প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১৪৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


3 urorators খশীতে উপরি উপরি চার কাপ চা খেয়ে ফেললাম-ভাবলাম এতদিন পর পয়সার কািন্টটা তো ঘাচল ?--আর কি খাবি ? এই বেয়ারা আর দটাে ডিম ভাজা -- श्था- ܕܬܼܿܪ --দাদিন চাকরি হয়েছে বলে বঝি-তোর সেই পরানো রোগ আজও-হ্যাঁ তারপর ? --তারপর বাড়ি এসে রাতে শায়ে শয়ে মনটাতে ভাল বললে না।--ভারলাম, ওরা একটা সবিধে আদায় করবার জন্য সন্ট্রাইক করেছে, দ’মাস তাদেরও ছেলেমেয়ে কামট পাচ্ছে, তাদের মখের ভোতের থালা কেড়ে খাব শেষকালে ?- আবার ভাবি, যাই চলে, অতন্দর কখনো দেখি নি, তা ছাড়া মা মারা যাওয়ার পর কলকাতা আর ভাল লাগে না, যাইগে-কিন্তু শেষ পযন্ত-ফের ওদের আফিসে গেলামছাপানো ফমখানা ফেরত দিয়ে এলাম, বলে এলাম আমার যাওয়ার সবিধে হবে না।-- gers afsta-tog zijn verg (512 look full of music and poettyপ্রথম থেকে আমি জানি এ একজন আইডিয়ালিস্ট ছোকরা-তোদের দিয়েই তো এসব হবে-তোর এ খবরের কাগজের কাজ কখন ? --রাত ন’টার পর যেতে হয়, রাত তিনটের পর ছটি । ভারি ঘােম পায়, এখনও রাত-জাগা অভ্যোস হয় নি, তবে সবিধে আছে, সকাল দশটা-এগারোটা পর্যন্ত ঘামিয়ে নি, সারাদিন লাইব্রেরীতে কাটাতে পারি।-- খাওয়া-দাওয়া ভালই হইল। অপ বলিল-জল খাস নৌ-চল কলেজ লোকায়ারে শরবৎ খাবা-বেশ মিলিট লাগে খেতে -লেমান সেকায়াশ খেয়েছিস আয়,- কলেজের অতি ছেলের মধ্যে এক অনিল ও প্রণব ছাড়া সে আর কাহাকেও বন্ধ ভাবে গ্রহণ করিতে পারে নাই, অনেকদিন পরে মন খালিয়া আলাপের লোক পাইয়া তাহার গল্প আর ফুরাইতেছিল না । বলিল, গাছপালা যে কতদিন দেখি নি, ইট আর সিমেশািট অসহ্য হয়ে পড়েছে । আমাদের অফিসে একজন কাজ করে, তার বাড়ি হাওড়া জেলা, সেদিন বলছে, বাড়ির বাগানে আগাছা বেড়ে উঠেছে, তাই সাফ করছে। রবিবারে-রবিবারে । আমি তাকে বলি, কি গাছ মিত্তির মশাই ? সে বলে --কিছ না, ঝাঁপি গাছ। আমি বলি-বিলন না, কি কি গাছ ? রোজ সোমবারে সে বাড়ি থেকে এলে তাকে এই কথা জিগ্যেস করি।--সো হয়ত ভাবে, আচ্ছা! পাগল। --রাত্রে, ভাই, সারারাত প্রেসের ঘড়ঘড়নি, গরম, প্রিাণীটারের তাগাদার মধ্যে আমার কেবল মিত্তির মশায়ের বাড়ির সেই ঝাপি বনের কথা মনে হয়-ভাবি কি না কি জানি গাছ । এদিকে চোখ ঘােম ঢুলি আসে, প্লাত একটার পর শরীর এলিয়ে পড়তে চায়, শরীরের বাঁধন যেন ক্লামে আলগা হয়ে আসে, কাজোর জল চোখে মাখে ঝাপটা দিয়ে ফুলো-ফুলো রাঙা-রাঙা, জৰালা-করা চোখে আবার কাজ করতে বসি-ইলেকট্ৰিক বাতিতে যেন চোখে ছািচ বেধে-আর এত গরমণ্ড धझह7 : পরে সে আগ্রহের সরে বলিল-একদিন রবিবারে চল তুই আর আমি কোনও