প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অন্ধকারের আফ্রিকা.djvu/৯৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


so অন্ধকারের আফ্রিকা হেটে গিয়ে দেখলাম। একজন নিগ্রো একখানা পুৱাতন বাইবেল হাতে নিয়ে মন দিয়ে পড়ছে। বাইবেল ইংলিশ ভাষায় লেখা ছিল । । বুঝলাম লোকটি ইংলিশ বেঁশ জানে, তাই তার মনাকর্ষণ করার জন্য একটু কাশলাম। আমার কাশির শব্দে যেন তার তন্দ্ৰ ভাংগল । সে আমার দিকে চেয়ে জিজ্ঞাসা করল। “বানা কি চাই”। আমি বললাম কিছু চাই না, এদিকে আসছিলাম তোমাদের সোনার খনি দেখতে, তুমি নিশ্চয়ই সোনার খনিতে কাজ কর। হা বানা, তবে আজ পর্যন্ত একখানা 7 বাইসাইকেল কেনার উপযুক্ত টাকা জমাতে সক্ষম হইনি। এই যা দুঃখ । বাইরে উয়ানক রোদ ছিল তার উপর উলুবন । আমি নিগ্রো লোকটির অনুমতি নিয়ে তার ঘরে প্রবেশ করলাম। ঘরখানা পাঁচহাত লম্বা এবং চওড়া। দুজনায় বসতে কষ্ট হচ্ছিল । কষ্ট করে বসে নিগ্রোকে জিজ্ঞাসা করলাম--- তোমরা দৈনিক কত মজুরী পাও? নগদ পঞ্চাশ সেণ্ট (ছয় আনা। ) আর এক সেয়া করে ভুট্টার আটা। এতে কি তোমাদের পোষায় ? न!, पभि । তবে এমন কাজ করা কেন ? একটু লোভ আছে বানা, যদি কোন দিন চাকা সোনার সন্ধান পাই আর তার দু এক টুকরা সৱাতে পারি। তবেই আর কাজ করতে হবে না। ’ {5}? বলে যদি ধরে ? ? চুরি করাটা বেশ শিখেছি। চুরি করা আগে জানতাম না। আমার সাখীয়া চুরি করা শিখিয়েছে। । R R