প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/৭৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অরণ্যে ଦ୍ବିର୍ଭୂକ୍ତ পথ দেখিয়ে তাদের গ্রামে নিয়ে যায়। গ্রাম পথের বহু নীচে অবস্থিত। কষ্ট করে গ্রামে পেঁৗছে দেখি, গ্রামের পাশ দিয়েই সুন্দর একটি ছোট নদী বয়ে যাচ্ছে। তাতে গ্রামের সকলে নেংটিা হয়ে স্বান করছে। এত শীতে এরা কি করে স্নান করে তা বুঝবার জন্য জলে হাত দিয়া দেখি সে জল ঠাণ্ড নয়, সামান্য গরম | এরূপ জ্বলে স্নান করতে বেশ আরাম লাগে । টাবোৱাতে আমার লেকচার, সাথীরা শুনেছিল । আমি যখন নেংটি হয়ে স্বান করতে জলে নামালাম--তখন আমার সার্থীয় গম্ভীর’ হয়েই থাকল, হাসল না। নদীতে জল অল্প ছিল । কয়টি ছেলে আমার পিঠ বেশ ভাল করে। মাটি দিলে পরিষ্কার করে দিল । একটি মেয়েও আঁামার কাছে আসল না দেখে বুঝলাম স্ত্রীলোকয়া তাদের মনকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে এবং তাই হল তাদের প্রথম নম্বরের স্ত্রীধৰ্ম । যাদেরকে আমরা বর্বর বলি তাদের মাঝেও এই লক্ষণটি পূর্ণমাত্রায় ফুটে উঠতে দেখে আমি আনন্দ পেয়েছিলাম । স্নান করেই গ্রামে গিয়ে খেতে বসি। খাওয়া মামুলী। এক রকমের উদ্ভিদের শিকড় চুৰ্ণ করে তাই লেই কয়া হয়েছে। লেই তৈরী করতে দশ মিনিটের বেশি লাগে না । গরম গরম লেই খাবার পর শরীরে বেশ ঘাম হল । দেশে পেট ভরে খেলে পরে যেমন উঠতে ইচ্ছা হয় না-স্যেরূপ অবস্থা হল না। ঋবার পরই ইচ্ছা করলে আমরা পথে বের হতে পারতাম, কিন্তু তা না করে গ্রামে রাত কাটানই পছন্দ করলাম। পরের দিন থেকে আমাদের দুর্থ কষ্ট্রের আরম্ভ হয় এবং তারই ফলে শরীর ভেংগে যায়। লক্ষ্য ভ্ৰষ্ট হলে মনে বড়ই কষ্ট পেতে হয়। ডুডুমা হতে রওনা হবার পর আঁমাত্ম মনে ক্ৰমেই একটা কথা জাগত। নেই কথাটা হ’ল, “আমি