প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/২৮৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


: t লীলার গলার প্রবারে অপর বিনিমন্ত হইল। বলিল-কি কথা ?••• -আচ্ছা, বেচে লাভ কি ? অগুৰুত্বপূৰ্ব জন্য প্রস্তুত ছিল না—বলি এ কথার কি-এ কথা কেন ? --না লীলা । এ ধরণের কথাবাতা কেন ? এর দরকার নেই । -আচ্ছা, একটা সত্যি কথা বলবে ?••• -আচ্ছা, আমাকে লোকে কি ভাবে ? সেই লীলা ! তলহারামখে এ রকম দিবলৈ ধরণের কথাবাতা, সে কি কখনও S BBDg DDDDBS0S BE BB BDSBDu BD BBBDYeDDDDD BDDuDu লীলা আর সব সহ্য করিতে পারে, লোকের ঘােণা তাহার অসহ্য । গত কয়েক বৎসরে ঠিক তাহাই জটিয়াছে তাহার কপালে! এতদিন সেটা বোঝে নাইসম্প্রতি বঝিয়াছে- জীবনের উপর টান হরাইতে বসিয়াছে। অপাের গলায় যেন একটা ডেলা আটকাইয়া গেল। সে যতদর সম্পভব সহজ সারে বলিল-এ ধরণের কথা সে এ পর্যন্ত কোনো দিন লীলার কাছে বলে নাই, কোনো দিন না-দ্যাখো লীলা, অন্য লোকের কথা জানি নে, তবে আমার কথা শনিবে ?** -আমি তোমাকে আমার চেয়ে অনেক বড়ো তো ভাবিই-অনেকের চেয়ে বড় ভাবি-তোমাকে কেউ চেনে নি, চিনলে না, এই কথা ভাবি । - আজ নয় লীলা, এতটুকু বেলা থেকে তোমায় আমি জানি, অন্য লোকে ভুল করতে পারে, কিন্তু আমি লীলা যেন অবাক হইয়া গেল, কখনও সে এরকম দেখে নাই অপাকে । সে জিজ্ঞাসা করিতে যাইতেছিল--সত্যি বলছ ? -কিন্তু অপাের মািখ দেখিয়া হয়ত বঝিল প্রশনটা অনাবশ্যক । * পরীক্ষণেই খেয়ালী অপর আর একটা কাজ করিয়া বসিল-এটাও সে ইহার আগে কখনও করে নাই-লীলার খািব কাছে সরিয়া গিয়া তার ডান হাতখানা নিজের দ্যহাতের মধ্যে লইয়া লীলাকে নিজের দিকে টানিয়া তার মািখ ফিরাইল । পরে গভীর স্নেহে তার উত্তপ্ত ললাটে, কনের পাশের চণে কুন্তলে হাত বলাইতে বলাইতে দঢ়সবরে বলিল-তুমি আমি ছেলেবেলার সাথী, লীলা-আমরা কেউ কাউকে ভুলব না কোনো অবস্থাতেই না। এতদিন , ट्रल नि-७ कथाना लौला । লীলার সারাদেহি শিহরিয়া উঠিল--যাহা আজ অপর মাখে, কথার সরে ডাক্ষর চোখের অকপট দলটিতে পাইল-জীবনে কোনো দিন কাহারও কাছ হইতে তাহা সে কখনও পায় নাই-আজ সে দেখিল অপকে সে চিরকাল ভালবাসিয়া আসিয়াছো-বিশেষ করিয়া অপর মতবিয়োগের পর লালদীঘির সামনের গুড় ভাবে বেলি শক্ষিণ দিয়ার ভাবে চেষ্টত দেখিছিল-সেল • • • অপাের চমক ভাঙিলি-লীলা কখন তাহার বক্ষে মািখ ६अश्लिতাহার অশ্লািশলাবিত পােশদুর মাখখানি।••••••