প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/২২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 `न 簡 মহিলা ও সম্ভবত তাঁহার স্বামী মোটরে বন্ধগয়া হইতে ফিরিতেছেন,অপ, ভাবিল, হাজার হাজার বছর পরেও এ কোেনািনতেন যাগের ছেলেমেয়ে-প্রাচীনকালের সেই পীঠস্থানটি এমন, সাগ্রহে দেখিতে আসিয়াছিল ? মনে পড়ে সেই অপােব রাত্রি, নবজাত শিশর চাঁদমাখ্য' - "ছন্দক, ‘গায়ার জঙ্গলে দিনের পর দিন সে কি কঠোর তপস্যা । কিন্তু এ মোটর গাড়ি ? শতাব্দীর ঘন অরণ্য পার হইয়া এমন একদিন নামিয়াছে পথিবীতে পর্যাতনের সবই চৰণ করিয়া, উলটাইয়া-পালটাইয়া নবযাগের পত্তন করিয়াছে। রাজা শাধোদনের কপিলাবস্তুও মহাকালের স্রোতের মাখে ফেনার ফুলের মত কোথায় ভাসিয়া গিয়াছে, কোন চিহ্নও রাখিয়া যায় নাই-কিন্তু তাঁহার দিগ্বিজয়ী পত্র দিকে দিকে যে বহত্তর কপিলাবস্তুর অদশ্য সিংহাসন প্রতিস্ঠা করিয়া গিয়াছেন-তাঁহার প্রভুত্বের নিকট এই আড়াই হাজার বৎসর পরেও কে না। মাথা নত করিবে ? গয়া হইতে পর দিন সে দিল্লী এক্সপ্রেসে চাপিল-একেবারে দিল্লীর টিকিট কাটিয়া। পাশের বেণ্ডিতেই একজন বাঙালী ভদ্রলোক ও তাঁহার স্ত্রী যাইতেছিলেন । কথায় কথায় ভদ্রলোকটির সঙ্গে আলাপ হইয়া গেল। গাড়িতে আর কোন বাঙালী নাই, কথাবাতাের সঙ্গী পাইয়া তিনি খাব খাশী । অপর কিন্তু বেশী কথাবাতা ভাল লাগিতেছিল না । এরা এ-সময় এত বক-বক করে কেন ? মারোয়াড়ী দটি তো সাসারাম হইতে নিজেদের মধ্যে বকুনি শার করিয়াছে, মাখের * আর বিরাম নাই । খশীভরা, উৎসক, ব্যগ্ন মনে সে প্রত্যেক পাথরের নড়িটি, গাছপালাটি লক্ষ্য করিয়া চলিয়াছিল। বামদিকের পাহাড়শ্রেণীর পেছনে সন্যে অস্ত গেল, সারাদিন আকাশটা লাল হইয়া আছে, আনন্দের আবেগে সে দ্রুতগামী গাড়ির দরজা খালিয়া, দরজার হাতল ধরিয়া দাঁড়াইতেই ভদ্রলোকটি বলিয়া উঠিলেন, উ’হ, পড়ে যাবেন, পাদানিতে সুিপ করলেই--বন্ধ করান মশাই । আপ হাসিপ্পা বলিল, বেশ লাগে। কিন্তু, মনে হয় যেন উড়ে যাচ্ছি। গাছপালা, খাল, নদী, পাহাড়, কাঁকরা-ভরা জমি, গোটা শাহাবাদ জেলাটা তাহার পায়ের তলা দিয়া পলাইতেছে । অনেক দীর পর্যন্ত শোণি নদের বালাির চড়া জ্যোৎস্নায় অদভুত দেখাইতেছে । নীলনদী ? ঠিক এটা যেন নীলনদ । ওপারে সাত-আট মাইল গাধার পিঠে চড়িয়া গেলে ফ্যারাও রামেসিসের তৈরি। আব সিলেবলের বিরাট পাযাণ মন্দির-ধােন্সর অস্পষ্ট কুয়াসায় ঘেরা মরভূমির মধ্যে অতীতকালের বিস্মত দেবদেবীর মন্দির, এপিস, আইসিস, হােরাস, হাথর, রানীলনদ যেমন গতির মাখে উপলখাপড় পাশে ঠেলিয়া রাখিয়া পলাইয়া চলো-মহাকালের বিরাট রথচক্ৰ তাণ্ডব নিত্যচ্ছন্দে সব স্থাবর অস্থাবর জিনিসকে পিছফেলিয়া মহাবেগে চলিবার সময় এই বিরাট গ্র্যানাইট মন্দিরকে পথের পাশে ফেলিয়া রাখিয়া চলিয়া গিয়ছে, জনহীন মরভূমির মধ্যে বিস্মত সভ্যতার চিহ্ন-মন্দিরটা কোন বিস্মত ও বাতিল দেবদেবীর উদ্দেশে গঠিত ও উৎসগীকৃত। BBD DB DDBD DDBDBDS SK DD DB DBBB BBDD S DBBD সঙ্গে খাবার আছে, আসন খাওয়া যাক ।