প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/৭৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


y অন্ধকারের আফ্রিকা এবং ইউরোপীয়ানদের কাছে কন্যা দান করতে পারলে কন্যার পিতা মাতা সুখী হয় এবং গ্রামের লোক বরকে নানা রকমের সুবিধা দিয়ে থাকে। আমার কথায় বেশ কাজ দিয়ে ছিল । বিদেশীর সংগে সাময়িক বিবাহ প্ৰথা সে গ্রাম সে • দিনই প্ৰচলিত হয়েছিল। সাময়িক বিবাহ প্ৰথাই নিগ্রোর মেনে চলে কায়ণ তাদের ভূমি সম্পত্তির মালিক স্ত্রীলোকই হয়। 赣 টাবোরা হতে রেলগাড়ীতে করে ফের ডুডুমা আসি এবং বেণে মহাশয়ের বাড়িতে পুনরায় খাবারের বন্দোবস্তু করি। এখান থেকে আমার সার্থীরা পূর্ণ উদ্যমে আমার সংগে থাকতে আগ্ৰহ প্ৰকাশ করে, কারণ তাদের গন্তব্য স্থান হ’ল জ্যাহোন্সবার্গ। সেখানে গিয়ে তারা সোনার খনিতে কাজ করবে । দুঃখের বিষয় এদের সংগে আমি ইরিংগা পৰ্যন্ত যেতে সক্ষম হয়েছিলাম । ইরিংগাতে পৌছার পর আমার শরীর ভেংগে যায় এবং দুই সপ্তাহের বিশ্রামের দরকার श्श्च । ডুডুমা হ'তে ইরিংগা ৩৩৭ মাইল। এ পথে লোকালয় অতি অল্প । বন, জংগলও বেশি নয়। উচু ভূমি। রাত্রে বেশ শীত অনুভব হয়, সকাল বিকালে কনকনে ঠাণ্ড বাতাসে শরীর অবশ করে আনে। দুপুর বেলার রোদ অসহ্য হয়। এরূপ আবহাওয়ায়ুক্ত স্থানে চলা কষ্টকর। প্ৰথম দিন আমরা একটি গ্রাম পেয়েছিলাম। গ্রামের লোকের সংগে আমাদের দেখা হয় নি। তাদের ঘর খুঁজে একটুও খাদ্যদ্রব্য পাওয়া গেল না। এমন কি কাছে কোথাও জল আছে বনু মনে হল না। বিকালের দিকে কতকগুলি বন্ত লোক এসে আমাদের ঘেরাও করে এবং সিগারেট চায়। জল এবং খাদ্যের বিনিময়ে আমরা সিগারেট দিতে রাজি হলাম। তারা অামাফের