প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/৮১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


“ትዩኃ অন্ধকারের আফ্রিকা আমি এখানা পরিত্যক্ত বিছানায় শুয়ে পড়লাম এবং বললাম যে পর্যন্ত আমার ঘুম না ভংগে সে পর্যন্ত দয়া করে যেন কেউ আমাকে না । ডাকেন। পরের দিন সন্ধ্যা পর্যন্ত ঘুমিয়েছিলাম। ঘুম থেকে উঠে স্নান করেই দোকানের একটি নিগ্রে মজুরকে ড়েকে শরীর হতে ডু ডু পোকা বের করতে বললাম। অনেকগুলি ডু ডু পোকা শরীর হতে বের করে সে আমাকে বলল, বাস আজ এই পৰ্যন্ত, এখন খেয়ে শুয়ে থােক, কাল সকালে ফের স্নান করে আমাকে ডেকো, আমি আবার তোমার শরীর পরীক্ষা করব '1 ৬ পরের দিন আবার শরীর পরীক্ষা হল । অনেকগুলি ডু ডু পোকা শরীর হতে ‘বের হল। সিন্ধি যুবকগণ শরীর পরীক্ষা করল, তারপর টিনচার আয়ডিন ক্ষতস্থানগুলিতে লাগিয়ে দিল। দুপুয় বেলা একটা * গরম জলের চৌবাচ্চাতে অনেকক্ষণ বসে থাকলাম । কতক্ষণ বসার পর দুজন নিগ্ৰেী ডাক্তার আমার শরীর পরীক্ষা করে আরও কতকগুলি ডুডু পোকা বের করে বলল, আগামী কল্য তারা ফের স্বতঃস্ট্রবে। মহা ফ্যাসাদে পড়লাম। আমার শরীরে এত পোকা কোথা হ’তে এল। তাই দ্বভাবতে লাগিলাম । দোকানের মালিকের আদেশে আমার সমুদয় কাপড় ফুটন্ত গরম জলে সিদ্ধ এবং ইন্ত্রি করে ব্যবহারের জন্য দেওয়া হল । বুঝলাম এদেশের মাটি আমার পক্ষে ভয়ানক ক্ষতিকর। ইরিংগাতে থেকে ক্ষত স্থানগুলি আরাম করতে পািনর দিন লেগেছিল। ঠিক করলাম এখান হতে মোটরে ভ্ৰমণ করাই উচিত হবে। ፭‹} ́ ইরিংগাতে থাকার সময় একটি বেটবল খেলা দেখতে গিয়েছিলাম । খেলার মাঠে এক ঘন্টার বেশি ছিলাম না। থাকতে ইচ্ছাও হচ্ছিল না, কারণ ইণ্ডিয়ানরা তাদের মনের দুর্বলতা পদে পদে দেখাচ্ছিল,