প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/২২০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Re vraîurs ও ম্যালেরিয়া সম্পবন্ধে বস্ততা ছিল । অপও গেল। বক্ততাটি সচিত্র। একটি ছবি দেখিয়া সে চমকিয়া উঠিল । মশাকের জীবনেতিহাসের প্রথম পন্যায়ে সেটা থাকে কীট-তারপর হঠাৎ কীটের খোলস ছাড়িয়া সেটা পাখা গজাইয়া উড়িয়া যায় । ঠিক যে সময়ে কীটদেহটা অসাড় প্রাণহীন অবস্থায় জলের তলায় ডুবিয়া যাইতেছে- নব-কলেবরধারী মশকটা পখিা ছাড়িয়া জল হইতে *ंJ ॐट्रक्षा काळी । মানষের তো এমন হইতে পারে । জলের তলায় সন্তরণকারী অন্যান্য মশাক কীটের চোখে তাrদর সঙ্গী তো মরিয়াই গেল-তাদের চোখের সামনে দেহটা তলাইয়া যাইতেছে। কিন্তু জলের উদ্ধেৰ যে জগতে মশক নবজন্ম লাভ করিল, এরা তো তার কোনও খবরই রাখে না, সে জগতে প্রবেশের অধিকার তখনও তারা তো অর্জন করে নাই-মত্যু দ্বারা, অন্ততঃ তাদের চোখে তা মাতুত্যু, তার দ্বারা । এই মশক নিম্নস্তরের জীব, তার পক্ষে যা বৈজ্ঞানিক সত্য, মানষের পক্ষে তা কি মিথ্যা ? कथा न लादिाउ छादिष्ठ शिर्गद्वल। r যাইবার আগে একবার পরিচিত বন্ধাদের সহিত দেখা করিতে বাহির হইয়া পরদিন সকালে সে সেই কবিরাজ বন্ধটির দোকানো গেল। দোকানে তাহার দেখা পাওয়া গেল না, উড়িয়া ছোকরা-চাকরকে দিয়া খবর পাঠাইয়া পরে সে বাসার মধ্যে ঢুকিল । ve সেই খোলার-বাড়ি-সেই বাড়িটাই আছে। সংকীর্ণ উঠানের একপাশে দাখানা বেলেপাথরের শিল পাতা। বন্ধটি নোড়া দিয়া কি পিষিতেছে, পাশে বড় একখানা খবরের কাগজের উপর একরাশ ধসের রংয়ের গড়া। সারা উঠান জড়িয়া কুলায়-ডানায় নানা শিকড়-বাকড় রৌদ্রে শকাইতে দেওয়া হইয়াছে । বন্ধ হাসিয়া বলিল, এসো এসো, তারপর এতদিন কোথায় ছিলে ? কিছ: মনে করো না ভাই খারাপ হয়ত, মাজন তৈরি করছি-এই দ্যাখ না ছাপানো লেবেল-চন্দ্ৰমাখী মাজন, মহিলা হোম ইন্ডাসিস্ট্রীয়্যাল সিন্ডিকেট-আজকাল মেয়েদের নাম না দিলে পাবলিকের সিমপ্যাথি পাওয়া যায় না, তাই ঐ নাম দিয়েছি । বাস ব’স-ওগো, বার হয়ে এসো না । অপর্ব এসেছে, একটু চা-টা করে । অপ, হাসিয়া বলিল, সিডিকেটের সভ্য তো দেখছি আপাতত মোটে দজন, তুমি আর তোমার পত্রী এবং খাব যে য়্যাকটিভ সভ্য তাও বাকছি। V হাসিমখে বন্ধ-পত্নী ঘর হইতে বাহিরে আসিলেন, তাঁহার অবস্থা দেখিয়া অপর মনে হইল, অন্য শিলখানাতে তিনিও কিছু পাবে মােজন-পেষা-কাযে। নিযস্ত ছিলেন । তাহার আসিবার সংবাদ পাইয়াই শিল ছাড়িয়া ঘরের মধ্যে পলাইয়াছিলেন। হাতে-মাখের গড়া ধাইয়া ফেলিয়া সভ্য-ভব্য হইয়া বাহির হইলেও মাথার এলোমেলো উড়ন্ত চুলে ও কপালের পাশের ঘামে সে কথা জানাইয়া