প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/৭৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অপরাজিত ae হিশিষ্ট্রর ; একপাতাও পড়ি নি, না পারলে বকুনি দেবে কি রকম জানো তো ? গজেন বলিল-আমার তো আরও মাশকিল। রোমের হিস্ট্রির বই-ই যে আমি किन कि ! মন্মথ আগে সেন্ট জেভিয়ারে পড়িত, সে বিলাতী নাচের ভঙ্গিতে হাত লক্ষবা করিয়া ব্যার কয়েক পাক খাইয়া একটা ইংরাজি গানের চরণ বার দই গাহিল । অপর বলিল-কিন্তু পাসেণ্টেজ যাবে যে ? প্রতুল বলিল-ভারী একদিনের পাসেণ্টজ ! তা আমি ক্লাসে নাম প্রেজেন্ট ক’রেও পালিয়ে আসতে পারি।-সে তো আর তুমি পারবে না ? অপ বলিল-খব পারি। পারবো না কেন ? প্রতুল বলিল-সে তোমার কাজ নয়, সি. সি, বি-র চোখ ভারী ইয়ে-আমরা বলে তাই এক একদিন সরষে-ফুল দেখি, তা তুমি ! পারো পালিয়ে আসতে ? —এখখনি। দ্যাখো সবাই দাঁড়িয়ে-পারি কি না পারি, কিন্তু যদি পারি খাওয়াতে হবে বলে দিলাম অপর উৎসাহে সিড়ি ভাঙিয়া উপরে উঠিয়া গেল। গজেন বলিল-কেন ওকে আবার ওসব শেখাচ্ছিস ? --শেখাচ্ছি মানে ? ভাজা মাছখানা উলেট খেতে জানে না।--ভারী সাধ । Tirff fațGi-IT, FNT, CSGKIT STIGT FIT, TAIP“ SI Pure spirit ! সেদিন-- -হ্যা হ্যা, জানি, ও-রকম সন্দর চেহারা থাকলে আমাদেরও কত সার্টিফিকেট আসতো-বাবা, বঙ্কিমবাব কি আর সাধে সন্দর মাখের গণি গেয়ে গেছেন ? —কি বাজে বকছিস প্রতুল ? দিন দিন ভারী ইতর হয়ে উঠছিস কিন্তুপ্রিন্সিপ্যালের গাড়ি কলেজের সামনে আসিয়া লাগাতে যে যেদিকে সংবিধা পাইল সরিয়া পড়িল । মিঃ বসার ক্লাসে নামটা প্রেজেণ্ট করিয়াই আজ অপা পলাইবার পথ খজিতে লাগিল । বাঁ দিকের দরজাটা একদম খোলা, প্রোফেসারের চোখ অন্যদিকে । সযোগ খাজিতে খাজিতে প্রোফেসারের চোখ আবার তাহার দিকে পড়িল, কাজেই খানিকক্ষণ ভােলমানষের মত নিরীহ-মাখে বসিয়া থাকিতে বাধ্য হইল। এইবার একবার অন্যদিকে চোেখ পড়িলেই হয় ! হঠাৎ প্রোফেসর তাহাকেই প্রশ্ন করিলেন, --Was . erius justified in his action সর্বনাশ ! মেরিয়াস কে ! একদিনও সে যে রোমের ইতিহাসের লেকচার শোনে न्ट्रे ! উত্তর, না পাইয়া প্রোফেসার অন্য একটা প্রশ্ন করিলেনে-What do you rhink of Sulla's-- অপৰ বিপন্নমখে কড়িকাঠের দিকে চোখ তুলিয়া দাঁড়াইয়া রহিল । রাস্কেল মণিলালটা মাখে কাপড় গজিয়া খিলখিল করিয়া হাসিতেছে । প্রোফেসার বিরক্ত হইয়া অন্যদিকে মািখ ফিরাইলেন ।