প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:অপরাজিত - বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/৭৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ಲಿ? Pfars বসিয়া পড়িয়া নিশিচন্তু সরে বলিল, তারপর ?--বলিয়াই খবরের কাগজখানা হাতে তুলিয়া চোখ বলাইতে লাগিল । অপ, দেখিল সরেশ পান চিবাইতেছে । খাওয়ার আগে এত বেলায় পান খাওয়া অভ্যাস, না-কি খাওয়া হইয়া গেল ! দই চারিটিা প্রশ্নের জবাব দিতে ও খবরের কাগজ পড়িতে পড়িতে একটা বাজিল । সরেশের চোখ ঘামে বজিয়া আসিতেছিল । সে হঠাৎ কাগজখানা টেবিলে রাখিয়া দিয়া চেয়ার হইতে উঠিয়া পড়িয়া বলিল, তুমি না হয় বসে কাগজ পড়ো, আমি একটুখানি শহয়ে নি। একটা ডাব খাবে ?-- ভাব খাইবে কি রকম, এত বেলায়, এ অবস্থায় ? অপর ভাল বঝিতে না পারিয়া বলিল, ডাব ? না থাক, এত বেলায়ী-ইয়ে - না । সেই যে সরেশ বাড়ি ঢুকিলি--একটা - দইটা আড়াইটা, আর দেখা নাই । ইহারা কত বেলায় খায় ! রবিবার বলিয়া ব্যঝি এত দেরি ? কিন্তু যখন তিনটা বাজিয়া গেল, তখন অপর মনে হইল, কোথাও কিছ, ভুল হইয়াছে নিশ্চয় ; হয় সে-ই ভুল ধাবিয়াছে, না হয়। উহারা ভুল করিয়াছে । তাহার এত ক্ষধা পাইছিল যে, সে আর বসিতে পারিতেছে না । উঠিবে কিনা ভাবিতেছে, এমন সময়ে সরেশের ছোট ভাই সনীল বাড়ির ভিতর হইতে বাহিরে আসিল । আপ, ডাকিবার পাবেই সে সাইকেল লইয়া বাড়ির বাহিরে কোথায় চলিয়া গেল । সেই সনীল-ব্যাহাকে সঙ্গে লইয়া নিমন্ত্রণে ছাঁদা বধিবার দরুন জ্যেঠিমা তাহাকে ফলারে-বামনের ছেলে বলিয়াছিলেন ! ইহাদের যে এতদিন পর আবার দেখিতে পাওয়া যাইবে, তাহা যেন অপর ভাবে নাই। সনীলকে দেখিয়া তাহার বিস্ময় ও আনন্দ দুই-ই হইল । এ যেন কেমন একটা ঠিক বঝানো যায় T ইহাদের সঙ্গে দেখা করিতে আসিবার মলে অপর কোন সাবাথ সিদ্ধি বা সযোগ-সন্ধানের উদ্দেশ্য ছিল না, বা ইহা যে নিতান্ত গায়ে পড়িয়া আলাপ জমাইবার মত দেখাইতেছে-একবারও সে-কথা তাহার মনে উদয় হয় নাই । এখানে তাহার অ্যাসিবার মলে সেই বিস্ময়ের ভাব-যাহ তাহার জন্মগত । কে আবার জানিত, খাস কলিকাতা শহরে এতদিন পরে নিশ্চিন্দিপরের বাড়ির পাশের পোড়ো ভিটাটার ছেলেমেয়েদের সঙ্গে দেখা হইয়া যাইবে । এই ঘটনাটুকু তাহাকে মগধ করিবার পক্ষে যথেস্ট । এ যেন জীবনের কোন অপরিচিত বাঁকে পত্রপক্ষেপ সন্জিত অজানা কোন কুঞ্জবন-প্ৰকের মোড়ে ইহাদের অস্তিত্ব যেন সম্পণে অপ্রত্যাশিত । বিসময় মনের অতি উচ্চ ভােব এবং উচ্চ বলিয়াই সহজলভ্য নয় । সত্যকার বিসময়ের স্থান অনেক উপরে-বন্ধি যার খাব প্রশস্ত ও উদার, মন সব সময় সতক --নািতন ছবি নািতন ভাব গ্রহণ করিবার ক্ষমতা রাখে-সে-ই প্রকৃত বিস্ময়-রাসকে ভোগ করিতে পারে। যাদের মনের যন্ত্র অলস, মিনমিনে-পরিপািণ, উদার বিসময়ের মত উচ্চ মনোভাব তাদের অপরিচিত থাকিয়া যায় । Î858(Kỹ st814I sĩäättāri Mother of Philosophy oßHI go xạN বলেন । বিস্ময়ই আসল Philosophy, বাকীটা তাহার অর্থসঙ্গতি মাত্র ।