প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/২৮২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Ryfer অপরাজিত । চার বছর কলকাতােমাখো হন নি, সে এই দিদির কাণ্ডই তো । মাশকিল হয়েছে। কি জানেন, কাল রাত্রেও বকেছে, শািন্ধ খাকী, খন্দকী, অথচ তাকে আনানো? অসম্ভব । অপ, বলিল, আর এক কাজ করতে হবে, একজন নাস আমি নিয়ে আসি ঠিক করে । মেয়েমানষের নাসিং পরিষকে দিয়ে হয় না। বসো তোমরা । দই তিন দিনে সবাই মিলিয়া লীলাকে সারাইয়া তুলিল। জ্ঞান হইলে সে একদিন কেবল অপকে ঘরের মধ্যে দেখিতে পাইয়া কাছে ডাকিয়া ক্ষীণসারে বলিল-কখন এলে অপাব ? রোগ হইতে উঠিয়াও লীলার স্বাস্থ্য ভাল হইল না। শ্যইয়া আছে তো শইয়াই আছে, বসিয়া আছে তো বসিয়াই আছে। মাথার চুল উঠিয়া যাইতে লাগিল । আপন মনে গম হইয়া বসিয়া থাকে, ভাল করিয়া কথাও বলে না, হাসেও না ! কোথাও নড়িতে চড়িতে চায় না । ইতিমধ্যে কাশী হইতে লীলার মা আসিলেন । বাপের বাড়ি থাকেন, রোজ মোটরে আসিয়া দাঁতন ঘণ্টা থাকেন। -আবার চলিয়া যান । ডান্ডার বলিয়াছে, সমবাস্থ্যকর জায়গায় না লইয়া Als Fist RT দােপর বেলাটা-কিন্তু একটু মেঘ করার দরন। রৌদ্র নাই কোথাও । অপ লীলার বাসায় গিয়া দেখিল। লীলা জানালার ধারে বসিয়া আছে। সে সব সময় আসিতে পারে না, কাজলকে একা বাসায় রাখিয়া আসা চলে না । ভারী চঞ্চল ও রীতিমত নিবোধ ছেলে । তাহা ছাড়া স্নান্নাবান্না ও সমাদয় কাজ করিতে হয়। অপাের, কাজলকে দিয়া কুটৗগাছটা ভাঙিবার সাহায্য নাই, সে খেলাধােলা লইয়া সারাদিন মহা ব্যান্ড-আপ তাহাকে কিছদ করিতে বলেও না, ভাবে-আহা, খেলক একটু । পিওর মাদারলেস চাইলড ! লীলা মিলান হাসিয়া বলিল-এস । -এরা কোথায় ? বিমলেন্দ কোথায় ? মা এখনও আসেন নি ? --ফয়সা । বিমলেন্দ এই কোথায় গেল। নাস তো নিচে, বোধ হয় খেয়ে ¢क्रै घभदछ । --তারপর কোথায় যাওয়া ঠিক হ’ল-সেই ধরমপরেই ? সঙ্গে যাবেন কে--মা আর কিমল । 最 খানিকক্ষণ দািজনেই চুপ করিয়া রহিল। পরে লীলা তাহার দিকে ফিরিয়া বলিল-আচ্ছা অপােব, বিধমানের কথা মনে হয় তোমার ? অপ ভাবিল, আহা, কি হয়ে গিয়েচে লীলা ! মখে বলিল-মনে থাকবে না কেন-খব মনে আছে । লীলা অন্যমনসিকভাবে বলিল-তোমরা সেই ওদিকের একটা ঘরে থাকতেসেই আমি যৌতুম- w —তুমি আমাকে একটা ফাউন্টেন পেন দিয়েছিলে মনে আছে লীলা ? তখন ফাউন্টেন পেন নতুন উঠেচে —মনে নেই তোমার ? লীলা হাসিল ।