছিল । ডুডু পোকা নখের কাছেই সাধারণত হয়। ডুডু পোকা ধ্বংস করে, আবার গরম “জলে হাত পা ধুয়ে তাতে পটাসিয়াম পারমাংগানেট বেশ গাঢ় করে গুলো ক্ষত স্থানে লাগিয়ে দিলাম। এতে অনেকক্ষণ হাত পায় জ্বালা কম্বুল কিন্তু তাতে উপকার হ’ল। গ্রামের নাম কিলিম তিন্দ্ৰি। গ্রামটা ছোট এবং গুন্দর। গ্ৰীক ধরণে গ্রামের অবস্থিতি { গ্ৰাম হতে দূরে নিগ্রোদের বাস। এ অংচলের নিগ্রোরা চুরি করে না। তারা বড়ই মিতব্যয়ী এখং অতিথিপরায়ণ । দুঃখের বিষয় এখনও ভারতে নিগ্রো প্ৰথামতে অতিথিসেবা হয় না। অতিথির মত এবং পথের সন্ধান নেওয়া হয়। নিগ্রেীরা সেরূপ কিছু জানতে চায় না। আমরা ইণ্ডিয়ানদের সংস্পৰ্শ পরিত্যাগ করে নিগ্রোদের গ্রামে চলে যেতে বাধ্য হলাম, ধারণ এখানকার ইণ্ডিয়ানৱা একজন LBBDBBuD LLDD LLDD SKDDLD BBBBDBD L tt SDD ঘরের ভাড়াও দিলাম না। নিগ্রে গ্রামে যাবার পর আমরা সুখেই