প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১১৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


verfurs SSR অপর চোখে জল আসিল,-“কি অদ্ভুত নিজনিতা-মাখাৰ্নো সন্ধ্যাটা ! মাখে হাসিয়া সয়েহে মায়ের গায়ে হাত বলাইতে বলাইতে বলিল,--আচ্ছা, মা, কড় বোয়ের সঙ্গে বাজি রেখেছিলে কি নিয়ে-কলো না-বললে না। ভাতা সেদিন ?*** ছটি ফুরাইলে অপ বাড়ি হইতে রওনা হইল । স্টেশনে আসিয়া কিন্তু ট্রেন পাইল না, গহনার নৌকা আসিতে অত্যন্ত গেরি হইয়াছে, ট্রেন আধা ঘণ্টা পাবে ছাড়িয়া দিয়াছে। সর্বজয়া ছেলের বাড়ি হইতে যাইবার দিনটাতে অন্যমনস্ক থাকিবার জন্য কাপড়, বালিশের ওয়াড় সাজিমাটি দিয়া সিদ্ধ করিয়া বশবনের ডোবার জলে কাচিতে নামিয়াছে। --সন্ধ্যার কিছু পাবে অপ বাড়ির দাওয়ায় জিনিসপত্র নামাইয়া ছটিয়া ডোবার ধারে গিয়া পিছন হইতে ডাকিল,-মা ! *** সর্বজয়া ভুলিয়া থাকিবার জন্য দােপর হইতে কাপড় সিদ্ধ লইয়া ব্যস্ত আছে, চমকিয়া পিছন দিকে চাহিয়া আনন্দ-মিশ্ৰিত সরে বলে,-তুই -যাওয়া 'व् ना ? অপ, হাসিমখে বলে,-গাড়ি পাওয়া গেল না-এসো বাড়িবাঁশবনের ছায়ায় মায়ের মাখে সেদিন যে অপােব আনন্দের ও তৃপ্তির ছাপ পড়িয়াছিল, অপ, পর্বে কোনও দিন তাহা দেখে নাই-বাহকাল পর্যন্ত মায়ের এ মখখানা তাহার মনে ছিল । সেদিন রাত্রে দ’জনে নানা কথা । অপর আবার ছেলেবেলাকার গল্প শনিতে চায় মা’র মাখে-সবজিয়া লক্তিজত সরে বলে,-“হ্যা, আমার আবার গলপ ! -- সে সব ছেলেবয়েসের গল্প-তা বঝি এখন শনে তোর ভাল লাগবে ? অপকে আর সবজিয়া ব্যঝিতে পারে না-এ সে ছোট্ট অপর নয়, যে ঠোঁট ফুলাইলেই সবজিয়া ব্যঝিত ছেলে কিচাহিতেছে- “এ কলেজের ছেলে, তরণ অপ, এর মন, মতিগতি, আশা আকাঙ্ক্ষা-সবজিয়ার অভিজ্ঞতার বাহিরে-অপ কলে,-“না মা, তুমি সেই ছেলেবেলার শ্যামলণ্ডকার গল্পটা করো। সবজিয়া বলে, --তা আবার কি শনবি-তুই বরং তোর বইয়ের একটা গল্প বল-শকতি ভালো গল্প তো পড়িস ?-- পরদিন সে কলিকাতায় ফিরিল। কলেজ সেই দিনই প্রথম খলিয়াছে, প্রমোশন পাওয়া ছেলেদের তালিকা বাহির হইয়াছে, নোটিশ বোড়ের কাছে রথযাত্রার ভিড়-সে অধীর আগ্রহে ভিড় ঠেলিয়া নিজের নামটা আছে কিনা দেখিতে গেল । আছে ! দতিনবার বেশ ভাল করিয়া দেখিল । আরও আশ্চর্য এই ষে, পাশেই যে সব ছেলে পাশ করিয়াছে অথচ বেতন বাকী থাকার দরবন প্রমোশন পায় নাই, তাহদের একটা তালিকা দেওয়া হইয়াছে, কিন্তু তাহার মধ্যে অপর নাম নাই, অথচ অপর জানে তাহারই সবাপেক্ষা বেশী বেতন বাকী । সে ব্যাপারটা বঝিতে না পারিয়া ভিড়ের বাহিরে আসিল । কেমন করিয়া এরপ অসম্পভব সম্প্ৰভাব হইল, নানাদিক হইতে বঝিবার চেষ্টা করিয়াও তখন কিছু ঠাহর করিতে পারিল না ।