পাতা:অন্ধকূপ-হত্যা-রহস্য - মুজিবর রহমান.pdf/৯২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


“অন্ধকূপ-হত্যা”-রহস্য এখন আমরা হলওয়েল-এর এই সকল উক্তির সত্যতা প্রমাণ করিব। (ক) নবাবের ইংরাজের বিরুদ্ধে হিংসা পােষণ করিবার প্রধান কারণ এই যে তাঁহার পিতামহ তাহাকে সেই মর্মে উপদেশ প্রদান করিয়াছিলেন। এই উপদেশটা হলওয়েল ডিরেক্টরগণকে লিখিত পত্রে উদ্ধৃত করিয়াছেন। “নবাব আলীবর্দি খা তাঁহার মৃত্যুশয্যায় শায়িত অবস্থায় নবাব সিরাজউদ্দৌল্লাকে এইরূপ উপদেশ দেন। | ‘আমার এ জীবন কেবল যুদ্ধবিগ্রহেই কাটিয়া গেল : আমি যে জন্য যুদ্ধ করিয়াছি এবং তােমাকে যে সব উপদেশ দিয়াছি, তাহা কেবল তােমার শান্তিতে রাজত্ব করার জন্যই করিয়াছি•••••••••তােমার জন্যে তােমার রাজত্বের জন্যে আমার মনে যে ভয়ের উদ্রেক হইয়াছে, তাহা বহুদিন হইতে আমার চোখের ঘুম কাড়িয়া লইয়াছে। আমি স্পষ্টই বুঝিয়াছি আমার তিরােধানের পর তমাকে কোন কোন শক্তি বিপদগ্রস্থ করিতে পারে।••••••• তােমার রাজ্যের মধ্যে যে সকল ইউরােপীয় জাতি বাস করে তাহাদের প্রতি লক্ষ্য রাখিও। ইংরাজগণই বেশী শক্তিশালী, সম্প্রতি তাঁহারা আঙ্গেরিয়ার রাজ্য অধিকার করিয়া তাহাতে রাজত্ব পাতিয়াছে ; তুমি প্রথমে তাঁহাদের শক্তি খর্ব করিও ; তাহাদের শক্তি বিনষ্ট হইলে অন্যেরা তোমার কোন ক্ষতি করিতে সক্ষম হইবে না। হে বৎস, তাহাদিগকে কোনক্রমেই (এদেশে ) দুর্গ নির্মান করিতে বা সৈন্য রাখিতে দিবে না। যদি ওরূপ করিতে দাও, এ রাজ্য তােমার নয়। (৬) | মৃত্যুকালে বৃদ্ধ নবাব তাহার দৌহিত্রকে এরূপ উপদেশ প্রদান করিয়াছিলেন বলিয়া হলওয়েল সাহেব লিখিয়া গিয়াছেন। হলওয়েল সাহেব () Holwell's India Tracts. pp. 79 ff. ৮ঃ