প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/২১৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


RS virs বিনকে ফাঁকি দেবার উদ্দেশ্যে । এ-সব তোমার মাথায় আসবে কোনও দিন ? কত রাত পর্যন্ত অপ, চােখের পাতা বজাইতে পারিল না। লীলা যাহা লিখিয়াছে তাহার অপেক্ষা বেশী যেন লেখে নাই । সারা পত্ৰখানিতে একটা শান্ত সহানভূতি, স্নেহ-প্ৰীতি, করণ। এক মহতে্যু আজ দশ বৎসরব্যাপী এই নিজনতা অপাের যেন কাটিয়া গেল-এইমাত্র সে ভাবিতেছিল। সংসারে সে এক --তাহার কেহ কোথাও নেই । লীলার পত্রে জগতের চেহারা যেন এক মহতে্যু বদলাইয়া গেল । কোথায় সে - কোথায় লীলা !-“বহন্দরের ব্যবধান ভেদ করিয়া তাহার প্রাণের উষ্ণ প্ৰেমময় সপশা অপাের প্রাণে লাগিয়াছো-কিন্তু কি অপবর্ণ রসায়ন এ সপশটাি-কোথায় গেল অপর চাকুরি যাইবার দঃখ-কোথায় গেল গোটা-দই বৎসরের পাষাণভোরের মত নিজনিতা-নারীহািদয়ের অপব রসায়নের প্রলেপ তাহার সকল মনে, সকল অঙ্গে, কী যে আনন্দ ছড়াইয়া দিল । লীলা যে আছে ! ---সব সময় তাহার জন্য ভাবে - দঃখ করে, জীবনে অপ, আর কি চায় ? —সাক্ষাতের আবশ্যক নাই, জন্মজন্মান্তর ব্যাপিয়া এই রূপশটুকু অক্ষয় হইয়া বিরাজ করােক । লীলার পত্র পাইবার দিন-বারো পরে তাহার। যাইবার দিন আসিয়া গেল । ছেলেরা সভা করিয়া তাহাকে বিদায়-সম্প্ৰবন্ধ না দিবার উদ্দেশ্যে চাঁদা উঠাইতেছিল - হেডমাস্টার খাব বাধা দিলেন । যাহাতে সভা না হইতে পায় সেইজন্য দলের চাইদিগকে ডাকিয়া টেস্ট পরীক্ষার সময় বিপদে ফেলিবেন বলিয়া শাসাইলেন - পরিশেষে সংস্কুল-ঘরে সভার স্থাসও দিতে চাহিলেন না, বলিলেন - তোমরা ফেয়ারওয়েল দিতে খােচ্ছ, ভাল কথা, কিন্তু এসব বিষয়ে আয়রন ডিসিপ্লিন চাই ধার চরিত্র নেই, তার কিছই নেই, তার প্রতি কোনও সক্ষমান তোমরা দেখাও, এ আমি চাই নে, অন্তত স্কুল-ঘরে আমি তার জায়গা দিতে পারি। নে । সেদিন আধার বড় বলিট । মহেন্দ্ৰ সবিই-এর আটচালায় জনপ্রিশেক উপরের ক্লাসের ছেলে হেডমাস্টারের ভয়ে ল, কাইয়া হাতে লেখা অভিনন্দন-পত্ৰ পড়িয়া ও গাঁদা ফুলের মালা গলায় দিয়া অপকে বিদায়-সম্ববর্ধনা জানাইল, সভা ভঙ্গের পর জলযোগ করাইল। প্রত্যেকে পায়ের ধলা লইয়া, তাহার বাড়ি আসিয়া বিছানাপত্ৰ গছাইয়া দিয়া, নিজেরা তাহাকে বৈকালে ট্রেনে তুলিয়া দিল । সৃপ প্রথমে আসিল কলিকাতায় । একটা খাব লম্বা পাড়ি দিবে-যেখানে সেখানে-যেদিকে দই চোখ যায়এতদিনে সত্যিই মাক্তি ; আর কোনও জালে নিজেকে জড়াইবে না-সব দিক হইতে সতৰ্ক থাকিবে - শিকলের বাঁধন অনেক সময় অলক্ষিতে জড়ায় কিনা, শ’য়ে ! ইস্পারুয়াল লাইব্রেরীতে গিয়া সারা ভারতবর্ষের ম্যাপ ও য়্যাটলাস কয়দিন ধরিয়া দেখিয়া কাটাইল-ড্যানিয়েলের ওরিয়েন্টাল সিনারি ও পিণ্ডকাটিনের